ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে জনরোষে কমলগঞ্জ থানার দুই এসআই!

0
104
ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে জনরোষে কমলগঞ্জ থানার দুই এসআই!
ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে জনরোষে কমলগঞ্জ থানার দুই এসআই!

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে নিষিদ্ধ মাদক ট্যাবলেট ইয়াবা দিয়ে এক নিরীহ ফার্মেসী মালিককে ফাঁসানো চেষ্টার অভিযোগে ক্ষুব্দ জনতার রোষানলে পড়েছেন কমলগঞ্জ থানার দুই এসআই। শনিবার রাত নয়টায় উপজেলার আদমপুরের মধ্যভাগ বাজারের ফার্মেসী নিউ মেডিসিন কর্ণারে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে রাত সাড়ে ৮টায় কমলগঞ্জ থানার দুই উপপরিদর্শক (এসআই) হারুন-অর-রশীদ চৌধুরী ও সিরাজুল ইসলাম মাদকদ্রব্য উদ্ধারের নামে স্বপন কুমার সিংহের ফার্মেসীতে তল্লাশী চালায়।

এ ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে কমলগঞ্জ থানার এসআই হারুন-অর-রশীদ চৌধুরী ও সিরাজুল ইসলাম মাদক অভিযান চলছে বলে স্বপনের ফার্মেসীতে আসেন। পরে তল্লাশী করা হচ্ছে বলে সকল ঔষধ তছনছ করে এক পর্যায়ে নিজেদের সাথে নিয়ে আসা কয়েকটি ইয়াবা ট্যাবলেট রেখে বলেন এইতো এগুলো এ ফার্মেসীতে পাওয়া গেছে। এ সময় ফার্মেসীর মালিক স্বপন প্রতিবাদ করলে পুলিশ কোন কথা শুনতে রাজি হননি।

পরে স্থানীয় ব্যবসায়ী ও মানুষজন এসে পুলিশদের ঘেরাও রাখে। এক পর্যায়ে পুলিশ কৌশলে  সটকে পড়ে।

আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন বলেন, ‘মণিপুরী সম্প্রদায়ের ছেলে স্বপন কুমার সিংহ জানামতে ভালো একজন মানুষ। এর আগেও তিনি আদমপুর বাজারে ছোট একটি ফার্মেসীর ব্যবসা করেছেন। তিনি রাতে থানার দুই এসআই মাদক উদ্ধারের জন্য তার (স্বপনের) ফার্মেসীতে গিয়ে তল্লাশী চালালে মধ্যভাগসহ আশপাশ এলাকার বিক্ষুব্দ মানুষজন তাদেরকে আটকিয়ে প্রতিবাদ করে বলে শুনেছেন।’

এদিকে সরেজমিনে রবিবার সকালে গেলে এলাকাবাসীরা অভিযোগ করে বলেন, ‘অবরুদ্ধ হওয়া দুই এসআই নানাভাবে সাধারণ মানুষজনকে হয়রানি করে থাকেন। তাদের নাম শুনলেই মানুষজন আতঙ্কিত হয়ে পড়ে।’ মধ্যভাগ বাজারের সভাপতি সিদ্দেক আলীসহ একাধিক ব্যবসায়ী এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানান।

এ বিষয়ে কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইয়ারদৌস হাসান বলেন, ‘মাদকদ্রব্যের অভিযানে পুলিশ গিয়েছিল। তবে স্থানীয়দের দাবী ফার্মেসীর মালিক স্বপন কুমার সিংহ মাদকের সাথে জড়িত নয়। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here