Sunday 29th of November 2020 07:59:22 PM

নড়াইল প্রতিনিধিঃ  মাত্র কয়েকদিন আগে করোনাযুদ্ধে জয়ী হয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা ও তার স্ত্রী সুমনা হক সুমি সহ ছোট ভাই মোরসালিন বিন মোর্ত্তজা।
কিন্তু করোনা যেন পরিবারটির পিছু ছাড়ছে না। এবার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার পিতা গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন, মা হামিদা বেগম বলাকা, ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ও তাঁর মামী। শুক্রবার বিকেলে করোনা পজিটিভ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন।
পরিবারের সদস্যরা জানান, বর্তমানে আক্রান্ত সকলেই বাড়িতে অবস্থান করে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। তবে সবাই ভাল আছে। তেমন কোন উপসর্গ নেই।
এদিকে সতকর্ততার জন্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার নড়াইল শহরের বাড়িটি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সতর্কতার জন্য বাড়ির গেটে লাল পতাকা টানিয়ে দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য যে, দীর্ঘ ২১দিন করোনার সাথে যুদ্ধ করে করোনা জয়ী মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা ঈদুল আযহার আগে সুস্থ হয়ে নড়াইলে আসেন। জেলায় বেশ কিছু কার্যক্রমেও অংশ নেন তিনি। মেয়ে হুমায়রা শারীরিকভাবে একটু অসুস্থ হওয়ায় গত ৩ আগস্ট স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে রাজধানী ঢাকায় ফিরে যান।
এর আগে মাশরাফীর শাশুড়ী হোসনে আরা সিরাজ, স্ত্রীর বড় বোন সঞ্চিতা হক রিক্তাসহ শ^শুর বাড়ির ৩/৪ জন করোনায় আক্রান্ত হন।
এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় নড়াইলে নতুন করে ২৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮৯৮ জন। এর মধ্যে ১২ জন মারা গেছেন।সুস্থ হয়েছেন ৫৬৪ জন।

নড়াইল প্রতিনিধি: কৃষকদের ধানের ন্যায্য মূল্য দিতে সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা নড়াইলে চালু করেছিলেন কৃষক অ্যাপের লটারির মাধ্যমে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয় কর্মসূচি।
তারই ধারাবহিকতায় এবছর করোনা ভাইরাস সংক্রামনের কারণে কৃষককে যাতে ধান দিতে বাড়ী থেকে আসতে না হয় এবং কৃষকের পরিবহন ব্যয় যাতে না হয় সে জন্য কৃষকের বাড়িতে জেলা খাদ্য বিভাগ পরিবহন নিয়ে গিয়ে ধান ক্রয়ের এক অভিনব উদ্যোগ গ্রহন করলেন সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।
করোনা সংক্রামনের ভয়ে ও পরিবহন ব্যয়ের কথা চিন্তা করে ধান বিক্রয় করতে যখন কিছুটা ভয়ে আছেন কৃষকরা, ঠিক সেই মুহূর্তে এমন কার্যক্রম কৃষকদের কাছে অত্যন্ত সময়োপযোগী ও কার্যকর পদ্ধতি বলে প্রশংসিত হয়েছে। কৃষকের ধান বিক্রি সহজিকরণে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, স্থানীয় রাজনৈতিক ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ ও কৃষকের সঙ্গে আলোচনা করে জেলা প্রশাসন ও খাদ্য বিভাগকে অনুরোধ করেছেন কৃষকের বাড়িতে বাড়িতে যেয়ে ধান ক্রয় কার্যক্রম চালু করতে।
এক্ষেত্রে যাবতীয পরিবহন খরচ সাংসদ মাশরাফী নিজেই বহন করার শ্রতিশ্রতি দিয়েছেন, ফলে জেলার খাদ্য বিভাগ নির্বিঘেœ কৃষকদের বাড়িতে গিয়ে ধান ক্রয় করছে। আর বাজারের দামের সাথে সরকারি দামের তারতম্য না থাকায লটারিতে বিজয়ী কৃষকরা উৎসাহ নিয়ে আনন্দের সাথে তাদেও ধান বিক্রি করছে।
চলমান করোনা মহামারিতে বাড়িতে বাড়িতে গাড়ি পাঠিয়ে ধান কেনার পদ্ধতি চালু করায পৌরসভার ৬ নং ওর্য়াডের কৃষক আরতি দাস এমপি মাশরাফীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আমাদের এ কষ্টের উৎপাদিত ফসল,সরকার ন্যয্য মূল্য দিয়ে বাড়ী থেকে নিয়ে যাচ্ছে,এতে আমাদেও কোন হয়রানি হচ্ছে না, পরিবহন খরচও হচ্ছে না , আমাদের কষ্ট আজ শেখ হাসিার সরকার ও আমাদের ঘরের ছেলে এমপি সাহেবের জন্য সার্থক হয়েছে।
এবিষয়ে জেলা খাদ্য নিযন্ত্রক শেখ মনিরুল ইসলাম জানান, মাননীয সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা জেলা খাদ্য বিভাগকে ২টি ট্রাক দিয়েছেন এবং সদর উপজেলা চেয়ারম্যানও ১টি ট্রাক দিবেন বলে জানিয়েছেন। ১টি ট্রাক নিয়ে আমরা গত বুধবার নডাইল পৌরসভার ৬ নম্বর ওর্য়াডের ভাদুলীডাঙ্গা গ্রামে যাই। সেখানে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা। সেখান থেকে ঐ এলাকার কৃষক বিন্দু ঘোষ ,কোহিনুর রহমান ও আরতি দাসের নিকট থেকে ১ টন কওে ৩ টন ধান ক্রয় করা হয়েছে এবং ঐ সময়ে তাদের হাতে ধানের দাম বাবদ ২৬ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়েছে। কোন কৃষকের যদি সমস্য হয় তাহলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে এই নম্বরে ০১৯১২৬৯৬৯৩১ বা সরাসরি খাদ্য অফিসে যোগাযোগের অনুরোধ করছি। তাহলে আমরা তার বাড়িতে গিয়ে ধান নিয়ে আসবো।
জেলা আওযামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদ চেযারম্যান মোঃ নিজামউদ্দিন খান নিলু জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার কৃষক বান্ধব সরকার, সারাদেশে কৃষকদের পাশে সরকার সব সময় আছে ও থাকবে। আর করোনার মধ্যেও নডাইলে ধান কেনার এমন অভিনব কার্যক্রম চালু করায মাশরাফীকে ধন্যবাদ জানান তিনি। করোনা পরিস্থিতিতে কৃষকের বাড়িতে গিয়ে ধান কেনার এই পদ্ধতি অনুসরণে দেশের সংশিষ্ট সকলকে আহবান জানান জেলা আওযামী লীগের এই শীর্ষ নেতা।
এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা জানান, ধানের বর্তমান বাজার মূল্য ৯শত টাকা থেকে ১হাজার ৫০ টাকা আর সরকার নির্ধারিত মূল্য ১ হাজার ৪০ টাকা। ফলে বাড়িতে গিয়ে এই দামে ধান কেনায় কৃষকরা যেমন লাভবান হচ্ছে তেমনি তাদের পরিবহন ব্যয় বেচে যাচ্ছে এবং ধানের দামের চেকও সঙ্গে সঙ্গে পেয়ে যাচ্ছে । এ জন্য তিনি কৃষকদের পাশে থেকে ধান বিক্রি সহজিকরণ ও সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য সংসদ সদস্য জনাব মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাকে ধন্যবাদ জানান।

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলে টিসিবির তত্ত্বাবধানে খোলাবাজারে পিয়াজ বিক্রয়ের উদ্বোধন করলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সফল ওয়ানডে অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফী  বিন মর্ত্তুজা।

সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের চত্বরে জেলা প্রশাসনের আয়োজন এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম(বার) .জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডঃ সুবাস চন্দ্র বোস,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক( সার্বিক) মোঃ ইয়ারুল ইসলামসহ অনেক উপস্থিত ছিলেন। টিসিবির ১জন ডিলারের মাধ্যমে মোট ৩ টন পিয়াজ বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। ডিলারের মাধ্যমে ট্রাকে করে মাত্র ৪৫ টাকায় এ পেয়াজ বিক্রি করা হবে।

এ বিক্রয়ে যেন কোন অনিয়ম না সেদিকে জেলা প্রশাসনের সব সময় দৃষ্টি রাখার অনুরোধ জানান।

নড়াইল প্রতিনিধি: সড়কে নিরাপদে যাতায়াতের জন্য ও সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সচেতনাতা বাড়াতে মোটর সাইকেল চালকদের মাঝে বিনামূল্যে হেলমেট বিতরণ করেছেন নড়াইল-২ আসনের জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

রবিবার (২৭অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নড়াইল সদর থানার সামনের সড়কে চলাচলকারীদের মাঝে পাঁচ শত হেলমেট বিতরন করা হয়।

এসময় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইলিয়াস হোসেন, পাঠাও এর কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন। জানাগেছে, অ্যাপস ভিত্তিক বাইক রাইড শেয়ারিং পাঠাও এর পক্ষ থেকে ব্রান্ড এম্বাসেডার মাশরাফি বিন মর্তুজার অনুরোধে পাঁচশত হেলমেট বিতরন করা হয়।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc