Wednesday 2nd of December 2020 09:06:54 PM

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৩মে,ডেস্ক নিউজঃ    কিছুক্ষনের মধ্যেই সুন্দরবনের কুখ্যাত জলদস্যু, বনদস্যু বাহিনীর প্রধানসহ ছয়টি বাহিনীর ৫৭ জন সদস্য র‌্যাব-৬ খুলনার সদর দপ্তরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আত্মসমর্পণ করবেন। এ সময় তারা বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ জমা দেবেন।

র‌্যাব-৬ খুলনার পরিচালক অতিরিক্ত ডিআইজি খোন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, ছয়টি দস্যুবাহিনীর মধ্যে দাদা ভাই বাহিনীর ১৫ জন সদস্য আত্মসমর্পণ করবেন। তারা ১২টি অস্ত্র ও ১৭৮ রাউন্ড গুলি জমা দেবেন। হান্নান বাহিনীর নয়জন সদস্য আত্মসমর্পণ করবেন। তারা আটটি অস্ত্র ও ১৩০ রাউন্ড গুলি জমা দেবেন। আমির আলী বাহিনীর সাতজন সদস্য আত্মসমর্পণ করবেন। তারা পাঁচটি অস্ত্র ও ৪১ রাউন্ড গুলি জমা দেবেন।

সূর্য বাহিনীর ১০ জন সদস্য আত্মসমর্পণ করবেন। তারা ১১টি অস্ত্র ও ৩৭০ রাউন্ড গুলি জমা দেবেন। ছোট শাসছু বাহিনীর নয়জন সদস্য আত্মসমর্পণ করবেন। তারা ১০টি অস্ত্র ও ৩১০ রাউন্ড গুলি জমা দেবেন। মুন্না বাহিনীর সাতজন সদস্য আত্মসমর্পণ করবেন। তারা ১২টি অস্ত্র ও ২৫৫ রাউন্ড গুলি জমা দেবেন। মোট ছয়টি গ্রুপের ৫৭ জন আত্মসমর্পণ করবেন। তারা অস্ত্র জমা দেবেন ৫৮ এবং গুলি জমা দেবেন ১২৮৪ রাউন্ড।

৩৪৬টি ও গুলি ১৭ হাজার ৮৬৯ রাউন্ড জমা দিয়ে গত ২৩ মাসে মোট ২০টি বাহিনী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছে, যাদের সদস্য সংখ্যা ২১৭ জন।

র‌্যাব প্রতিষ্ঠার পর থেকে ৫৭২ জন জলদস্যু গ্রেপ্তার হয়েছেন। ১ হাজার ৫৪২টি অস্ত্র এবং ৩৩ হাজার ১৮৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে নগরীর লবণচরায় র‌্যাব-৬ খুলনার কার্যালয়ে আত্মসমর্পণের এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণচন্দ্র চন্দ ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি টিপু মুনশি, মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, মিজানুর রহমান এমপি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিনসহ নেভি, কোস্টগার্ড ও স্থানীয় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

অনুষ্ঠানে ইতোপূর্বে আত্মসমর্পণকারী বনদস্যুদের ৫৮ জনের প্রত্যেককে পুনর্বাসনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ১ লাখ টাকার চেক প্রদান করা হবে।

খুলনা র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক আরও জানান, খুলনার তিনটি দস্যু বাহিনীর সদস্যরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে বুধবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করবে। সুন্দরবনকে নিরাপদ করতে সরকারের নির্দেশ পালন করছে র‌্যাব।

উল্লেখ্য, খুলনা অঞ্চলের তিন দস্যুবাহিনী সুন্দরবনের শ্যামনগর, আড়পাঙ্গাসিয়া, মোংলা, আন্ধারমানিক, হারবাড়িয়া, কলাগাছি এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে জেলে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায় করত। বনের ওপর নির্ভরশীল সাধারণ মানুষ রীতিমতো তাদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছিল।

তাদের মাসোয়ারা দিয়ে জেলে-মৌয়ালদের বনে প্রবেশ করতে হতো। এমনকি বনরক্ষীরাও তাদের থেকে নিরাপদ দূরত্বে থাকত। তবে সাম্প্রতিক র‌্যাবের বেশ কয়েকটি সফল অভিযানের পর দস্যুদের দৌরাত্ম্য কমতে থাকে।

একই সঙ্গে সরকারের সাধারণ ক্ষমার আওতায় এসব দস্যু আত্মসমর্পণের পথ খুঁজতে শুরু করে। যার ধারাবাহিকতায় ইতোপূর্বে ২১৭ জন জলদস্যু আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc