Monday 30th of November 2020 02:08:13 PM

আলী হোসেন রাজন,মৌলভীবাজার: করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা এবং জনসমাবেশ এড়িয়ে চলার নির্দেশনা থাকলেও রমজান উপলক্ষে মৌলভীবাজার ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)’র পণ্য সামগ্রী ক্রয়ের সময় মানা হচ্ছে না কোন ধরণের সামাজিক দূরত্ব। পণ্য কিনতে টিসিবি গাড়িতে ভিড় করছেন শত শত মানুষ। ক্রেতারা বলছেন দীর্ঘ লাইনে দাঁড়ানোর পর টিসিবির পন্য শেষ হয়ে যায় কিন্তু লাইন শেষ হয় না।তা ছাড়া প্রতি মালে ১০/১৫ গ্রাম ওজনে কম।
আসছে পবিত্র মাহে রমজান,তাই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী ক্রয় করতে সকালে থেকে দুপুর পর্যন্ত এমন চিত্রই লক্ষ্য করা যায় মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যায়ল প্রাংঙ্গনে। দীর্ঘ লাইনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা এভাবেই দাড়িয়ে মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে খাদ্য সামগ্রী কিনছেন শত-শত মানুষ।
সামাজিক দূরত্ব না মেনেই দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে তেল, ডাল, ছোলা ,খেজুর ও চিনি ক্রয় করতে দেখা গেছে নারী-পুরুষদের।
এখানে প্রতি লিটার তেলের দাম ৮০ টাকা, প্রতি কেজি মুশুরের ডাল ৫০ টাকা, প্রতি কেজি ছোলা ৬০ টাকা,প্রতি কেজি খেজুর ১২০ টাকা ও প্রতি কেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা দরে। যা স্বাভাবিক বাজার মূল্যের চাইতে দাম একটু কম। শহরের বিভিন্ন স্থানে সাপ্তাহ ৬ দিন দিবে টিসিবর পন্য।
টিসিবির পণ্য কিনতে আসা আবুল হোসেন বলেন দীর্ঘ লাইনে দাড়ানোর পর টিসিবির পাঁচটি পন্য তৈল,চিনি,ডাল খেজুর,ছোলার মধ্যে ডাল আর খেজুর শেষ হয়ে যায়। তারা আমাদের সঠিক মত মাল দিচ্ছেনা। তা ছাড়া প্রতি কেজিতে ১০ থেকে ১৫ গ্রাম মাল ওজনে কম দেয়া হয়।
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার আমতৈল ইউনিয়নের আসিয়া বেগম বলেন সামনে রমজান মাস তাই অনেক কষ্ট করে গ্রাম থেকে শহরে আসি টিসিবির পন্য নেওয়ার জন্য । কিন্তু এখানে এসে সকাল থেকে দাঁড়িয়ে থাকি লাইনে,এক সময় টিসিবির কর্মকতারা বলে তিন পদ আছে দুই পদ নাই। এখন এই দুই পদের জন্য আবার আসতে হবে।
শহরের একাটুনা ইউনিয়নের করিম শেখ বলেন সরকার গরীব মানুষের জন্য কম দামে টিসিবির মাধ্যমে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী দিচ্ছে,আর মৌলভীবাজারের টিসিবির কর্তাব্যত্তিরা আমাদের কিছিু পন্য দিয়ে বাকিটা বলে নাই ।
এদিকে মেসার্স খালেক অ্যান্ড ব্রাদার্স এর স্বত্বাধিকারী জনি আহমদ বলেন পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে টিসিবি তার কার্যকম চলমান রাখছে। ডাল এবং খেজুরের পরিমান খুবই কম,তাই ক্রেতাদের দেয়া যাচ্ছেনা । আর সামাজিক দূরত্বের কথা বলা হলে ক্রেতারা কিছু সময় মানে পরে আবার এক হয়ে যায়। আর সব দুশ আমাদের উপরে।
শেরপুরের টিসিবি আ লিক কার্যালয়ের কর্মকর্তা মো.ইসমাইল মজুমদার বলেন,প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন সড়কে এ পণ্য বিক্রি করা হবে। মালামাল মজুদ থাকা পর্যন্ত বিক্রি করা হবে।
সামাজিক দূরত্ব বজায় না থাকায় ক্রেতাদের মাঝে বাড়ছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঝুঁকি। সঠিকভাবে পণ্য সরবরাহ এবং করোনা পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে মনিটরিং করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন সচেতন সমাজ।

আলী হোসেন রাজন,মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়েছে। কম দামে পেঁয়াজ পেয়ে আনন্দিত ক্রেতারা।বৃহস্প্রতিবার (২১ নভেম্বর) দুপুর থেকে দুটি ট্রাকে মৌলভীবাজার শহরে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়।

জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গনে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন।এ সময় কোর্ট এলাকায় পেঁয়াজ নিয়ে টিসিবির ট্রাক আসা মাত্র ক্রেতাদের ভীড় জমে যায়। কম দামে পেঁয়াজ পেয়ে দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ ক্রয় করেছেন ক্রেতারা।

খুচরা বাজারে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হলেও টিসিবির প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৪৫ টাকা দরে ক্রয় করতে পেরে আনন্দিত ক্রেতারা। এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখার দাবী তাদের।

এদিকে টিসিবির পরিবেশক জানায় দুটি ট্রাকে ২ হাজার কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে। একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ ১কেজি পেঁয়াজ ক্রয় করতে পারবেন। সরবরাহ যতদিন থাকবে শুক্রবার ছাড়া সপ্তাহে ছয় দিনই টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc