Sunday 25th of October 2020 01:46:03 AM

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: আগামী ১৭অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের উপ-নির্বাচন। জাতীয় সংসদ উপ-নির্বাচনে মনোনীত প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণায় সরগরম হয়ে উঠেছে নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) আসনের জনপদ। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উৎসবে পরিণত হয়েছে শহর থেকে শুরু করে গ্রামা লগুলোতে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রার্থীরা ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। প্রতিদিনই নির্বাচনী এলাকার পাড়া-মহল্লায় চলছে মাইকিং ও প্রচার-প্রচারণা। আর পোষ্টার, ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে নির্বাচনী এলাকা। প্রচার-প্রচারণায় সরগরম হয়ে উঠেছে নওগাঁ-৬ আসন।

তবে স্থানীয়রা মনে করছেন, উপ-নির্বাচনে মূল লড়াই হবে দেশের সবচেয়ে দুটি বড় দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থীর মধ্যে। নির্বাচনে অংশ নেওয়া অপর দল ন্যাশনাল পিপলস্ পাটি তেমন নেই প্রচার-প্রচারণা ও লোকবল। তাই এই ছোট দলকে আমলে নিতে চাইছেন না ভোটাররা।

এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলালের পক্ষে দলের নেতাকর্মীরা নৌকা প্রতীক ও বিএনপি’র মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী শেখ রেজাউল ইসলাম রেজু’র পক্ষে দলের নেতাকর্মীরা জোড়েশোড়ে প্রচারণা করছেন। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন এ আসনের দুই হেভিওয়েট প্রার্থী নিজেরাই ও তাদের লোকজন।

এছাড়াও এ আসনে ন্যাশনাল পিপলস্ পাটির ইন্তেখাব আলম রুবেল আম প্রতীক নিয়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে আম প্রতীককে মাঠে বেশি দেখা যাচ্ছে না। এলাকাবাসি জানিয়েছেন, হটাৎ দু’একজন তার সমর্থককে নিয়ে চলছে তার প্রচারণা।

নৌকা ও ধানের শীষের প্রতীকের প্রচার-প্রচারণায় মুখর এই জনপদের অলিগলি। সব জায়গাতেই বইছে নির্বাচনী আমেজ। তবে এ আসনে সাংগঠনিক ভাবে দলীয় নেতাকর্মী বেশ চাঙ্গা থাকায় নৌকার অবস্থান বেশ ভালই আছেন বলে জানা গেছে।

নওগাঁ-৬ আসনে আসন্ন উপ-নির্বাচন নিয়ে এলাকার সাধারণ, তরুণ ও নতুন ভোটারদের সাথে কথা বললে তারা বলেন, তথ্য ও প্রযুক্তি নির্ভর সেবা পেতে তারা বিশ্বাসী। যিনি জনসাধারণের পাশে থাকবেন, দুর্নীতি, অনিয়ম, মাদক ও সকল বৈষম্যহীন সমাজ গড়তে আগামী দিনের নেতৃত্ব দিবেন এলাকার উন্নয়ন করবেন ও যাকে তারা যোগ্য প্রার্থী হিসেবে মনে করবেন তাকেই তারা ভোট দিবেন বলে জানিয়েছেন। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে এই আসনে ভোটের আমেজ ততই বাড়ছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ আসনের দুটি উপজেলার ১৬ টি ইউনিয়ন মোট ভোটার ৩ লাখ ৬ হাজার ৭২৫ জন। আগামী ১৭ অক্টোবর ইভিএম পদ্ধিতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জুলাই এই আসনের এমপি ইসরাফিল আলম মারা গেলে আসনটি শুন্য ঘোষণা করে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ  নওগাঁর আত্রাইয়ে চাঞ্চলকর আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে আত্রাই থানা পুলিশ। পুলিশ এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ১ জন কে গ্রেফতার করেছে।গ্রেফতারকৃত হলো উপজেলার খোলাপাড়া গ্রামের আক্তার হোসেনের ছেলে সুমন হোসেন (২৫)। সুমন পুলিশের নিকট এ হত্যাকান্ডের বিষয়ে স্বীকারোক্তি মূলক চাঞ্চল্যকর জবানবন্দী দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন বলেন, গ্রেফতারকৃত সুমনের দেওয়া তথ্যমতে, কয়েক বছর আগে আত্রাই বেলি ব্রিজের উত্তরপার্শে এম আর এস সু গ্যালারী দোকান করার সময় সুমন দু’লক্ষ টাকা ধার নেই রফিকুল ইসলামের কাছ থেকে। এর মধ্যে এক লক্ষ টাকা সে পরিশোধ করে বাঁকি এক লক্ষ টাকা আজ কাল করে বছর পেরিয়ে গেলে টাকার জন্য চাপ দিলে গত ১০ অক্টোবর টাকা দেওয়ার দিন ধার্য্য করে সুমন। দিন ধার্য্য করে গত ৫ অক্টোবর সোমবার সুমনসহ চারজন গোপন মিটিং করে টাকা যেন না দিতে হয় সেজন্য রফিকুলকে হত্যার পরিকল্পনা করে।

টাকা দেওয়ার ধার্য্যকৃত দিন গত ১০ অক্টোবর রাত্রি আনুমানিক সারে ৮টার দিকে সুমন মোবাইল করে তার দোকান হতে টাকা নিয়ে যেতে বলে রফিকুলকে। এর মধ্যে দোকানের একটি শার্টার বন্ধ এবং আরেকটি অর্ধেক নামিয়ে রেখে রফিকুল দোকানে ঢোকামাত্র ঐ শার্টার নামিয়ে তারা কয়েকজন মিলে রফিকুলের হাত-পা ও মুখ বেঁধে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বস্তাবন্দি করে দোকানের নিচে কয়েক ঘন্টা গোডাউনে রাখে। রাত্রি গভীর হলে বস্তাবন্দি লাশ আত্রাই নদীতে ফেলে দেয়।

ওসি আরো বলেন, নিহত হাজী রফিকুল ইসলামের স্ত্রী দৌলতুন্নেছা বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন এবং আমরা হত্যার সাথে জড়িত সুমনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। গ্রেফতারকৃত সুমনকে সোমবার দুপুরে নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: গত কয়েক দিনের বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলের পানির ফলে আত্রাই নদীর পানি বেড়ে এখন বিপদ সীমার ৫৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রভাহিত হচ্ছে। প্লাবিত হচ্ছে নি¤œা ল। এতে উপজেলার জনগণের মাঝে আবারও বন্যাতঙ্ক দেখা দিয়েছে। টানা দেড় মাসেরও বেশি সময় বন্যার পানির সঙ্গে যুদ্ধের পর উপজেলার প্রান্তিক কৃষকেরা চাষাবাদের প্রস্তুতি নিতে শুরু করে। পানি বৃদ্ধির ফলে অনেকের দ্বিতীয় দফায় রোপনকৃত আমন ধান তলিয়ে যেতে শুরু করেছে।

গত জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময়ে জেলার আত্রাই উপজেলার পাঁচটি স্থানে আত্রাই নদীর বেড়ীবাধঁ ভেঙে ৮টি ইউনিয়নের অর্ধ-শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়। ফলে শত শত পুকরের মাছ ভেসে যায়। হাজার হাজার হেক্টর জমির আমন ফসলের ক্ষতি হয়। দ্বিতীয় দফায় আগষ্টের শেষের দিকে আবারো নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বন্যা দেখা দেয়। এই অবস্থায় নদীর পানি কমে গেলে এবং লোকালয় থেকে পানি নেমে যাওয়ার পর কৃষকেরা ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করতে থাকে।

আত্রাই নদীর পানি কখনও কমছে, ফের কখনও বাড়ছে। পানির এই হ্রাস-বৃদ্ধিতে নদীর অরক্ষিত তীরে ভাঙনের আশঙ্কাও রয়েছে। এ ছাড়া নদী তীরবর্তী নিম্না লের মানুষের মধ্যে বন্যার আতঙ্কও ছড়িয়ে পড়েছে। বন্যায় ফসল হারানো কৃষক দ্বিতীয় দফায় আবার নতুন ফসল লাগানোর প্রস্তুতি নিলেও তারা এখন আতঙ্কে আছে।

বেশ কয়েক দিন ধরে নদীর পানি বাড়ায় মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত ফের বন্যার কোনো সতর্কবার্তা দেয়নি বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র। এ কারণে এবারও সেপ্টেম্বরে বন্যার আশঙ্কায় অনেক কৃষক শীতকালীন সবজির আবাদ শুরু করতে দ্বিধায় ভুগছেন। এ ছাড়া সাম্প্রতিক বন্যায় এখনো বিধ্বস্ত বন্যাদুর্গত এলাকাগুলো। ভেঙে যাওয়া ঘরবাড়ি মেরামত করতে পারেননি নিম্ন আয়ের মানুষেরা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানা যায়, উপজেলার ৮ ইউনিয়নে প্রায় ৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ হয়। এর মধ্যে মনিয়ারী, ভোঁপাড়া ও শাহাগোলা ইউনিয়নে সর্বাধিক পরিমাণ জমিতে আমন চাষ করা হয়। গত বছর আমন চাষের মৌসুমে রেকর্ড পরিমাণ জমিতে চিনি আতপ ধানের চাষ হয়েছিল। এতে করে কৃষকরা ব্যাপক লাভবানও হয়েছিল। এবারে আগাম বন্যার পানি মাঠে চলে আসায় আমনচাষ ব্যহত হতে পারে।

উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের কৃষক আজাদ প্রামানিক বলেন, আমাদের বোরো ধান কেটে শেষ না করতেই মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। মাঠ পানিতে ভরে গেছে, জমির পানি একটু কমলেও আবারও বাড়ার কারনে আমন ধানের বীজতলা তৈরি করতেই পারলাম না। কিভাবে আমন চাষ করবো তা নিয়ে হতাশায় রয়েছি।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ কেএম কাউছার হোসেন বলেন, হঠাৎ করে আবারও আত্রাই নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। নদীর পানি কিছুটা কমলে মাঠের পানিও কমে যাবে।

নওগাঁ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান খান বলেন, নওগাঁর শিমুলতলী পয়েন্টে আত্রাই নদের পানি বিপদসীমার ৫৫ সেন্টিমিটারের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর আগে রবিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত ১২ ঘন্টায় পানির উচ্চতা বেড়েছে ৪৫ সেন্টিমিটার। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী দুই-তিন দিন পানি আরও কিছুটা বাড়বে।

“নৌকার মাঝি আনোয়ার হোসেন হেলাল,ধানের শীষে নজর এক ডর্জন মনোনয়ন প্রত্যাশীদের” 

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ  নওগাঁ-৬,(আত্রাই-রাণীনগর) আসনে উপ-নির্বাচনে দলীয় মনোনিত প্রার্থী ঘোষনা করেছে আওয়ামীলীগ। এআসনে নৌকার মাঝি হিসেবে রাণীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন হেলালকে দলের মনোনীত প্রার্থী ঘোষনা করা হয়েছে। এদিকে তফশিীল ঘোষনা করা হলেও এখনো প্রার্থীতা চুড়ান্ত করতে পারেনী বিএনপি। তবে এআসনে দলের মনোনয়ন ও ধানের শীষ পেতে বিএনপি’র প্রায় এক ডর্জন মনোনয়ন প্রত্যাশীর নাম শোনা যাচ্ছে।

গত ২৭ জুলাই এই আসনের এমপি ইসরাফিল আলম মারা গেলে আসনটি শুন্য ঘোষনা করেন নির্বাচন কমিশন। এর পর আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেতে মরহুম এমপি ইসরাফিল আলমের সহধর্মিনী সুলতানা পাররভিন বিউটি, রাণীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন হেলাল,নওগাঁ জেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যড: ওমর ফারুক সুমন,রাজশাহী মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নওশের আলী,অতিরিক্ত সচিব(সাবেক) ড: মো: ইউনুছ আলী, মেজর(অব:) আব্দুল জলিল,ঢাকা মহানগর(উত্তর) শ্রমীক লীগের যুগ্ন আহ্বায়ক ও রাণীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ইউনুছ আলী দুলালসহ ৩৪ জন দলীয় মনোনয়ন পত্র উত্তোলন করেন। গত ২৩ অক্টোবর দলীয় মনোনয়ন জমাদান শেষ হলে সোমবার দলটি দলীয় মনোনিত প্রার্থী হিসেবে আনোয়ার হোসেন হেলালকে চুড়ান্ত প্রার্থীতা ঘোষনা করে।
এদিকে উপ-নির্বাচনে অংশ নিতে এবং মনোনয়ন পেতে বিএনপি থেকে চার দলীয় জোটের সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আলমগীর কবির,তার ছোট ভাই আনোয়ার হোসেন বুলু,তাঁতী দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন আহ্বায়ক এছাহক আলী, কর্ণেল (অব;) আব্দুল লতিফ খাঁন,আত্রাই উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রেজাউল ইসলাম রেজু শেখ্,যুগ্ন আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম বেলাল, রাণীনগর উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি আল ফারুক জেমস,নওগাঁ জেলা বিএনপি’র যুগ্ন আহ্বায়ক এ্যাড: রফিকুল ইসলাম,সদস্য শুকুর আলী,রতন মোল্লাহ এবং আত্রাই উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি রজার মোল্লাসহ আরো কয়েকজনের নাম শোনা যাচ্ছে।

জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রাণীনগর উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি কাজী গোলাম কবির ও আত্রাই উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মো: মোফাজ্জল হোসেন এর নাম শোনা যাচ্ছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইন্তেখাব আলম রুবেল এই আসনে নির্বাচনে অংশগ্রহন করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য,গত ১৯৯১ ও ৯৬ সালে বিএনপি থেকে মনোনয়ন নিয়ে সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আলমগীর কবীর নির্বাচনে বিজয়ী হন । এর পর ২০০১ সালে নির্বাচনে পুনরায় আলমগীর কবীর বিজয়ী হন। ২০০৬ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের শেষের দিকে আলমগীর কবির এলডিপিতে যোগ দেন এবং একই বছরে এলডিপি থেকে পদত্যাগ করেন। এর পর ২০০৮ সালে সাবেক প্রতিমন্ত্রী আলমগীর কবীরের ছোট ভাই বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন বুলু নির্বাচনে অংশ নিলে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পেয়ে বিপুল ভোটে বিজয়ী হন সদ্য প্রয়াত ইসরাফিল আলম এমপি।

এরপর ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এবং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক প্রতিমন্ত্রী আলমগীর কবীরকে পরাজিত করে পূনরায় বিজয়ী হন ইসরাফিল আলম। মূলত এ আসনটি চারবার বিএনপির অধীনে থাকলেও ২০০৮ সালের পর থেকে আওয়ামী লীগের দখলে রয়েছে। গত ২৭ জুলাই এমপি ইসরাফিল আলম মারা গেলে আসনটি শুন্য ঘোষনা করে আাগামী ১৭ অক্টোবর ভোট গ্রহনের দিন ধার্য করে তফশিল ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর আত্রাই উপজেলার হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের হাটুরিয়া গ্রামের সেই অসহায় ৮০ উর্ধ বৃদ্ধার সহযোগিতায় হাত বাড়িয়ে দিলেন আত্রাই থানা পুলিশ। “আত্রাইয়ে সন্তানদের মানষিক নির্যাতনের শিকার এক বৃদ্ধা” শীর্ষক একটি সংবাদ অনলাইন ও সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত হওয়ার পর গতকাল শুক্রবার ঘটনাস্থলে যান আত্রাই থানা পুলিশ।
আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন বলেন, ওই গ্রামের মৃত সৈয়দ আলীর স্ত্রী জহুরা বেওয়া (৮০) শারীরিক অসুস্থা ও প্যারালাইসিস জনিত কারনে বিভিন্ন সময় চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ধারণা করতেন তাকে নির্যাতন করা হচ্ছে।
প্রকৃতপক্ষে বৃদ্ধার সন্তানরাও খুব গরীব ও অসহায়। তাই তারা তাদের মাকে উন্নত চিকিৎসা দিতে পারেনি। অসুস্থতা জনিত করনে ওই বৃদ্ধা ন্যুয়ে পড়েছেন। নিজে চলাফেরাও করতে পারেন না।
মানষিক নির্যাতনের বিষয়টি সঠিক নয়। তবে একজন অসহায় বৃদ্ধার এ জীবন যাপন আমাদেরকে ব্যথিত করেছে। আমরা আত্রাই থানা পুলিশের পক্ষ থেকে সাধ্যমত তাকে খাবার ফলমূল ও চাল ডালসহ কিছু আসবাবপত্র দিয়েছি। প্রয়োজনে ভবিষ্যতে আরও দেব।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিয়ে জনগণের পুলিশ হয়ে পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন নওগাঁর আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন।

সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার ভোঁপাড়া ইউনিয়নের তিলাবাদুরি বাজার চত্বরে ভোঁপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জানবক্স সরদারের সভাপতিত্বে বিট পুলিশিং কার্যালয়ের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ওসি বলেন, বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে জনগণের দোরগোড়ায় পুলিশি সেবা পৌঁছে দিতে আমরা কাজ করছি। আমরা জনগণের সঙ্গে জনগণের পুলিশ হয়ে থাকতে চাই। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে দুর্নীতিমুক্ত, মাদকমুক্ত দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে নিরলস কাজ করছেন। আমরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশকে মাদকমুক্ত, দুর্নীতিমুক্ত করতে শূন্য সহিষ্ণুতার নীতিতে কাজ করছি।

সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ ও যৌতুকমুক্ত সমাজ গড়তে পর্যায়ক্রমে আত্রাইয়ের প্রতিটি ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হবে। এবং মনিটরিং, তদারকির জন্য পুলিশ সদস্যদের সাথে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা কো-অপারেট করবে। ভৌগোলিক দূরত্ব ও সুনির্দিষ্ট কাঠামোবদ্ধ কর্মসূচির অভাবে অনেক ক্ষেত্রে জনগণ পুলিশের সেবা থেকে বি ত হয়। পুলিশের প্রতি একটা ভ্রান্ত ধারণা তৈরি হয়।

পুলিশ-জনতা সম্পর্কোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য, প্রতিটি নাগরিকের পুলিশের সেবাপ্রাপ্তির নিশ্চয়তা প্রদানের জন্য ইউনিয়ন, ওয়ার্ড পর্যায়ে জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে প্রত্যন্ত অ লে পুলিশের সেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদের আদেশ অনুযায়ী আত্রাই থানার ভোঁপাড়া ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম উদ্বোধন করা হলো। এতে জনগণ এর সুফল পাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ভোঁপাড়া ইউনিয়নের তিলাবাদুরি বাজার মন্দির চত্বরে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ভোঁপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জানবক্স সরদার। অনুষ্টনে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল কাশেম, সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক চ ল, ওসি তদন্ত মোজাম্মেল হক কাজি, ডিএসবি নুরুল ইসলামসহ ইউপি সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি : প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নওগাঁর আত্রাই থানা পুলিশের উদ্যোগে উপজেলার আহসানগঞ্জ হাটে ‘একটি খুটি একটি গরু’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সর্বসাধারণের মাস্ক ব্যবহারে জনসচেতনতা মূলক প্রচারণাসহ নানামুখী কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দিনব্যাপি উপজেলার বৃহত্তম আহসানগঞ্জ গরুর হাটে সামাজিক দুরুত্ব বজায় রেখে কেনাকাটা ও মাস্কের সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে সচেতনতা ও প্রচারণা করেন আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন, এসআই মোস্তাফিজুর রহমান, এএসআই মনিরুল ইসলাম, ডিএসবি নূরুল ইসলামসহ হাটমালিক ও ক্রেতা-বিক্রেতাগণ।

এ সময় ওসি মোসলেম উদ্দিন সর্বসাধারণের মাস্ক ব্যবহারে সঠিক নিয়ম মেনে চলার জন্য আহবান জানান। সেই সাথে সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে পবিত্র ঈদের কেনাকাটা করতে পরামর্শ দেন তিনি। তিনি আরো বলেন হাট-বাজারে জনসচেতনার জন্য মাইকিং অব্যাহত রয়েছে।

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: উপজেলার বুক চিরে যুগযুগ ধরে প্রবাহমান আত্রাই নদী আপন মহিমায় বয়ে চলেছে তার গতিধারা। প্রতিবছর বর্ষামৌসুম শুরু হলে এলাকাবাসীকে নির্র্ঘুম রাত যাপন করতে হলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ নাকে তেল দিয়ে ঘুমিয়ে যাচ্ছে যুগের পর যুগ। তাদের উদাসিনতায় দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হলেও খনন না করায় নদী ভরাট হয়ে প্রতিবছর বাঁধভেঙ্গে মানুষের বাড়ী-ঘর জান-মাল মাটির সাথে মিশে দেয় বলে এলাকার লোকজন অভিযোগ করেন।
জানা গেছে,কৃষি ও কৃষকের ভাগ্যউন্নয়নের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকারের গৃহিত সিদ্ধান্ত মোতাবেক পানি উন্নয়ন বোর্ড সত্তরের দশকে মান্দা থেকে সিংড়া পর্যন্ত নদীর দুইধারে বাঁধ তৈরী করে।এসময় বাগমাড়া,মান্দা, রাণীনগর, নন্দীগ্রাম, সিংড়া এবং নাটোর সদর উপজেলার নদীর মোহনায় পানির প্রবাহ ঠিক রাখতে আত্রাই নদীর উপর সাহেবগঞ্জ, আহসানগঞ্জ, কলেজপাড়া, শুটকিগাছা, ভবানিপুর-মির্জাপুর এবং গোড় নদীর উপর কাশিয়াবাড়ী, ইসলামগাঁথী এবং সমসপাড়া নামক স্থানে স্লুইচগেট নির্মাণ করে প্রবাহমান নদীর পানি চলাচল সচল রাখে। শুরুতে স্লুইচগেটের চাবি সময়মত সরবরাহ করে পাল্লাগুলো ফাঁকা করে দেওয়া হলেও বর্তমানে অসাধু প্রভাবশালী মহলের কারনে সেগুলোর কার্যকারিতা আর নাই। প্রতি বছর অল্প বন্যা হলেই নদীর বাঁধভেঙ্গে মাঠের ফসলসহ বাড়ী ঘড়ের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়। যেকারনে লক্ষ লক্ষ হেক্টর জমির ফসল নিয়ে এলাকার কৃষকরা থাকেন উদ্বেগ আর উৎকন্ঠায়। বর্ষাকালে নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে শুরু করলে প্রশাসনসহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষ নরেচড়ে বসলেও কার্যত এর বাস্তব কোন সমাধান আজও মিলেনি বলে অভিযোগ রয়েছে।
গত বছর কৃষকের ভাগ্য উন্নয়নের কথা চিন্তা করে নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সাংসদ মো. ইসরাফিল আলম নদীর খনন কাজ শুরু করেন। কিন্তু মাত্র ৩/৪ কিলোমিটার খনন করতেই অদৃশ্য কারনে তা বন্ধ হয়ে যায়।
এ বিষয়ে বাঁকা গ্রামের কৃষক মিজানুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, নদীতে গেট করার আগে মাঠে ধীরে ধীরে পানি আসতো ধানও ধীরে ধীরে বেড়ে উঠতো। গেট করার ফলে একদিকে রক্তদহ বিলের পানি এসে মাঠ ভরে যায় সেইসাথে গেটগুলো সময়মত না খুলে দিয়ে ইচ্ছেমত খোলার কারনে মাঠের ধান ডুবেযায়। পানির প্রয়োজনে গেট খুলতে বললে বলে চাবি নাই আবার চাবি থাকলে সেটা কাজ করছেনা ।
এ বিষয়ে নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সাংসদ মো. ইসরাফিল আলম এর সাথে এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এবং দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান।
এলাকাবাসী কৃষি ও কৃষকের দুঃখ দুর্দশা লাঘবে বাঁধ ভাংগন রোধে অতিদ্রুত আত্রাই নদীর খনন কাজ সমাপ্ত এবং স্লুইচগেটগুলো সংস্কার করণে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: সম্প্রতি বয়ে যাওয়া ঘূর্নিঝড় আম্পানের ক্ষত নিয়ে দাড়িয়ে আছে নওগাঁর আত্রাই উপজেলার বান্দাইখাড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজ। আম্পানের তান্ডবে কলেজটির স্বাভাবিক চেহারা পাল্টে গেছে। আম্পানের তান্ডবে কলেজের পুরাতন ভবনের টিনের ছাউনি উড়ে গিয়ে বৃষ্টির পানিতে কলেজের ডিজিটাল হাজিরা ডিভাইস, সিসি ক্যামেরা ও কম্পিউটার নষ্ট হয়ে গেছে।

কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান রিজভী জানান, করোনা ভাইরাসের থাবায় এমনিতে কলেজে দীর্ঘদিন যাবত পাঠদান কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। তার উপর আবার আম্পানের তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে কলেজের সবকিছু। আত্রাই উপজেলার এই প্রত্যন্ত এলাকার যুব সমাজে গুণগত কারিগরি শিক্ষা বিস্তারে বান্দাইখাড়া টেকনিক্যাল কলেজ অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। জেলার মধ্যে এই প্রতিষ্ঠানটি একমাত্র ডিজিটাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। কিন্তু সেই তুলনায় আধুনিক উন্নয়ন কাঠামোতে তেমন কোন ছোঁয়া লাগেনি। এই প্রতিষ্ঠানটি ডিজিটাল কলেজ হিসেবে জেলার শ্রেষ্ঠ পদক পেয়েছে।

তিনি আরো বলেন এই অ লের অনেক গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের অনেকটা বিনামূল্যে এই প্রতিষ্ঠান থেকে কারিগরী শিক্ষা প্রদান করা হয়। আজ এই অ লের অনেক বেকার যুবারা কারিগরি শিক্ষা গ্রহণ করে বিভিন্ন রকমের কর্ম গ্রহণ করে স্বাবলম্বী হয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত এই প্রতিষ্ঠানে সরকারি কোন সুযোগ-সুবিধা বা আধুনিকতার ছোঁয়া তেমন স্পর্শ করেনি। শিক্ষকদের সহযোগিতা আর উপজেলা প্রশাসনের একটু থোপ বরাদ্দ দিয়ে কোন মতে মাথা উচু করে দাড়িয়ে আছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিশেষ করে আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন শিক্ষা ভবনসহ অন্যান্য সুবিধা পেলে এই প্রতিষ্ঠান আগামীতে এই অ লসহ বিভিন্ন অ লের বেকার যুব ছেলে-মেয়েদের মাঝে কারিগরি শিক্ষা পৌছে দিতে বর্তী হিসেবে কাজ করবে বলে আমি মনে করি। আম্পানের ফলে প্রতিষ্ঠানের যে ক্ষতি হয়েছে তা মেরামত করা প্রতিষ্ঠানের একার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই সরকারি কোন সহযোগিতা পেলে অতিদ্রুত প্রতিষ্ঠানটি মেরামত করা সম্ভব হতো।

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান মোকাবিলায় আত্রাই থানা পুলিশের পক্ষ থেকে নিরলসভাবে কাজ করছে আত্রাই থানা পুলিশ।

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের আঘাতে বৃহস্পতিবার ভোররাতে উপজেলার রসুলপুর নামকস্থানে আত্রাই নওগাঁ আঞ্চলিক সড়কের যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাওয়া সহ বিভিন্ন এলাকার রাস্তাঘাটে গাছের ডালপালা পড়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে সাথে সাথে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি মোসলেম উদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্সসহ  নিরলসভাবে কাজ করে আত্রাই নওগাঁ আঞ্চলিক সড়কের যানচলাচল স্বাভাবিক অবস্থানে নিয়ে আসেন।

বুধবার সন্ধ্যা থেকেই আস্তে আস্তে নওগাঁর আত্রাই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান। ফলে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় আমের ব্যাপক ক্ষতি ও মাটির সঙ্গে নিয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি মোসলেম উদ্দিন জানান, আম্ফান মোকাবিলায়  থানা পুলিশের পক্ষ থেকে উপজেলার সকল এলাকা মনিটরিং ব্যবস্থা এবং যে এলাকা গুলোতে ঝরে গাছপালার ডালপালা পড়ে রাস্তাঘাট বন্ধ হয়ে রয়েছে সে এলাকা গুলোতে মানুষ যাতে সহজে আসতে পারে তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, করোনার চিন্তা মাথায় রেখে আমাদের কাজ করতে হচ্ছে। এলাকা গুলোতে সামাজিক দূরত্বের বিষয়টি কঠিন হয়ে যাবে। তারপরও আমরা এ বিষয়ে সতর্ক থাকব। আত্রাই  ঘূর্ণিঝড়ের ফলে কোনো জানমালের ক্ষয়ক্ষতি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে আত্রাই থানা পুলিশ মাঠে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে মানুষের মাঝে কোনো ভীতি কাজ করছে না।উপজেলা প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে কাজ করবে পুলিশ।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাই প্রেসক্লাবের আয়োজনে নাটোরের লালপুর গ্রীন ভ্যালী পার্কে আনন্দঘন ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বার্ষিক বনভোজন সম্পন্ন হয়েছে।

১৯৮৭ খ্রিস্টাব্দে আত্রাই প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠিত হলেও এ বনভোজন ছিল প্রথম বনভোজন। প্রেসক্লাবের সকল সদস্যরা এক সাথে একত্রিত হয়ে একে অপরের সাথে কোশল বিনিময়ে মুখরিত হয়ে উঠেছিলো গ্রীন ভ্যালী পার্ক চত্বর।

সোমবার দিন ব্যাপী এ বনভোজনে নেতৃত্বদেন আত্রাই প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক রুহুল আমিন ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হোসাইন সেন্টু।

এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সহ-সভাপতি রুহুল আমিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক নাজমুল হক নাহিদ, প্রচার সম্পাদক আল-আমিন মিলন, কোষাদক্ষ ফিরোজ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক ছাবেদ আলী, কার্য্য নির্বাহী সদস্য মুজাহিদ খাঁন, তপন কুমার, আব্দুল মান্নান, এমরান মাহমুদ প্রত্যয়।

পরিশেষে আত্রাই প্রেসক্লাবের সভাপতি রুহুল আমিন সকল সদস্য বনভোজনে অংশ গ্রহণ করায় সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই(নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে ইমারত নির্মাণ শ্রমিকের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারী কলেজে ৭৭৮ জনের মধ্যে ৬৫৫ জন ভোটার শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অবাধে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে। ভোটগ্রহণ সকাল নয় টায় শুরু হয়ে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত চলে। সম্পাদকসহ নয়টি পদের প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দীতায় বিজয়ী হলেও এ দিন সভাপতি,সাংগঠনিক ও কোষাধ্যক্ষ পদে ভোট হয়। এতে সভাপতি টিপু সুলতান চেয়ার(৩৪৬) ,সাংগঠনিক মকছেদুর রহমান মই(৩৯৫) ,কোষাধ্যক্ষ মোফাজ্জল হোসেন মন্টু বাস(৩৩১) ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়। পরাজিত প্রার্থীরা তাদের পরাজয় মেনেনিয়ে ভোট সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে মর্মে বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়ে তাদের সাথে এক হয়ে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল বলেন, ভোট গ্রহণ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। শতকরা ৮৪.১৯ শতাংশ ভোটার তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত এলাকা আত্রাই উপজেলা। এই উপজেলা মূলত উত্তরবঙ্গের মধ্য মৎস্য ও শষ্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত। বাঙ্গালী জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামের চুড়ান্ত বিজয়ের দিন ১৬ ডিসেম্বরের বাকী আর ২দিন। ১৯৭১ সালের ১৪ডিসেম্বর আত্রাই বাসীর জন্য একটি স্মরনীয় দিন। ১৯৭১ এর আজকের এই দিনে নওগাঁর আত্রাই উপজেলা হানাদার মুক্ত হয়।

স্বাধীনতার সংগ্রামে সাড়া দিয়ে সারা দেশের ন্যায় এই উপজেলার মুক্তিযোদ্ধারা মাতৃভূমিকে শত্রু মুক্ত করার লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন। মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের ৯মাস রক্তক্ষয়ী লড়াইয়ের পর নওগাঁর আত্রাই উপজেলাবাসী আজকের এ দিনে শত্রুমুক্ত হয়ে বিজয় উল্লাস আর “জয় বাংলা,বাংলার জয়” জয়ধ্বনিতে প্রকম্পিত করে তুলেছিল উপজেলার আকাশ-বাতাস। এ এলাকা পাক হানাদার মুক্ত করতে অসংখ্য জীবন বলিদান এবং কত অসহায় মা বোনের ইজ্জত লুন্ঠন করেছিল সেই ভয়াবহ দিনে তার সঠিক পরিসংখ্যান কেউ জানে না। এছাড়াও পঙ্গুত্বের অভিশাপ আর মা-বাবা, স্বামী, স্ত্রী, ভাই, বোন হারানো অসহ্য যন্ত্রনা নিয়ে এখনও অনেক নারী-পুরুষ বেঁচে আছে। স্বাধীনতার এত বছর পেরিয়ে গেলেও কেউ তাদের খোজ-খবর রাখেনি।

সাবেক এমপি ও মুক্তিযোদ্ধা ওহিদুর রহমান বলেন, সেই সময় চলাচলের জন্য যোগাযোগ ব্যবস্থা তেমন ভালো ছিলো না। রেলপথই ছিলো সহজ ভাবে চলাচলের জন্য সুবিধাজনক বাহন। তাই আমরা বুদ্ধি করে ৭১সালের ৬সেপ্টেম্বরে আত্রাই-সান্তাহার অংশের সাহাগোলা নামক স্থানে সাহাগোলা রেল ব্রিজটি ধ্বংস করে দিই। এতে করে নাটোর থেকে পাক-বাহিনীর সেনা বহনকারী একটি স্পেশাল ট্রেন রাতে লাইট বন্ধ করে ওই ভাঙ্গা ব্রিজ দিয়ে যাওয়ার সময় ট্রেনটি ওই ব্রিজের নিচে পড়ে যায়।

এতে করে পানিতে ডুবে অনেক পাক-সেনা নিহত হয়। এটাই আমাদের সবচেয়ে বড় জয় ছিলো। এরপর পাক-বাহিনীরা যুদ্ধে আমাদের সঙ্গে না পেরে নাটোরের অভিমুখে পালিয়ে যায়। পরে মুজিব বাহিনী ও মুক্তিকামী জনতা রাত ২টায় প্রথমে থানায় পদার্পণ করে স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করে। আর আমরা এভাবেই অনেকটা কম পরিশ্রম ও কম হানাহানির মাধ্যমে ১৪ডিসেম্বর আত্রাই উপজেলাকে হানাদার মুক্ত করি।

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির পরিচিতি ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার সকাল ১০টায় থানা বিএনপি’র অস্থায়ী কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তি, সংগঠনকে শক্তিশালী ও সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ সভার আয়োজন করা হয়।

এ সময় থানা বিএনপি’র নবগঠিত আহ্বায়ক আব্দুল জলিল চকলেট তার বক্তব্যে বলেছেন, ‘চিকিৎসার অবহেলায় জেলখানায় বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার মৃত্যু হলে দেশের জনগণ বর্তমান সরকারকে ছেড়ে দেবে না। এজন্য বর্তমান সরকারই দায়ী থাকবে। ক্ষমতাসীন সরকার খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেবে না। তাই দলকে তৃণমূল পর্যায় থেকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলে জোরদার আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটিয়ে নেত্রীকে মুক্ত করতে হবে।

থানা বিএনপি’র যুগ্ন আহ্বায়ক আব্দুল মান্নান সরদারের স ালনায় নবগঠিত আহ্বায়ক আব্দুল চলিল চকলেটের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, যুগ্ন আহ্বায়ক ফৌজদার মো. শফিকুল ইসলাম বেলাল, এসএম রেজাউল ইসলাম রেজু, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান, তসলিম উদ্দিন, এড, মোজাহারুল হক, শেখ মঞ্জুরুল আলম, এসএম ফারুক বখ্ত, মোয়াজ্জেম হোসেন চাঁন্দু, আব্দুল হাকিম, আব্দুল করিম সরদার, সহকারী অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম, আমজাদ হোসেন, রেজা তালুকদার, মামুনুর রশিদ হিরু, আসমাইল মাস্টার, প্রকৌশলী আতিকুর রহমান রতন মোল্লা, মতি মেম্বার, আব্দুল কাদের মেম্বার, আসদুজ্জামান আসাদ, আবু জাহিদ ডালিম, রফিকুল ইসলাম, গোলাম মোস্তফা লাভলু, শহিদুর রহমান চ ল, আলমগীর হোসেন, হামিদুল হক, এড. আবু বেলাল জুয়েল, শাহজাহান আলী, সাইফুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, সাইদ মেম্বার, মাহবুবুল করিম রকেট, শাহিন আলম, আবুল কালাম আজাদ পারভেজ, নিয়ামতুল্লাহ বাবু, সাজ্জাদ হোসেন তোতা, সুরুজ মেম্বার, ডা. মোফাজ্জল হোসেন, আনোয়ার তরফদার, আনোয়ার হোসেন, মেরিনা বেগম, জাহিদুল ইসলাম, এসপি ও সাইদুর রহমান প্রমূখ।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে সাবরেজিস্ট্রি অফিসের কেরামতির জালিয়াতিতে বিপাকে পড়েছে বিক্রেতা এখন ভিটে বাড়ি রক্ষা করা কঠিন হয়ে গেছে। অভিযোগে জানা গেছে ধানী জমি বিক্রয় করা হলেও ক্রেতা কৌশলে ভিটা জমি উল্লেখ করায় বিপাকে পড়েছেন দাতারা। ঘটনাটি ঘটেছে আত্রাই সাবরেজিস্ট্রি অফিসের আওতাধীন নাটোরের খাজুরা মৌজায়। এ ব্যাপারে দাতাগণ নওগাঁ জেলা প্রশাসক বরাবর একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, খাজুরা গ্রামের হাসেম আলী ও হোসেন আলী দুই ভাই ১৯৭৯ সালের ২১ মে তারিখে ৪ শতক ধানী জমি বিক্রয় করেন। আত্রাই সাবরেজিস্ট্রি অফিসের দলিল নং ২৯৬৪, তারিখ ২১/০৫/৭৯, বালাম নং ৪৮, পাতা নং- ১০২-১০৪। উক্ত জমির ক্রেতা সুরজান বিবি কৌশলে সাবরেজিস্ট্রি অফিসের অসাধু লোকজনের সহায়তায় ধানীর পরিবর্তে ভিটা উল্লেখ করে দীর্ঘদিন পর তা জবর দখল করতে আসছে। এতে করে দুই পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ ব্যাপারে গতকাল মঙ্গলবার আত্রাইয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাবরেজিস্টার জবা মন্ডলের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, জমির শ্রেনী পবির্তনের বিষয়টি সঠিক নয়। তবে ওই দলিলের বালাম বইয়ে অংশ কর্তনে কিছু রদবদল করায় সংশ্লিষ্ট কর্মচারীকে শোকোজ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আরও তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থাও নেয়া হবে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc