কমলগঞ্জে ওরস মাহফিলে মারামারির ঘটনায় ৩ভাই আহতঃআটক-১  

    0
    16

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৭ফেব্রুয়ারী,শাব্বির এলাহীঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ওরস মাহফিলে মারামারির ঘটনায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত একজন আটক ও তিনভাই আহত। দুইভাই গুরুতর আহত অবস্থায় মৌলবীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল এবং অন্য ভাই সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।বিলম্বে প্রাপ্ত খবরে জানা যায়,গত ২০ ফেব্রুয়ারী আদমপুর ইউনিয়নের জালাল শাহ(রঃ) এর মাজারে ওরস মাহফিল চলাকালীন সময়ে বিকালে আনুমানিক চারটায় তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় উত্তরভাগ গ্রামের ডেকোরেটার্স ব্যবসায়ী উত্তরভাগ গ্রামের আব্দুর গণি মাস্টারের পুত্র আবু সায়েম(৩৮) সহ তার দুই ভাই আবু সালেক(৩৫)ও আবু কায়ছার আহমদ(৩০) গুরুতর আহত হযেছেন।

    এ ঘটনায় আবু সায়েম বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করেছেন(মামলা নং-১৪,তাং ২১/০২/১৬)। এজাহার সুত্রে জানা যায়, আবু সায়েম ভাতৃদ্বয় সহ সহযোগী শ্রমিকদের নিয়ে প্যান্ডেল তৈরির কাজ করা অবস্থায় ওরস মাহফিলে ডেকোরেটার্স এর কাজ না পাওয়ার ক্ষোভে স্থানীয় অপর ডেকোরেটার্স ব্যবসায়ী নৈনারপার এলাকার মৃত কাজিম মিযার পুত্র আবু বক্কর(৩৫)এর হুকুমে ও পরিকল্পনায় জালালপুর গ্রামের হিরন মিয়ার পুত্র ময়না মিয়া, মৃত সুরুজ আলীর পুত্র ফারুক মিয়া, মৃত ক্ষিরন মিয়ার পুত্র জমসেদ মিয়া,মৃত উসমান আলীর পুত্র রহমত মিয়া ও করম আলী প্রকাশ সিদ্দিকুর রহমান, রমজান মিযার পুত্র আলীক মিয়াসহ ১০/১২ জন  দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা করে।হামলাকালে নগদ টাকা লুট করা সহ প্যান্ডেলের কাপড়,বাঁশ কেটে প্রায় ১৫হাজার টাকার ক্ষতি সাধিত হয়।

    গুরুতর আহত আবু সালেক মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট আধুনিক হাসপাতাল ও কায়ছার আহমদ সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।কমলগঞ্জ থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আল আমীন জানান, ঘটনার দিন রাতেই মৃত উসমান আলীর পুত্র রহমত মিয়াকে আটক করে মৌলভীবাজার আদালতে সোপর্দ করা হয়।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here