Friday 30th of October 2020 08:05:47 AM

জুমান হোসেনঃ সাংবাদিকরা তাদের সংবাদ প্রতিবেদনের প্রতিক্রিয়ায় অনলাইনে  হুমকির শিকার হচ্ছেন প্রতিনিয়ত ।কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টসের অ্যাডভোকেসি ডিরেক্টর কোর্টনি র্যাডশের মতে অনলাইনে হয়রানির শিকার হওয়া  মহিলা সাংবাদিকদের সবচেয়ে বড় নিরাপত্তা ও উদ্বেগের কারন।
ব্রায়ান(সিএনএন) বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সংস্থাগুলির এই ধরনের আচরণ প্রশমিত করতে তাদের প্ল্যাটফর্মগুলি পর্যবেক্ষণে ভূমিকা রাখতে হবে।
র‌্যাডসচ এর মতে “কাউকে  ব্লক করা  যথেষ্ট নয়, আমরা এই হুমকির মুখোমুখি  কিনা তা জানতে হবে এবং প্রযুক্তি প্ল্যাটফর্মগুলি থেকে আমাদের আরও সক্রিয় প্রতিক্রিয়া দরকার।”
এক জরিপে দেখা গেছে ৮৫ ভাগ  মহিলা সাংবাদিকরা গত ৫ বছর আগের চেয়ে বেশী  নিরাপত্তাহীনতায় শিকার।
উত্তরদাতারা বলেছেন যে তারা প্রতিনিয়ত নিরাপত্তাহীনতায় শিকার হচ্ছেন অনলাইনে।  অনেকই জীবননাশের হুমকিও দেওয়া হয়।
ডিজিটাল স্পেসে সাংবাদিকদের জন্য হুমকি ক্রমেই বাড়ছে। একারণে অনলাইনে যোগাযোগ এবং তথ্য রক্ষায় তাদের বিশেষভাবে সতর্ক হওয়া দরকার।

কয়েকটি গবেষণায় দেখা গেছে, বিপদের গভীরতা জেনেও সাংবাদিকরা কোনো ধরনের মৌলিক সুরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করেন না।

“ছোট একটি পদক্ষেপ আনতে পারে বিরাট পরিবর্তন” শ্লোগানে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য একটি ডিজিটাল  নিরাপত্তা গাইড প্রকাশ করেছে ররি পেক ফাউন্ডেশন। এই নির্দেশিকা তৈরির সময় বিষয়-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত দিয়ে সাহায্য করেছে জিআইজেএন।

পিডিএন পালসের  বলেন, “কেউ কখনো বলতে পারবেন না, তিনি শতভাগ নিরাপদ। কিন্তু কিছু মৌলিক পদ্ধতি অনুসরণ করে. যে কেউ ইন্টারনেটের ৯০ থেকে ৯৫  শতাংশ ব্যবহারকারীর তুলনায় নিজেকে আরো নিরাপদে রাখতে পারেন। এই নিরাপত্তা অনেক দিন পর্যন্ত কার্যকর থাকে ।”

ডিজিটাল নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ রবার্ট গুয়েরার সংক্ষিপ্ত সুপারিশ দিয়ে শুরু করছি। তিনি সতর্ক করে বলেছেন, বেশির ভাগ সাংবাদিক ইন্টারনেট নিরাপত্তার জন্য ন্যূনতম সতর্কতামূলক ব্যবস্থাও গ্রহণ করেন না।

এক দশকেরও বেশি সময় ধরে এনজিও কর্মী এবং সাংবাদিকদের “নিরাপদ যোগাযোগ এবং তথ্য ‍সুরক্ষার” উপর প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন গুয়েরা। তাঁর মতে, অনুসন্ধানী সাংবাদিক হিসাবে পরিচিতি পেলে, অনেকেই ডিজিটাল টুল ব্যবহার করে আপনার ব্যক্তিগত এবং অনুসন্ধানী রিপোর্টের তথ্য চুরির চেষ্টা করবে। তিনি বলেন, “প্রথমে ঝুঁকি সম্পর্কে জানুন, তারপর কায়দা-কানুনগুলো শিখুন।এমন কিছু সহজ পদ্ধতি আছে, যা চাইলেই যে কেউ অনুসরণ করতে পারেন।” তথ্যঃ সিএনএন, রাইসিনবিডি২৪

মোঃ জুমান হোসেনঃ  বিভিন্ন উপায়ে কম্পিউটার বিজ্ঞানের বৈচিত্র অতুলনীয়।‘প্রযুক্তি জীবনের এক উপায়’ এবং প্রযুক্তির প্রবেশদ্বার হল কম্পিউটার বিজ্ঞান।মুভি দেখা থেকে শুরু করে গেমস খেলা, গান শোনা, নেট ব্রাউজিং- কী না আমরা কম্পিউটার দিয়ে করি। কম্পিউটার বিজ্ঞান এককভাবে আমাদের জীবনের প্রায় সব ক্ষেত্রেই  প্রভাবকে বিস্তার করেছে। 

এটি একটি জ্ঞাত সত্য যে প্রতিনিয়ত  সাংবাদিকতা বিকশিত হতে থাকে।কম্পিউটার বিজ্ঞান  সাংবাদিকতা পেশাকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করছে। এখন সাংবাদিকদের কম্পিউটার বিষয় অনেক জ্ঞান রাখতে হয়। মুদ্রণ মাধ্যম ও বৈদ্যুতিন মাধ্যম উভয় ক্ষেত্রেই এখন কম্পিউটারের জন্য অবারিত দ্বার। মুদ্রণ মাধ্যমের ক্ষেত্রে প্রতিবেদন তৈরি করা, ছবির মাপ ঠিক করা, পাতা সাজানো কিংবা বৈদ্যুতিন মাধ্যমে যে কোনও ধরনের অনুষ্ঠান তৈরি ও তার সম্প্রচারের কাজ হয় কম্পিউটারের মাধ্যমে।অনেক সংবাদপত্র কম্পিউটার প্রকৌশলী নিয়োগ দিচ্ছে এই সব কাজের জন্য।
সংবাদ পরিবেশনার ক্ষেত্রে প্রযুক্তিগত পরিবর্তনের বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে বিশ্বের গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানগুলোর সংস্থা, ইন্টারন্যাশনাল নিউজ মিডিয়া এসোসিয়েশন, ইনমা। ইনমার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, আর্ল জে. উইলকিনসন বলেন, আমি মনে করি, সাংবাদিকতা বিভিন্ন প্লাটফর্মের সঙ্গে, প্রযুক্তির ব্যাপ্তির সঙ্গে সমন্বয় করছে। আপনি জানেন, একটা সময় ছিল, যখন আপনি সাধারণ বর্ণনামূলক লেখা ইত্যাদি লিখতে পারতেন, কিন্তু এখন সেই লেখা টুইটারে ১৪০ বর্ণে, আই-প্যাডে আর কার্যকর নয়।
এ ধরনের বহু প্লাটফর্মে সাদামাটা বর্ণনামূলক লেখা আর কাজ করছে না। কাজেই সাংবাদিকতায় শুধুমাত্র সংবাদ লেখার চেয়ে, ভিডিওচিত্র এবং ধারণকৃত শব্দের মাধ্যমে কীভাবে আমরা গল্পটা বলতে পারি, তা নিয়ে আমি ভাবছি। সাংবাদিকতায় এই পরিবর্তনটাই ঘটছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২মার্চঃ   অ্যাপস,আইপি ও অনলাইন টিভি  চ্যানেল ‘ইয়ুথ বাংলা টিভি ’ বাংলাদেশে তাদের সম্প্রচার শুরু করেছে।  স্বাধীনতার চেতনাকে লালন করে “তারুণ্যের কথা বলে”   স্লোগানকে সামনে রেখে ২৪ ঘন্টার র্পূণাঙ্গ বাংলা  চ্যানেল  “ইয়ুথ বাংলা টিভি”   লন্ডন, হংকং, এবং ঢাকা থেকে  তিনটি  আলাদা বেজস্টেশনের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে।  এটি একটি সংবাদ ও বিনোদন নির্ভর চ্যানেল যা  র্সাভার, মোবাইল অ্যাপস,আইপি টিভি,  ক্যাবল এবং স্যাটেলাইট -এই পাঁচটি মাধ্যমে সম্প্রচার ফিড পরিচালনা করবে  ।

“ইয়ুথ বাংলা টিভি”- এর অনুষ্ঠানসূচির মধ্যে রয়েছে নাটক, ফিল্ম, টকশো, লাইভ ইভেন্ট, রিয়েলিটি শো,  নাগরিক সাংবাদিকতা, প্রতিঘন্টার নিউজ আপডেট, অপরাধ বিষয়ক অনুষ্ঠান ও বিনোদনধর্মী সব অনুষ্ঠান।  দেশ-বিদেশের যেকোন স্থান থেকে মুহুর্তেই মুঠোফোনের মাধ্যমে যে কেউ (www.youthbanglatv.com) ঠিকানায় প্রবেশ করে দেখতে ও জানতে পারবেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সর্বশেষ সংবাদ-অনুষ্ঠানাদি।এছাড়া সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে  (https://www.facebook.com/youthbanglatvlondon) ২৪ঘন্টা সরাসরি অনুষ্ঠানমালা দেখতে পারবেন যে কেউ।

প্রচলিত ঘরনার টকশো ও সংবাদের বিপরীতে “আনকাট শো” এবং “নাগরিক সাংবাদিকতা”কে প্রাধান্য দিচ্ছে চ্যানেলটি । পৃথিবীর যে কোন প্রান্তে ঘটে যাওয়া ঘটনা যে কেউই  মোবাইল ফোনে ভিডিও করে বিস্তারিত তথ্য সহ ফেসবুক পেইজে ইনবক্স করার পর সেটি সম্প্রচারিত হচ্ছে চ্যানেলটিতে । চ্যানেলটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও রাকিবুল বাসার বলেন, “আমরা ভিন্নধর্মী কিছু করার প্রত্যয়ে কাজ করছি, আমরা বিশ্বাস করি প্রতিটি নাগরিকই এক একজন সাংবাদিক। সত্যকে তুলে ধরতে হলে শুধুমাত্র গুঁটি কয়েক বেতনভুক্ত সাংবাদিক রেখে চ্যানেল পরিচালনা সম্ভব নয় , তাই আমরা নাগরিক সাংবাদিকতাকে প্রাধান্য দিচ্ছি” ।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc