শার্শায় জিপের চাপায় ছাত্রীর পা বিচ্ছিন্ন,সড়ক অবরোধ

    0
    27

    এম ওসমান,বেনাপোল প্রতিনিধি:  যশোরের শার্শায় জিপ গাড়ির চাপায় নাভারণ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের স্কুলছাত্রীর শরীর থেকে পা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ ঘটনায় যশোর বেনাপোল মহাসড়কে টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে রেখেছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। 
    বুধবার (২০ মার্চ) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে নাভারণ বাজারে একটি জিপ গাড়ি তিন স্কুল ছাত্রী বহনকারী একটি ভ্যানকে  চাপা দেয়। এতে নিপা নামে ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক  শিক্ষার্থীর শরীর থেকে পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। 

    এসময় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী স্মৃতি ও নবম শ্রেণির রিপা ভ্যান থেকে ছিটকে পড়ে আহত হয়। পরে এলকাবাসী ও স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে রাখে।
    দুর্ঘটনার শিকার নিপা নাভারণের দক্ষিণ বুরুজবাগান গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে।
    নাভারণ বুরুজ বাগান পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মমিনুর রহমান বলেন, বুধবার সকালে স্কুলে আসার সময় যশোর থেকে একটি জিপ গাড়ি শিক্ষার্থী বহনকারী ভ্যানটিকে ধাক্কা দেয়।

    পরে নিপার পায়ের ওপর দিয়ে গাড়ি উঠিয়ে দিলে তার পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। গুরুতর আহত নিপা ও অপর দুই শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

    পরে বিক্ষুব্ধ শিক্ষর্থীরা ঘাতক জিপগাড়ীটি ভাংচুর করে এবং আগুন লাগিয়ে দেয়। বেনাপোলে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে আসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে গাড়িটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়।

    শার্শার ইউএনও পুলক কুমার মন্ডল, উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জু, শার্শা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।