Tuesday 27th of October 2020 03:09:56 AM

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সাতগাঁও পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের নিয়মিত তল্লাশিকালে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা থেকে ড্রাইভিং সিট এবং যাত্রী বসার সিট থেকে পলি বস্তায় মোড়ানো অবস্থায় প্রায় ১০ কেজি গাঁজাসহ ট্রাফিক পুলিশের সহায়তায় সোহান মিয়া (২০) পিতা মণ্ড মিয়া,গ্রাম ইকরতরি চুনারুঘাটকে আজ সোমবার (১২ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রশিদপুর গ্যাস ফিল্ড এলাকা থেকে আটক করা হয়। এ সময় ১০ কেজি গাঁজা উদ্ধার ও রিকশাটিকে জব্দ করা হয়।

পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার বিধু ভূষণ দাস জানান, সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় তাকে আটক করা হয়, এসময় খালেদ মাহমুদ খান (টি আই) উপস্থিত ছিলেন।তবে ঘটনা স্থল বাহুবল থানায় হওয়াতে আমরা আসামী কে বাহুবল থানায় সোপর্দ করেছি।

এ ব্যাপারে পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার বিধু ভূষণ দাস আরও জানান, ১০টি প্যাকেটে ১০ কেজির মত গাঁজা রয়েছে যার বাজার মুল্য প্রায় দের লক্ষ টাকা এবং আটক অটো রিক্সার মুল্য হবে প্রায় ৮০ হাজার টাকা।  নিউজ আপডেট

সাদিক আহমেদ,নিজস্ব প্রতিনিধি: বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি বেনজির আহমেদ পিপিএম (বার) এর নির্দেশে বাংলাদেশকে মাদকমুক্ত করতে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ পিপিএম (বার) এর দিক নির্দেশনায় মাদক বিরোধী অভিযানে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার হবিগঞ্জ রোডস্থ দেব বাড়ি এলাকার কাছিম উল্লাহ মার্কেট এর তিন তলা বাসার ছাদ থেকে ২০ কেজি গাঁজা ও ৩২৫ পিস ইয়াবাসহ একজনকে আটক করেছে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।

আজ সোমবার সন্ধায় শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান আশিক ও অফিসার ইনচার্জ শ্রীমঙ্গল থানা আব্দুস ছালেক দুলালের নেতৃত্বে এসআই ফরিদ মিয়া,এএসআই আকরাম আলী,এএসআই নজরুল ইসলাম,এএসআই আনোয়ার হোসেন ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে স্বপন মিয়া (৩৮) কে ২০ কেজি গাঁজা ও ৩২৫ পিস ইয়াবাসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করে।

উল্লেখ্য,আসামী স্বপন মিয়া মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল থানার মাধবপাশা গ্রামের মৃত সিদ্দীক মিয়ার পুত্র।বর্তমানে সে হবিগঞ্জ রোড দেব বাড়ি রাস্তার সামনে কাছিম উল্লাহর বাসায় ভাড়া থাকেন।

শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুস ছালেক দুলাল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমরা তাকে ধরার জন্য ফাঁদ পাতি এবং আজ তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। মাদক বিরোধী অভিযান আমাদের অব্যাহত থাকবে।

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাট সাদ্দাম বাজার নামক স্থানে অভিযান চালিয়ে গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে বিজিবি। বিজিবি ৫৫ ব্যাটালিয়ান গুইবিল বিওপির কমান্ডার নায়েব সুবেদার বোরহান উদ্দিন জানান, সোমবার (৮ জুন) বিকাল পৌনে পাঁচটায় বিজিবির নিজস্ব গোয়েন্দা সংবাদ এর ভিত্তিতে ওই স্থানে অভিযান চালায় নায়েক আবুল হোসেন এর নেতৃত্বে একদল বিজিবি।
এ সময় তারা আধা কেজি গাঁজাসহ উপজেলার হাপটার হাওর গ্রামের জালাল উদ্দিনের পুত্র সোহাগ মিয়া (২৮)কে জনসম্মুখে  গ্রেপ্তার করেন। সোহাগের নামে আরোও একটি মাদক মামলা রয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত সোহাগের বিরুদ্ধে মাদক মামলা দিয়ে চুনারুঘাট থানায় হ্যান্ডওভার করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় বিভিন্ন উচ্চতার ২১০টি গাজার গাছসহ বিল্লাল গাজী(৩৫)নামে এক গাজা ব্যবসায়ীকে আটক করেছে তাহিরপুর থানার পুলিশ। আটক ব্যবসায়ী উপজেলার সদর ইউনিয়নের চিসকা গ্রামের মৃত খোরশেদ আলী ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়,উপজেলা সদর ইউনিয়নের ছিসকা গ্রামে গত সোমবার বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাহিরপুর থানার ওসি আতিকুর রহমানের নিদের্শনায় এস আই জহুর লাল সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ছিসকা গ্রামে অভিযান চালিয়ে বিল্লাল গাজীর বাড়ির উঠান থেকে বিভিন্ন উচ্চতার ২১০টি গাজার গাছ জব্দ করে। পরে আটক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মাদক দ্রব আইনে মামলা দিয়ে মঙ্গলবার সকাল জেল আদালতে পাঠানো হয়েছে।  মামল নং ৬,২০,০৪,২০২০।
তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি  আতিকুর রহমান এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,আটক মাদক ব্যবসায়ীকে মামলা দিয়ে মঙ্গলবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে ।

