সিলেটের কিশোরীকে ধর্ষণের অপরাধে কমলগঞ্জের সিএনজি চালকসহ শ্রীমঙ্গলে গ্রেপ্তার-২

0
106

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সিলেট থেকে আসা এক কিশোরীকে পালাক্রমে রাতভর ধর্ষণের অপরাধে কমলগঞ্জের সিএনজি চালক ও তার সহকারীসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।
আটককৃতরা হচ্ছে মোহন মিয়া (২৪), পিতা-মৃত ইউসুফ মিয়া, রাজ্জাক বক্স (২২), পিতা-সুলতান বক্স, উভয় সাং-উত্তরবাগ, থানা- কমলগঞ্জ, জেলা- মৌলভীবাজার।

ভিকটিমের সূত্রে ও অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়। সিলেটের জৈন্তাপুর থেকে আসা ভিকটিম (১৭) গত ২৯ অক্টোবর রাত প্রায় ৯ টায় মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ থানাধীন নতুন বাজারস্থ এলাকায় এক আত্মীয় বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিলে পথ ভুলে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরাঘুরি করে শেষে গত ৩০ নভেম্বর কমলগঞ্জ থানাধীন আদমপুর বাজারে পৌঁছলে বিবাদী রাজ্জাক বক্স (সিএনজি ড্রাইভার) এর সহিত মেয়েটির দেখা হয় এবং তার সাহায্য কামনা করে। এর সুবাদে সিএনজি চালকের সহযোগিতায় আত্মীয় বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা হওয়ার পর সিএনজি চালক বাজার হইতে গাড়ি ঘুরাইয়া পরের দিন যে কোন বাসায় কাজ দেওয়ার কথা বলিয়া মোহন মিয়ার বসতবাড়ীতে নিয়ে যায়। সেখানে নিযে উপরোক্ত আটক ব্যক্তিরা গত ৩১অক্টোবর তারিখ রাত অনুমান ১ টার পর হইতে রাতভর তাহার ইচ্ছার বিরুদ্ধে পালাক্রমে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং আরো লোকজনকে ধর্ষনে অংশগ্রহণ করার জন্য চেষ্টা করে । পরের দিন কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়া চিকিৎসাও করায় এবং সেখান থেকে মেয়েকে কাজের জন্য শ্রীমঙ্গলস্থ জৈনক মুজিবুর রহমান (অবসর প্রাপ্ত রেলওয়ে কর্মকর্তা) এর বাসায় দিয়ে যায়।
পরবর্তীতে একটি মোবাইল থেকে তার পিতাকে ফোন করলে তিনি শ্রীমঙ্গল থানায় আসিয়া শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের সহায়তায় শ্রীমঙ্গল থানাধীন মুজিবুর রহমান এর বসত বাড়ী হইতে মেয়েটিকে উদ্ধার করে।
শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার আমার সিলেটকে জানান,”ভিকটিমের প্রাথমিক অভিযোগের ভিত্তিতে কৌশল করে আমরা তাদের আটক করেছি। তবে ঘটনাস্থল কমলগঞ্জ থানা এলাকায় হওয়ায় বিষয়টি কমলগঞ্জ থানাতে মামলা করতে হবে। আটক অপরাধীদের আইনি প্রক্রিয়া শেষে আমরা কমলগঞ্জে প্রেরণ করে দিব।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here