Saturday 5th of December 2020 03:15:37 PM

“প্রাতিষ্ঠানিক ত্রুটিজনিত কারণে কাউকে বঞ্চিত না করে সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের দ্রুত আত্তীকরণ করতে হবে”

প্রাতিষ্ঠানিক ত্রুটিজনিত কারণে কাউকে বঞ্চিত না করে প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণের তারিখে কর্মরত সকল শিক্ষক-কর্মচারীকে অন্তর্ভূক্ত করে দ্রুত এডহক নিয়োগের দাবীতে সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতি (সকশিস)-এর সিলেট আঞ্চলিক ইউনিটের ভার্চ্যুয়াল সভা গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতি (সকশিস)-এর সিলেট আঞ্চলিক ইউনিটের সভাপতি, ইমরান আহমেদ মহিলা কলেজের সহাকারি অধ্যাপক শাহেদ আহমেদ-এর সভাপতিত্বে এবং কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক, ফেঞ্চুগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক অসীম কুমার তালুকদার-এর সঞ্চালনায় সরকারি কলেজ বিহীন উপজেলাসমূহে ১টি করে কলেজ সরকারিকরণের জন্য স্বাধীনতার মহান স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা, বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থার অগ্রপথিক,ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার, মানবতার মহাননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা-কে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞা জ্ঞাপন করে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সকশিস সিলেট আঞ্চলিক ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক, মদন মোহন কলেজের প্রভাষক আবুল কাশেম।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সকশিসের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জনাব জহুরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জনাব জাকারিয়া মাহমুদ, সহ-সভাপতি জনাব কামরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জনাব মো. আবু সাইদ আতিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক জনাব দীপু কুমার গোপ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব মো. ইসহাক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব আ.ন.ম. রিয়াজ উদ্দিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব মো. আব্দুস সবুর সরকার ও সাংগঠনিক সম্পাদক (সার্বিক) জনাব মো. কামরুল হাসান পাঠান।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সকশিস সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ ও সাধারণ সম্পাদক জুলহাস আহমেদ, সকশিস হবিগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি অনুপ রায় ও সাধারণ সম্পাদক তাপস রায়, সকশিস মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সভাপতি রজত কান্তি গোস্বামী ও সাধারণ সম্পাদক মো. জসিম উদ্দীন এবং সকশিস সুনামগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি মো. মশিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক লিটন চন্দ্র সরকার। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগের সদ্য সরকারিকৃত কলেজসমূহের শিক্ষকবৃন্দ।

বক্তারা সকশিস কেন্দ্রীয় কমিটির ১৪ দাবীর প্রতি একাত্ততা জানিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর দাবী পূরণের আবেদনপত্র জমা দান, স্থানীয় সংসদ সদস্য বরাবরে আবেদন পত্র জমা দান ও মত বিনিময়, দেশব্যাপী গণসংযোগ, ৬৪ টি জেলা সদরে/ ডিসি অফিসের সামনে মানব বন্ধন ও ঢাকায় মানব বন্ধন কর্মসূচী বাস্তবায়নের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন। প্রেস রিলিজ

নূরুজ্জামান ফারুকী, নবীগঞ্জঃ দেশে বর্তমান করোনা পরিস্থিতে ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতে আদালত পরিচালনায় সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে নবীগঞ্জ থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে এই প্রথম এসআই মোঃ রতন মিয়া ভার্চ্যুয়াল জামিন শুনানিতে অংশ গ্রহণ করেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) নিয়মিত মামলায় হবিগঞ্জ কোর্টে ভার্চ্যুয়াল জামিন শুনানিতে অংশ নেন তিনি। ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতির ধারা থেকে নতুন এক মাত্রা যুগ হল প্রশাসনিক কর্মস্থলে। ভার্চ্যুয়াল কোর্টের অভিজ্ঞতার কথা জানালেন নবীগঞ্জ থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ রতন মিয়া। তিনি বলেন, দেশের বর্তমান করোনা প্রেক্ষাপটে অফিস আদালত সীমিত আকারে পরিচালনা করা হচ্ছে।

আগে তদন্তকারী কর্মকর্তাকে আদালতে গিয়ে মামলার সাক্ষী/ শুনানিতে অংশ গ্রহণ করতে হত। করোনা সতর্কতায় শুরুতে লকডাউন থাকার কারনে ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতির মাধ্যমে আদালতের আসামীর জামিন শুনানিসহ অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় হবিগঞ্জ কোর্টে নিয়মিত মামলায় জামিন শুনানিতে অংশ গ্রহণ করি। পরিস্থিতির উপর বিবেচনা করে সরকারের এমন সিদ্ধান্ত আমাদের কাজে অগ্রগতি বাড়াচ্ছে বলে আমি মনে করি।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc