কলেজে ক্লাস করে বাড়ি ফেরা হলো না নবীগঞ্জের মাহফুজের

    0
    31

    আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৭মার্চ,মতিউর রহমান মুন্না,নবীগঞ্জ থেকে: কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় বাস ও সিএনজি অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে মাহফুজ (১৯) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন। সোমবার  বিকেল সাড়ে ৩ টায় উপজেলার বড়গাঁও এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মাহফুজ উপজেলার খাগাউড়া নোয়াগাঁও  গ্রামের মহিবুর মিয়ার ছেলে ও স্থানীয় রাগিব রাবেয়া হাই স্কুল এন্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনায় যেন মুহুর্তেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হলো একটি পরিবারের।
    এদিকে ঘটনার পর থেকে প্রায় আড়াই ঘন্টা সময় মহাসড়ক অবরোধ করে মিছিল করছে উত্তেজিত জনতা। ফলে দুদিকে যান চলাচল বন্ধ ছিল।
    স্থানীয়রা জানান, মাহফুজ কলেজ থেকে ক্লাস শেষে ঢাকা সিলেট মহাসড়ক হয়ে বাড়ি যাওয়ার জন্য (হবিগঞ্জ-থ ১১-৩১৪৬) নম্বারের (মহা সড়কে নিষিদ্ধ) সিএনজি অটোরিক্সা যোগে রওনা হন। পথিমধ্যে বড়গাঁও এলাকায় যাওয়া মাত্র হবিগঞ্জ-সিলেট এক্সপ্রেস পরিবহনের একটি বাসের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধে। এতে মাহফুজ (১৯) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। অন্যান্য যাত্রীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এসময় স্থানীয় উত্তেজিত জনতা বিক্ষোভ মিছিল করে মহা সড়ক অবরোধ করে রাখেন। পরে পুলিশ ও নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গের হস্তক্ষেপে প্রায় আড়াই ঘন্টা পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে যান চলাচল ফের শুরু হয়।  মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচলে সরকার কঠোর থাকলেও মহাসড়কের নবীগঞ্জ এলাকায় কিভাবে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল করে এনিয়ে জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। হাইওয়ে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে।
    সচেতন লোকজনের ভাষ্যমতে, মহাসড়কে  সিএনজি অটোরিক্সা বন্ধ থাকলে এ ঘটনাটি ঘটতোনা। অকালেই ঝড়ে যেতনা একটি তাজা প্রাণ। এভাবেই কলেজ ছাত্রকে হারাতো না তার মা বাবা। সব শেষ হয়ে গেল একটি দুর্ঘটনায়। মুহুর্তেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হলো একটি পরিবারের।
    গোপলার বাজার তদন্ত কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফ উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here