খালেদা জিয়া হারাতে চলেছেন নিরাপত্তাসহ সুযোগ সুবিধা!

    0
    29

    আমারসিলেট24ডটকম,০৯জানুয়ারীঃ  জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সবকিছু হারিয়ে এখন নিঃস্ব হতে চলেছেন। এমনিতেই দীর্ঘদিন ধরে তার পাশে নেই পরিবারের কোন সদস্য, নানা কারণে দলীয় নেতা কর্মীরাও এখন আর তার ডাকে তেমন সাড়া দিয়ে কাছে আসছেন না। এর সাথে সাথে এখন আবার হারাতে চলেছেন সরকারি নিরাপত্তাসহ সব সুযোগ সুবিধা। ১৯৯১ সাল থেকে তিনি হয় প্রধানমন্ত্রী, না হয় বিরোধীদলীয় নেতার দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ফলে কোন না কোন ধরনের সরকারি সুযোগ-সুযোগ ভোগ করেই আসছিলেন। কিন্তু এবার নির্বাচনে না যাওয়ায় ২২ বছর পর এই প্রথম তিনি সব ধরনের ক্ষমতা ও সরকারি সুযোগ সুবিধা হারাচ্ছেন। নতুন সরকার গঠিত হওয়ার পর খালেদা জিয়ার বিরোধীদলীয় নেতার পদের পাশাপাশি মন্ত্রীর পদমর্যাদাসহ সব সরকারি সুযোগ-সুবিধা প্রত্যাহার করা হতে পারে যা এখনই দেখা যাচ্ছে।
    জানা যায়,নতুন সরকার দায়িত্ব নেয়ার পরপরই বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে বেগম খালেদা জিয়ার জন্য প্রযোজ্য সুযোগ-সুবিধা বাতিল করা হবে।আজ বৃহস্পতিবার ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী সাংসদদের শপথ অনুষ্ঠিত হবে। এর পরপরই শুরু হবে নতুন সরকার গঠনের আনুষ্ঠানিকতা।
    ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খালেদা জিয়া অংশ না নেয়ায়  দেশের প্রচলিত আইনানুযায়ী সব ধরনের সরকারি সুবিধার বাইরে চলে যাচ্ছেন। জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতার পদটি একজন পূর্ণমন্ত্রীর পদমর্যাদার। বেতন-ভাতাসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধাও মন্ত্রীর মতো পান। তাকে ঢাকা মহানগর পুলিশ থেকে একজন হেড কনস্টেবল, একজন নায়েক ও ছয়জন কনস্টেবলসহ মোট আটজন হাউস গার্ড দেয়া হয়। এর বাইরে বিশেষ শাখা (এসবি) থেকে দুজন গানম্যান পালাক্রমে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেন।
    পুলিশ সূত্রে জানআ যায়, বর্তমানে যেহেতু তিনি বাসার বাইরে বের হচ্ছেন না, তাই পুলিশ প্রটেকশন উঠিয়ে নেয়া হয়েছে। তবে এসবির গানম্যান রয়েছে। বিরোধীদলীয় নেতা সরকারি একজন একান্ত সচিব (পিএস), একজন সহকারি একান্ত সচিব (এপিএস), দুজন ব্যক্তিগত কর্মকর্তা, একজন বাহক, দুজন এমএলএসএস ও একজন বাবুর্চি পেয়ে আসছিলেন। গাড়ির সুবিধাও পেয়ে থাকেন বিরোধীদলীয় নেতা। তবে খালেদা জিয়া সরকারি বাসায় থাকেন না।
    বিরোধী দলের প্রধান বেতন পান ৫৩ হাজার ১০০ টাকা। এ ছাড়াও চিকিৎসা, ভ্রমণসহ অন্যান্য ক্ষেত্রেও সুবিধা পেয়ে থাকেন। বিরোধীদলীয় নেতার পদ হারানোর ফলে খালেদা জিয়া এসব সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন। তবে অন্য একটি সূত্র থেকে জানা যায়, সরকার চাইলে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে খালেদা জিয়াকে  সিমীত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে পারে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here