জৈন্তাপুরে পুলিশের খাতায় পলাতকঃকলেজের খাতায় নিয়মিত !

    0
    57

    রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রী কলেজের ইসলামের ইতিহাসের প্রভাষক শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে ট্রাস্ট ব্যাংক শাহজালাল উপশহর শাখার দায়ের করা মামলায় মাননীয় আদালত ৬মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে। আদেশ জারীর পর থেকে তিনি পুলিশের খাতায় পলাতক রয়েছেন। অপরদিকে তিনি সাজাপ্রাপ্ত আসামী হয়ে কর্মস্থলে নিয়মিত উপস্থিত থেকে বেতন ভাতা উত্তোলন করছেন।
    মামলার রায় সূত্রে জানাযায়- কুমিল্লা জেলার ব্রাক্ষণপাড়া থানার সাজঘর গ্রামের মৃত আব্দুল হাকিমের ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম বর্তমান জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রী কলেজের ইসলামের ইতিহাসের প্রভাষক শফিকুল ইসলাম ১লা ডিসেম্বর ২০১০ সনে ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড শাহজালাল উপশহর শাখা হতে ঋণ সুবিদা ভোগ করেন। পরবর্তীতে তিনি খেলাপী হওয়ায় ট্রাস্ট ব্যাংক এন.আই এ্যাক্ট-১৮৮১ এর ১৩৮ ধারায় ৮লক্ষ ৬৫হাজার ৪০৮ টাকার চেক ডিজওর্নার মামলা করে। মামলার নং- সিলেট-মেট্রো সি,আর ২৫১/২০১৩, তারিখঃ ০৮/১০/২০১৩ইং পরবর্তীতে দায়রা মামলা নং-৫২৪/২০১৪, যারা আদেশ নং-১৪, তারিখ- ২৪/০৬/২০১৫ইং।

    শুনানী শেষে মাননীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদলতের বিচারিক মোহাম্মদ ইফতেখার বিন আজিজ এর আদালত মামলা রায় ঘোষনা করেন এবং দন্ডাদেশ কার্যাকরণার্থে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারী করেন যাহার ডকেট/প্রসেস নং ২৭৪৬, তারিখ ৯ আগষ্ট ২০১৫। এছাড়া মাননীয় আদালতের রায়ে বলা হয় অত্র মামলার পলাতক আসামী মোঃ শফিকুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে ১৮৮১ইং সালের এন.আই,এ্যাক্ট এর ১৩৮ ধারা মোতাবেক প্রনীত অভিযোগ রাষ্ট্রপক্ষ সমর্থিত সাক্ষ্য দ্বারা সন্দেহাতীত ভাবে প্রমান করিতে সমর্থ হওয়ায় তাহাকে ০৬ (ছয়) মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও চেকে উল্লেখিত টাকা ও জরিমানা আদায়ের শাস্তি প্রদান করা হইল। আসামী সেচ্ছায় আদালতে আত্মসমর্পন অথবা পুলিশ কর্তৃক ধৃত হওয়ার তারিখ হইতে আরোপিত দন্ডাদেশ কার্যকর হইবে।
    এবিষয়ে জানতে জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রী কলেজের ইসলামের ইতিহাসের প্রভাষক শফিকুল ইসলাম বলেন- আমি ব্যাংকের সাথে লিয়াজের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান করেছি।
    এবিষয়ে ট্রাষ্ট ব্যাংকের উপশহর শাখায় যোগাযোগ করা হলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রতিবেদককে বলেন- ব্যাংক বিধি মোতাবেক মামলা করছে। আদালত রায় দিয়েছেন, যদি অভিযুক্ত ব্যক্তি টাকা পরিশোধ করে আদালতের কাছে আমরা বিষয়টি অবহিত করব। তবে এখন পর্যন্ত টাকা জমা হয়নি।
    জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রী কলেজের প্রিন্সীপাল মুফিজুর রহমান চৌধুরীর সাথে একাধিক বার মোবাইল যোগযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
    জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রী কলেজের গর্ভানিং বডির সভাপতি এটিএম রদরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান- ইসলামের ইতিহাসের শিক্ষক প্রভাষক শফিকুল ইসলাম তার ব্যক্তিগত একটি মামলা রয়েছে শুনেছি আদালতের কাছ হতে আমরা কোন নির্দেশনা পাইনি।
    এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ মাইনুল জাকির বলেন- ট্রাষ্ট ব্যাংকের একটি কপি পেয়েছি এটা দিয়ে কাউকে আটক করা যায় না। কুমিল্লা জেলার ব্রাক্ষণপাড়া হতে কোন গ্রেফতারি পরোয়ানা আসেসি। তারপর কয়েক দফা যোগাযোগ করা হলেও গ্রেফতারী পরোয়ানা না আসায় শিক্ষককে গ্রেফতার করা যায়নি। গ্রেফতারি পরোয়ানা পেলে ব্যবস্থা নিব।