Monday 30th of November 2020 11:26:27 AM

এম ওসমান, বেনাপোলঃ  যশোরের শার্শা উপজেলায় ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’ থাকা ২৪২ ব্যক্তির বাড়িতে ‘লাল পতাকা’ উড়ছে।
স্থানীয় উপজেলা পরিষদের নির্দেশে ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বাররা তাদের নিজ নিজ এলাকার বিদেশ ফেরতদের বাড়িতে লাল পতাকা লাগিয়ে দিয়েছেন।
এদিকে বাগআঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কবীর বকুল তার ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে “হোম কোয়ারেন্টাইনে” থাকা ৭০টি পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পাঠানো শুরু করেছেন।
ইলিয়াছ কবীর বকুল বলেন, বুধবার বিকেল থেকে যারা হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলছেন তাদের বাড়িতে চাল, ডাল, তেল, পেয়াজ, কাচাঁবাজার ও ফল পাঠানো শুরু করেছি। আইন মেনে চলায় বাগআঁচড়া ইউনিয়নের ওই পরিবারের কেউ বাজারে যেতে পারছে না তাই এই উদ্যোগ নিয়েছি।
শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা  ডা. ইউসুফ আলি জানিয়েছেন, নভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫টি আইসোলেশন বেড, ৫০টি কোয়ারেনটাইন ইউনিট বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এখন পর্যন্ত বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরত আসা ২৪২জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।
“এ পর্যন্ত উপজেলায় কোন করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) রোগে আক্রান্ত রুগি পাওয়া যায়নি।”
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল বলেন, বিদেশ থেকে ফিরে আশা ২৪২ ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ভারত থেকে ফেরত আসাদের ব্যাপারে খোঁজ খবর প্রশাসনকে অবহিত করার জন্য ইউপি চেয়ারম্যান মেম্বারদেরকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে । স্থানীয় প্রশাসন এব্যপারে সার্বক্ষনিক তৎপর রয়েছে।

এম ওসমান,বেনাপোল:  ভারত ফেরত প্রত্যেক বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রীদের হাতে বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার সীল মারছে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত যশোর জেলা পুলিশ।
রবিবার  (২২ মার্চ) সকাল থেকে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনে এ সীল মারতে দেখা যায় যশোর জেলা পুলিশকে।
ভারত থেকে আসা পাসপোর্ট যাত্রী মাসুদুর রহমান জানান, এটা একটা ভালো উদ্যোগ। করোনা থেকে নিজেকে যেমন সুস্থ রাখতে হবে। তেমনি নিজের পরিবারের সদস্যদের কথা তথা সমগ্র দেশের মানুষের  স্বার্থে আমাদের স্বেচ্ছায় এ হোম কোয়ারান্টাইন থাকা উচিত। যারা দেশের বাইরে থেকে দেশে ফিরেছেন তারা যেন নিজ স্বার্থ ত্যাগ করে এ কাজটি করেন। অন্যান্য রোগেও তো আমরা অনেকে সপ্তাহ খানেক ঘরে থাকি। তাহলে কেন এ মরণঘাতী করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে ঘরে থাকবো না। সবাইকে কোয়ারান্টাইন মেনে চলার জন্য তিনি অনুরোধ করেন।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, মরণঘাতী করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করায়, তা রোধে সমস্ত প্রবাসী বাংলাদেশিদের যেমন ১৪ দিনের কোয়ারান্টাইন বাধ্যতা মূলক করা হয়েছে, ঠিক তেমনি পরিবারের স্বার্থে, দেশের স্বার্থে ভারত ফেরত সকল পাসপোর্ট যাত্রীদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার জন্য তাদের হাতে সীল মারা হচ্ছে। কোয়ারান্টাইন যদি মেনে চলা হয় তবে এ ভাইরাস থেকে পরিত্রাণ পাওয়া সহজ হবে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc