Monday 26th of October 2020 03:59:56 PM

ডেস্ক নিউজঃ প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আগামী ডিসেম্বর মাসের ২৩ তারিখ নির্ধারণ করেন।
এ সময় তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচনে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে থাকবে সশস্ত্রবাহিনী। সবাইকে আচরণ বিধি ও আইন মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে যাতে সহিংসতা না হয় সেদিকে সব দলকে সচেতন থাকতে হবে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এই নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া যাবে ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত, তা বাছাই হবে ২২ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৯ নভেম্বর। তার ২৪ দিন পর হবে ভোটগ্রহণ।

৩০০টি আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচনে এবার ভোট দেবেন ১০ কোটি ৪১ লাখ ৯০ হাজার ৪৮০ ভোটার।

সিইসি বলেন, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সব রাজনৈতিক দলকে সমান সুযোগ দিতে নির্বাচনের সময় ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ নিশ্চিত করা হবে।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে সিইসি বলেন, নির্বাচনী প্রচারণায় সব প্রার্থী ও রাজনৈতিক দল সমান সুযোগ পাবে। সবার জন্য অভিন্ন আচরণ ও সমান সুযোগ তৈরির জন্য নির্বাচনে ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ নিশ্চিত করা হবে। এসব নিয়ে শিগগরিই পরিপত্র জারি করা হবে।

সিইসি বলেন, ভোটার, রাজনৈতিক নেতা-কর্মী, প্রার্থী, প্রার্থীর সমর্থক এবং এজেন্টরা যেন বিনা কারণে হয়রানির শিকার না হন বা মামলা-মোকদ্দমার মুখে না পড়েন, তার নিশ্চয়তা দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর কঠোর নির্দেশ থাকবে। দলমত নির্বিশেষে সংখ্যালঘু, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, ধর্ম, জাত, বর্ণ ও নারী-পুরুষভেদে সবাই ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে। ভোট শেষে নিজ নিজ বাসস্থানে নিরাপদে অবস্থান করতে পারবেন।

ভাষণে সিইসি সর্বস্তরের জনগণকে নির্বাচনে নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগের আহ্বান জানান। পাশাপাশি প্রতিটি দলকে একে অন্যের প্রতি সহনশীল ও রাজনীতিসুলভ আচরণের অনুরোধ জানান তিনি। সব রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি প্রতিযোগিতাপূর্ণ ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচনের প্রত্যাশা জানিয়ে সিইসি বলেন, এই প্রতিযোগিতা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতা যেন কখনও প্রতিহিংসা বা সহিংসতায় পরিণত না হয়, সে বিষয়ে রাজনৈতিক দলগুলোকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে অনুরোধ জানাই।

ভাষণে সিইসি একাদশ জাতীয় নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের মাঠ পর্যায়ের যাবতীয় প্রস্তুতি তুলে ধরেন। ভাষণে সব নাগরিককে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়ে জনগণের হয়ে সব রাজনৈতিক দলকে নির্বাচনে অংশ নিয়ে দেশের গণতন্ত্রের ধারা এবং উন্নয়নের গতিকে সচল রাখার আহ্বানও জানান তিনি।

সিইসি তার ভাষণে নির্বাচনী আইন ও বিধি সংশোধনের তথ্য তুলে ধরেন, সংসদী এলাকার সীমানা পুনঃনির্ধারণের পর চূড়ান্ত সংসদীয় আসনের তালিকা প্রকাশ করেন। এছাড়া ভোটার ও ভোটকেন্দ্রের চূড়ান্ত তালিকাও তুলে ধরেন তিনি।

সিইসি জানান, নির্বাচন পরিচালনার জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে ৭ লাখ কর্মকর্তা কাজ করবেন। এছাড়া নির্বাচনী এলাকাগুলোতে বিপুলসংখ্যক নির্বাহী ও বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, কোস্টগার্ড, আনসারসহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ছয় লাখ সদস্য নিয়োজিত করা হয়েছে।

ভাদ্র মাসের ফল তাল,বিক্রি হচ্ছে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল  উপজেলা শহরের চৌমুহনায় ৷  জানা গেছে প্রকারভেদে প্রতিটি তাল ১০ থেকে  ৪০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে ৷ছবিগুলো গতকাল দুপুরে শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা থেকে তোলেছেনঃহৃদয় দাশ শুভ

অন্ধকার থেকে আলোকিত এবং দেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট চান  জেলার নেতাকর্মিরা

আলী হোসেন রাজন,মৌলভীবাজারঃ মৌলভীবাজারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম সাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস স্বরনে শোকাবহ আগস্টের প্রথম প্রহরে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করেছে জেলা যুবলীগ। স্থানীয় শহীদ মিনারে জেলা যুবলীগ সভাপতি নাহিদ আহমদের সভাপতিত্বে আগস্টের প্রথম প্রহর রাত বারোটা এক মিনিটে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি নেছার আহমদ। এ সময় জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক সৈয়দ রেজাউর রহমান সুমনসহ বিভিন্ন ইউনিটের নেতা কর্মিরা উপস্থিত ছিলেন।  ১৫ই আগস্টে নিহত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তাঁর পরিবারবর্গের স্বরনে এক মিনিট নিরবতা পালন শেষে শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর খুনীদের বিদেশ থেকে ফেরত এনে রায় কার্যকর করার দাবীও জানান জেলা যুবলীগ সভাপতি নাহিদ আহমদ । মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নেছার আহমদ বলেন আগষ্ট মাস বাঙ্গালী জাতির শোকের মাস। এই শোকের মাসে জেলা আওয়ামীলীগ সারা মাস ব্যাপি শোক সভাসহ  বিভিন্ন অনুষ্টান করে থাকে এবং বঙ্গবন্ধুর আর্থার প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয় ।  জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক  সৈয়দ রেজাউর রহমান সুমন বলেন জননেত্রি শেখ হাসিনার নির্দেশ মত মৌলভীবাজার জেলায় দূরভার গতিতে কাজ চলছে এবং আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে মৌলভীবাজার জেলা যুবলীগ যে ভাবে সংগঠিত সেটা প্রমান হবে আগামী নির্বাচনে।

দেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হলে এবং অন্ধকার থেকে আলোকিত হতে হলে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবার নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে জয়যুক্ত করতে হবে। শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ার শপথ করেন সবাই।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৯মে,ডেস্ক নিউজঃ ফরিদপুর জেলায় টাকার লোভে এক লম্পট কর্তৃক এক বছরের ব্যবধানে মেয়ে ও তার মাকে (শাশুড়ি) বিয়ে করেছে শুধু এখানেই শেষ নয় শাশুড়ি জানায় তিনি চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা ! বৃহস্পতিবার রাতে এলাকার কৌতূহলী নারী-পুরুষ তাদের দেখতে ভিড় জমায় ওই গ্রামে।

ঘটনাটি ঘটেছে সদর উপজেলার মাচ্চর ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামে। এলাকার মানুষ উভয়কে আটক করে স্থানীয় মেম্বারের কাছে বিচারের জন্য দিলে মেম্বার তাদের বিনা বিচারে ছেড়ে দেয় বলে অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, চন্ডিপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন গ্রামের মোহাম্মদ দফাদারের ছেলে রাজমিস্ত্রী নুর ইসলাম (৩০) কাজের সুবাদে একই গ্রামের মালদ্বীপ প্রবাসী জলিল মোল্লার মেয়ে জেনির (১৫) সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলে। এক বছর আগে জেনিকে আদালতের মাধ্যমে (কোর্টম্যারেজ) বিয়ে করে লম্পট মিস্ত্রি। গেল সাড়ে ৩ বছর আগে জলিল মোল্লা মালদ্বীপ যান। প্রবাসী জলিলের স্ত্রীকে পাঠানো টাকার দিকে নজর পড়ে লম্পট নুর ইসলামের। ৪ মাস আগে জেনির মা ঝর্না বেগমকে (২৯)

আদালতে নিয়ে এফিডেফিটের মাধ্যমে বিয়ে করে লম্পট নুর মিস্ত্রি। ঘটনা জানাজানি হলে মা-মেয়ের সঙ্গে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। বিয়ের পর থেকে ঝর্না চন্ডিপুর গ্রামের বাড়িতে থাকতেন এবং জেনি চন্ডিপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন নুর ইসলামের বাড়িতে থাকতেন। বৃহস্পতিবার রাতে নুর ইসলাম তার চন্ডিপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন নিজ বাড়িতে শাশুড়ি ঝর্না বেগমকে নিয়ে এলে এলাকার মানুষ এ বিষয়ে নানা কথাবার্তা শুরু করে।

গ্রামবাসী তাদের আটক করে স্থানীয় ২নং ওয়ার্ড মেম্বার মো. কাউসারের জিম্মায় দেন উপযুক্ত বিচারের জন্য। মোবাইল ফোনে সাংবাদিকরা যোগাযোগ করলে শাশুড়ি ঝর্না বেগম বলেন, “আমার মেয়ে জেনির সঙ্গে এক বছর আগে নুর ইসলামের কোর্ট ম্যারেজ হয়েছে। এরপর চার মাস আগে নুর ইসলাম আদালতে নিয়ে আমাকেও বিয়ে করে। আমার মেয়ের কোনো সন্তানাদি নেই। বর্তমানে আমি (ঝর্না বেগম) চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা।”

এ ব্যাপারে মাচ্চর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড মেম্বার মো. কাউসার বলেন, রোজার প্রথম তারাবির নামাজের কারণে আমি চৌকিদার মক্কাছের জিম্মায় ওদের রেখে আসি। কিন্তু পরে জানতে পারলাম সেখান থেকে ওরা পালিয়েছে।

 

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১০জানুয়ারী,নড়াইল প্রতনিধিঃ   নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার মরিচপাশা গ্রামে ১৫ মাসের শিশু ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত লোকমান সরদারকে (৬০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার মরিচপাশা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে, ভূক্তভোগী শিশুকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তের বিচার দাবি করেছেন এলাকাবাসী। লোহাগড়া উপজেলার মরিচপাশা গ্রামে ১৫ মাসের শিশু ফারিয়াকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে মায়ের কাছ থেকে শিশুকে নিয়ে ধর্ষণ করে রক্তাক্ত করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে ওই গ্রামের সোবহান সরদারের মেয়ে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার মরিচপাশা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভূক্তভোগী শিশুর মা ময়ুরী বেগম জানান, তার শিশুকে কোলে করে বাড়ির পাশে গম ক্ষেতে পানি দিচ্ছিলেন। এ সময় প্রতিবেশি লোকমান সরদার তার সন্তানকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে নিয়ে নেয়। কিছু সময় পরে শিশুটির মা গম ক্ষেত থেকে বাড়ির দিকে আসার পথে মরিচপাশা গ্রামের মসজিদের পাশে অভিযুক্ত লোকমানের কাছে কান্নারত অবস্থায় তার সন্তানকে দেখতে পায়। লোকমানের কাছ থেকে বাড়িতে নেয়ার পরে তার মা দেখেন শিশু সন্তানের রক্তক্ষরণ হচ্ছে। পরে ওইদিন (মঙ্গলবার) বিকেলে শিশুটিকে প্রথমে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

অবস্থার অবনতি হলে তাকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন এলাকাবাসী। সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক রাশেদুজ্জামান রাশেদ বলেন, প্রাথমিক অবস্থায় মনে হচ্ছে শিশুটি যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। পরীক্ষা নিরিক্ষার পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এ ঘটনায় লোকমান সরদারকে আসামি করে লোহাগড়া থানা মামলা দায়ের করা হলে রাতেই তাকে (  লোকমান ) গ্রেফতার করেছে পুলিশ । লোহাগড়া থানার ওসি শফিকুল ইসলাম লোকমানকে গ্রেফতারের বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৭আগস্ট,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  শয্যাশায়ী মায়ের পাশ থেকে নিয়ে যাওয়া শিশুকে বাঘের মুখ থেকে ফিরিয়ে আনলেন এক মা। পরে আহত শিশু ছফিনা খাতুনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।বানিয়াচং উপজেলার বড়সড়ক গ্রামের আজিজুর রহমানের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, শনিবার রাতে আজিজুর রহমানের স্ত্রী লাইলী আক্তার তাঁর ৭ মাসের কন্যা ছফিনা খাতুনকে নিয়ে অন্যান্য দিনের মতো কক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরে কোন এক সময় ছফিনাকে মায়ের পাশ থেকে নিয়ে যায় একটি মেছোবাঘ। কিছুই ঠের পাননি লাইলীসহ তার পরিবারের লোকজন।
পরে বাঘের কামড়ে শিশুর কান্নাকাটি শুরু করলে কান্নার শব্দ শুনে ঘুম থেকে জেগে উঠেন মা লাইলীসহ স্বজনরা। তারা ঘরের বাইরে গিয়ে দেখতে পান তাদের আদরের ছফিনা বাঘের মুখে। বাঘ তাকে মুখে নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। এ সময় পরিবারের লোকজন বাঘটিকে ধাওয়া করে। বাঘ লোকজনের ধাওয়া খেয়ে ছফিনাকে রেখে পালিয়ে যায়।

এদিকে বাঘের নখের আছরে শিশু ছফিনা গুরুতর আহত হয়। পরে আহত অবস্থায় রবিবার সকালে তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৫জুন,ডেস্ক নিউজঃ   আজ বাংলাদেশের আকাশে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। আগামীকাল সোমবার সারা দেশে উদযাপন করা হবে মুসলমানদের অন্যতম জাতীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর।

রোববার সন্ধ্যায়  দেশের জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির উদ্যোগে ইসলামিক ফাউন্ডেশন, বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভা হতে এ ঘোষণা দেয়া হয়। ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান।
ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, বায়তুল মোকাররমে ঈদের দিন সকাল ৭টা থেকে এক ঘণ্টা পর পর মোট পাঁচটি জামাত হবে। তবে, আবহাওয়া খারাপ হলে সকাল ৯টায় বায়তুল মোকাররমের জামাতই ঈদের প্রধান জামাত হবে বলে জানিয়েছেন ধর্মসচিব মোঃ আব্দুল জলিল।
এ ছাড়া বিদেশি রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিকদের ঈদের নামাজের জন্য আলাদা জায়গা সংরক্ষণ করা হবে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে র‌্যাব-পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক নজরদারি বজায় রাখবেন বলে প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম,০৪জুন,সাইফুল ইসলাম রোবায়েতঃ রাসুলে করিম (সল্লাল্লাহুতা’লা ’আলাইহি ওয়া সাল্লাম) ফরমান: হে জনতা, (রমজান) আলীশান মাস। মাসটি বরকতময়ও। এ মাসে হাজার মাসের চেয়েও উত্তম একটি রাত রয়েছে।

এ মাসে আল্লাহ রোজা ফরজ করেছেন এবং রাতগুলোতে জেগে ইবাদত-বন্দেগী করা ঐচ্ছিক করেছেন। এ মাসে কেউ কোনো ভালো কাজ করে (আল্লাহ ও রাসুলের) নৈকট্য পেতে চাইলে, সে যেনো অন্য মাসের একটি ফরজ আদায় করলো এবং কেউ একটি ফরজ আদায় করলে, সে যেনো অন্য মাসের সত্তরটি ফরজ আদায় করলো! এটি সবুরের মাস।

আর সবুরের প্রতিদান হচ্ছে, বেহেশত। এটি দান-খয়রাতের মাস। এটি ঈমানদারদের রিজিক বাড়ার মাস। কেউ এ মাসে কোনো রোজাদারকে ইফতার করালে, তার জন্যে গুণাহ-মাফ, দোযখ থেকে তার গর্দানের সুরক্ষা এবং তার (ঐ রোজাদারের) সমান সওয়াব রয়েছে। আর এতে তার (ঐ রোজাদারের) সওয়াবও কমবে না।

হালাল খাবার ও পানীয় দিয়ে কেউ কোনো রোজাদারকে ইফতার করালে, ফেরেশতারা সারা রমজান মাস ধরে তার জন্যে দোয়া করতে থাকবে এবং কদরের রাতে জিবরাঈলও তার জন্যে দোয়া এবং তার সঙ্গে মুসাফাহা করবে।

ফলে, তার হৃদয় নরম হয়ে যাবে এবং তার চোখের পানিও বেড়ে যাবে। আমরা (সাহাবীগণ) আরয করলাম: ওগো আল্লাহর রাসূল, রোজাদারকে ইফতার করানোর মতো কিছু তো পাচ্ছি না? তিনি ফরমালেন: কেউ কোনো রোজাদারকে একটু মাঠা বা একটি খেজুর কিংবা একটু পানি দিয়ে ইফতার করালেও আল্লাহ তাকে এ সওয়াব দেবেন। আর কেউ কোনো রোজাদারকে তৃপ্তির সঙ্গে ইফতার করালে বা পানি খাওয়ালে, আল্লাহ তাকে আমার হাউয থেকে এমন শরবত খাওয়াবেন যে, বেহেশতে যাওয়ার আগে সে আর তৃষ্ণার্ত হবে না।

এ মাসের প্রথমে রহমত, মাঝে মাগফিরাত ও শেষে দোযখ থেকে মুক্তি (-র ব্যবস্থা) রয়েছে। এ মাসে কেউ তার অধীনদের বোঝা হালকা করলে, আল্লাহ তাকে মাফ করে দেবেন এবং দোযখ থেকে রক্ষা করবেন। তোমরা এ মাসে চারটি নেক-কাজ বেশি বেশি করে করবে।

দু’টি দিয়ে তোমাদের প্রভুকে খুশি করতে পারবে। আর দু’টি ছাড়া তোমাদের উপায় নেই। যে দু’টি দিয়ে তোমাদের প্রভুকে খুশি করতে পারবে – ওগুলো হচ্ছে, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’র সাক্ষ্য দেয়া এবং তাঁর কাছে তোমাদের গুণাহের জন্যে মাফ চাওয়া। আর যে দু’টি ছাড়া তোমাদের উপায় নেই – সেগুলো হলো, আল্লাহর কাছে বেহেশত চাবে এবং দোযখ থেকে পানাহ চাবে। (ইবনে খুঝাইমা, তাবারানী, ইবনে হিব্বান ও বায়হাকী)

আমার সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম,০৮মে,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় আইনশৃংখলা পরিস্থিতি চরম অবনতি ঘটছে। গত ৩ মাসে ৬ টি খুন হয়েছে । এর মধ্যে ৪ জন নারী। পুলিশ বলছে এসব খুনের ঘটনা বিচ্ছিন্নভাবে ঘটেছে। এর সাথে কোন পেশাদার কিলিং গ্রুপ বা জঙ্গী গোস্টির সম্পর্ক নাই।পুলিশের দাবী বেশীর ভাগ খুনই পারিবারিক ঘটনা ও যৌতুক সংক্ষান্ত।
জানা যায়, উপজেলার আফজালপুর গ্রামে শিশু ঝগড়া কেন্দ্র দুটি দলের সংঘর্ষে মৃত সৈয়দ আলীর স্ত্রী হেনা বেগম গুরুত্বর আহত হলে গত ১ মে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এ ঘটনায় তার ছেলে কামাল মিয়া বাদী হয়ে মাধবপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।
২ মে পৌরসভার আলাকপুর গ্রামে এক মেয়েকে উক্ত করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুজন পক্ষের সংঘর্ষে মানজু মিয়া নামে এক ব্যক্তিকে প্রতিপক্ষের লোকজনের হাতে খুন হন। এ ঘটনায় তার স্ত্রী রোকেয়া খাতুন বাদী হয়ে মাধবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।
৬ মে উপজেলা আদাউড় ইউনিয়নের মৌজপুর গ্রামে স্বামীর পালকিয়ার প্রতিবাদ করায় সিমা নামের এক গৃহবধূ নিহত হয় । এ ঘটনায় সীমার মা রবেয়া খাতুন বাদী হয়ে মাধবপুর থানার একটি মামলা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এ ঘটনায় সীমানের শ্বাশুরী কে গ্রেফতার করেছে।
১১ এপ্রিল মাধবপুর থানার পুলিশ থানার ইটাখোললা রেল লাইনের পাশ থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার নোয়াবাদি গ্রামের মাসুদুল ইসলাম নামে এক ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করে । এ ঘটনায় তার স্ত্রী ইয়াছমিন বেগম বাদী হয়ে মাধবপুর থানার একটি মামলা মামলা দায়ের করলে পুলিশ এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে হাবিব নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে।
২ মার্চ উপজেলা বাহরা ইউনিয়নের গাংয়েলে গ্রামে জারিনা খাতুন ঝর্না নামে একটি গৃহবধু কে স্বামী কামাল মিয়া হত্যা করে। এ ঘটনায় জারিনা খাতুন ঝর্নার ভাই হাসান মিয়া বাদী হয়ে মাধবপুর থানার একটি মামলা দায়ের করেন।হত্যার দায় স্বীকার করে কামাল মিয়া আদালতে স্বেচ্ছায় জবানবন্দী দিয়েছেন।
২১ মার্চ উপজেলার আফজালপুর গ্রামের সাফিয়া খাতুন শিল্পী নামে এক গৃহবধূ কে স্বামি, শ্বশুর বাড়ির লোকজন হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা সুন্দর আলী বাদী হয়ে মাধবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের এক কে গ্রেফতার করা হয়েছে।
রবিবার হবিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ সাংবাদিক সম্মেলন জানান, এগুলো সবই বিচ্ছিন্ন ঘটনা মাত্র। তবে যারা জড়িত তাদেরকে গ্রেফতার করতে পুলশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৭মার্চ,রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ  সারী-গোয়াইন সড়কের পুড়াখাই নদীর উপর ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত পুড়াখাই ব্রীজ উদ্বোধনের ১ মাসের মধ্যে ব্রীজের সাইটে (এর্পোচ) ফাটল দেখা দিয়েছে। এনিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে নানা রকম কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে। এক বছর পুর্বে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উদ্যোগে কোটি টাকা মুল্যে পুড়াখাই ব্রীজটি  টেন্ডার দেওয়া হয়। সরকারী নিয়ম অনুযায়ী ঠিকাধারী প্রতিষ্টান কাজটি সম্পন্ন করে। কাজ শেষে চলতি বৎসরের  ৯ ফেব্রুয়ারী বিকেলে ডাক, টেলি যোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ২৩২-সিলেট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ ব্রীজটির শুভ উদ্বোধন করেন।
এদিকে গত ২১ ফেব্রুয়ারী সিলেটের উত্তরপূর্ব অঞ্চল জৈন্তা গোয়াইনঘাট কানাইঘাট অঞ্চলে হালকা বৃষ্টি হয়৷ এই হালকা বৃষ্টির প্রভাবে ব্রীজটি দক্ষিণ পাশের (এর্পোচ) বড় ধরনের ফাটল দেখা দেয় ফলে ঝুকি নিয়ে এই ব্রিজ দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। অপরদিকে এলকাবাসীর মাঝে কাজের মান নিয়ে ক্ষোভের সঞ্চার দেখা দিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল মালিক, বিলাল উদ্দিন, আব্দুর রশিদ স্থানীয় সাংবাদিক সহ একাধিক এলাকাবাসী জানান ব্রিজটিতে নিম্ন মানের পাথর, মাটি মিশ্রিত বালু দিয়ে ব্রীজের কাজ করার ফলে হালকা বৃষ্টির কারনে এর্পোচ ফাটল দেখা দিয়েছে। বড় ধরনের বৃষ্টিপাত হলে ব্রীজ ভেঙ্গে যেতে পারে। তারা অারও জানান সরেজমিন তদন্ত পূর্বক ঠিকাদার প্রতিষ্টানের বিরোদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।
ঠিকাধারী প্রতিষ্টান এসই-টিইএল(জেবি) এর প্রোপাইটার তোফায়েল’র সাথে মোবাইল (০১৭১১৩৩১৪৮২) ফোনে আলাপ কালে তিনি ফাটলের বিষয় স্বীকার করে প্রতিবেদককে জানান আমি ফাটলের খবর পেয়েছি। দু’এক দিনের মধ্যে সৃষ্ট ফাটল পুনরায় মেরামতের ব্যবস্থা করব। তবে নিম্ন মানের বালু পাথর ব্যবহারের বিষয় জানতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যান৷

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc