মৌলভীবাজারে রাস্তার বিরোধ ধরে প্রতি পক্ষের হামলায় গুরুত্বর আহত-৩

0
155
মৌলভীবাজারে রাস্তার বিরোধ ধরে প্রতি পক্ষের হামলায় গুরুত্বর আহত-৩

বিশেষ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারে রাস্তার বিরোধ ধরে প্রতি পক্ষের হামলায় আহত হয়েছেন ৩ জন। এর মধ্যে গুরুত্বর আহত একজন সিলেট এমজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এই ঘটনাকে আড়াল করার জন্যে প্রতিপক্ষ সুকৌশলে আহতরা চিকিৎসায় ব্যাস্ত থাকার কারণে থানায় পৌছার আগেই মামলা করেন হামলা কারীরা দাবী আহত শামিম মিয়ার।তিনি আরও দাবী করেন পুলিশ মামলা না নেওয়ায় আমরা আদালতের শরণাপন্ন হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভাঁদগাও এলাকায় ছুফান মিয়া ও মৃত ফজলুর রহমান গনি মিয়ার পুত্র তৌহিদুর রহমান দিলুর মধ্যে রাস্তা নিয়ে দীর্ঘ দিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে গত ১৪ মে শুক্রবার (ঈদের দিন) বিকালে তৌহিদুর রহমান দিলুর নেতৃত্বে সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়।
এ সময় ছুফান মিয়ার ভাতিজা ও সামছুল মিয়ার পুত্র শামীম আহমদ তাহার স্ত্রী-সন্তান নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে তাহার মামার বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার সময় পূর্ব পরিকল্পনা অনুয়ায়ী তৌহিদুর রহমান দিলুর নেতৃত্বে তার উপর হামলা চালায়। শামীমের চিৎকার শুনে এলাকাবাসী কয়েক জন এগিয়ে আসতে আসতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের এলোপাথারি হামলা করে, ওই হামলায় আব্দুর নুর এর পুত্র ছুফান মিয়া, মদ্দুস আহমদের পুত্র কাওসার আহমদ গুরুত্বর আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে আশংখা জনক অবস্থায় ছুফান মিয়াকে সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
এ বিষয়ে শামীম আহমদ জানান ছুফান মিয়াসহ তারা চিকিৎসাধীন থাকায় প্রতিপক্ষ তৌহিদুর রহমান দিলু সুকৌশলে ১৫ মে রাতে আহত ৩ জন সহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মৌলভীবাজার সদর মডেল থানায় ১৬ মে রাতে মামলা দায়ের করেন। এর পর থেকে তারা পুলিশি ভয়ে আত্মগোপন করে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এদিকে কিছুটা সুস্থ হয়ে ১৭ মে সকালে থানায় মামলা করতে গিয়ে জানেন প্রতিপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। পরে ক্ষতিগ্রস্থদের পক্ষে থানা মামলা না নেয়ায় মৌলভীবাজারের সিনিয়র জুডিসিয়াল আদালতে সিআর ২১৬/২০২১ অভিযোগ দায়ের করেন। গত ২৪ মে আদালতে শুনানী শেষে বিজ্ঞ বিচারক মৌলভীবাজার সদর মডেল থানায় অফিসার ইনচার্জকে ২৫ মে তারিখের মধ্যে মামলা গ্রহন করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দ্দেশ দেন। এ মামলার আসামীরা হলেন মৃত ফজলুর রহমান গনির পুত্র মতিউর রহমান (৩০), রুমেল (২৫), তৌহিদুর রহমান দিলু (২৯) এবং হেলাল মিয়া (২১), পিতাঃ মৃত সাজ্জাদ মিয়া, জুবায়ের (২০), পিতা-মৃত-সাজ্জাদ মিয়া, আজাদ মিয়া (৫৫), পিতা-মৃত আজিল মিয়া, রাহুল মিয়া (২১), পিতা-বজলু মিয়া।

এবিষয়ে মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মুর্তুজা জানান, ভাঁদগাও এর ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। এক পক্ষ থানায় মামলা করেছেন এবং অপরপক্ষ আদালতের মাধ্যমে মামলা দায়ের করেন। দুটি মামলার তদন্তের কাজ চলছে। তদন্ত শেষ হলে আসল ঘটনা জানা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here