Sunday 1st of November 2020 12:44:39 AM

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০এপ্রিল,রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ   সিলেটের জৈন্তাপুর ইপজেলার মিনাটিলা সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধ ভাবে বাংলাদেশ অনুপবেশ করে সিলেটে যাওয়া প্রক্কালে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে ২৮এপ্রিল শনিবার রাত ৮টায় থানার সম্মুখে অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) জাহিদ আনোয়ার এর নেতৃত্বে চেক পোষ্ট বসিয়ে জৈন্তাপুর উপজেলার আসামপাড়া হতে ছেড়ে আসা প্রইভেট মাইক্রে সিলেট-গ-১১-০৫১২ তল্লাসী চালিয়ে ৪জন নাইজেরিয়ান নাগরিক আটক করে মডেল থানা পুলিশ।

আটককৃতরা হল নাইজেরিয়ার নাগরিক অভি চিসম এনেস্ট (৩৫), আশাচি লিনাস এনমনি (৩৭), ওকাফার ওয়েসি ডেকর (৩২) এবং জেম্স ওকে সিহা (৩০)।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়- আটকৃতদের নিকট বাংলাদেশে প্রবেশে বৈধ কোন পাসপোর্ট ভিসা নেই। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের নিকট ফুটবল খোলোয়াড় হিসাবে পরিচয় তুলে ধরে। ব্যাপক জিজ্ঞাসা বাদে তারা স্বীকার করে অবৈধ ভাবে দালালদের মাধ্যমে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের আমকী এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের মিনাটিলা সীমান্ত দিয়ে চোরাই পথে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আশাচি লিনাস এনমনি তার একটি পাসপোর্ট পুলিশের নিকট উপস্থাপন করে। তাতে বাংলাদেশে প্রবেশের জন্য ভিসা এবং বৈধ সীল মোহার না থাকায় এবং অন্যান্যদের পাসপোর্ট দেখাতে না পারায় অবৈধ অনুপ্রবেশকারী হিসাবে তাদেরকে পুািলশ হেফাজতে নেওয়া হয়।
অন্য একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানায় ২৮এপ্রিল বিকাল ৩টায় বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ কালে মিনাটিলা বিজিবির টহল দলের সদস্যরা তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা তাদের পাসপোর্ট রয়েছে জানায়। এসময় টহলরত বিজিরি সদস্যরা তাদেরকে ইমিগ্রেশন দিয়ে প্রবেশের জন্য পুনরায় ভারতে ফেরত পাঠায়। কিন্তু তারা দালাল তাদেরকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় কৌশলে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশে প্রবেশ করে আসামপাড়া গুচ্ছগ্রাম নামক স্থানে নিয়ে আসে এবং একটি প্রাইভেটে তুলে দিয়ে দালালরা সটকে পড়ে।
এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ মাঈনুল জাকির বলেন- গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে জৈন্তাপুর থানার সম্মুখে চেক পোষ্ট বসিলে গাড়ী তল্লাসী ৪জন নাইজেরিয়ান নাগরিককে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে বৈধ কোন কাগজপত্র না দেখাতে পারায় পুলিশ বাদী হয়ে বাংলাদেশে অবৈধ অনুপ্রবেশ আইনে মামলা দায়ের করে যাহার নং-১৬, তারিখ-২৮-০৪-২০১৮। গতকাল ২৯এপ্রিল আটককৃত ৪জন নাইজেরিয়ান নাগরিককে আদলতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৬মার্চ,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের সিন্দুর খান এলাকার হাজী আব্দুল গফুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রি ছদ্মনাম এম আক্তার (১৪),গ্রাম-কুঞ্জবন কে ধর্ষন করার অভিযোগে জহির মিয়া (২৫) পিতা আব্দুল মতলিব,গ্রাম কুঞ্জবন,শহিদ মিয়া (১৮) পিতা শাজাহান মিয়া,গ্রাম পুরান গাও,তুহিন (১৮),পিতা মেরাজ মিয়া,গ্রাম কুঞ্জবন,তোফায়েল মিয়া (২০) পিতা সিরাজুল ইসলাম,গ্রাম পুরান গাও,সর্বথানা শ্রীমঙ্গলকে গ্রেফতার করেছে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।

শ্রীমঙ্গল থানা সুত্রে জানা গেছে ধর্ষিত ছাত্রীর পিতা বাদি হয়ে লিখিত ভাবে অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের ফলে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের ইনচার্জ কে এম নজরুলের নেতৃত্বে এস আই, সৈয়দ মাহবুব ও এস আই কামালের অভিযানে  কুঞ্জবন গ্রাম থেকে ভোর রাতে অভিযুক্ত জাহির মিয়া , তুহিন  ও শহিদ মিয়া নামের  তিন যুবককে আটক করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে আটককৃতদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করে।মামলা নং ১৬(১৬-৩-১৭) এর অনুকূলে মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করেছেন বলে পুলিশ সুত্রে জানা যায়।

উল্লেখ্য,নাম প্রকাশ না করার শর্তে হাজী আব্দুল গফুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির এক নেতা আমার সিলেট প্রতিনিধিকে বলেন-“ঘটনা সত্য তাদের বিচার হওয়া উচিত,কারন মেয়েটির বাবা খুব গরীব”।আপডেট

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc