কাদের মোল্লাকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত

    0
    19

    আমারসিলেট 24ডটকম , সেপ্টেম্বর  : আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর দেয়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা বাড়িয়ে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের রায়ের বিরুদ্ধে করা রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের করা আপিল মামলার রায়টি ঘোষণা করেন প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বে ৫ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ। বেঞ্চের অপর বিচারপতিরা হচ্ছেন, বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, বিচারপতি আব্দুল ওয়াহহাব মিঞা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী। আজ সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে মামলাটির (গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার বনাম আব্দুল কাদের মোল্লা) রায় ঘোষণা শুরু করেন আদালত। আজ সকাল ৯টা ৩৭ মিনিটে সংক্ষিপ্ত রায় পড়া শেষ হয়। আজ মঙ্গলবার  এ রায় প্রদান করেছেন দেশের সর্বোচ্চ আদালত।
    মামলায় আদালত রাষ্ট্রপক্ষের আপিল মঞ্জুর ও আসামিপক্ষের আপিল খারিজ করে দিয়েছেন। রাষ্ট্রপক্ষে এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউশনের সমন্বয়ক অতিরিক্ত এটর্নি জেনারেল এম কে রহমান এবং আসামিপক্ষে ট্রাইব্যুনালে জামায়াতের প্রধান আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক ও খন্দকার মাহবুব হোসেন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
    এদিকে কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে ৬ নম্বর অভিযোগে সপরিবারে হযরত আলী লস্করকে হত্যার দায়ে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া ৪ নম্বর অভিযোগে ঘাটারচর গণহত্যার দায়ে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ হয়েছে, যে অভিযোগ থেকে ট্রাইব্যুনাল তাকে খালাস দিয়েছিলেন। অন্য অভিযোগগুলোতে ট্রাইব্যুনালের রায় বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। এর মধ্যে মিরপুরের আলোকদী (আলুব্দী) গ্রামে গণহত্যার দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ পেয়েছেন কাদের মোল্লা। এছাড়া প্রথম অভিযোগ, মিরপুর বাঙলা কলেজের ছাত্র পল্লবকে গুলি করে হত্যার নির্দেশ দেয়া, দ্বিতীয় অভিযোগ কবি মেহেরুননিসা, তার মা এবং দুই ভাইকে হত্যা এবং তৃতীয় অভিযোগে সাংবাদিক খন্দকার আবু তালেবকে হত্যার দায়ে প্রত্যেকটিতে কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে ১৫ বছর করে কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।
    ট্রাইব্যুনাল ৫টি অপরাধ প্রমাণিত বললেও অপিল বিভাগের রায়ে ৬টি অভিযোগের প্রত্যেকটি প্রমাণিত হওয়ার কথা বলা হয়েছে।এর মধ্য দিয়ে মানবতাবিরোধী অপরাধের প্রথম কোনো মামলার চূড়ান্ত নিস্পত্তি হলো। দুই ট্রাইব্যুনালের দেয়া ৬টি মামলার রায়ের মধ্যে আরো ৪টির আপিল শুনানি শুরুর অপেক্ষায় রয়েছে। বাকি ১টি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি পলাতক থাকায় আপিল করেননি। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর রায় নিয়ে করা আপিল শুনানি শেষ হলে গত ২৩ জুলাই যে কোনো দিন এ আপিল মামলার রায় ঘোষণা করা হবে জানিয়ে মামলাটি অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।শুনানি শেষ হওয়ার ৫৪ দিনের মাথায় রায় ঘোষিত হলো।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here