Tuesday 27th of October 2020 03:08:10 AM

মামুন আহমেদ: দেশব্যাপী করোনা মৌসুমে যেখানে মানুষ মানুষ থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখে এরকম সময়ে ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও ভারসাম্যহীন নিখোঁজ ছেলেকে সামাজিক মর্যাদা দিয়ে সেবা-শুশ্রূষার মাধ্যমে তুলে দিলেন বাবার হাতে,এ ছিল এক পরম পাওয়া একজন পিতার জন্য একটি পরিবারের জন্য।পিতা পুত্রের মিলনের মাধ্যমে শেষ হলো একটি মানবিক গল্পের যার সৃষ্টি করেছিল একদল যুবক। জয় হলো মানবতার, ফেইসবুকের,জয় হলো সমাজসেবক প্রার্থ’দার,,জয় হলো আজিজুর রহমান নাঈম,শেখ সরোয়ার জাহান জুয়েল,মাহাদি হাসান,জুবেল আহমদ,তামজিদ পারভেজ,নাজমুল ইসলাম,সাদিক আহমদ রিফাত নাইমদের।
চার,পাঁচদিন হলো ফেইসবুকের ছড়িয়ে পড়া মানবিক কাজের সহযোগিতায় ছিলেন ডাক্তার,সমাজকর্মী,রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ।
শ্রীমঙ্গল লাউয়াছড়ার সেই মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক এর পরিচয় পাওয়া গেলো নাম শরীফ কে চিকিৎসা করিয়ে ফেইসবুকের মাধ্যমে নাম পরিচয়হীন এই ছেলেটার বাবা মায়ের সন্ধানে নামে শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রলীগের কিছু কর্মী এবং তাহাদের বন্ধু কিছু সমাজের কর্মী,উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে স্টেশনে রাত জেগে পাহারা দেয় ছাত্রলীগের কর্মীরা,আজ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মীরাসহ সাথে ছিল তাদের বন্ধু সমাজকর্মীরা।শরিফ কে তার বাবা ও দুলাভাই’য়ের নিকট হস্তান্তরের সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব নজরুল ইসলাম।

এভাবেই যত্রতত্র শুয়ে থাকতেন মানসিক বিকারগ্রস্ত শরীফ।

বাবার নিকট থেকে জানা যায় সে ২ বছর যাবত নিখোঁজ ছিলো। ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলার কামারগাঁও ইউনিয়নে তার বাড়ি, বাবার নাম খুরশেদ আলী।
শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত যারা সহযোগিতা করেছেন সকলের প্রতি রইলও আন্তরিক ধন্যবাদ ও শুভ কামনা।
মানবিক কাজে এগিয়ে এসে তাত্ক্ষণিক কিছু হৃদয়বান লোক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে নগদ টাকা দিয়ে সহযোগিতা করেছেন। সাথে কিছু কাপড়,খাবার,দিয়ে তাহাদের বিদায় জানানো হয়।ছাত্রলীগ ভালো কাজও করে এটা প্রমাণিত।
প্রমাণ হলো-মানুষ মানুষের জন্য,জীবন জীবনের জন্য,জয় হউক মানবতার।জয় বাংলা।

নিশাত আনজুমান, আক্কেলপুর (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:  বৈশ্বিক মহামারী নভেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দীর্ঘ প্রায় ছয় মাস বন্ধ থাকার পর গত কয়েক দিন থেকে প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার জাদুঘর খুলে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। দীর্ঘদিন পর পাহাড়পুর জাদুঘর খুলে দেওয়ায় দর্শনার্থী, ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা খুশি হয়েছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারের টিকিট কাউন্টার খোলার পর কর্মকর্তা, কর্মচারী, নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ-আনসার ব্যাটালিয়ন সদস্য, ব্যবসায়ী ও স্থানীয়দের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। প্রথম ভাগে অল্প সংখ্যক দর্শনার্থী এসেছেন। তারা কাউন্টারে গিয়ে টিকিট সংগ্রহ করে বৌদ্ধবিহারের ভেতরে ঢুকেছেন। দোকান পাটগুলোতে বেড়েছে কেনাবেচা।

আজ মঙ্গলবার সকালে বৌদ্ধবিহারের ভেতরে ঢুকে দেখা যায়, শ্রমিকেরা বাগানের পরিচর্যা ও রাস্তাঘাট পরিচ্ছন্নতার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। কয়েকজন দর্শনার্থী ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

সাপাহার উপজেলা সদর থেকে আসা কাওছার আহম্মেদ বলেন, করোনায় পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার বন্ধ রয়েছে ভেবেই তিনি পরিবার নিয়ে এসেছেন। কিন্তু এখানে এসে জানলেন, বৌদ্ধবিহার খুলেছে। এখন নিজেদের সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে।

পোরশা উপজেলা সদর থেকে আসা দর্শনার্থী জুঁই বলেন, পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার খুলে দেওয়া হবে, আমরা তা আগে জানতাম না। এখানে আসার পর জানলাম। তবে বৌদ্ধবিহারের মূল মন্দিরের সিঁড়ি ভাঙা থাকায় সেখানে যেতে পারিনি।

পাহাড়পুর বাজারের দোকানি জুয়েল হোসেন বলেন, করোনায় দীর্ঘদিন পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার বন্ধ ছিল। এ কারণে কেনাবেচাও কমে গিয়েছিল। বৌদ্ধবিহার খোলার পর দোকানে বেচাকেনা আগের চেয়ে একটু বেড়েছে।

মূল গেটের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা রাহেলা বেগম বলেন, দর্শনার্থীদের মাক্স পরা বাধ্যতামূলক। তারা মাক্স ছাড়া কোনো দর্শনার্থীকে ভেতর যেতে দিচ্ছেন না। তা ছাড়া সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দর্শনার্থীদের ভেতরে ঘোরাঘুরি করতে বলা হচ্ছে। পাহাড়পুর ইউপির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার দর্শনার্থীদের খুলে দেওয়ায় আমরা সবাই খুশি।

পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারের টিকিট কাউন্টারের বুকিং সহকারী সরজিত পাল জানান, এখন থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত টিকিট কাউন্টার খোলা থাকবে। জনপ্রতি টিকিট ২০ টাকা। বুধবার ৪ হাজার টাকার বেশি টিকিট বিক্রি হয়েছে।

মঙ্গলবার আবহাওয়া খারাপ থাকার কারণে দর্শনার্থী একবারেই কম। এ দিন দুই হাজার ৪০০ টাকার টিকিট বিক্রি হয়েছে। পাহাড়পুর জাদুঘরের অফিস সহকারী বরুণ কান্তি বলেন, গত ১৯ মার্চ থেকে পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার বন্ধ ছিল। স্বাস্থ্যবিধি মেনে দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে।

এম ওসমান, বেনাপোল প্রতিনিধি:  যশোরের শার্শায় বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষাপেল স্কুল ছাত্রী ঐশী আক্তার (১৪)। বৃহষ্পতিবার বিকালে শার্শা উপজেলার সদর ইউনিয়নের গাতীপাড়া গ্রামে বিবাহ বাড়ীতে হঠাৎ নির্বাহী ম্য্যাজিস্ট্রেট খোরশেদ আলম চৌধুরী উপস্থিত হয়ে এই বাল্য বিবাহ বন্ধ করেন।
জানা যায়, শার্শার সদর ইউনিয়নের গাতীপাড়া গ্রামের মোঃ শাহিন মোড়ল’র স্কুল পড়–য়া মেয়ে (কনে) মোছাঃ ঐশি আক্তার (১৪) সাথে পাশের বাড়ির মোঃ নুর ইসলাম’র ছেলে (বর) মোঃ সুজন হোসেন (২৫), এর বিবাহ সম্পাদনের উদ্দেশ্য খাওয়া-দাওয়া ও বিবাহ সংক্রান্ত আয়োজন চলছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিবাহ বাড়ীতে হঠাৎ নির্বাহী ম্য্যাজিস্ট্রেট খোরশেদ আলম চৌধুরী উপস্থিত হয়ে এই বাল্য বিবাহ বন্ধ করেন। এসময় ২০১৭ অনুযায়ী কন্যার বয়স ১৮ বছরের কম হওয়ায় সে একজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক। উপর্যুক্ত অপরাধের কারণে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ অনুযায়ী বাল্যবিবাহকারী বর সুজন হোসেনকে ১১হাজার এবং পিতা কনের পিতা শাহিন মোড়লকে ১০হাজার টাকা অর্থদ প্রদান করা হয়।
সহকারী সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্য্যাজিস্ট্রেট খোরশেদ আলম চৌধুরী জানান, ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে আমি কন্যা ও বরের বাবাকে বাল্যবিবাহ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তারা বলেন কোর্ট থেকে এভিডেভিডের মাধ্যমে ছেলে-মেয়ের বিবাহ সম্পন্ন করেছেন কিন্তু তারা জানেননা যে, এভিডেভিড কোন বিয়ে নয়, শুধু হলফনা এবং কেউ যদি এভিডেভিডকে বিয়ে মনে করে এক সঙ্গে বসবাস করে তা হবে ব্যভিচার। আমি মেয়ের জন্ম সনদ এবং স্কুল সার্টিফিকেট যাচাই করে দেখতে পাই যে কনে মোছাঃ ঐশি আক্তার ১৪ বছর। যে কারণে বর ও কনের বাবাকে অর্থদন্ড করা হয়েছে। এবং কনের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার আগে বিয়ে দিতে কনের বাবাকে নিষেধ করা হয় এবং সবাই একমত পোষণ করেন। তিনি আরো বলেন, বাল্যবিবাহ নিরোধ বিষয়ে উপজেলা প্রশাসন সবসময় জিরো টলারেন্স।

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে সামাজিক সংগঠন “আস্থা” এসোসিয়েশন এর উদ্যোগে এতিম কন্যা শিশুদের ঈদের নতুন পোষাক উপহার তুলে দেয় এসোসিয়েশনের সভাপতি নাঈম হোসেন ও সাধারন সম্পাদক আরিফুল ইসলামসহ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ। ঈদ উপলক্ষে নতুন পোষাক হাতে পেয়ে এসব শিশুদের চোখে দেখা দেয় আনন্দাশ্রু ।
রবিবার সকালে উপজেলার বান্দাইখাড়া মধ্যপাড়া হযরত আয়েশা (রাঃ) মহিলা নুরানী হাফেজিয়া মাদ্ররাসা ও লিল্লাহ বোডিং এর ১৪জন এতিম কন্যা শিশুর মাঝে নতুন পোষাক দেওয়া হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মোঃ ফিরোজ হোসেন, মাসুদ রানা, সোহেল রানা, কামরুল, মাসুম প্রমুখ।

মাদ্রাসার সুপার ফিরোজ হোসেন বলেন আস্থার মত অন্যরাও যদি এগিয়ে আসেন এই এতিম শিশুদের সহায়তা করেন, আর একটু ভাল থাকতে পারে, হতে পারত অধিকতর সুখি।

আস্থা এসোসিয়েশন এর সভাপতি নাঈম হোসেন বলেন, গরিব অসহায় ও এতিম শিশুদের হাতে একটি নতুন পোষাক তুলে দেওয়ার আনন্দটাই অন্য রকম। আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস এতিম শিশুদের মাঝে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেওয়ার চেষ্টা করেছি মাত্র। আগামীতে “আস্থা” এসোসিয়েশন এতিম ও পথ শিশুদের নিয়ে ব্যাপক পরিসরে কাজ করবে এমন প্রত্যাশা তাঁর।

নিউজ ডেস্কঃ প্রথম অধ্যায়ের আক্রমণেই পেনাল্টির দেখা মিলে গেল।তপু বর্মনের লক্ষ্যভেদে উচ্ছ্বাসে নেচে উঠল দর্শকরা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে মাহবুবুর রহমান সুফিলের দুর্দান্ত গোলে আবারও গ্যালারিতে আনন্দে ভাসল হাজারো সমর্থক। ভুটানের বিপক্ষে মধুর প্রতিশোধ নিয়ে বাংলাদেশ পেল সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে শুভসূচনা।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার ‘এ’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলে জিতে বাংলাদেশ। এই জয়ে ২০১৬ সালের অক্টোবরে সর্বশেষ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে ওঠার প্লে-অফে ভুটানের কাছে ৩-১ গোলে হারের প্রতিশোধও নিল দল।

সাফে ভুটানের ওপর আধিপত্যও ধরে রাখল বাংলাদেশ। এ নিয়ে ছয়বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে বাংলাদেশের জয় ৫টি, অন্যটি ড্র। সাফ সুজুকি কাপে ভুটানকে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচে লাল সবুজের জার্সিধারীরা জিতেছে ২-০ গোলে। এই জয়ে একটা প্রতিশোধও নেওয়া হলো বাংলাদেশের। ২০১৬ সালের অক্টোবরে এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে ওঠার প্লে-অফে ভুটানের মাঠে যে ৩-১ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ।

সাফে অবশ্য ভুটানের বিপক্ষে বাংলাদেশ কখনো হারেনি। এই নিয়ে দুই দলের ছয়বারের দেখায় বাংলাদেশ জিতল পাঁচবারই। অন্য ম্যাচটি হয়েছে ড্র।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় শুরু ম্যাচের প্রথম মিনিটেই কর্নার পায় বাংলাদেশ। কর্নার কিক নেওয়ার সময় ডি বক্সের মধ্যে সাদউদ্দিনকে ফাউল করেন ভুটানের থেরিং ধিরাজ। তাতে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। তৃতীয় মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে বাংলাদেশকে এগিয়ে দেন তপু বর্মন (১-০)।

প্রথমার্ধে আর কোনো গোল হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে (৪৭ মিনিট) ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফরোয়ার্ড মাহবুবুর রহমান সুফিল। শেষ পর্যন্ত এই ব্যবধান ধরে রেখেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

২০০৩ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। এরপর কেটে গেছে প্রায় দেড় দশক, কখনো আর ট্রফি ছুঁয়ে দেখা হয়নি লাল-সবুজের জার্সিধারীদের।

শুধু দেড় দশকের ট্রফিশূন্যতাই নয়, সাফে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অবস্থা আরো করুণ। সর্বশেষ তিন আসরের কোনোবারই গ্রুপপর্ব পার হতে পারেনি বাংলাদেশ। তিন আসরে মোট ৯ ম্যাচ খেলে জয় মাত্র একটিতে, ড্র দুটি, বাকি ছয়টিই হার।

এবার ঘরের মাঠে টুর্নামেন্টে শুরুটা দুর্দান্তই হলো বাংলাদেশের। জিতল প্রথম ম্যাচেই। গতকাল বৃহস্পতিবার ‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ পাকিস্তানের বিপক্ষে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১০জুন,কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃকমলগঞ্জ উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের প্রায় ৮হাজার হতদরিদ্র লোকের মধ্য ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার দিন ব্যাপী উপজেলার রহিমপুর, মুন্সিবাজার, শমসেরনগর,পতনউষার, আলীনগর, ইসলামপুর ও আদমপুর ইউনিয়ন অফিসে আনুষ্টানিক ভাবে চাল তুলে দেন সাবেক চীফ হুইপ, সরকারী প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি উপাধ্যক্ষ ড.মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দুযোর্গ ও ত্রান মন্ত্রনালয়ের আওতাধীন হতদরিদ্রদের ভিজিএফ চাল বিতরনী অনুষ্টানে পৃথক পৃথক অনুষ্টানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক, রহিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ, মুন্সিবাজার ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোতালিব তরফদার, পতনউষার ইউপি চেয়ারম্যান তওফিক আহমেদ বাবু,আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন,সমসেরনগর ইউপি চেয়ারম্যান জুয়েল আহমেদ, যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক আব্দুল মালিক বাবুল,উপজেলা প্রকল্প কমর্কতা আসাদুজ্জামান প্রমুখ।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৯অক্টোবরঃ  সদ্য শেষ হওয়া ষষ্ঠ জাতীয় যুবনাট্য উৎসবের সনদ পেল কাব্য বিলাসের হয়ে জল-জীবন নাটকে অভিনয় করা শিল্পীরা। বরিবার রাজধানীর কাওলায় কাব্য বিলাস নাট্য গোষ্ঠীর নিজস্ব মহড়া কক্ষে শিল্পীদের হাতে সনদ তুলে দেন সমাজসেবক ও রাজনৈতিকবিদ মনির হোসেন মনির ও পিআর গ্রুপের চেয়ারম্যান খুকু বিশ্বাস।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ৬ অক্টোবর জাতীয় নাট্যশালার অনুষ্ঠিত হয় যুব নাট্য উৎসব। এই উৎসবে দেশের অন্যতম শিশু-কিশোর নাট্য দল কাব্য বিলাস মঞ্চায়ন করে জল-জীবন নাটকটি।

রাহুল রাজ এর রচনা ও নির্দেশনায় জল-জীবন নাটকটি ছিল উৎসবের বিশেষ আকর্ষণ। গত ৪ অক্টোবর সংগীত ও নৃত্য মঞ্চে কাব্য বিলাস মঞ্চায়ন করে জেলেদের জীবনের প্রতিচ্ছবি নিয়ে ভিন্ন ধারার এ নাটকটি।

ঝড়ে দরিয়ার জলে বারেক জেলের নৌকা ডুবে যায়। দরিয়াতে আবার কীভাবে বারেক মিয়া নৌকা নিয়ে ভাসল এর উপর ভিত্তি করে এগিয়ে চলে নাটকের গল্প। নারীর অধিকার ও জেলে জীবনের বিভিন্ন দিক উঠে আসে এ নাটকে। হল ভর্তি দর্শকেরা মুগ্ধ হয় শিল্পীদের অভিনয় দক্ষতায়।

জল-জীবন নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করে, নীপা মোনালিসা, ইসমত আরা প্রমিয়া, উৎপল চন্দ্র দাস, কামরুজ্জামন, নূর-ইসলাম খান মামুন, পিউলি প্রমি অধিকারী, রাকিব হাসান, জাহিদুর রহমান, মো: সুমন, আমির হোসেন রায়হান, অমিও রহমান, ফাতেমা আক্তার স্মৃতি, ইতি, আইভি, আনিকা, রাব্বি, আমিনুর হোসাইন সহ আরো অনেকে।

সদন বিতরণ শেষ মনির হোসেন মনির শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, নাটক সমাজের আয়না। বর্তমান সমাজের কিশোর-যুবকদের অনেকে বিপথে চলে যাচ্ছে। মাদকের ভয়াল থাবায় নিজেদের শেষ করে দিচ্ছে। সেইসব যুবকদের সুস্থ জীবনে ফিরিয়ে আনতে সাংস্কৃতিক চর্চা গুরুত্ব অপরিসীম। যারা সাংস্কৃতিকের সাথে জড়িত তারা কোন ভাবে অপরাধ মূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত হতে পারে না। অপসংস্কৃতি রোধে কিশোর-যুবকদের আরো বেশি সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়াতে হবে।প্রেস বার্তা

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৬জুনঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে সাতছড়ি চা বাগানের পাহাড়ের উপরে বসবাসরত ৩টি পরিবারকে পাহাড় ধ্বসের কবল থেকে রক্ষা করেছে চুনারুঘাট উপজেলা প্রশাসন।

জানা যায়, উপজেলার সাতছড়ি চা বাগানের পাহাড়ের টিলার উপরে বসবাসরত স্বর্ণা তন্তবায় (৪৫), উমেশ সাঁওতাল (৪০) ও জগৎ সাঁওতাল (৪০) দীর্ঘদিন ধরে পাহাড়ের টিলায় বসবাস করে আসছেন। সম্প্রতি অতি বৃষ্টির কারণে তাদের ঘরগুলো প্রায় পাহাড় ধ্বসের কাছাকাছি চলে আসছিল।

খবর পেয়ে শুক্রবার দুপুর ১টায় চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিরাজাম মুনিরা তাদেরকে অন্যত্র সরিয়ে নেন এবং ঘর নির্মাণের জন্য ২ বান ঢেউটিন, নগদ ২০ হাজার টাকা এবং সৌরবিদ্যুতের ব্যবস্থা করে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাশুদুল ইসলাম, সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের রেঞ্জ অফিসার মাহমুদ হোসেন এবং হেডম্যান জনাব চিত্ত ত্রিপুরা।

আমার সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম,১০জুন,ডেস্ক নিউজঃ   কার্ডিফে এক যুগ পর আবার সেই মাঠে খেলতে গিয়ে অবিস্মরণীয় জয় পেল টাইগাররা । ২০০৫ সালে ওয়েলসের এই মাঠেই  অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছিল লাল-সবুজের দল।  সাকিব ও মাহমুদউল্লাহর অসাধারণ দুটি শতকে ভর করে ৫ উইকেটে হারাল নিউজিল্যান্ডকে। টিকে থাকল চ্যাম্পিয়নস ট্রফির শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে।

হারলেই বিদায়- এমন সমীকরণ সামনে রেখে বাঁচামরার এই ম্যাচে মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। শুরুতে বল হাতে ভালো নৈপুণ্য দেখিয়েছিলেন মাশরাফিরা। নিউজিল্যান্ডকে বেঁধে ফেলেছিলেন ২৬৫ রানে। কিন্তু ২৬৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ শুরুতেই পড়েছিল ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে। ৩৩ রানেই সাজঘরে ফিরেছিলেন প্রথম সারির চার ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান ও মুশফিকুর রহিম। বাংলাদেশের জয়ের আশা হয়তো ছেড়েই দিয়েছিলেন অনেকে। কিন্তু তখনও কারো কোনো ধারনাই ছিল না যে, অসাধারণ এক প্রতিরোধগাথা লিখবেন সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ।

অনেক চাপের বোঝা মাথায় নিয়ে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন অভিজ্ঞ এই দুই ব্যাটসম্যান। পঞ্চম উইকেটে গড়েছেন ২২৪ রানের রেকর্ডগড়া জুটি। বাংলাদেশের পক্ষে যে কোনো উইকেটে এটাই এখন সর্বোচ্চ রানের জুটির নতুন রেকর্ড। ৪৭তম ওভারে ১১৫ বলে ১১৪ রান করে সাকিব যখন সাজঘরে ফিরেছেন, তখন জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন মাত্র ৯ রান। বাকি কাজটুকু অনায়াসেই সেরেছেন মাহমুদউল্লাহ ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। মাহমুদউল্লাহ খেলেছেন ১০৭ বলে ১০২ রানের নজরকাড়া ইনিংস। ১৬ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ।

ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই সাউদি সাজঘরে ফিরিয়েছিলেন দারুণ ফর্মে থাকা তামিম ইকবালকে। রানের খাতা না খুলেই ফিরে যেতে হয়েছে বাঁহাতি এই ওপেনারকে। নিজের পরের ওভারে সাউদি আউট করেছেন সাব্বির রহমানকে। আর তার পরের ওভারে সাউদির শিকার হয়েছেন সৌম্য। তিনজনের কেউই পেরোতে পারেননি দুই অঙ্কের কোটা। দ্বাদশ ওভারে ১৪ রান করে মুশফিকও ধরেছেন সাজঘরের পথ। অ্যাডাম মিলনের দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড হয়ে ফিরে গেছেন বাংলাদেশের অন্যতম ব্যাটিং ভরসা।

এর আগে টস হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমে দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়েছেন বাংলাদেশের বোলাররা। রস টেলর ও কেইন উইলিয়ামসন নিউজিল্যান্ডকে বড় সংগ্রহের স্বপ্ন দেখালেও ইনিংসের শেষপর্যায়ে দারুণ বোলিং করেছেন রুবেল- মাশরাফি-সৈকতরা। নিউজিল্যান্ডকে আটকে দিয়েছেন ২৬৫ রানে। মাত্র ১৩ রানের বিনিময়ে তিন উইকেট নিয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা তাসকিন আহমেদ নিয়েছেন দুই উইকেট। একটি করে উইকেট গেছে মুস্তাফিজ ও রুবেলের ঝুলিতে।

নিউজিল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৩ রানের ইনিংস খেলেছেন টেলর। অধিনায়ক উইলিয়ামসনের ব্যাট থেকে এসেছে ৫৭ রান। ৩৬ ও ৩৩ রানের ছোট দুটি ইনিংস খেলেছেন নেইল ব্রুম ও ওপেনার মার্টিন গাপটিল।

আজকের এই হারের ফলে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেল নিউজিল্যান্ডের। আর বাংলাদেশের আশা টিকে থাকল বেশ ভালোমতোই। আগামীকাল শনিবার অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের ম্যাচে ইংল্যান্ড জিতলে বা ম্যাচটি পরিত্যক্ত হলে সেমিফাইনালে চলে যাবে বাংলাদেশ।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৯মার্চ,তোফায়েল আহমেদ পাপ্পুঃ শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইসচার্জ কে এম নজরুল জাহান এর তাৎক্ষনিক পদক্ষেপের ফলে বড় ধরনের বিশৃঙ্খলা থেকে রক্ষা পেল শ্রীমঙ্গলবাসী।

জানা যায়,আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬ টার দিকে শহরের চৌমূহনা চত্বরে গাড়ি পার্কিং করা নিয়ে ট্রাফিক পুলিশের সাথে এক পরিবহণ শ্রমিকের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে হাতাহাতির মতো অবস্থা সৃষ্টি হয়। এ সময় কয়েকজন পরিবহণ চালক এলোমেলো ভাবে কয়েকটি গাড়ি রেখে শহরের ষ্টেশন রোড, হবিগঞ্জ রোড ও মৌলভীবাজার রোডে ব্যারিকেড দেওয়ার চেষ্টা করে।

এসময় চৌমূহনা ও এর আশপাশ এলাকার ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতংক বিরাজ করে। অনেকেই দোকানপাট বন্ধ করতে থাকেন।পথচারীদের মধ্যে নিজেকে বাঁচাতে আত্নরক্ষার জন্য দৌড়াদৌড়ি করতে দেখা যায় অনেককে। সাথে সাথে চৌমূহনাতে স্থাপন করা কয়েকটি সিসি ক্যামেরার বদৌলতে থানায় বসেই অফিসার ইনচার্জ  নজরুল  বিষয়টি দেখে।কালক্ষেপন না করে তাঁর নেতৃত্বে থানার সকল পুলিশ সদস্যদেরকে নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে যান চলাচলের সুযোগ করে দেন।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc