যাবজ্জীবন কয়েদিকে বিয়ে করতে চান এক নারী আইনজীবী

    0
    7

    আমারসিলেট24ডটকম,০২ফেব্রুয়ারীঃ ভারতে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ পাওয়া আসামিকে বিয়ে করবেন এক নারী আইনজীবী। এটি কোনো ছায়াছবির কাহিনি নয় সত্যিই এমন ঘটনা ঘটতে যাচ্ছে ভারতের চেন্নাইয়ে। আজ শনিবার আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এ খবরে জানানো হয়, আগামীকাল রবিবার ২৭ বছর বয়সী নারী আইনজীবী অরুণা বিয়ে করতে যাচ্ছেন ৩৮ বছর বয়সী যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পাওয়া সোমাসুন্দরাম ওরফে সোমুকে। এ জন্য আজই কারাগার থেকে বিশেষভাবে মুক্তি পেতে যাচ্ছেন সোমু। সাবেক এমএলএ এম কে বালানকে হত্যার দায়ে অন্য আসামিদের সঙ্গে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ পেয়েছেন সোমু। ১২ বছর ধরে কারাগারে আছেন তিনি। এই দণ্ডের বিরুদ্ধে তার করা আপিল সুপ্রিম কোর্টে ঝুলে আছে। সোমুর দূর সম্পর্কের আত্মীয় আইনজীবী অরুণা। মামলার সূত্রে আসামির সঙ্গে একাধিকবার দেখা করেছেন এই আইনজীবী। এর মধ্যে তিনি সোমুকে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিয়ের জন্য সোমুর বিশেষ কারামুক্তির আবেদন জানালে কারা কর্তৃপক্ষ এক দিন ছুটি দিতে রাজি হয়। পরে হবু স্বামীর ৩০ দিনের বিশেষ ছুটি চেয়ে মাদ্রাজ হাইকোর্টে আবেদন করেন অরুণা। আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, সোমু তার দূর সম্পর্কের আত্মীয়। গত ১৭ জানুয়ারি তাদের বাগদান হয়েছে। ২ ফেব্রুয়ারি তাদের বিয়ের তারিখ ঠিক হয়েছে। সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিট থেকে ৮টা ৩০ মিনিটে বিয়ের অনুষ্ঠান হবে। ২০১২ সালে জেল কর্তৃপক্ষের দেয়া সনদ অনুসারে সোমু একজন ভালো কয়েদি। তার আচার-ব্যবহার ভালো। তিনি কারাগারের ইয়োগা ও মেডিটেশনে অংশ নিচ্ছেন।

    এ ছাড়া শিক্ষাকার্যক্রমে তার অংশগ্রহণ আছে। কারাগারে তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই। এ দিকগুলো বিবেচনায় নিয়ে গতকাল শুক্রবার ওই আবেদনের বিষয়ে আদেশ দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। বিয়ের জন্য সোমুকে ১০ দিন ছুটি দেয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে আদালত আদেশে উল্লেখ করেছেন, বিয়ের জন্য মাত্র এক দিনের ছুটি যথেষ্ট নয়। আজ শনিবার বিকাল ৪টায় পুজহাল কারাগার থেকে মুক্তি পাবেন আলোচিত সোমু। ১০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে তাকে কারাগারে ফিরতে হবে। ছুটির সময় তার জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কর্তৃপক্ষকে আদেশ দিয়েছেন আদালত।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here