এম ওসমান, বেনাপোল: যশোরের শার্শায় পৃথকভাবে অভিযান চালিয়ে ৪৫০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল ও ১৫ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় বেনাপোল পোড়াবাড়ি গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে মাদক ব্যবসায়ী রুহুল আমিন (৩৫) ও যশোর কোতয়ালি থানার চাঁচড়া হঠাৎপাড়া গ্রামের মৃত: আব্দুস ছাত্তারের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান (৩০) কে আটক করা হয়।
পুলিশ জানায়, যশোর জেলা পুলিশ সুপারের দিক নির্দেশনায় ও নাভারণ “খ” সার্কেল এএসপি জুয়েল ইমরানের সহযোগিতায় মাদক চোরাচালান প্রতিরোধে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোর ৫ টায় শার্শা উপজেলার কামারবাড়ী মোড় পাকা রাস্তার উপর থেকে সন্দেহজনক একটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্টো ট-১৬-৬৯২৫) আটক করা হয়। এসময় কাভার্ডভ্যান থেকে একজন দৌঁড়ে পালিয়ে গেলেও রুহুলকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে কাভার্ডভ্যানের কন্টিনারের ভিতর থেকে ৪৫০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়।
অন্যদিকে ভোর সাড়ে ৫ টায় উপজেলার লক্ষণপুর ইউনিয়নের শুড়া গ্রামস্থ দিলীপ পালের বাড়ির উত্তর পাশের পাকা রাস্তার উপর হতে একটি নসিমন আটক করে গোড়পাড়া ফাঁড়ি পুলিশ। নসিমনে থাকা মাদক ব্যবসায়ী হাফিজুরের তথ্যমতে ১৫ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়।
শার্শা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান পৃথক অভিযানে ৪৫০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল ও ১৫ কেজি গাঁজাসহ দু’মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আসামীদের নামে মাদক আইনে মামলা হয়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

নিজস্ব প্রতিনিধি: শ্রীমঙ্গল থেকে আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় ৩২ কেজি গাঁজাসহ এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক কারবারি জয়নালকে (৪৩) আটক করেন বলে পুলিশ জানিয়েছেন। আটককৃত জয়নাল মিয়ার বাবার নাম ফিরোজ মিয়া গ্রাম লৈয়ারকুল, থানা শ্রীমঙ্গল।

পুলিশের সূত্রে আরো জানা যায়, সিনিয়র সহকারি এএসপি শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ সার্কেল অফিসার আশরাফুজ্জামান আশিক এর দিক নির্দেশনায় ও শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুস ছালেক এর নেতৃত্বে এসআই নজরুল ইসলাম ও এসআই মাইনুদ্দিনসহ পুলিশের একটি দল উপজেলার ২নং ভূনবীর ইউনিয়নের লৈয়ারকুল গ্রামের নিজ বাড়ির বসত ঘরের মাচা থেকে পলিথিনে মোড়ানো কয়েকটি বান্ডিলে মোট ৩২ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে।

জানা যায়, চলতি সালের শ্রীমঙ্গল থানা কর্তৃক উদ্ধারকৃত মাদকের সবচেয়ে বড় চালান এটি।

৩২ কেজি গাঁজা উদ্ধারের ব্যাপারে সিনিয়র এএসপি আশরাফুজ্জামান বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে যা ক্রমাগত চলতেই থাকবে,আমরা মাদকের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স রাখবো এ অঞ্চলকে। তিনি আরো বলেন, আপনারা জানেন কিছুদিন পূর্বে মৌলভীবাজার জেলার এসপি স্যার মাদকের ব্যাপারে কঠোর ঘোষণা দিয়েছেন এবং তিনি বলেছেন “হয় মাদক ছাড়ো নতুবা মৌলভীবাজার ছাড়ো” আমরাও এভাবে এগুচ্ছি। এ ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) সংবাদদাতা: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় ৯ কেজি গাজা আটক করেছে লাউরগড় বিওপির একটি টহল দল। কিন্তু এসময় কাউকে আটক করতে পারেনি। চোরাচালানীরা থেকে যাচ্ছে অধরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সীমান্তে জনৈক এক ব্যক্তি জানান,এখানকার চোরাচালানীরা পাসপোর্টের মাধ্যমে ভারত গিয়ে বিভিন্ন জায়গা থেকে কম দামে গরু কিনে তাহিরপুর সীমান্তে ভারত অংশে নিয়ে আসে। সেখানে চুক্তিতে ভারতীয় নাগরিকদের নিয়োগ দেয় চোরাকারবারীরা। তারপর সময় সুযোগ বুঝে গরু গুলো ভারতের সীমানা কাটা তার পার করে দেয় বাংলাদেশ অংশে। কখনো দুএকটি ধরা পরে আর অধিকাংশ বড় চালানগুলোই অধরা থেকে যায়।

এর মধ্যে পুলিশ বিজিবির সোর্স পরিচয়ধারী চিহ্নিত চোরাচালানী,কিছু বিজিবি সদস্য ও স্থানীয় কিছু সাংবাদিক নামধারী লোকেরা নিজের বগল তলে রেখে ঐসব চোরাচালানীদের কাছ থেকে দৈনিক ও মাসোয়ারা নিয়ে হয়েছে কোটিপতি। যার জন্য ঐসব চোরাচালানীরা থেকে যাচ্ছে অধরা এমন অভিযোগ ও অনেকেই করেছে।
বিজিবি জানায়,শুক্রবার (২৫,অক্টোবর)ভোরে তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের বিন্নাকুলি এলাকায় অভিযান চালিয়ে পরিতাক্ত অবস্থায় ৯কেজি ভারতীয় গাঁজা আটক করে। যার আনুমানিক মূল্য ৩১,৫০০টাকা।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সুনামগঞ্জ ব্যাটালিয়ন ২৮বিজিবি অধিনায়ক মোঃ মাকসুদুল আলম জানান,আটককৃত ভারতীয় গাঁজা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন কার্যালয় সুনামগঞ্জে জমা করার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে গাঁজাসহ নয়ন প্রামানিক (৩২)) নামে এক মাদক কারবারিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।শনিবার সকালে তাকে নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

উপজেলার আহসানগঞ্জ ইউনিয়নের বেওলা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত নয়ন উপজেলার বেওলা গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই ছাইফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ উপজেলার বেওলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫০ গ্রাম গাঁজাসহ নয়ন প্রামানিক নামে এক মাদক কারবারিকে আটক করে।

তিনি আরও বলেন তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়োন্ত্রণ আইনে একটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে এবং তাকে নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি: মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালিঘাট চা বাগান থেকে বিপুল পরিমান চোলাই মদ ও মদ তৈরীর কাঁচামালসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার এবং ১১ কেজি গাঁজাসহ একজনকে আটক করেছে স্থানীয় পুলিশ।

সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আব্দুস  ছালেক দুলাল এর নেতৃত্বে ওসি তদন্ত সোহেল রানাসহ অন্যান্য পুলিশ সদস্যদের একটি টিমর অভিযান পরিচালনা করে দেশীয় চোলাই মদ ও মদ তৈরীর কাঁচামালসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করে। এর আগেই পুলিশী অভিযানের খবর পেয়ে মাদক কারবারিরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

অপরদিকে একই দিন বিকালে পৃথক অভিযান চালিয়ে ১১ কেজি গাঁজাসহ একজনকে আটক করা হয়। জানা গেছে তাকে শ্রীমঙ্গল উকিল বাড়ি রোড থেকে গোপন সংবাদের সুত্রে একটি পিকআপ ভ্যান থেকে আটক করা হয়।তার নাম নিমাই বৈদ্য (৩০) ।আটকৃত গাঁজার আনুমানিক মূল্য ১লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা।

মদ ও মদ তৈরীর কাঁচামালসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার 

শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনর্চাজ আব্দুস ছালেক দুলাল জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  উপজেলার কালিঘাট চা বাগানের লেবার লাইনের পাশাপাশি নাচ ঘর সংলগ্ন লালন চাষা, রঞ্জিত ভৌমিজ ও সস্তোষ তাঁতী’র বসত ঘরে অভিযান  পরিচালনা করে ঘরের বিভিন্ন কক্ষে তল্লাসী করে বিপুল পরিমান তৈরী চোলাই মদ ও মদ তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার করি এবং শ্রীমঙ্গল উকিল বাড়ি রোড থেকে ১১ কেজি গাঁজাসহ একজনকে আটক করা হয়। 

পুলিশের সুত্রে আরও জানা গেছে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে পৃথক মামলা হয়েছে এবং পর্যায়ক্রমে উপজেলার সব স্থানে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে ওসি আব্দুস ছালেক জানান ।  

এম ওসমান,বেনাপোলঃ যশোরের বেনাপোল সীমান্ত থেকে সাড়ে ১৫ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ।
রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বেনাপোল পোর্ট থানাধীন সীমান্তের স্বরবাংহুদা গ্রাম থেকে এ গাঁজা উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেরে স্বরবাংহুদা পশ্চিম পাড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের বাড়ির ছাদ থেকে সাড়ে ১৫ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়।
বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

হবিগঞ্জের মাধবপুর সীমান্ত থেকে ঢোলের ভিতরে করে গাঁজা পাচারকালে জয়পুরহাটের বাদ্যবাদক ইউনুস মিয়া (৩০)কে পুলিশ আটক করেছে।
শুক্রবার সকালে তেলিয়াপাড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ রকিবুল হাসান তেলিয়াপাড়া স্টেশন বাজার এলাকায় ইউনুসকে আটক করে তার ঢোলের ভিতরে লুকিয়ে রাখা তিন কেজি গাঁজা জব্দ করে।
ধৃত ইউনুস জয়পুরহাট জেলার আক্কেল পুর উপজেলার নুরনগর গ্রামের মৃত হেলাল মিয়ার ছেলে। পেশায় তিনি ঢোলী। কয়েক দিন আগে সীমান্তবর্তী সুরমা চাবাগানের ২০ নং এলাকা আসেন।
শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে তেলিয়া পাড়া থেকে ঢোলে লুকিয়ে রাখা গাঁজাসহ আটক করে তাকে মাধবপুর থানায় সোপর্দ করে পুলিশ। মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ কে এম আজমিরুজ্জামান বলেন, এব্যাপারে মাদক নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা হয় এবং মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান চলবেই।   

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে এক কেজি গাঁজাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৫) নাটোর ক্যাম্পের সদস্যরা।

বৃস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) সকালে তাদের নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলো পার্শ্ববর্তী রাণীনগর উপজেলার বিশঘরিয়া গ্রামের আব্দুস ছামাদের ছেলে বাবু (৪৫), কুয়াকান্তি গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে ইয়াকুব আলী প্রামানিক (৩৬) ও বনপুকুর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে পাইলট (৩৫)।

এ ব্যাপারে রাজশাহী র‌্যাব-৫ সিপিসি ২ নাটোর ক্যাম্পের এস আই মো: মুনিরুজামান মিয়া জানান, বুধবার বিকেলে আত্রাই উপজেলার দেবনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে এক কেজি গাঁজা, নগত অর্থ ও তিনটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। পরে তাদের নামে মাদক আইনে একটি মামলা দায়ের করে আত্রাই থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মোবারক হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককুতদের বিরুদ্ধে থানায় মাদকদ্রব্য নিয়োন্ত্রণ আইনে একটি মাললা দায়ের করা হয়েছে এবং বৃহস্পতিবার সকালে তাদের নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বেনাপোল প্রতিনিধি: ১ হাজার পিচ ইয়াবাসহ আটককৃত আসামীকে ১শ’ গ্রাম গাঁজা দেখিয়ে মামলা দিয়ে আদালতে চালান দিয়েছে শার্শা থানার পুলিশ। রোববার দুপুরে রাকিব উদ্দিন (৩০) কে  ১ হাজার পিচ ইয়াবাসহ আটক করে শার্শা থানার এস আই হাসান আলী। সে শেরপুর সদরের সাপমারী গ্রামের মৃত দুলাল মিয়ার ছেলে। এবং দক্ষিন বুরুজ বাগান গ্রামের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী জয়নালের একান্ত সহযোগী। জয়নালের নিজস্ব “তুলি সিনেমা” হলের মেশিন অপারেটর।

তথ্য সুত্রে জানা যায়, রোববার দুপুর আড়াইটার সময় যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের শার্শার শ্যামলাগাছি নামক স্থানে এস আই হাসান আলী সঙ্গীয় ফোর্সসহ ডিউটিরত অবস্থায় যানবাহন তল্লাশীর সময় বেনাপোল থেকে ছেড়ে আসা একটি সিএনজিকে পুলিশ দাঁড় করালে সিএনজি থেকে রাকিব দৌঁড় দিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে পুলিশ তাকে আটক করে। পরে তার দেহ তল্লাশী করে ১ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ। আটকের পর তাকে থানায় না নিয়ে পুলিশের পছন্দের মত জায়গায় আটকে রেখে রাত সাড়ে আটটার সময় থানায় হাজির করে। দেন-দরবারের পর অবশেষে এক লক্ষ টাকার নগদ চুক্তিতে ১শ’ গ্রাম গাঁজা দেখিয়ে মামলা দিয়ে সোমবার সকালে আদালতে চালান দিয়েছে পুলিশ। মামলা নং-১০।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী এবং ৭ মামলার পলাতক আসামী জয়নালের মাদক স¤্রাজ্য বর্তমানে রাকিব উদ্দিন পরিচালনা করে আসছে। জয়নালের ছোট স্ত্রী অপর্না’র মাধ্যমে সে এ মাদক স¤্রাজ্য নিয়ন্ত্রন করছে। রাকিব বাইরের ছেলে হওয়ায় গোপনে তার এ ব্যবসা পরিচালনা করতে কোন সমস্যা হচ্ছে না। আটক রাকিব ঘটনার দিন পুটখালী থেকে ইয়াবা নিয়ে নাভারনের উদ্দেশ্যে আসছিল।

এ ব্যাপারে শার্শা থানার এস আই হাসান আলী’র কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সঠিক নয়। রাকিবকে গাঁজাসহ আটক করে মামলা দিয়ে আদালতে চালান দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) শেখ তাসমিম আলম’র নিকট বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার এ ধরনের কোন ঘটনা জানা নাই। আপনারা যখন জানালেন বিষয়টি আমি তদন্ত করে দেখব।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৬এপ্রিল,বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোরের বেনাপোল সীমান্ত এলাকা থেকে ৫৬ কেজি গাঁজা আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র একটি টহল দল।
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র যশোর-৪৯ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মোহাম্মদ আরিফুল হক, পিবিজিএম সাংবাদিকদের জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ ঘটিকায় বেনাপোল সীমান্তের ঘিবা বিওপি’র হাবিলদার মোঃ খোরশেদ আলম এর নেতৃত্বে ৪নং ঘিবা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

উক্ত অভিযান পরিচালনার সময় ০৪/০৫ জন অজ্ঞাত লোক বস্তা মাথায় বহন করে ভারত হতে বাংলাদেশে প্রবেশের প্রাক্কালে বিজিবি টহল দল কর্তৃক তাদেরকে ধাওয়া করলে চোরাকারবারীরা বস্তাগুলো ফেলে দৌড়ে ভারতের দিকে পালিয়ে যায়।

ঘটনাস্থল হতে উক্ত টহল দল বস্তাগুলি তল্লাশি করে ৫৬ কেজি গাঁজা আটক করে। যার আনুমানিক মূল্য ১,৯৬,০০০/- (এক লক্ষ ছিয়ানব্বই হাজার) টাকা। আটককৃত মাদকদ্রব্য বেনাপোল পোর্ট থানায় জমা করা বলে যানা যায়।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৪অক্টোবর,হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি) সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ১২ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছেন। ২৪ অক্টোবর মঙ্গলবার সকাল ১০টায় উপজেলার সীমান্ত এলাকার ধর্মঘর বাজার একটি মাঠ থেকে গাঁজাগুলো উদ্ধার করা হয়েছে।

বিজিবি-৫৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আসাদুজ্জামান চৌধুরী জানিয়েছেন, ধর্মঘর সীমান্ত ফাঁড়ির হাবিলদার আব্দুল আজিজের নেতৃত্বে একদল বিজিবি সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালালে ১২ কেজি রেখে মাদক পাচারকারীরা বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যান।
উদ্ধারকৃত ১২ গাঁজার আনুমানিক মূল্য ৫০ হাজার টাকা।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc