Wednesday 2nd of December 2020 10:33:48 PM

এম এস জিলানী আখনজী, চুনারুঘাট,হবিগঞ্জ থেকেঃ  হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় এ বছর প্রথমবারের মতো তেল ফসল হিসাবে সূর্যমুখীর চাষ শুরু হয়েছে। সূর্যমুখী চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান ও সফল হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন উপজেলার অনেক কৃষক।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ বছর চুনারুঘাট উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর নরপতি, শাইলগাছসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ২শত বিঘা জমিতে বেশ কয়েকজন কৃষক প্রণোদনা কর্মসূচী ও রাজস্ব বাজেটের আওতায় হাইসান-৩৩ জাতের সূর্যমুখীর চাষ করেছেন। ইতোমধ্যে গাছে ফুল ধরেছে। প্রতিদিনই বিভিন্ন এলাকার লোকজন ফুল দেখতে ভিড় করছেন।

সরেজমিনে ৬নং সদর ইউনিয়নের নরপতি ও শাইলগাছ গ্রাম এবং এ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রামগুলোতে সূর্যমুখীর বাগন দেখা গেছে। নরপতি গ্রামের সূর্যমুখী চাষী ছুরুত আলী জানান, আগে তিনি উক্ত জমি পতিত রাখতেন অথবা সবজি চাষ করতেন। এবছর উপজেলা কৃষি অফিসারের পরামর্শে তিনি প্রথমবারের মতো হাইসান-৩৩ জাতের সূর্যমুখীর চাষ করেছেন। ইতোমধ্যেই প্রতিটি গাছে ফুল ধরেছে। সূর্যমুখী চাষে সফলতা ও লাভের আশা করছেন তিনি। একই গ্রামের আরেকজন চাষী রনি মিয়া জানান, আগে তিনি তার জমি এ মৌসুমে পতিত রাখতেন। কৃষি কর্মকর্তার পরামর্শে এ বছরই সূর্যমুখীর চাষ করেছেন। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে বীজ, সার, অন্যান্য উপকরণ, প্রশিক্ষণ ও নগদ অর্থ দেওয়া হয়েছে। বাগানে ফুল আসার পর প্রতিদিনই লোকজন আসছেন বাগান দেখতে। তিনিও আশা করছেন সূর্যমুখী চাষ করে বাণিজ্যিকভাবে লাভবান হওয়ার।

উপ-সহকারী কৃষি অফিসার সৈয়দ সাইদুর রহমান বলেন, আমার ব্লকে এ এলাকার জন্য নতুন ফসল সূর্যমুখী, ৩০টি প্রদর্শনী স্থাপন করছি, প্রত্যেকটি প্রদর্শনীরই অবস্থা ভালো, ফলনও আশা করি ভালো হবে। তিনি আশা করতেছেন আগামীতে এই প্রদর্শনীকে অনুসরণ করে এই ব্লকের অনেক কৃষক সূর্যমুখী চাষ করবে, যাতে আমাদের দেশের তেলের ঘাটতি পূরণে বিরাট অবদান রাখবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন সরকার বলেন, এই প্রথমবারের মতো চুনারুঘাটে ২শ বিঘা জমিতে সূর্যমুখীর চাষ করা হয়েছে। সূর্যমুখী চাষে উদ্বুদ্ধ করতে উপজেলা কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে আমাদের রাজস্ব বাজেট এবং প্রণোদনার আওতায় আমরা কৃষকদেরকে বিনামূল্যে বীজ, সার, অন্যান্য উপকরণ, প্রশিক্ষণ ও নগদ অর্থ দেওয়া হয়েছে।

আশা করি ফলন খুবই ভালো হবে এবং এগুলো দেখে অন্যান্য কৃষকরাও উদ্বুদ্ধ হয়ে আরোও বেশি পরিমান জমিতে চাষ করবেন। এতে করে আমাদের দেশের তেলের ঘাটতি পূরণ হবে এবং কৃষক আর্থিকভাবে লাভবান হবেন। তিনি বলেন, চুনারুঘাটে আগে কোন কৃষক সূর্যমুখীর চাষ করতেন না, এবারই প্রথম চুনারুঘাট পৌর এলাকাসহ উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের ২শত বিঘা জমিতে সূর্যমুখীর চাষ করা হয়েছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc