চলতে চলতে আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম সপ্তম বর্ষে

    0
    23

    আমার সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম,০১জানুয়ারীঃসাদিক আহমদ ইমন,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ নানান জটিলতা,হাসি-আনন্দ উপেক্ষা করে বিদায় নিয়েছে আরও একটি বছর ২০১৭।দরজায় এসে উপস্থিত নতুন বর্ষ ২০১৮।অর্থাৎ ইতিহাসে উদয় হয়েছে নতুন আরেকটি বছরের,নতুন আরেকটি সুর্যের।কালের গর্ভে হারিয়ে গেছে আরেকটি বছর ২০১৭।

    বিদায়ী বছরে আমার  সিলেটের সাফল্য ও বিপক্ষীয় শক্তির নানান অপ্রীতিকর কর্মকাণ্ড নিয়ে আমাদের এই আয়োজন।২০১৭ সালকে ঘিরে আমার  সিলেটের রয়েছে যেমন নানান সফলতা,তেমনি আমার  সিলেটের বিরুদ্ধে বিপক্ষীয় শক্তির রয়েছে নানান অপ্রীতিকর কর্মকাণ্ড।

    এনিমেটরস বাংলা মিডিয়া গ্রুপের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগীতায় ও আনিসুল ইসলাম আশরাফীসহ এক ঝাঁক সম্পাদকের সম্পাদনায় ও শিক্ষিত ও পরীক্ষিত সংবাদ কর্মীদের সহযোগিতায় দুর্বার গতিতে সৃষ্টিলগ্ন থেকেই এগিয়ে চলছে বৃহত্তর সিলেটের বহুল প্রচারিত ওয়ার্ল্ড ওয়াইড অনলাইন সংবাদ মাধ্যম  “আমার  সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম”।যদিও ২০১২ সালের ১২ই ডিসেম্বর পত্রিকাটির আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়।তবে এর অনেক আগেই অনানুষ্ঠানিক ভাবে পথচলা শুরু করে পত্রিকাটি।

    শুরু থেকেই আমার সিলেট পরিবার নিজেদের প্রচারণার  চেয়ে মাজলুম ও বঞ্চিতদের প্রচারনা ও তাদেরকে অধিক মূল্যায়ন করে আসছে যা  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সচেতন মহলের অজানা নয়। সুস্থ সমাজ ও ঐতিহ্য লালনের পক্ষে আরও একধাপ এগিয়ে গেলো জনমানুষ ও মজলুমের এই পত্রিকাটি ।বিপক্ষীয় শক্তির নানান অপকর্মকাণ্ড থাকলেও সাহসের সাথে মোকাবেলা করে জনমানুষের সুনাম কুড়িয়েছে পত্রিকাটি।পরিসংখ্যান বিবেচনা করলে ব্যর্থতার খাতা একেবারেই শূন্য আমার  সিলেটের।দাঁড়িপাল্লার মাপে সফলতার ওজনই বেশী।

    বিদায়ী বছরে আমার  সিলেটের সামান্য সফলতা ও বাস্তবধর্মী কর্মকাণ্ডের কিছু চিত্র তুলে ধরা হলো।

    গত বছরের শুরুতেই কমলগঞ্জের পার্থখোলা চা বাগানের এক হিন্দু ভদ্রলোক মেয়েকে কলেজে ভর্তি করানোর জন্য  সহযোগিতা চাইলে তৎক্ষনাৎ আমার  সিলেট পরিবার পুরো ভর্তি ফি প্রদান করে মেয়েটিকে কলেজে ভর্তি করিয়ে দেয়,এ রকম অনেক ঘটনা আমার সিলেট পরিবারের নিত্য দিনের।

    সংযম-মহিমান্বিত রমজান মাসে ইফতারসহ  জাতীয় দিবস গুলোতে  আমার  সিলেট পরিবার  নানা আয়োজন করে  থাকে।এতে শ্রীমঙ্গল শহরের স্বনামধন্য ব্যক্তিবর্গসহ আমার  সিলেট পরিবারের সকল সদস্য অংশগ্রহন করে থাকেন।

    রুখে দাড়াও আজ,সন্ত্রাসবাদ করো শেষ,গড়ো জঙ্গিবাদমুক্ত বাংলাদেশ।দেশব্যাপী হানাহানি ও জঙ্গিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেস ক্লাব ও আমার  সিলেট যৌথভাবে আয়োজন করে এক প্রতিবাদ সমাবেশের।প্রতিবাদে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে শ্রীমঙ্গলের নানা শ্রেণির জনসাধারণ।এরকম প্রতিবাদ ও আমার সিলেট পরিবারের অলঙ্কার বলে চোখে পরে।

    অন্যান্য প্রতিবাদ ছাড়া ও  সাংবাদিক শিমুল হত্যার প্রতিবাদে সারাদেশের ন্যায় শ্রীমঙ্গলে আমার  সিলেট পরিবারের আয়োজনে শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

    আমার  সিলেট পরিবার ও শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেস ক্লাবের সদস্যদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে সাবেক নাসা গবেষক,আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব,সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের সম্পাদক ড.বদিউল আলম মজুমদারসহ আরও অনেক স্বনামধন্য ব্যক্তিবর্গ বেশ কয়েকবার শ্রীমঙ্গল আমার সিলেট পত্রিকা  কার্যালয় পরিদর্শন করেন।

    আমার  সিলেটের রিপোর্টার হৃদয় দাস শুভ,সাদিক আহমেদ,কাজল শীল,হাবিবুর রহমান খানসহ বেশ কয়েকজনকে স্টাফ রিপোর্টারে পদোন্নতি দেয়া হয় এ বছর।আমার  সিলেট পরিবারের জন্মলগ্ন থেকে শুভাকাঙ্ক্ষী  হাফিজুর রহমান তুহিন ও কামরুল হাসান জনি দুজনই এবছর শুভ বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়।এবছরই আমার সিলেটের সহকারী সম্পাদক মকবুল হাসান ইমরানের বোনের শুভ বিবাহ অনুষ্ঠিত হয়,তা ছাড়া আমার সিলেটের আরেক শুভাকাঙ্ক্ষী  রোকনুজ্জামান রঞ্জু দীর্ঘ ১২ বছর পর পুত্র সন্তানের বাবা হয়েছে।এরকম অনেক সফলতা রয়েছে যা লিখলে কলেবর বৃদ্ধি পাবার ভয় রয়েছে।

    অপকর্ম ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমার  সিলেটের ২০১৭:

    আমার সিলেট মূলত জন্মলগ্ন থেকেই অপরাধী সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে সোচ্চার হোক স্থানিয় বা আন্তর্জাতিক।ফলে সঙ্গত কারণেই যে কোন অপরাধী চক্রের সাথে আমার সিলেট পরিবারের চির বৈরিতা।উল্লেখ না করলেই নয় যেমন-বিদায়ী বছরের মার্চে চুনারুঘাটের শাকের মোহাম্মদের এক প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে ক্রাইম মিশন শুরু করে আমার  সিলেট।চক্রটি সিন্দুরখান ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা আত্নসাত করে, শ্রীমঙ্গলে ধর্ম ব্যবসার আড়ালে কল্পিত তথাকথিত সাতপীরের মাজার ও ভণ্ডামির বিরুদ্ধে আমার সিলেট টীমের ভুমিকা ছিলো সর্ব প্রশংসনীয় ও চোখে পড়ার মতো যা আজ চলমান।

