লাইনে দাঁড় করিয়ে আমার স্বামীকেও হত্যা করা হয় : সাক্ষী বাসন্তি

    0
    17

    ঢাকা, ০২ মে : বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের ৩২তম সাক্ষী বাসন্তি ঘোষ বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় লাইনে দাঁড় করিয়ে অনেক লোকের সঙ্গে আমার স্বামীকেও হত্যা করা হয়। মুক্তিযুদ্ধে শহীদ চট্টগ্রামের রাউজান থানার ঊনসত্তরপাড়া গ্রামের মনোরঞ্জন ঘোষের সহধর্মিনী বাসন্তি ঘোষ (৬৫) আজ বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীরের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ জবানবন্দি পেশকালে এ কথা বলেন।

    গত বছরের ৪ এপ্রিল সাকা চৌধুরীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের সুনির্দিষ্ট ২৩টি অভিযোগের ভিত্তিতে চার্জ গঠন করা হয়।
    বাসন্তি ঘোষ বলেন, একদিন আমার স্বামী বাজার করে বাড়িতে আসছিলেন। তখন একজন মিলেটারি ও একজন বাঙালি বাড়িতে এসে আমার স্বামীকে ধরে নিয়ে যায়। এ সময় আমি আমার স্বামীকে জড়িয়ে ধরলে আমাকেও তারা মারে। তিনি বলেন, এরপর ক্ষিতিশ মহাজনের বাড়িতে নিয়ে লাইনে দাঁড় করিয়ে অনেক লোকের সঙ্গে তাকেও হত্যা করা হয়। এর দুই দিন পর তার স্বামীর ভাই লাশ নিয়ে বাড়িতে আসে। তিনি আরো বলেন, ক্ষিতিশ মহাজনের বাড়িতে একাত্তরে নিহতের যে নামের স্মৃতিফলক রয়েছে তাতে তার স্বামীর নাম রয়েছে।
    জবানবন্দি পেশ শেষে সাকা চৌধুরীর আইনজীবী এএইচএম আহসানুল হক হেনা তাকে জেরা করবে না জানালে মামলার কার্যক্রম আগামী ৬ মে সোমবার পর্যন্ত মুলতবি করে ট্রাইব্যুনাল। ওই দিন মামলার পরবর্তী সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হবে। বিএনপি নেতা সাকা চৌধুরীর বিরুদ্ধে গত ১৪ মে থেকে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। এর আগে প্রসিকিউশনের ৩১ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here