যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতেই পুলিশে চাকরী হয়েছে:ওসি আতিক

    0
    29

    সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন,এ জেলায় বিভিন্ন স্তরের অসহায় ও গরীব পরিবারের অনেক সন্তানরা মাত্র একশত টাকায় তাদের যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে পুলিশের কনস্টেবল পদে নিয়োগ পেয়েছেন। এটা সুনামগঞ্জের ইতিহাসে একটি মাইলফলক ঘটনা। সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার বরকতুল্লাহ খানের মতো সৎ ও নীতিবান পুলিশ অফিসার এই বাহিনীতে আছেন বলেই পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা এদেশের মাটি ও মানুষের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন।

    তিনি উপস্থিত সকল নবাগত পুলিশ সদস্যদের দেশের অসহায় ও নিরীহ জনগনের পাশে থেকে মাদক,জুয়া,মদসহ সকল অবৈধ কাজ  নির্মুল করতে সততার সাথে দেশের জন্য কাজ করে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

    সোমবার(২২জুলাই)দুপুরে তাহিরপুর থানা প্রাঙ্গনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত নতুন নারী ও পূরুষ পুলিশ সদস্যদেরকে সংবর্ধনা ও মতবিনিময় সভা তিনি এসব কথা বলেন।

    তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আতিকুর রহমানের সভাপতিত্বে ও এসআই আমির উদ্দিনের স ালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত কনস্টেবলগন তাদের নিজেদের অভিব্যক্তি প্রকাশ করে দেশের জন্য জীবনবাজি রেখে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এসময় এসআই দিপন্কর,এএসআই রেজাউর রহমান,আমির হোসেন,শিপু আহমদ,অপু,কনকন,যুবলীগ নেতা সাজিদ,মেম্বার প্রদীপ দাসসহ নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য ও তাদের অভিভাবকগণও অংশ নেন।

    অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত কনস্টেবল পদে সদ্য নিয়াগপ্রাপ্তরা বলেন,স্বপ্নঁ ছিল যে কোনদিন পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করে দেশের সেবায় আত্মনিয়োগ করব। কিন্তু ছোটবেলা থেকে শোনে আসছি পুলিশ বাহিনীতে ঢুকতে হলে প্রচুর টাকা নাকি ঘুষ দিতে হয়। এটা আজ মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে মাত্র ১শতটাকায় একমাত্র সৎ পুলিশ সুপার বরকতুল্লাহ খানের প্রচেষ্টায় তা হয়েছে। তারা পরিশেষে সততা ও নিষ্ঠার সাথে পুলিশ বাহিনীতে চাকুরী করায় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
    পরে সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত সংবর্ধিত সকল কনস্টেবল সদস্যদের মিষ্টিমুখ করানো হয় এবং তাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। অফিসার ইনচার্জ নিয়োগপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি তাদের অভিভাবকদের সঙ্গেও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।