শ্রীমঙ্গলে পারিবারিক দন্ধের জের ধরে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় আটক দুইজন কারাগারে

0
124
শ্রীমঙ্গলে পারিবারিক দন্ধের জের ধরে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় আটক দুইজন কারাগারে
ছুরি উদ্ধারের সময়ে কালাপুরের একটি মহালের সামনে।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  শ্রীমঙ্গলে স্বামী-স্ত্রী ও শাশুড়ির মধ্যে পারিবারিক সমস্যার সমাধান করতে গিয়ে বাক বিতণ্ডার একপর্যায়ে দু’জনকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হল রায়হান উদ্দিন (৩০), পিতা সুরুজ মিয়া এবং বেলাল মিয়া (২২) পিতা মন্নান মিয়া। এ ঘটনায় গুরুত্বর আহতরা চিকিৎসাধীন।

ঘটনার বিবরণে ও মামলার সুত্রে জানা যায়,রোববার (৩ এপ্রিল ২০২২) দুপুরে শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের পশ্চিম বিরাইমপুরের সুরভিপাড়ায় বসবাসকারী রায়হানের সাথে তার স্ত্রী শিল্পী বেগম ও রায়হানের মা জনৈকা নুরুন বেগমের পারিবারিক বিষয় নিয়ে মনমালিন্য তৈরি হয়।

পারিবারিক সমস্যার সমাধানে নাইমুর রহমান নাহিদ, জাবেদ মিয়া ও ফেরদৌস হাসান রাসেল এগিয়ে আসলে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে রায়হান ধারালো ছুরি দিয়ে তাদেরকে উপর্যুপরি আঘাত করে। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় এলাকাবাসী নাইমুর রহমান নাহিদ, রাসেল ও জাভেদকে উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থা অবনতি হলে নাহিদ ও জাভেদকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে সেখান থেকে ও আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ঘটনায় ব্যবহৃত উদ্ধারকৃত দেশীয় অস্ত্র ।

এ ঘটনায় আহত নাইমুর রহমান নাহিদের মামা শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ৭ জনের নামোল্লেখ করে শ্রীমঙ্গল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০৪ তারিখ ০৪/ ০৪/২০২২২

মামলার আইও শ্রীমঙ্গল থানার উপপরিদর্শক(এসআই) সুব্রত জানান, ঘটনার পরপর ওসি স্যারের নির্দেশে ও তদন্ত স্যারের সহযোগিতায় বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত মূল আসামিসহ দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি বলেন,ঘটনার পর থেকে বিভিন্ন কৌশল করে মুল আসামি রায়হানসহ দুইজনকে আটক করি।পরে এ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাদেরকে আজ মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

তিনি এ প্রতিনিধিকে আরও জানান,রায়হান ও তার স্ত্রী এবং রায়হানের মায়ের মধ্যে পারিবারিক কলহের জের ধরে দূরত্ব তৈরি হলে এর সমাধানে ঘটনায় আহতরা সমাধানের ভূমিকায় আসে পরে তাদের মধ্যে বাক বিতণ্ডার এক পর্যায়ে রায়হান তাদের ছুরিকাঘাত করে এবং সে ১৬৪ ধারায় বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি ও দিয়েছে।এ সময় আটক বিল্লালের দাবী সে প্রথমে ঝগড়া থামাতে আসে পরে তাদের মধ্যেও ভুল বুঝাবুঝির এক পর্যায়ে হাতাহাতি হয়। আমরা উভয়কে আটক করি এবং আদালতে প্রেরণ করি।  

“শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শামিম অর রশীদ তালুকদার বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে,মামলা নং-০৪, তারিখ ০৪/ ০৪/২০২২। আমরা দুইজনকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করেছি।বিজ্ঞ আদালত তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করেছে, বাকিদের বিরুদ্ধে ও আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।একটি বিষয় বলতে হচ্ছে অপরাধী নিজেকে যত চালাকই মনে করুন না কেন,আইনের হাত থেকে বেঁচে থাকা সম্ভব নয় সুতরাং শ্রীমঙ্গল থানার জনগণকে বলবো অপরাধীদের তথ্য দিন,আপনার এলাকাটিকে অপরাধ মুক্ত রাখতে আমাদের সহযোগিতা করুন।“   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here