বড়লেখায় একের পর এক দোকান চুরির আতংকে ব্যবসায়ীরা

0
37
বড়লেখায় একের পর এক দোকান চুরির আতংকে ব্যবসায়ীরা
বড়লেখায় একের পর এক দোকান চুরির আতংকে ব্যবসায়ীরা

আফজাল হোসেন রুমেল,বড়লেখা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার মোহাম্মদ নগর বাজারে একের পর এক দোকান চুরি হচ্ছে।

রবিবার (১৫ মে ২০২২) ভোর ৭ ঘটিকার সময়ে মোহাম্মদ নগর বাজারের ব্যবসায়ী ফখরুল ইসলামের দোকান চুরি হয়েছে। 

সরজোমিন গিয়ে দেখা যায় দোকানের ব্যান্টিলেটার ভাঙ্গা, স্হানীয়দের বক্তব্য এই ব্যান্টিলেটারের মধ্য দিয়ে চুরেরা দোকানে প্রবেশ হয়তো করেছে। ব্যবসায়ী ফখরুল ইসলাম বলেন আমার দোকানে প্রায় লক্ষ লক্ষ টাকার মালামাল রয়েছে, এর মধ্য থেকে আমার লৌডের কার্ড,এবং মোবাইল সিগারেট চাল, ডাল,তেল সহ আরো অনেক জিনিস চুরি হয়েছে।  তবে এ বিষয়টি আমাদের বাজারের কমিঠি দেখবে বলে আমাকে জানানো হয়েছে।

বড়লেখা উপজেলার মধ্যে বিরাট একটি বাজার হচ্ছে মোহাম্মদ নগর বজার যেটি বৃহত্তর ছোটলেখা জুড়ে রয়েছে। এটিকে অনেকে ছোটলেখা বাজার নামে চিনেন। 

বাজারের অন্যান্য ব্যবসায়ীরা বলেন একের পর এক দোকান চুরির ঘটনা ঘটছে, গত কয়দিন আগে রানা নামের এক ব্যবসায়ীর দোকান চুরি হয়েছে, এর আগে হরিদাস বাবু নামের এক ব্যক্তির দোকান চুরি হয়েছে,  এমন কি বিগত কয়দিন আগে মোহাম্মদ নগর বাজার মসজিদের সাইটে মসজিদের দান বক্সটি ও ভেঙে চুরি করে নিয়ে যায় চুরেরা, এ ভাবে জয়নাল নামের অন্য  এক ব্যবসায়ীর ফেক্সিলৌডের দোকানে ও গত কয়দিন আগে আবার চুরি হয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটছে বলে জানাযায়।   এক কথায় বজারের চুরি কোনো ভাবেই থামছে না  । একরে পর একটি দোকানে চুরি হয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটতেছে। এ নিয়ে ব্যবসায়ী ও স্থানীয়দের মধ্যে এক ভয়াবহ আতংকো সৃষ্টি হয়েছে।

জহির উদ্দিন নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, আমাদের মোহাম্মদ নগর বাজারে একের পর এক হচ্ছে দোকান চুরি, আমরা ব্যবসায়ীরা কি ভাবে দোকানদারী করবো যদি এমন ঘটনা প্রায় ঘটতে থাকে, আমরা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্শন করছি যে চুরদের যত তাড়াতাড়ি সম্বভ  গ্রেপ্তার  যেন করা হয়।

এদিকে বাজার কমিটির সভপতি কাজল দেব,ও সাধারণ সম্পাদক ইমাম উদ্দিন তাদের বক্তব্যে বলেন আমাদের বাজারে একের পর এক দোকান চুরির ঘটনা ঘটছে,তবে দুঃখ জনক এখন পর্যন্ত কোনো চুুর করে আমরা সনাক্ত করতে পারিনি, তবে বর্তমানে যে চুরি হওয়ার ঘটনা ঘটছে  এ বিষয়টি আমার প্রশাসনকে জানিয়েছি, এবং প্রশাসন ও ঘটনা স্থলে এসছে,  সিসি টিভি ফুটেজে ও চুরের ছবি সনাক্ত করা হয়েছে, তবে চুর কে এখনো আমরা চিনতে পারিনি। তবে চুরকে সনাক্ত করার চেষ্টা আমরা করতেছি। এবং প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি যেন চুর কে দ্রুত চিহ্নিত করে যেন আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি নিশ্চিত করেন।

অপর দিকে দক্ষিণ শাহাবাজপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল মন্নান মনা বলেন,  ১৫ তারিখ রাত্রে বাজারের ব্যবসায়ী ফখরুল ইসলামের দোকান ঘর চুরি হয়েছে। এ বিষয়ে আমাকে অবগত করলে  আমি তাৎক্ষণিক ভাবে   প্রশাসন কে ইনফর্ম করি,  এবং  আমাদের বড়লেখা থানার বিট অফিসার এস আই মাসুক আহমেদ কে নিয়ে আমি  ঘটনা স্থল পরিদর্শন করি। তিনি আরো বলেন দোকান চুরির সময় চুরের ছবি সিসিটিভি ফুটেজে রয়েগেছে, সেটি আমরা দেখেছি, তবে সিসিটিভির ফুটেজে চুরের ছবি দেখে আমরা তাকে চিনতে পারিনি। তবে আমিও প্রশাসনের প্রতি আকুল আবেদন জানাচ্ছি যে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব চুরকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে যেন শাস্তি দেওয়া হয়।

স্থানীয় মুরুব্বি আজিরুর রহমান, হারুনুর রশীদ সহ আরো অনেকে বলেন আমরা বাজারের ব্যবসায়ী ফখরুল ইসলামের দোকান চুরি হয়ে যাওয়ার ঘটনা শুনে এসে দেখেছি, আসলো একের পর একটি দোকান চুরি হয়ে যাচ্ছে সে জন্য এর তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ জনাইরাম এবং চুরদের যেন সনাক্ত করে আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেওয়া হয় এটাই আমাদের সকলে দাবি।

এদিকে বড়লেখা থানার এস-আই মাসুক আহমেদ বলেন বড়লেখা উপজেলার মোহাম্মদ নগর বাজারে একটি দোকান চুরি হয়ে যাওয়ার ঘটনা শুনতে পাই।খবর পেয়ে আমরা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছি, সিসিটিভি ফুটেজে চুরের ছবি সনাক্ত করা হয়েছে।  তবে বাজারের কেউ চুরকে চিনতে পারেনি। এ বিষয়ে বাজারের কোনো ব্যবসায়ী, বা বাজার কমিটি এখন পযর্ন্ত  থানায় কোনো মামলা করেননি৷ তবে আমরা আমাদের পক্ষ থেকে চুরকে সনাক্ত করার সর্বাত্নক চেষ্টা চালিয়ে যাবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here