মুন্সীগঞ্জে ৯ জনের প্রাণহানি:বেপরোয়া গতির কারণে

    0
    40

    মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে বাসের সঙ্গে বরযাত্রী বহনকারী মাইক্রোবাসের সংঘর্ষ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটে বেপরোয়া গতি’র কারণে।

    শুক্রবার দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম সাংবাদিকদের একথা জানান।

    তিনি বলেন, যাত্রীবাহী বাস ও মাইক্রোবাস দুটিই দ্রুতগতিতে চালাচ্ছিলেন চালকরা। এজন্য দুর্ঘটনার আগে উভয় চালকই গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হন। এতে দুই গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

    এ প্রসঙ্গে শ্রীনগর থানার ওসি হেদায়েতুল ইসলাম ভূঁইয়া ও হাইওয়ে পুলিশের শ্রীনগরের হাঁসাড়া ফাঁড়ির ওসি আব্দুল বাসেদ জানান, বেপরোয়া গতি ছাড়াও দুই চালকের অদক্ষতার জন্য দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। কারণ বিপরীতমুখী যাত্রীবাহী বাস আসতে দেখেও মাইক্রোচালক গাড়ির গতি কমিয়ে নিরাপদ স্থানে সরে যায়নি। বাসচালকও একই ঘটনা ঘটিয়েছে।

    দুর্ঘটনার ছবিতে দেখা যায়, ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে বর্তমানে চার লেন মহাসড়ক নির্মাণের কাজ চলমান। তাই শ্রীনগরের ষোলঘর বাসস্ট্যান্ড এলাকা দিয়ে এক লেন সড়ক দিয়ে যান চলাচল করছিল। কিন্তু বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাস চালক সড়কের বাঁ প্রান্ত দিয়ে না গিয়ে মাঝামাঝি স্থান দিয়ে যাচ্ছিলেন। বিপরীত দিক থেকে স্বাধীন পরিবহনের বাসটিও দ্রুত গতিতে ষোলঘর এলাকায় পৌঁছালে মাইক্রোবাসটি মাঝ থেকে বাঁ প্রান্তে নেওয়ার আগেই বাসটির সঙ্গে সংঘর্ষ হয়।

    প্রসঙ্গত, শ্রীনগরের ষোলঘর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে বরযাত্রী বহনকারী মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে এক পরিবারের চার সদস্য, স্বজনসহ ৯ জনের প্রাণহানি হয়েছে।