বাংলাদেশকে সাড়ে ৫হাজার কোটি টাকা ঋণ দেবে এডিবি

    0
    23

    আমার সিলেট  24 ডটকম,২৩অক্টোবরবিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে ৭০ কোটি ডলারের ঋণ দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক । বর্তমান বিনিময় হার অনুযায়ী বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ ৫ হাজার ৫০০ কোটি টাকার বেশি। তিন কিস্তিতে এ ঋণ দেবে সংস্থাটি। এ বিষয়ে শিগগির সরকারের সঙ্গে চুক্তি হবে বলে জানা গেছে।অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) সূত্রে জানা গেছে, চলতি মাসের শুরুতে এডিবির সঙ্গে ইআরডির প্রাথমিক আলোচনার সময় দাতা সংস্থাটি ঋণ দেওয়ার সম্মতির কথা জানায়।

    সূত্র জানায়, সরকার বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নে ১৬০ কোটি ডলার ব্যয়ের একটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এ জন্য মাল্টিট্রান্স ফাইন্যান্সিং ফ্যাসিলিটি (এমএফএফ) পদ্ধতির আওতায় দাতাদের কাছ থেকে ঋণ চেয়েছে সরকার। এ জন্য এডিবি তিন কিস্তিতে মোট ৭০ কোটি ডলার দিতে প্রাথমিক সম্মতি দিয়েছে। এ ছাড়া ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংক (আইডিবি), ইউরোপীয় ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক (ইআইবি) ও ফ্রান্স উন্নয়ন সংস্থা (এএফডি) সম্মিলিতভাবে অর্থায়ন করবে ৬৭ কোটি ৮০ লাখ ডলার। এ অর্থায়ন সমন্বয়ের নেতৃত্ব দেবে এডিবি। এ কর্মসূচির বাকি ২২ কোটি ২০ লাখ ডলার সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে জোগান দেওয়া হবে।

    এ বিষয়ে ইআরডি যুগ্ম সচিব সাইফুদ্দিন আহমেদ সমকালকে বলেন, সম্প্রতি এডিবির সঙ্গে বৈঠকে ঋণের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয়েছে। উভয় পক্ষ এ বিষয়ে সমঝোতায় পেঁৗছেছে। দাতা সংস্থার বোর্ডের সম্মতি পাওয়া গেলে শিগগির চুক্তি সই হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

    ইআরডির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, এডিবির অর্ডিনারি ক্যাপিটাল রিসোর্স (ওসিআর) ক্যাটাগরির আওতায় এ ঋণ নেওয়া হচ্ছে। এ ঋণের সুদহারের সঙ্গে কমিটমেন্ট ফি হিসেবে দশমিক ১৫ শতাংশ ও প্রিমিয়াম দশমিক ১০ শতাংশ দিতে হবে। পাঁচ বছর রেয়াতকালসহ ২৫ বছরের মধ্যে এসব ঋণ পরিশোধ করতে হবে। সাধারণত এ ধরনের ঋণের সুদহার কিছুটা বেশি হয়। এডিবির এ ঋণের শর্ত হিসেবে বলা হয়েছে, সংস্থাটির অর্থ দিয়ে পূর্তকাজ, মালামাল ও সেবা সংগ্রহের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট নীতিমালা অনুসরণ করতে হবে।

    অন্যদিকে এডিএফের আওতায় ঋণ নিলে মাত্র এক শতাংশ সুদ দিতে হয়।সরকার অগ্রাধিকার হিসেবে বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে দাতাদের সহায়তা চাইছে। এরই অংশ হিসেবে এডিবিসহ অন্য দাতা সংস্থারা এ প্রকল্পে ঋণ দিতে সম্মতি দিয়েছে। বর্তমানে এডিবির অর্থায়নে বিদ্যুৎ খাতে আরও বেশ কয়েকটি প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন রয়েছে। সম্প্রতি নির্মিত বাংলাদেশ-ভারত বিদ্যুৎ সঞ্চালন গ্রিডলাইন প্রকল্পেও সংস্থাটি বড় অঙ্কের ঋণ দিয়েছিল।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here