তনু হত্যার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ,মিছিল ও মানববন্ধন

    0
    29

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৪মার্চঃ সম্প্রতি খুন হওয়া কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী সোহাগী জাহান তনুকে পাশবিক নির্যাতন ও হত্যার ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবারে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। এসব কর্মসূচি থেকে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবি জানানো হয়। সে সঙ্গে সারা দেশে নারী-শিশু ধর্ষণ ও হত্যার  প্রতিবাদ জানানো হয়।

    এসব দাবিতে আজ বেলা ১১টায় কুমিল্লা শহরের কান্দিরপাড় এলাকায় একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থী এবং কয়েকটি নাট্য সংগঠনের সদস্যরা।

    বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে তনু হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। সমাবেশ শেষে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

    কুমিল্লা জেলার পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন বলেন, কুমিল্লায় বিগত কয়েক দিনে যতগুলো ঘটনা ঘটেছে পুলিশ তার সবগুলো উদঘাটন করেছে। আমরা আামদের সর্বোচ্চ চেষ্টা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছি।

    আমাদের উপর আস্থা রাখতে হবে এবং জনগণকে আমাদের সহযোগিতা করতে হবে।

    একই দাবিতে  নেত্রকোনার মোক্তারপাড়া জেলা পরিষদ মার্কেটের সামনের সড়কে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে বাংলাদেশ অনলাইন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন নেত্রকোনা জেলা শাখা।

    হিউম্যান রাইটস ইন্টারন্যাশনাল কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কমিটির আয়োজনে কমলগঞ্জ মডেল বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ল রাস্তায়  তনু’র নৃশংস হত্যাকান্ডের বিচার দাবীতে ও এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

    মানববন্ধন করেছে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরাও।
    একই দিনে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ও শিক্ষার্থীরা  মানববন্ধন করেন।

    এসময় শিক্ষার্থীদের হাতে হত্যাকারীদের শাস্তি চেয়ে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড রাখতে দেখা যায়। মানববন্ধনে অংশ নিয়ে সিওমেক এর চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মো. নজরুল  ইসলাম বলেন, এমন একটি নির্মম হত্যা কাণ্ডের ৩ দিন পার হয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত পুলিশ হত্যাকারীদের শনাক্ত  করে গ্রেফতার করতে  পারেননি। ক্যান্টনমেন্ট এলাকার মতো নিরাপত্তা বেষ্টিত এলাকায় যদি এধরণের নৃশংসহত্যাকা- ঘটে, তাহলে আমরা পুরোপুরি অনিরাপদ। আমরা ভীতসন্ত্রস্ত। আমরা এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। আমরা জনসাধারণের নিরাপত্তা চাই।

    মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী আরেক শিক্ষার্থী তাসনিয়া আহমেদ বলেন, তনু আমার-ই বোন। আমার-ই বান্ধবী। আজ এক তনু মরেছে কাল আরেক তনু মরবে। এভাবে আর কতদিন! আমরা হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই। এরপর শিক্ষার্থীরা দীর্ঘক্ষণ দাড়িয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। তাদের একটাই দাবি হত্যাকারীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার এবং সর্বোচ্চ শাস্তি।

    অপরদিকে তনুকে ধর্ষণের পর হত্যার প্রতিবাদে রাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা ছাত্র ইউনিয়ন। এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে অবহেলার কারণে দেশে ধর্ষণ, হত্যা বেড়ে চলেছে অভিযোগ করে সমাবেশ থেকে তার পদত্যাগে দাবি করা হয়।

    সকাল সাড়ে ১১টায় বিক্ষোভ মিছিলটি ছাত্র ইউনিয়নের দলীয় টেন্ট থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক ও ভবন প্রদক্ষিণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়।

    সমাবেশে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাইদুজ্জান সুহান বলেন, স্বারষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে অবহেলার দরুণ দেশব্যাপী নারী নির্যাতন ব্যাপক মাত্রায় ছড়িয়ে পড়েছে। সেনানিবাসের মতো একটি নিরাপত্তা বেষ্টিত স্থানে এরূপ ধর্ষণ এবং হত্যার মত ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেন বক্তারা।

    এর আগে সকাল ১১টায় তনু হত্যার বিচারের দাবিতে বিশ^বিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারণে দিন দিন ধর্ষণ, হত্যার মত ঘটনাগুলো বেড়েই চলেছে।

    পুরুষ জাতি নিরাপদ হলেও নারীরা আজ সমগ্র দেশে অনিরাপদ। মানববন্ধন থেকে তনুর হত্যাকরীদের সনাক্ত করে দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here