সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব সম্পন্ন করার অঙ্গীকার ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরোর

    0
    14

    ভেনেজুয়েলার সাবেক প্রেসিডেন্ট হুগো চাভেজ যে সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের সূচনা করেছিলেন, তা সম্পন্ন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন দেশটির ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরো। অন্যদিকে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী হেনরিক ক্যাপ্রিলেস পরিবর্তনের ডাক দিয়েছেন।
    কাল ১৪ এপ্রিল রোববার ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। চাভেজ-পরবর্তী প্রথম এই নির্বাচনের শেষ দিনের প্রচারণায় গত বৃহস্পতিবার নিজ নিজ দলীয় সমাবেশে এ অঙ্গীকার করেন মাদুরো ও ক্যাপ্রিলেস।
    রাজধানী কারাকাসে অনুষ্ঠিত মাদুরোর বিশাল সমাবেশে মঞ্চে তাঁর সঙ্গে উপস্থিত হয়েছিলেন চাভেজের বন্ধু আর্জেন্টিনার ফুটবল কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনা। তিনি বেশ কয়েকটি ফুটবলে স্বাক্ষর করে তা হাজার হাজার জনতার মাঝে বিলিয়ে দেন। সমাবেশে উপস্থিত বেশির ভাগ লোকই ছিল লাল পোশাকে।
    গত সপ্তাহে একটি অনুষ্ঠানে মাদুরো বলেছিলেন, চাভেজের চেতনা ‘ছোট পাখি’ হয়ে তাঁর কাছে আসে। নিজের দাবির স্বপক্ষে প্রমাণ হিসেবে তিনি বৃহস্পতিবারের সমাবেশে প্যারাকীট (ক্ষুদ্র প্রজাতির টিয়া) পাখি নিয়ে হাজির হন। তিনি সমাবেশে বেশ কয়েকটি প্যারাকীট অবমুক্ত করেন এবং একটি পাখিকে তাঁর কাঁধে রাখেন।
    মাদুরোর ভাষণের আগে একটি বড় পর্দায় চাভেজের কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনা প্রদর্শন করা হয়। এ সময় সমাবেশে আসা জনতাও চাভেজের সুরের সঙ্গে কণ্ঠ মেলায়। গত অক্টোবরের নির্বাচনের শেষ প্রচারণার দিন বৃষ্টির মধ্যে এই জাতীয় সংগীত গেয়েছিলেন চাভেজ।
    মাদুরো তাঁর ভাষণে বলেন, ‘আমরা, তাঁর (চাভেজ) ছেলে ও মেয়েসহ সবাই সম্মিলিতভাবে প্রতিজ্ঞা করছি, বিপ্লব অব্যাহত থাকবে।’ চাভেজকে ‘দরিদ্রদের ত্রাণকর্তা’ হিসেবে আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, ‘দরিদ্র মানুষের প্রতি ভালোবাসার কারণে আমি হুগো চাভেজের পথ অনুসরণ করতে চাই।’ এ সময় তিনি অশ্রুসজল হয়ে ওঠেন। চোখের পানি আটকানোর চেষ্টা করে তিনি বলেন, ‘দীর্ঘজীবী হোন চাভেজ, দীর্ঘজীবী হোক বলিভারিয়ান বিপ্লব।’
    অন্যদিকে দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় বারকুইসিমেতো শহরে সমাবেশ করেন ক্যাপ্রিলেস (৪০)। নির্বাচনে বিজয়ের ব্যাপারে আস্থা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আগামী রোববার হচ্ছে নতুন যুগে প্রবেশের দিন।’ তিনি জনতার উদ্দেশে বলেন, এই পরিস্থিতিটাই বদলে দিন। এখন ভেনেজুয়েলার পরিবর্তনের সময়। আসলে ঈশ্বরের হিসাবটাই হলো যথাযথ, এখনই হচ্ছে সেই মুহূর্ত।
    গত অক্টোবরের নির্বাচনে চাভেজের কাছে ১১ শতাংশ ভোটের ব্যবধানে হেরে যান ক্যাপ্রিলেস। এবারও তিনি খুব একটা সুবিধা করতে পারবেন বলে মনে হচ্ছে না। জনমত জরিপগুলোতে দেখা যাচ্ছে, ক্যাপ্রিলেসের চেয়ে ১০ থেকে ২০ শতাংশ ভোটে এগিয়ে থাকছেন মাদুরো। এএফপি।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here