Tuesday 20th of October 2020 11:32:29 AM

করোনাভাইরাস পরীক্ষা নিয়ে জেকেজি হেলথ কেয়ারের প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তার প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ও জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের চিকিৎসক ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। রোববার বিকেলে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের এক অফিস আদেশে তাকে বরখাস্ত করা হয়।

ডা. সাবরিনা জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগের রেজিস্ট্রারের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তিনি জেকেজির প্রধান নির্বাহী আরিফুল হক চৌধুরীর স্ত্রী।

হাসপাতালে তার কক্ষের সামনে নেইমপ্লেটে তার নাম লেখা ডা. সাবরীনা আরিফ। তবে সরকারি নথিতে তার নাম সাবরিনা শারমিন হুসাইন।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আবদুল মান্নান স্বাক্ষরিত ওই আদেশে বলা হয়, ‘ডা. সাবরিনা শারমিন হুসাইন সরকারি চাকরিতে কর্মরত থাকা অবস্থায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠান জেকেজির চেয়্যারম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট দেওয়া ও অর্থ আত্মসাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছিলেন তিনি। এ কারণে তাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। সরকারি কর্মকর্তা হয়ে সরকারের অনুমতি ছাড়া বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান পদে থাকা ও অর্থ আত্মসাত সরকারি কর্মচারী বিধিমালা অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ। সেহেতু ডা. সাবরিনা শারমিন হুসাইনকে সরকারি কর্মচারী বিধিমালা-২০১৮ এর বিধি ১২ (১) অনুযায়ী সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।’

সম্প্রতি জেকেজি’র ব্যাপারে বিশদ তদন্ত করতে গিয়েই উঠে আসে ডা. সাবরিনা ও তার প্রতারক স্বামী আরিফ চৌধুরীর নাম।

তদন্ত করে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে নমুনা সংগ্রহ করে কোনো পরীক্ষা না করেই প্রতিষ্ঠানটি ১৫ হাজার ৪৬০ জনকে করোনার টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট সরবরাহ করেছে। একটি ল্যাপটপ থেকে গুলশানে তাদের অফিসের ১৫ তলার ফ্লোর থেকে এই মনগড়া করোনা পরীক্ষার প্রতিবেদন তৈরি করে হাজার হাজার মানুষকে মেইলে পাঠায় তারা।
প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয় থেকে জব্দ ল্যাপটপ পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর করোনা টেস্ট জালিয়াতির এমন চমকপ্রদ তথ্য মেলে। এতে দেখা গেছে, টেস্টের জন্য জনপ্রতি নেওয়া হয় সর্বনিম্ন পাঁচ হাজার টাকা। বিদেশি নাগরিকদের কাছে জনপ্রতি একশ’ ডলার। এ হিসাবে করোনার টেস্ট বাণিজ্য করে জেকেজি হাতিয়ে নিয়েছে সাত কোটি ৭০ লাখ টাকা।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মূলত সাবরিনার হাত ধরেই করোনার স্যাম্পল কালেকশনের কাজটি ভাগিয়ে নেয় অনেকটা অখ্যাত জেকেজি নামে এই প্রতিষ্ঠান। প্রথমে তিতুমীর কলেজে মাঠে স্যাম্পল কালেকশন বুথ স্থাপনের অনুমতি মিললেও প্রভাব খাটিয়ে ঢাকার অন্য এলাকা আর অনেক জেলা থেকেও নমুনা সংগ্রহ করছিলেন তারা।গত ২৪ জুন জেকেজির গুলশান কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে আরিফসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। দু’জন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। জেকেজির কার্যালয় থেকে ল্যাপটপসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি জব্দ করে পুলিশ। এ ঘটনায় তেজগাঁও থানায় মোট চারটি মামলা দায়ের করা হয়। সন্দেহভাজন করোনা রোগীদের নমুনা সংগ্রহের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে চুক্তি ছিল জেকেজির। পরে ওই চুক্তি বাতিল করা হয়।

এ ঘটনায় গত কয়েক দিনে নানা সংবাদ প্রকাশ ও আলোচনার পর রোববার দুপুরে ডা. সাবরিনাকে ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের পর বিকেলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) হারুন অর রশীদ জানান। এর ঘণ্টাখানেক পর তাকে বরখাস্তের অফিস আদেশ জারি করা হয়।

মাষ্টার আব্দুর রহিম ও মেহেরুন্নেছা চৌধুরী ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এই সহায়তা

জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধি:  সিলেটের জৈন্তাপুরে মাষ্টার  আব্দুর রহিম ও মেহেরুন্নেছা চৌধুরী ফাউন্ডেশন পক্ষে ২ধাপে করোনায় বন্দি অসহায় কর্মহীন পরিবারের মধ্যে প্রায় ১হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা বিতরণ সমাজসেবী অাব্দুল মতিন শাহীন ৷ প্রথম দফায় গত ৫ এপ্রিল হতে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত নিজপাট ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের ৫ শত জন দরিদ্র কর্মহীন পরিবারে সহায়তা প্রদান করেন৷ অপরদিকে গত ৪মে গতে ২১ মে পর্যন্ত ২য় দফায় অারও ৫ শত জনের পরিবারে এই সহায়তা বিতরন করেন ৷

গতকাল মাষ্টার আব্দুর রহিম ও মেহেরুন্নেছা চৌধুরী ফাউন্ডেশন সহায়তা বিতরনের শেষ দিনেব বৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুর রবের বাড়ীতে সহায়তা বিতরনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নিজপাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি অাতাউর রহমান বাবুল, অাওয়ামীলীগ নেতা হায়দর আলী, জৈস্তাপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম সারওয়ার বেলাল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহজাহাননকবির খান, জৈন্তাপুর অন লাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও জৈন্তাপুর প্রেসক্লাবের সদস্য মোঃ রেজওয়ান করিম সাব্বির সহ অন্যান্যরা ৷ সরকারের নির্দেশে সরকারের পাশাপাশি তাদের ফাউন্ডেশনের পক্ষ হতে নিজপাট ইউনয়নের হতদরিদ্র প্রায় ১হাজার পরিবারের মধ্যে ৪লক্ষ টাকার এই সহায়তা বিতরণ করা হয়৷
প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিজপাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি অাতাউর রহমান বাবুল বলেন, মাষ্টার অাব্দুর রহিম ও মেহেরুন্নেছা চৌধুরী ফাউন্ডেশন অত্র ইউনিয়নের হত দরিদ্র পরিবার গুলোতে রাত্রিকালীন সময়ে প্রচার প্রচারনা ছাড়াই হতদরিদ্রদের খোঁজে বের করে বাড়ী বাড়ী গিয়ে এই সহায়তা রাগের অন্ধকারে পৌছেদিয়ে উপজেলায় অন্যন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে৷ অামি তাদের এই সহায়তা পেয়ে প্রকৃত কর্মহীন পরিবার গুলো কিছুটা উপকৃত হল, আগামিতে এই ফাউন্ডেশন তাদের সহায়তা নিয়ে দরিদ্রদের পাশে দাঁড়াবে, তাদের পাশাপাশি অন্যান্যরা এগিয়ে আসার অাহবান জানান ৷

জহিরুল ইসলাম,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  কখনও কখনও মানবতা ব্যক্তিকে ছাড়িয়ে যায়।এড়িয়ে যাওয়া যায় না মানবিক দায়বদ্ধতা।তাই সেই দায়বোধ থেকে উদাহরণ হয়ে যান কেউ কেউ।এমনি এক মানবিক করোনাযোদ্ধা মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামী লীগের উপজেলা কমিটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো. এনাম হোসেন চৌধুরী মামুন।
গতকাল (১৮মে) রাতে ও আজ (১৯মে) সকালে মো. এনাম হোসেন চৌধুরী মামুন তার পক্ষ থেকে ১২টি অসহায় হত দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা কৃষক লীগের কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, মো.আমিনুর রশিদ তালুদার ,তরুণ সাংকৃতি কর্মী জনি যোগী, মো. জহিরুল ইসলাম খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।
এই রাজনৈতিক ব্যাক্তি মামুন আহমেদ করোনা ভাইরাসের প্রভাবে যাদের ঘরে খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে বিশেষ করে দিনমুজুর ও ভিক্ষুক যারা ভিক্ষা করে সংসার চালায় তিনি তাদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।

এ পর্যন্ত তিনি প্রায় সাড়ে ৩ শতাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন বলে তার সুত্রে জানা গেছে।

এছাড়াও বেশ ক’টি পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করেছেন তিনি।

তিনি আমার সিলেটের এ প্রতিবেদককে বলেন, করোনা সংকটে প্রথম থেকে আমি ব্যক্তিগত ও পারিবারিকভাবে সীমিত স্বামর্থের মধ্যে চেষ্টা করছি হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিতে।দেশের এই সংকটময় সময়ে সরকারের পাশে সমাজের সকল বিত্তবানদের এগিয়ে আসা উচিত।

এছাড়াও তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে হতদরিদ্র ও দিন মুজুরদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণে সহযোগীতা করে আসছেন স্থানীয় এমপি’র মাধ্যমে।

তিনি আরোও বলেন,”যতদিন দেশে এই করোনার সংকট থাকবে ততদিন হত দরিদ্র ও দিন মুজুদের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিবেন ও নিজ নিজ এলাকাতে যারা বিত্তবান আছেন আপনাদের এলাকাতে অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়াতে আহবান জানিয়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ান প্রবাসীদের দেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেছেন, ‘বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সবাইকে অবাক করে দিয়েছে। বাংলাদেশ বৈদেশিক সহায়তা গ্রহণকারী দেশ থেকে এখন বিনিয়োগের অনুকূল ভূমিতে পরিণত হয়েছে। দেশে বিনিয়োগের পরিমাণ ক্রমান্বয়ে বাড়ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত প্রবাসীদের বাংলাদেশে তথ্য-প্রযুক্তি, তৈরি পোশাক শিল্পসহ অন্যান্য কর্মসংস্থানমূলক শিল্প-কারখানা স্থাপনে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।
বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৯টায় সিডনিস্থ লাকাম্বা এলাকার একটি অভিজাত হোটেলের হল রুমে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত সিলেটিদের দেয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব নিউ সাউথ ওয়েলস ইনক অস্ট্রেলিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট নানু মিয়ার সভাপতিত্বে ও ব্যাংকার উবায়দুল হকের পরিচালনায় তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে সিলেট সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলা হচ্ছে। তথ্য প্রযুক্তির ক্ষেত্রে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে তৈরি হচ্ছে দেশের প্রথম ইলেকট্রনিক্স সিটি। যা ১৬২ একর জমির ওপর নির্মিত হচ্ছে।
শফিউল আলম নাদেল বলেন, অস্ট্রেলিয়ার বাজারে বাংলাদেশে তৈরি পোশাকের বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। দিন দিন অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের চাহিদা বাড়ছে। ওয়ান স্টপ সার্ভিস প্রদানের মাধ্যমে বাংলাদেশে বিনিয়োগের পদ্ধতি ও আনুষ্ঠানিকতা সহজ করা হয়েছে। এখন এক খানেই সকল কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব। অস্ট্রেলিয়ার প্রবাসীরা চাইলেই এসব প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে পারেন। এক্ষেত্রে প্রবাসীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে সরকার প্রস্তুত রয়েছে।
এর আগে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত প্রবাসীরা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব নিউ সাউথ ওয়েলস ইনক অস্ট্রেলিয়ার সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান, কার্যনির্বাহী সদস্য শাহ আলম, সাংবাদিক জুমান হোসাইন, মিকু চৌধুরী, মাসুদুর রহমান শ্যমল প্রমুখ।

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  হবিগঞ্জ জেলার মিরপুর আলিফ সুবহান চৌধুরী সরকারি কলেজে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনার এক কর্মির উপর ছাত্রলীগের কর্মীরা হামলা চালায়। সন্ত্রাসী এই হামলায় ওই কলেজের ছাত্রসেনার সাধারণ সম্পাদক গুরুত্বর আহত হয়।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা মিরপুর আলিফ সোবহান চৌধুরী সরকারি কলেজে শাখার ( হবিগঞ্জ জেলার আওতাধীন) সাধারন সম্পাদক শামসুল ইসলাম জাকীরের উপর ছাত্রলীগ নেতা রায়হান এর নেতৃত্বে আজ (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এ বর্বর হামলা হয়। এতে শামসুল ইসলাম জাকী গুরুত্বর আহত হয়।
জানা গেছে, কলেজের একটি বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের কর্মিরা এই হামলা করে। এর আগে মিরপুর আলিফ সুবহান চৌধুরী সরকারি কলেজের ছাত্রলীগের বিভিন্ন অন্যায় কাজে প্রতিবাদ করা নিয়ে ছাত্রলীগের কর্মীদের সাথে ছাত্রসেনার সাধারণ সম্পাদকের কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে ১৩ ফেব্রুয়ারী কলেজের বিতর্ক প্রতিযোগীতায় শামসুল ইসলাম জাকীকে অংশ গ্রহন করতে ছাত্রলীগ কর্তৃক বাধা প্রদান করা হয়। কিন্তু তিনি ছাত্রলীগের বাধাকে উপেক্ষা করে বিতর্ক প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করেন এবং বিজয়ী হন।
পরবর্তীতে দুপুরে কলেজের ছাত্রলীগ নেতা রায়হান এবং তার কিছু সহযোগীদের নিয়ে ছাত্রসেনার সাধারন সম্পাদক এর উপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলার সময় কলেজের শিক্ষকগন বাধা প্রদান করলে তারা শিক্ষকদের গায়েও হাত তুলেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরবর্তীতে আহত জাকিকে ছাত্রসেনার অন্যান্য কর্মীরা উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যায়। আহত জাকীকে বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
তাকে দেখতে হাসপাতালে আসেন ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রনেতা কাউছার আহমদ রুবেল, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট বাহুবল উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ,জেলা ছাত্রসেনার সভাপতি নুরুদ্দীন, শাহজাদা সৈয়দ মোহাম্মদ আলী বশনী, এম এ কাদির ও জুনের প্রমূখ।

দেশের রপ্তানি বাণিজ্যে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ব্যাবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রি এফবিসিসিআই এর পরিচালক রাশেদুল হোসেন চৌধুরী রনি  ২০১৭ সালের জন্য সিআইপি (বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি) নির্বাচিত হয়েছেন।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের রূপসী বাংলা গ্র্যান্ড বলরুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ২০১৭ সালের সিআইপি (রপ্তানি) ও সিআইপি (ট্রেড) কার্ড দেওয়া হয়।এবছর ১৮২ জন ব্যবসায়িকে সিআইপি কার্ড দেওয়া হয়েছে ।  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান বেগম ফাতিমা ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ। অতিথি ছিলেন এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম।

এ ছাড়া বাণিজ্য সচিব মো. জাফর উদ্দিন, নির্বাচিত সিআইপি, ব্যবসায়িক সংগঠনের নেতা ও সরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

রাশেদুল হোসেন চৌধুরী রনি খুব অল্প সময়েই নাম লিখিয়েছেন সফল ব্যাবসায়ীর তালিকায়। ২০০৭ সালে ওয়েগা জোন এডফার্র মাধ্যমে শুরু করেন ব্যবসায়িক  যাত্রা। সেই ধারাবাহিকতায় ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠা করেন রেডিও ধ্বনি ৯১.২ এফ এম। খুব অল্প সময়ে শ্রোতাদের কাছে গ্রহণ যোগ্যতা পেয়েছে ৯১.২ এফ এম।

নবনির্বাচিত সিআইপি  রাশেদুল হোসেন চৌধুরী রনি বলেন ,  রপ্তানি বাণিজ্য সুসংহত করার জন্য পণ্যের মান সনদ গ্রহণ করা প্রয়োজন। রপ্তানি বৃদ্ধির জন্য বেসরকারি খাতকে আরও সহায়তা করতে হবে। আর্ন্তজাতিক বাজারে স্বাস্থ্য সেবা রপ্তানি বাড়ানোর জন্য এখাতে প্রশিক্ষণে সরকারকে সহায়তা বৃদ্ধি করতে হবে।

ছাতক প্রতিনিধি: ছাতক-দোয়ারা নিয়ে গঠিত সুনামগঞ্জ-৫ সংসদীয় আসনে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে  ২০ দলীয় জোট  বিএনপি তথা ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষ প্রতিকের চূড়ান্ত প্রার্থী মনোনীত হয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য, ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী। শুক্রবার বিকালে গুলশানস্থ বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এ আসনে বিএনপির চূড়ান্ত প্রার্থী মিজানুর রহমান চৌধুরীর নাম ঘোষণা করা হয়।

এর আগে গত ২৭ নভেম্বর এ আসনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন এবং কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী মনোনয়নের চিঠি দেওয়া হয়। মিজানুর রহমান চৌধুরী ২০০৮ সালের নির্বাচনেও বিএনপির দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন। ২০০৯ সালে ছাতক উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের প্রার্থী হিসেবে তিনি বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

এদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৫ সংসদীয় আসনে মিজানুর রহমান চৌধুরীকে ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী চূড়ান্ত করায় তৃনমুল নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটাররা এখন আনন্দে ভাসছেন। তার মনোনয়ন প্রাপ্তিকে কেন্দ্র করে উপজেলাজুড়ে শুরু হয়েছে বাধ ভাঙ্গা আনন্দ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকসহ বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমেও তাকে নিয়ে চলছে নানা আলোচনা। তৃনমুল নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটাররা স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাদের প্রার্থীকে কিভাবে জয়যুক্ত করবে এখন থেকেই কষতে শুরু করেছেন সেই হিসাব নিকাশ।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সিলেট সিটির নব নির্বাচিত মেয়র বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরী লন্ডনে অধ্যয়নরত তার মেয়ে সাইকা তাবাসসুম চৌধুরীর কলেজের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ শনিবার লন্ডন যাচ্ছেন।সকাল ১০টায় হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে তিনি এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি বিমান যোগে লন্ডনের উদ্দেশে যাত্রা করবেন বলে একটি সুত্রে জানা গেছে।

আরিফুল হক এর সঙ্গে রয়েছেন তার স্ত্রী সীমা হক চৌধুরী, ছেলে আসিফুল হক চৌধুরী, মেয়ে সাইকা তাবাসসুম চৌধুরী ও আফছা হক চৌধুরী।

আরও জানা গেছে,এছাড়া তিনি নগর পরিকল্পনা বিশেষজ্ঞ ও সিটি কর্পোরেশনের অভ্যন্তরে বিনিয়োগে আগ্রহী প্রবাসীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এই সফরকালে তিনি যুক্তরাজ্যের উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিত সিটি পরিদর্শন করবেন। দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর এটাই তার প্রথম বিদেশ সফর।

তিনি লন্ডনে অবস্থান কালে প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির সঙ্গে কয়েকটি মতবিনিময় সভা ও বৈঠক করবেন এবং ২২ সেপ্টেম্বর শনিবারে দেশে ফিরবেন।

সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের আয়োজনে শোক সভায় বক্তারা

জাহাঙ্গীর আলম ভুঁইয়া,সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:সাংবাদিক আজিজুল ইসলাম চৌধুরী ছিলেন একজন সাদা মনের মানুষ। তিনি সাংবাদিক অঙ্গনে কখনো অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়েন নি। সাংবাদিকতা পেশায় একজন পরিচ্ছন্ন ও পরিপাঠি মানুষ ছিলেন। শক্তিমান লেখনীর মাধ্যমে তিনি জাগিয়ে তুলতেন এবং কুখ্যাত ব্যাক্তিদের শায়েস্থা করেছেন এমনও উদাহারন রয়েছে।

সাংবাদিকতার পাশাপাশি আইন পেশায় বিনা পয়সায় অসহায়দের আইনী সহায়তা দিতেন। কোর্ট থেকে ফেরার সময় বাসায় খালি হাতে ফিরতেন। তিনি মানব কল্যাণকামী ও সদা হাস্যজ্বল মানুষ ছিলেন। গত শুক্রবার (১৩জুলাই) সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের আয়োজনে শোক সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি ও দৈনিক সুনামকন্ঠের সম্পাদক বিজন সেন রায়ে’র সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক মাহবুর রহমান পীরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত শোক সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ও দৈনিক সুনামগঞ্জ ডাক’র সম্পাদক অধ্যক্ষ শেরগুল আহমেদ।

শোকবার্তা পাঠ করেন প্রেসক্লাবের কার্যকরী পরিষদের সদস্য ও বাংলাভিশন প্রতিনিধি মাসুম হেলাল। শোকবার্তা পাঠ শেষে অতিথিবৃন্দ মরহুম আজিজুল ইসলাম চৌধুরী’র ছেলে ইহতেশাম মোহাম্মদ রাহিব ও ভাই শফিউল ইসলাম,কামরুল ইসলামের হাতে শোকবার্তা তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মল্লিক মঈনুদ্দিন সোহেল, সিনিয়র আইনজীবী ও লেখক অ্যাডভোকেট হোসেন তৌফিক চৌধুরী, সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক সুনামগঞ্জ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক কামরুজ্জামান চৌধুরী সাফি, সিনিয়র আইনজীবী হুমায়ুন মঞ্জুর চৌধুরী, অ্যাডভোকেট জহুর আলী, সিনিয়র আইনজীবী ও লেখক বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বদরুল কাদির সিহাব, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক, প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি রওনক আহমেদ, প্রেসক্লাবের সিনিয়র সদস্য ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আইনুল ইসলাম বাবলু, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি অ্যাডভোকেট খলিল রহমান, দৈনিক আজকের সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি আবেদ মাহমুদ চৌধুরী, প্রেসক্লাবের সদস্য ও দৈনিক হাওরাঞ্চলের কথা পত্রিকার সম্পাদক মাহতাব উদ্দিন তালুকদার, প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ ও দৈনিক সুনামগঞ্জের সময় পত্রিকার সম্পাদক সেলিম আহমদ তালুকদার, দৈনিক মানবকন্ঠ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি শাহজাহান চৌধুরী, আজিজুল ইসলাম চৌধুরী’র ছোট ভাই শফিউল ইসলাম চৌধুরী।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৭মে,নিজস্ব প্রতিনিধি শ্রীমঙ্গলঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল শহরের কলেজ রোডস্থ মরহুম এ কে আনাম এর ছোট ভাই এবং শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সহ-সভাপতি জিল্লুল আনাম চৌধুরী চেমন ও বুলবুল আনাম এর বড় ভাই বিলাস ছড়া চা-বাগানের অবসরঃপ্রাপ্ত সুপার হিফজুল আনাম চৌধুরী (হিরণ) বুধবার (১৬ মে২০১৮) দিবাগত রাত ৯টায় ঢাকার উত্তরায় একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন-ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।জানাজার নামাজ আজ বৃহস্পতিবার বাদ জোহর শ্রীমঙ্গল জামে মসজিদে অনুষ্টিত হবে বলে পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে।

সদালাপী হিফজুল আনাম চৌধুরী (হিরণ) এর মৃত্যুতে আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম এর পরিচালকদের এবং শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেসক্লাবের সকল নেতৃবৃন্দের পক্ষে সংস্থার সভাপতি আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম এর সম্পাদক আনিছুল ইসলাম আশরাফী লিখিত শোকবার্তায় মরহুমের কল্যাণ কামনা করে বলেন-হিফজুল আনাম চৌধুরী (হিরণ) ভাই ছিলেন আমাদের প্রেরণা,বয়সে অনেক সিনিয়র হয়েও তিনি আমাদের সাথে বন্ধুদের মত আচরণ করতেন,পরামর্শ দিতেন,গল্প করতেন,আমরা নানা বিষয়ে শিক্ষার জন্য তর্ক করতাম,তিনি কখনো কোন বিষয়ে রাগ করেনি।আমি তার আত্মার পরকালিন শান্তি কামনা করছি, মহান আল্লাহ্‌ যেন তাকে মাফ করে জান্নাতবাসী করেন এবং তার পরিবার পরিজনকে সবুর করার শক্তি দিয়ে সকলকে কল্যাণ দান করেন আমীন।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৬এপ্রিলঃ  চুনারুঘাট উপজেলার মিরাশী ইউনিয়নের সাবিহা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিয়োগে ব্যাপক দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়। গত ২৩ এপ্রিল নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে দূর্নীতির শিকার অন্যান্য পরীক্ষার্থীরা এমন অভিযোগ করেন।

ঘুষ ও স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের ঘটনায় এলাকার সচেতন মহলে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। জানা যায়, আনুমানিক ০৬ মাস পূর্বে একটি জাতীয় দৈনিকে সাবিহা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হলে অনেকেই আবেদন করেন। আবেদনকারীদের মধ্যে ১১ জনকে নিয়োগ পরীক্ষায় আমন্ত্রণ জানানো হয়।

গত ২৩ এপ্রিল তারিখে অনুষ্ঠিত নিয়োগ পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, উপস্থিত ০৩ জনের মধ্যে তাজুল ইসলাম বাদশাও একজন প্রার্থী। ইতিমধ্যে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ বোর্ডের সদস্য সচিব হন লুৎফুর রহমান। তিনি তার চাচাত ভাই তাজুল ইসলামকে প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ দেওয়ার জন্য বিভিন্ন অনিয়মের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

অনিয়মের এই চিত্র ধরা পড়লে অন্যান্য প্রার্থীরা প্রতিবাদ করেন। নিয়োগ বোর্ড গঠনে বিভিন্ন ক্যাটাগরির সদস্য উপস্থিত থাকার নিয়ম থাকলেও কেবলমাত্র উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার উপস্থিতিতে নিয়োগ পরীক্ষার সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হয়।

পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ জানানোর জন্য বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতিকেও পাওয়া যায় নি। জানা যায়, সভাপতি আকবর হোসেন জিতুও ওইদিন অনুপস্থিত ছিলেন। নিয়োগ সংক্রান্ত ২০১১ সালের সরকারি প্রজ্ঞাপনকে পাশ কাটানোর অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ শামছুল হকের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়। গত ২৩ ও ২৪ এপ্রিল কয়েকবার তার দপ্তরে গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।

এছাড়াও মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে উক্ত কর্মকর্তা মুঠোফোনের লাইন কেটে ফোনটি বন্ধ করে রাখেন। কয়েকবার চেষ্টা করে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির সাথে যোগাযোগ করলে এ ব্যাপারে মন্তব্য করতে সভাপতি আকবর হোসেন জিতু অনীহা প্রকাশ করেন। তবে বি ত প্রার্থীরা জানান, নিয়োগ বোর্ডে প্রয়োজনীয় পরীক্ষক উপস্থিত ছিলেন না এবং এটি একটি সাজানো নিয়োগ পরীক্ষা ছিল।

বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দের মধ্যে ১৯৯৩ সালে এমপিওভূক্ত মাওলানা বশির আহমদ তালুকদার, ১৯৯৬ সালে এমপিওভূক্ত মোঃ হাবিবুর রহমান, ১৯৯৭ সালে এমপিওভূক্ত আব্দুস সামাদ আজাদ ও ১৯৯৭ সালের এমপিওভূক্ত মোঃ লুৎফুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তাজুল ইসলাম নিজের আসনকে পাকাপোক্ত করার জন্য বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষকদের পাশ কাটিয়ে চাচাত ভাই লুৎফুর রহমানকে উক্ত নিয়োগ বোর্ডের সদস্য সচিব করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন শিক্ষক জানান, ঘুষ-দূর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের ঘটনায় যোগ্য প্রার্থী বি ত হবার পাশাপাশি দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে দূর্নীতিগ্রস্থ করার প্রক্রিয়া চলছে। উক্ত নিয়োগ পরীক্ষাকে বাতিল করে স্বচ্ছ ও দূর্নীতিমুক্ত নিয়োগ পরীক্ষার মাধ্যমে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির ভাবমূর্তি উজ্জল করতে সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন চুনারুঘাটের শিক্ষিত ও সচেতন মহল।

নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর চৌধুরী

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১০এপ্রিল,নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দ্রুত উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ স্বল্প উন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি পেয়েছে। অচিরেই বাংলাদেশ একটি মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত হবে। দেশ উন্নত দেশের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে।

সোমবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ হল রুমে নবীগঞ্জের সকল সরকারী কর্মকর্তা ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে সীমান্তিক নামক একটি এনজিও‘র এ্যাডভোকেসী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। উক্ত সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন-হাসান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড. আলমগীর চৌধুরী।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বেগম। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমবায় বিষয়ক সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম, ইউআরডিও অফিসার এনামুল হক, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মীর তারিন বাশার লিমা, উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ আশরাফ উদ্দিন, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সায়মা সুলতানা, উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা খাদিজা ইসলাম, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তর এর তাজুল ইসলাম, শিক্ষক এটিএম বশির আহমেদ, শিক্ষক রিয়াজুল করিম চৌধুরী, অধ্যক্ষ কা ন বনিক, দৈনিক হবিগঞ্জ সময় পত্রিকার বার্তা সম্পাদক মতিউর রহমান মুন্না, সলিল বরণ দাশ, ছনি চৌধুরী প্রমুখ।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৫ডিসেম্বর,ডেস্ক নিউজঃ  মহিউদ্দিন চৌধুরী আর নেই চলে গেলেন পরপারে।(ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) চট্টগ্রামের নগরপিতা এবং নগর উন্নয়নের কারিগর ছিলেন এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। তার জন্ম ১৯৪৪ সালে, চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার গহিরা গ্রামে । ছোটবেলা থেকেই ছাত্র রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। ঊনসত্তর সালে পালন করেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব।

রাজনৈতিক জীবনের শুরুতেই সান্নিধ্যে আসেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের। মুক্তিযুদ্ধকালীন অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার হন পাকিস্তান নৌবাহিনীর হাতে। সে সময় অমানবিক নির্যাতনের শিকার হন তিনি। সে ক্ষত সারাজীবন বয়ে বেড়াচ্ছেন মহিউদ্দিন চৌধুরী। ১৯৯১ সালের ঘূর্ণিঝড়ের সময় স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে তার নিরলস কাজ করার কথা এখনও অনেকেই স্মরণ করেন।

বর্তমানে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে থাকা বর্ষীয়ান নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ১৯৯৪ সালে মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর ২০০০ সালে একবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এবং ২০০৫ সালে আবারও মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন মহিউদ্দিন।

টানা ১৭ বছর মেয়রের দায়িত্ব পালনের পর ২০১০ সালের নির্বাচনে মহিউদ্দিন হেরে যান। ২০১৫ সালের নির্বাচনে দলের মনোনয়ন চেয়ে ব্যর্থ হন।

মহিউদ্দিন চৌধুরীর জীবনে রয়েছে নানা সংগ্রামী ঘটনা। নানা ঘাত-প্রতিঘাত মোকাবিলা করে এগিয়ে যেতে হয়েছে তাকে। জীবনের তাগিদে তাকে করতে হয়েছে রেডিও মেকানিকের কাজও।

সেই তিনি আবার চট্টগ্রামের লালদীঘিতে যখন হাজির হন তখন তার জ্বালাময়ী বক্তব্য শোনার জন্য হাজার হাজার মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ে। মহিউদ্দিন চৌধুরী রাজনৈতিক জীবনে অনেকবারই কারাগারে গেছেন। ওয়ান ইলেভেনের সময়ও তাকে যেতে হয়েছিল কারাগারে। সেই সময় তার কন্যা ফৌজিয়া সুলতানা টুম্পার মৃত্যু তাকে ভীষণ রকম আবেগতাড়িত করে। ফেলে দেয় জীবনের মানবিকতার পরীক্ষায়। সেই পরীক্ষা এখনও মোকাবিলা করছেন তিনি।

মেয়র থাকা অবস্থায় যখন যে দলই ক্ষমতায় থাকুক, চট্টগ্রামের স্বার্থে আন্দোলন প্রতিরোধ গড়ে তোলতে কখনো কুণ্ঠাবোধ করেননি তিনি।

আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন সময়ে তিনি চট্টগ্রাম বন্দরসহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে একাধিকবার আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন। ২০১০ সালে তিনি বিএনপির প্রার্থী এম. মঞ্জুরুল আলমের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে মেয়র নির্বাচনে পরাজয় বরণ করলেও জনগণ থেকে কখনো বিচ্যুত হননি। শরীরের নানা রোগ-ব্যাধিকে উপেক্ষা করে অসীম সাহস, তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত আর জনগণের সুখ-দুঃখে পাশে থাকার মাধ্যমে তিনি সকল শ্রেণি পেশার মানুষের আপনজনে পরিণত হয়েছেন।সুত্র আমাদের সময়।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৩নভেম্বর,নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠা করে অনলাইন গণমাধ্যমের উন্নয়নে মুহিত চৌধুরী যে ভুমিকা রেখেছেন ইাতহাসে তা স্বর্ণাক্ষরে লিখা থাকবে। মুহিত চৌধুরী কবি-সাংবাদিক-গীতিকার-নাট্যকার-ঔপন্যাসিক এবং সংগঠক, বহুমাত্রিক পরিচয়ে তিনি পরিচিত।

কবি মুহিত চৌধুরীর ৫৭তম জন্মদিন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাব আয়োজিত সুহৃদ সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন।

পুরো অনুষ্টানটি সঞ্চালনা করেন সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাব-এর সহ-সাধারণ সম্পাদক ও আজকের সিলেট ডটকম-এর প্রধান সম্পাদক এম সাইফুর রহমান তালুকদার।

সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের ড.রাগীব আলী মিলনায়তন সন্ধ্যা থেকেই নবীন-প্রবীন লেখক-সাংবাদিক এবং সংস্কৃতি কর্মীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে। এসময় তারা কবি মুহিত চৌধুরীকে ফুলেল ভালোবাসায় সিক্ত করেন।

প্রাণ ছুঁয়ে যাওয়া জন্মদিনের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবং ফুলেল শুভেচ্ছা জানান- সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, প্যানেল মেয়র (১) রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জেলা বিশেষ শাখা) ও মিডিয়া অফিসার মুহাম্মদ শামসুল আলম সরকার, সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ও মিডিয়া অফিসার আব্দুল ওয়াহাব, প্রবাসী গীতিকার মুহাম্মদ ইলিয়াস আলী, ছড়াকার সৈয়দ মুক্তাদা হামিদ, অনুপ্রানন সম্পাদক নাসির উদ্দিন, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাব-এর সহ-সভাপতি গোলজার আহমদ হেলাল, সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমদ মকসুদ, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক কে এম রহিম সাবলু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক তোফায়েল আহমদ, কার্যকরি পরিষদ সদস্য ফারহানা বেগম হেনা, আজকের সিলেট ডটকম এর বার্তা সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন রুবেল, নিউজচেম্বার২৪.কম সম্পাদক তাওহীদুল ইসলাম, সিলেট বাংলা নিউজ এর সম্পাদক কামাল আহমদ, এমটি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এর সিলেট ব্যুরো প্রধান রাহিব ফয়ছল, সিলেটের সময় ডটকম-এর স্টাফ রিপোর্টার মবরুর আহমদ সাজু, দৈনিক  সিলেট ডটকম স্টাফ রির্পোটার তানভীর তালুদার, দৈনিক  সিলেট ডটকম স্টাফ রির্পোটার আতিক সামী, সিলেট টেলিগ্রাফ এর সম্পাদক অশীষ দে, মাসিক প্রতিভাত এর সম্পাদক এম আলী হোসাইন  নববার্তা ডটকম এর সিলেট ব্যুরো উদয় জুয়েল, সিলেট মিডিয়া ডটকম এর স্টাফ রিপোর্টার ফাহাদ মারুফ, আজকের সিলেট ডটকম-এর ষ্টাফ রিপোর্টার সৈয়দ রাসেল আহমদ, নিউজ চেম্বার ২৪ ডটকম-এর স্টাফ রিপোর্টার সুলাইমান আল মাহমুদ, শাহজাহান শাহেদ, আমাদের পত্রিকা ডটকম-এর সিলেট প্রতিনিধি তাওহীদ হোসেন রাসেল, আখলাকুল আম্বিয়া চৌধুরী, সাংবাদিক শাহিন উদ্দিন, মাসিক প্রতিভাত সম্পাদক এম. আলী হোসাইন, শিক্ষাবার্তা ডটকম-এর সিলেট প্রতিনিধি মিহির রঞ্জন তালুকদার, ব্যবসায়ী হাসান আহমদ খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে না পারলেও টেলিফোনে শুভেচ্ছা জানান সিলেটের প্রথম মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামনান।

কবি মুহিত চৌধুরী তার অনুভ’তি প্রকাশ করতে গিয়ে উপস্থিত সকলের প্রতি কৃজ্ঞতা জানান এবং সহযোগিতা কামনা করেন।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে জন্মদিনের কেক কাটা হয়।

আমার সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম,২আগস্ট,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  দেশকে গড়তে হলে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের বিকল্প নেই,গণতন্ত্রে রাজনৈতিক মতাদর্শ থাকতে পারে কিন্তু সেই মতাদর্শ যেন সন্ত্রাসের মতাদর্শ না হয়। মানুষকে পুড়িয়ে মারার রাজনীতি না হয়, দেশের সম্পদ নষ্ট করার রাজনীতি যেন না হয়। মানুষকে ভালোবেসে নীতি এবং আদর্শের উপর ভিত্তি করে রাজনীতি করার আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা মো: ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মৌলভীবাজারের কুলাউড়া ডাক বাংলো মাঠে প্রাক্তন সংসদ সদস্য মরহুম আব্দুল জব্বারের ২৫তম স্মরণ সভায় প্রধান আতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি। আব্দুল জব্বার কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও মরহুম আব্দুল জব্বারের ছেলে আ স ম কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মতিন, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়াম্যান আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নেছার আহমদ, সিলেট জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান ও মৌলভীবাজার পৌর মেয়র ফজলুর রহমান।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা আরো বলেন, একটি অসাম্পদায়ীক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র বিনির্মান আমাদের কাম্য। তাই গণতন্ত্রের পথে আর্দশ ও নীতির পরিচর্যা করে দেশের মানুষকে ভালোবেসে মরহুম আব্দুল জব্বারের মতো প্রকৃত দেশ প্রেমিক হওয়ার আহবান জানান তিনি। স্মরণসভায় যোগ দেয়ার আগে তথ্য উপদেষ্টাসহ অতিথিরা প্রবীণ রাজনীতিবিদ মরহুম আব্দুল জব্বারের কবর জিয়ারত করেন।এ ছাড়াও কাঙ্গালিভোজ,কোরআন তেলাওয়াত,মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc