বর্ণাঢ্য আয়োজনে ঢাবি সমাজকল্যাণের সুবর্ণ জয়ন্তী

    0
    18

    সাবেক আর বর্তমান প্রজন্মের মিলনমেলায় উৎসবমূখর হয়ে উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-ছাত্র কেন্দ্র। শনিবার সকাল থেকেই টিএসসির সবুজ ঘাসে বিচরণ করছে রঙ্গ বেরঙ্গের শাড়ি আর পাঞ্জাবি পরিহিত দুই প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা।

    এসময় পুরোনো বন্ধুদেরকে কাছে পেয়ে অনেকে হয়ে পড়ছেন আবেগ আপ্লুত। একে অপরকে জড়িয়ে ধরে নানাভাবে প্রকাশ করছেন কয়েক বছর লুকিয়ে থাকা আবেগ-অনুভুতি।
    নতুন এক রূপ এনে দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র টিএসসিকে। ৫০ বছর পুর্তি উপলক্ষে সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনিস্টিটিউট এ উৎসবের আয়েজন করেছে।

    সকাল সাড়ে ১০ টায় বর্ণাঢ্য র‌্যালির মধ্যে দিয়ে শুরু হয় দিনব্যাপী কার্যক্রম। সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনিস্টিটিউ থেকে র‌্যালিটি শুরু হয়ে টিএসসিতে এসে শেষ হয়। এসময় বিভাগের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা নেচে গেয়ে আনন্দ উল্লাস করেন।

    টিএসসি অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা অনুষ্ঠান। বিকালে স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচি শেষ হবে।
    বেলা ১১ টায় টিএসসি অডিটরিয়ামে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এ কে আজাদ চৌধুরী বলেন, দেশ এখন সম্পদে এগিয়ে গেলেও মূল্যবোধে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। দেশে এখন মারামারি, হানাহানি, উৎকন্ঠা লেগেই আছে।

    সমাজকল্যাণ ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, ঢাবি প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. সহিদ আকতার হোসাইন, উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ইমিরেটাস অধ্যাপক ড. এ এফ সিরাজুল ইসলাম, ম্যাগসেসে পুরস্কারপ্রাপ্ত তাহরুন্নেছা আব্দুল্লাহ, ইনস্টিটিউটের প্রাক্তন পরিচালক ও জৈষ্ঠ শিক্ষক ড. মুহাম্মদ আবু তাহেরসহ ইনস্টিটিউটের গবেষক, শিক্ষক ও নবীন প্রবীন শিক্ষার্থীবৃন্দ।

    এ কে আজাদ বলেন, মানব উন্নয়ন সূচকে আমাদের দেশ একধাপ এগিয়েছে। নারী পুরুষের শিক্ষার হার সমতায় এসেছে। বাজেট স্কোর কয়েক বছরে তিন গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু তাই বলে কি সমাজে উৎকন্ঠা কমেছে? হানাহানি, মারামারি, ধর্ষণ বেড়েই চলেছে। এত অগ্রগতির  পরেও দেশে এখন অশান্তি বিরাজ করছে। এত কিছুর পরেও মানুষ তার মূল্যবোধকে বদলাতে পারেনি।

    ড. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ব্রিটিশ ও পাকিস্তান আমলে রাষ্ট্র যেমন ছিল এখনো সেই রকমই আছে। কেননা তখন সমাজে হত্যা, ধর্ষণ, লুন্ঠন ছিল। এখনো ঠিক তেমনই পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সমাজের প্রধান শত্রু হল বৈষম্য, আর এই বৈষম্য আমাদের মধ্য থেকে কমেনি। বরং তা ক্রমান্বয়ে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটা আমাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। 

    DU logo

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here