    সরজমিনে  কল্পিত মাজার সদৃশ্য  ভুয়া স্থানে তদন্ত করতে গেলে আমার  সিলেটের সম্পাদক আনিসুল ইসলাম অশরাফীসহ স্টাফ রিপোর্টার জাহিদুল ইসলাম সুহেল,কাজল শীল  ঘটনাস্থলে প্রতিপক্ষ অপরাধী সিন্ডিকেটের কথিত সাংবাদিক নেতার প্ররোচনায় জিম্মির শিকার হলে স্থানিয় ইউপি সদস্য ও আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের অভিযানে  তাদের উদ্ধার করেন।

    আমার  সিলেটের বিরুদ্ধে অপশক্তির অপ্রীতিকর কর্মকাণ্ডঃ

    অনলাইনে বিভিন্ন অপরাধীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার জের ধরে আমার  সিলেটের সম্পাদক আনিসুল ইসলাম অশরাফীর ফেসবুক আইডি বেশ কয়েকবার হ্যাক করা হয়।বিদায়ী বছরে বেশ কয়েকবার প্রতিপক্ষের হ্যাকের শিকার হতে হয়েছে আমার  সিলেটের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটকে।

    বিদায়ী বছরে আমার সিলেট পরিবারের কেহ কেহ হারিয়েছে এমন কিছু আপনজনদের যারা আমাদের শোকে ফেলে না ফেরার দেশে চলে গেছে।এবছরই আমরা হারিয়েছি আমার  সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম এর সহকারী সম্পাদক আব্দুল মজিদের দাদা শশুর বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান,আওয়ামিলীগ নেতা মরহুম ইসমাইল হোসেনের পিতা হাজী ওয়াছির (১১৫)কে,আমাদের জেলা প্রতিনিধি শংকর শীলের পিতা,চুনারুঘাট প্রতিনিধি এস এম সুলতান খানের মাতা,স্টাফ রিপোর্টার সাদিক আহমদের দাদী,স্টাফ রিপোর্টার হাবিবুর রহমান খানের দাদা,চায়ের দেশ পত্রিকার সম্পাদক গোপাল দেব চৌধুরী,সাতগাও সামাদিয়া মাদ্রাসার আরবি প্রভাষক মুফতি শেখ জাকারিয়া আহমদ,দি বাডস রেসিডেনসিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক প্রিন্সিপাল মহিউদ্দিম আহমেদ,২০১৭ সালের  শেষ দিন হারিয়েছি সিলেটে মৎস্য চাষের অগ্রপথিক “রাজা ফিসারির মালিক” মাস্টার গোলাম মোস্তফা রাজা মিয়া ।

    প্রাপ্তি আর আশা-আকাঙ্খার পাশাপাশি ২০১৭ সালে দেশের বিভিন্ন সেক্টরের কিছু  আলোকিত মানুষকে হারিয়েছি আমরা। তাদের কেউ কেউ একেবারেই ক্ষণজন্মা। যাদের শুন্যতা কখনও পূরণ হওয়ার মতো নয়। উল্লেখ করার মতো জাতীয় ভাবে হারিয়েছি বায়তুল মোকারমের খতিব মাওলানা জালালউদ্দিন আলকাদেরী, সিলেটের কৃতি সন্তান আওয়ামীলীগ নেতা সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত, আব্দুল জব্বার- ৩০ আগস্ট বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রামের ইতিহাসে কণ্ঠতারকা আব্দুল জব্বার। মুক্তিযুদ্ধের সময় তার গান মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে ছিল শানিত অস্ত্র-মন্ত্রের মতো। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে গলায় হারমোনিয়াম ঝুলিয়ে ভারতের পথে প্রান্তরে চাঁদাও তুলেছেন তিনি। বাংলাদেশ এই শব্দসৈনিককে হারায় গত ৩০ আগস্ট। ২১ আগস্ট না ফেরার দেশে পাড়ি জমান নায়করাজ রাজ্জাক। এদেশের চলচ্চিত্রকে ঘিরেই ছিল যার ধ্যান-জ্ঞান। চিরসত্য মৃত্যু তাকে ছিনিয়ে নিলেও ভক্ত হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন রূপালি জগতের এ প্রবাদপুরুষ।

    আনিসুল হক বিদায়ী বছরেই বিদায় নিলেন আকর্ষনীয় ব্যক্তিত্ব, বুকভরা সাহস আর সংগ্রামী জীবনের উদাহরণ ঢাকা উত্তরের মেয়র আনিসুল হক। স্বপ্ন দেখা এবং দেখাতে পারার এই মানুষটির স্বপ্নরথ থমকে যায় ৩০ নভেম্বর। লন্ডনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আনিসুল হক। আব্দুর রহমান বিশ্বাস এবছরের ৩ নভেম্বর মারা যান সাবেক রাষ্ট্রপতি আব্দুর রহমান বিশ্বাস। ১৯৬২ ও ৬৫ সালে পূর্ব পাকিস্তান আইনসভার সদস্য। ১৯৯১ সালের সংসদে প্রথমে স্পিকার এবং পরে হন রাষ্ট্রপতি। ১৯৯৬-তে রাষ্ট্রপতির মেয়াদ শেষে অনেকটা অন্তরালেই ছিলেন আব্দুর রহমান বিশ্বাস। লাকী আখন্দ বাংলা গানে ভিন্নধারা তৈরির কিংবদন্তী শিল্পী, সুরকার, সঙ্গীতপরিচালক লাকী আখন্দ মারা যান ২১ এপ্রিল। তিনিও ছিলেন একজন মুক্তিযোদ্ধা। ক্যান্সারের সঙ্গে দীর্ঘদিন লড়াই করে ৬১ বছরে এসে মৃত্যুর কাছে হেরে যান লাকী আখন্দ।

    মহিউদ্দিন চৌধুরী বছরের শেষ মাস ডিসেম্বরে বিজয় দিবসের আগের দিন ১৫ ডিসেম্বর মারা যান চট্টগ্রামের তিনবারের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও শ্রমিক লীগ হয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে মহিরুহ হয়ে ওঠা মহিউদ্দীনের সম্পৃক্ততা ছিল মুক্তিযুদ্ধসহ স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনসহ গণতান্ত্রিক প্রতিটি সংগ্রামে। গায়ক বারি সিদ্দিকী-বাঁশি, গীতিকাব্য, সুর, কণ্ঠসহ সংগীতে ভিন্নমাত্রা যোগ করা শিল্পী বারী সিদ্দিকী পৃথিবী ছেড়ে অনন্তের পথে পাড়ি জমান নভেম্বরের ২৪ তারিখ। গ্রামীণ লোকসংগীত আর আধ্যাত্মিক ধারার গানকে যাদুকরী উচ্চতায় নেয়ার সুবাদে তৈরি হয় তার আলাদা কদর।বাংলাদেশের খ্যাতিমান রাজনীতিবিদ সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত ও  ছায়েদুল হক।তিনি মহান বিজয় দিবস ২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর মারা যান মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হক। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ পাঁচবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। সাদামাটা জীবনে অভ্যস্থ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে জন্ম নেয়া ছায়েদুল হক ছিলেন আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত নেতা।এ ছাড়াও যাদের হারিয়েছি তাদের পরকালিন কল্যাণ কামনা হোক আমাদের ব্রত।

    সকল বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে,বিপদের মোকাবেলা করে সাহসের সাথে অবিরাম চলে ইতমধ্যেই সিলেটসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাভাষার ধারকদের প্রাণে জায়গা করে নিয়েছে পত্রিকাটি।সাফল্যের সাথে ৬ষ্ঠ বছর অতিক্রম করে সপ্তমে পা রাখলো শ্রীমঙ্গল থেকে প্রকাশিত ও প্রচারিত একমাত্র অনলাইন ভার্সনের এই পত্রিকাটি। দেশ বিদেশের সকলের কল্যাণ কামনা করে আমার সিলেটের শুভ কামনা প্রত্যাশায়।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here