Monday 26th of October 2020 01:36:29 PM

জলবায়ু সুবিচারের দাবিতে বরিশালে অবরোধ পালন করেছে তরুণরা। বৈশ্বিক জলবায়ু কার্যক্রম দিবসের অংশ হিসেবে সুইডিস পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গের আহবানে সাড়া দিয়ে এই কর্মসূচি আয়োজন করে ফ্রাইডেস ফর ফিউচার বাংলাদেশ ও ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস। কোস্টাল ইয়ুথ একশন হাব ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা একশনএইড বাংলাদেশের সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যবিধি ও শারীরিক দূরত্ব মেনে প্রতিকূল আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে তরুণ জলবায়ুকর্মীরা নগরীর অশ্বিনী কুমার হল প্রাঙ্গণে একত্রিত হয়।

পরিবেশবাদী সংগঠন আরণ্যকের সভাপতি কথক বিশ্বাস জয়ের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মডেল ইয়ূথ পার্লামেন্ট’র চেয়ারপার্সন ফিরোজ মোস্তফা, ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের সমন্বয়ক সোহানুর রহমান, কোস্টাল ইয়ুথ একশন হাবের ম্যানেজার জুবায়ের ইসলাম সহ বিভিন্ন স্বেচ্চাসেবী সংগঠনের সদস্যরা।

বৈশ্বিক উষ্ণায়নের বিরুদ্ধে আরোও জোড়ালো পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়ে এ সময় বক্তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে মানব জাতি আজ বিপদাপন্ন। এ বৈশ্বিক সংকট মোকাবেলায় তরুণদের ভূমিকা আরও অর্থবহ করতে জাতীয় পর্যায়ে নীতি নির্ধারণ থেকে শুরু করে তা বাস্তবায়ন, সবকিছুতেই তরুণদের সম্পৃক্ত করতে হবে।

এছাড়া করোনা প্রণোদনা যেন জলবায়ু-সামঞ্জস্যপূর্ণ উন্নয়নকে সর্মথন করে, সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া বাঞ্ছনীয়।

ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের সমন্বয়ক সোহানুর রহমান জানান, জলবায়ু সংকটের কারণে গোটা বিশ্ব ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে এই ঝুঁকির মাত্রা অনেক বেশি। বিশ্ব নেতৃবৃন্দ এই বিষয়টি আমলে নিচ্ছেন না। জলবায়ু পরির্বতনের ঝুঁকি হ্রাস করতে এসব দেশের অবস্থান সংকীর্ণ।

প্যারিস চুক্তি প্রণয়নের প্রায় ৫ বছর অতিক্রান্ত হলেও জলবায়ু পরিবর্তন ও এর প্রভাব মোকাবেলায় কার্যকর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। তারা আমাদের ভবিষ্যত ও বর্তমান নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে। তাই ২০২৫ সালের মধ্যেই গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণের মাত্রা শুন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে৷ জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী রাষ্ট্রসমূহের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায় ও জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য আদায়কৃত অর্থ যথাযথভাবে ব্যয় করতে হবে।

পিন্টু অধিকারী মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ  হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়ককের নয়াপাড়া এলাকায় মার কোম্পানির নিকট দ্রুতগামী এনা পরিবহনের বাসের ধাক্কায় মালেকা বেগম (৮০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছে। মালেকা বেগম উপজেলার নয়াপাড়া ইউনিয়নের এক্তারপুর গ্রামের সিরাজ আলীর স্ত্রী।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,বৃদ্ধা মালেকা বেগম রাস্তা পারাপারের সময় সিলেট থেকে ঢাকাগামী একটি দ্রুতগামী এনা পরিবহনের বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

এসময় উত্তেজিত জনতা একঘন্টা ঢাকা – সিলেট মহাসড়ক বন্ধ করে বিক্ষোভ করতে থাকে। পরে মাধবপুর থানা পুলিশ ও শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানা পুলিশ এসে জনতাকে শান্ত করে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করে।

শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তৌফিকুল ইসলাম তৌফিক দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত এনা পরিবহন গাড়িটি উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। তবে চালক পালিয়ে গেছে । তিনি অনেক বয়স্ক ও অসুস্থ ছিলেন এবং চোখে কম দেখতেন। পরিবারের সদস্যরা বৃদ্ধার মৃতদেহ নিয়ে গেছেন।

কক্সবাজারে স্থানীয় যুব সংগঠকদের জলবায়ু অবরোধ কর্মসূচি পালিত।

জলবায়ু সংকটের হাত থেকে কক্সবাজারকে বাঁচাতে জলবায়ু  অবরোধ করেছে স্থানীয় যুব সংগঠকরা।‘বাঁচাও কক্সবাজার, বাঁচাও দেশ, জলবায়ু ঝুঁকিতে বাংলাদেশ’ শ্লোগানে কক্সবাজারে জলবায়ু অবরোধ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।
বিভিন্ন দাবিসম্বলিত প্লাকার্ড হাতে কক্সবাজারের ১২টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের শতাধিক যুবরা জলবায়ু সংকট মোকাবিলায় সকলে একাত্বতা প্রকাশ করেন অবরোধ কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন।পরে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মাধ্যমে “জলবায়ু পরিবর্তন জনিত ক্ষয়-ক্ষতি কমানোর লক্ষে গ্লোবাল ক্লাইমেট একশন উইক এর আহ্বানে ‘জলবায়ু জরুরী অবস্থা’ ঘোষণার জন্য প্রধাণমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
রোববার (৮ মার্চ) বিকাল ৩টায় কক্সবাজার কেন্দ্রিয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে একশনএইডের সহযোগিতায় ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস এর আয়োজনে এই কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।
ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস এর কক্সবাজারের প্রতিনিধি জাবেদ নূর শান্ত সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মসূচীতে বক্তারা বলেন, ইয়ুথনেট এর এমন একটি কর্মসূচী আসলেই প্রশংসনীয়। একটি দেশের নাগরিক হিসেবে এই দেশকে জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে এবং ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। এটা সকলের নাগরিক দায়িত্ব এবং কর্তব্য।
কর্মসূচীর সার্বিক প্রসঙ্গে ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস এর  কক্সবাজার প্রতিনিধি জাবেদ নূর শান্ত বলেন, জলবায়ু সংকটে বাংলাদেশ যেমন ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর তালিকায় সবার শীর্ষে। আমি মনে করি আমাদের তরুণ-তরুণীদের হাত ধরে এই জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় ব্যাপক অবদান রাখায় সারা বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান হবে সব দেশগুলোর শীর্ষে! জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় সকল তরুণ-তরুণী এবং বাংলাদেশের সকল স্বেচ্ছাসেবী যুব সংগঠনের সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।
কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন নতুন জীবন সংগঠনের সহ-সভাপতি মিনহাজ চৌধুরী, স্বপ্নজালের পরিচালক সাকির, মেডিটেটিভ ইয়ুথ এর পরিচালক আবতাহী আবরার, ইয়াসিদ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কায়সাদ হামিদ, কক্সবাজার ব্লাড ডোনারস সোসাইটি’র এডমিন আশরাফুল হাসান ও জাহাঙ্গীর আলম, বিআইবিও’র সহ-সভাপতি আদিল, অদম্য’র সদস্য হাসান, টেকপাড়া তরুণ ঐক্য পরিষদের সভাপতি আসিফ উল করিম, এসটিআর ফর চেইঞ্জ’র পরিচালক কাওসার, প্রতীকি যুব সংসদের কক্সবাজার শাখার সদস্য জিমরান মাহমুদ সায়েদ, দিভা অর্গানাইজেশন’র সিইও সাবরিনা রহিম প্রিয়া, এক টাকায় আলোকিত কক্সবাজার’র অর্থ সম্পাদক সাবেকুন্নাহার,  চট্টগ্রামস্থ কক্সবাজার জেলা ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি গাজী নাজমুল হক।
এছাড়াও কক্সবাজারের বিভিন্ন যুব এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অংশগ্রহণ করেন। প্রেস বার্তা

দুই ঘন্টা রাস্তা অবরোধ করে যানচলাচল বন্ধ ফলে জনদুর্ভোগ

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ  হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলায় দুইদল খেলোয়াড়দের মাঝে বাকবিতন্ডায় ত্রি-মূখি সংঘর্ষে অন্তঃ ১০জন  আহত হয়েছে। শনিবার বিকাল ৪টায় স্থানীয় ডিসিপি হাই স্কুল খেলার মাঠে এঘটনাটি ঘটে। আহতরা হলেন – উপজেলার উবাহাটা ইউনিয়নের ইমরান মিয়া (১৬), ওয়াজিদুর রহমান (১৭), আনোয়ার (১৮), সাইফুল ইসলাম (২০) বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

জানা গেছে প্রতিদিনের ন্যায় ৩য় দিনের খেলা অনুষ্ঠিত হয় উক্ত খেলায় অংশগ্রহন করে চুনারুঘাট পৌরসভা বনাম ৭নং উবাহাটা ইউনিয়ন। খেলা চলাকালীন উভয় দলের খেলোয়াড়দের মাঝে ভুলবোঝাবুঝি নিয়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর দু’দলের খেলোয়াড়দের সমাধান করে পূনরায় খেলা শুরু হয়। খেলা শেষে বিক্ষোভদ্ধ খোলোয়াড়সহ তাদের সমর্থকরা শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রীজ এলাকায় চুনারুঘাটের সকল প্রকার যানবাহন আটক করে দেয় এবং পৌর শহরের লোকজনকে মারধর করে ।

এসময় তাদের হামলায় জনসাধারণ সিএনজি শ্রমিকসহ মমিনপুর সৈয়দ নবাব আলীর পুত্র শ্রমিক নেতা সৈয়দ লিংকন(২৫ কে বেধরক পিঠিয়ে গুরুতর জখম করে।

এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে এসময় উত্তেজিত জনতা যান চলাচল বন্ধ করে দেয় । এতে নতুন ব্রীজ এলাকায় দুইঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করেনএবং বিচারের আস্থস্ত করলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। এঘটনায় দু’দলের খেলোয়াড়দের মাঝে  উত্তেজনা বিরাজ করছে।

আর সাধারণ পাবলিক আমরা ধুকে ধুকেই মরি তাই না ?

ভ্রাম্যমান সংবাদ দাতাঃ  অবরোধের নামে সাধারণ পাবলিককে জিম্মি করে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন এলাকায় পরিবহন চালকদের নৈরাজ্য নিয়ে সচেতন মহল বার বার আলোচনা সমালোচনা ও দোষারোপ করার ফলেও আজ পর্যন্ত এই সেক্টরে স্বচ্ছতা আনতে পারেনি কোন প্রশাসন।অপর দিকে পুলিশের বিরুদ্ধে রয়েছে নানা অভিযোগ এই রকম নানা অভিযোগ তুলে  আজ মঙ্গলবার  শ্রীমঙ্গল এলাকায় পরিবহণ শ্রমিকদের ডাকা অবরোধ চলা কালে এক ভুক্তভোগি কর্তৃক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া একটি স্ট্যাটাসের হুবহু বিবরণ ও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কমেন্ট পাঠকদের পড়ার সুবিধার্থে নিম্নে  উল্লেখ করিলাম।

স্ট্যাটাস নিম্রুপ  “ড্রাইভাররা যদি করে অনিয়ম! পুলিশরা যদি খায় ঘুষ! তাহলে সাধারণ পাবলিকের কি দোষ?

অবরোধের নামে সাধারণ পাবলিককে জিম্মি করে হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া এটা কোন ধরনের ডাকাতি বুঝে আসে না? অবরোধ ডাকবে আবার গাড়ীও চালাবে এটা কোন ধরনের বাটপারি? তা যেন দেখার কেহ নাই? এ দেশ যেন, ক্রমশ চোর বাটপারের দখলে চলে যাচ্ছে! মগের মুল্লুকও এর চেয়ে ভাল বলে আমি মনে করি।

পরিবহণ সেক্টরের মত এত অনিয়ম বাংলাদেশের আর কোথাও আছে বলে আমার মনে হয় না? যেখানে সিংহভাগ ড্রাইভারেরই বৈধ লাইসেন্স নাই! অধিকাংশ গাড়ীরইরোড পারমিট নাই আর ফিটনেস বিহীন গাড়ীতে যেন,রাস্তা সয়লাব! পরিবহন সেক্টরের শ্রমিকদের একটি বিরাট অংশের ভাষার মান মারাত্মক নিম্নমুখী,নোংরা,এবং অমার্জিত সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

পরিশেষ বলতে চাই উপরোক্ত সমস্যাদি এত প্রকট আকার ধারন করত না? যদি না কিছু অসাধু পুলিশ ২০০/৫০০/১০০০ টাকার বিনিময়ে ছাড় না দিতো!!!

কেউ করছে অনিয়ম আর কেউ করছে পকেট ভারী ? আর সাধারণ পাবলিক আমরা ধুকে ধুকেই মরি তাই না ?”

কমেন্ট সাধারন মানুষের প্রতিক্রিয়া নিম্নরুপঃ মোঃ মিল্লাত হোসেন ভাই যেন মনের যাতনা আপনার কলমের খোঁচায় প্রকাশ পেল। 

Sheikh Muktadir Ahmed আপনার সাথে আন্তরিকভাবে একমত।

মোহাম্মদ কামাল আহমেদ ভাই সত্য কথা লিখেছেন । রাএ 9টার পরে ওরা শুধু
মৌলভি বাজার। মৌলভি বাজার। বলে আর কালাপুর ভৈরব বাজার লামুয়া সিরাজ নগর এর গাড়ী নাই । আমরা কিভাবে জাব সেটা চিন্তা করে না আর যদি ও জায় 20 টাকা ভাড়া

Sk Monjur Ahmed এদের কে আইনের আওতায় আনতে হবে✔️  ।

Minhaj Ahmed Ruhin ভাই শ্রীমঙ্গল থেকে মৌলভীবাজার রোডে রাত ৯টার পরে ভাড়া ডাবল হয়ে যায় তা নিয়ে আগামীতে লেখার অনুরুধ রইলো।
আশা রাখছি আপনি এভাবেই অন্যায়ের বিরুদ্ধে লিখে যাচ্ছেন এবং যাবেন ইনশাআল্লাহ।

Md Saiful Islam দিন শেষে ড্রাইভার এবং পুলিশের এই লাভ লস শুধু আপনার আর আমার। সুত্রঃ  মোঃ মকবুল হোসেন  

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ শ্রীমঙ্গলে লাশবাহী গাড়ী আটকের অভিযোগে স্থানিয় পরিবহন শ্রমিকরা আজ শনিবার দুপুরে (১১ টা থেকে পৌনে দুই’টা) প্রায় পৌনে ৩ ঘণ্টা ব্যাপি রাস্তা অবরোধের ফলে রাস্তার দুইপাশে আটকা পড়ে শতাধিক পরিবহন যান, সৃষ্টি হয় যানজটের,দুরপাল্লার যাত্রীরা পড়ে চরম বেকায়দায়।

অভিযোগ উঠেছে, মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সাতগাঁও হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ি কর্তৃক মতিগঞ্জের বটের তল নামক এলাকায়  লাশবাহী একটি গাড়ী পৌঁছলে গাড়িটি আটকিয়ে হয়রানি,চাঁদা দাবী এবং চালককে মারধর করে পুলিশ।এর প্রতিবাদে উপজেলার বিভিন্ন স্তরের সাধারন শ্রমিকরা রাস্তায় অবরোধ করেন।

অবরোধে আটক গাড়ির বহর 

এ ব্যাপারে পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন এর সাধারণ সম্পাদক শাহাজান মিয়া আমার সিলেটকে জানান,” আমাদের একজন শ্রমিক মতিগঞ্জ এলাকার নাম রুবেল তিনি একজন গাড়ির চালক ছিল সে গতকাল রাতে সিলেট ওসমানী নগরে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একটি পিকআপ ভ্যানে করে তার লাশ গ্রামের বাড়ির দিকে নিয়ে যাচ্ছিল এ সময় লাশ বহনকারি গাড়ি আটকিয়ে সাতগাঁও হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই নান্নু মন্ডল ৫হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে ফলে  বিক্ষোব্দ সাধারণ শ্রমিকরা  এই অবরোধ করেছেন। পরে ওসি সাহেবের

উপস্থিত ওসি আব্দুস ছালেক ও পরিবহণ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ

আশ্বাসে আমরা তা প্রত্যাহার করেছি”

জানা যায়,ঘটনার প্রেক্ষিতে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি আব্দুস ছালেক ও শ্রমিক নেতারা আলাপ আলোচনা করে ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই নান্নু মন্ডলকে বদলির আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা অবরোধ প্রত্যাহার করেন।

চাঁদা দাবীর অভিযোগ সংক্রান্ত ব্যাপারে এস আই নান্নু মন্ডল আমার সিলেটকে বলেন,”এটি সম্পুর্ন মিথ্যা অভিযোগ লাশের গাড়ী আটকিয়ে চাঁদা দাবীর প্রশ্নই উঠেনা তা ছাড়া লাশের গাড়ী তো আমি দেখিইনি।”

রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার হরিপুরে গত ২২ মে বুধবার রাত ১১ টায় হরিপুর বাজারে চিহ্নিত আসামী ধরতে আসে র‌্যাব-৯ এর টহল টিম। এসময় চেরাইপথে নিয়ে আসা ভারতীয় নাছিরবিডি, মাদক সামগ্রী ও গরু ধরতে গেলে চোরাকারবারীদের গডফাদারদের ইশারায় মুহুত্বে মধ্যে টহল টিমের উপর হামলা চালায়। এঘটনায় র‌্যাবের অফিসার সহ বেশ কয়েকজন সদস্য আহত হন। এরই জের ধরে রাত ২টায় হরিপুর অ লে বিভিন্ন গ্রামে র‌্যাবের উপর হামলাকারী ও চোরাই মালামাল উদ্ধারের লক্ষ্যে অভিযান পরিচালনা করা হয়। ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল কাহির পঁচা, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ প্রায় ৩০জনকে আটক করে র‌্যাব-৯ কার্যালয়ে নিয়ে যায়।
চেরাকারবারীদের ব্যবসা রক্ষার ও নিরিহ মানুষদের হয়রানীর করার প্রতিবাদে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক সকাল হতে অবরোধ করে স্থানীয় জনসাধারন। রাস্তা অবরোধের ফলে রাস্তায় আটকাপড়ে সহ্রসাধীক যাত্রী, জরুরী কাজে আসা জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কানাইঘাট উপজেলা কর্মকর্তা কর্মচার, তামাবিল স্থলবন্দরের অফিসার ও ইমিগ্রেশনে যাত্রায়াতকারীরা।
বিগত দিনে নিজেদের মধ্যে যে কোন ধারনে কাথাকাটাকাটি কে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রে পরিনত হয়। ফলে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করে নেয় একটি পক্ষ। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের কাছে হয়ে পড়ে জিম্মি। ঘন্টার পর ঘন্টা দূর্ভোগ পোহাতে হয় তামাবিল মহাসড়কে যাথায়াতকারীরা। কিছুদিনের মধ্যে আবার তাদের মধ্যে ভাল সম্পর্ক গড়ে উঠে কিন্তু বিচার পায়নি ভোক্তভোগী সাধারণ মানুষ।
আটকে পড়া ভোক্তভোগীদের যাত্রীদের অনেকের সাথে আলাপকালে তারা জানান- রমজান মাসে সকালে বাড়ী থেকে বের হই জরুরী কাজের জন্য। কাজ শেষ করে দ্রুত ইফতারের পূর্বে বাড়ী ফিরতে হবে। আমরা হরিপুরে এসে অযুক্তিক অবরোধের কবলে পড়ে হয়রানীর শিকার হচ্ছি। সীমান্ত এলাকা হতে হরিপুরের দূরত্ব প্রায় ২০ কিলোমিটার। তারপর এখানে চোরাকারবারী ও তাদের গডফাদারদের অবৈধ মালামাল রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপর আক্রমনের দায় নিতে হচ্ছে আমাদেরকে। জৈন্তাপুর উপজেলার মধ্যে ২টি কোম্পানীর ৫টি বিজিবি ক্যাম্প, ১টি মডেল থানা থাকার পরও কিভাবে সড়ক পথে প্রতিদিন ভারতীয় নাছির বিড়ি, বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সিগারেট, চা-পাতা, গাড়ীর ট্রায়ার, টিউব, পার্স সামগ্রী, মটর সাইকেল, সিএনজি অটোরিক্সা, মদ, ইয়াবা, হেরোইন, আফিম, গাজা, অবৈধ অস্ত্র, গোলা-বারুদ, ভারতীয় রুপি এবং গরু ও মহিষ অবৈধ পথে বাংলাদেশে প্রবেশ করা হচ্ছে। বিপরিতে বাংলাদেশ হতে চোরাকারবারীদের মাধ্যমে মিষ্টির কাটুনে যাচ্ছে শত শত স্বর্নের বার। চেয়ে চেয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার থাকে না আইন শৃঙ্খলাবাহীনির। চোরাকারবারীদের সাথে জড়িত থাকার কারনে ইতোমধ্যে ফতেপুর ইউপির নির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদকে ৬মাসের সাজা ও অর্থদন্ডে দন্ডিত করে মানননীয় আদালত। এঘটনায় ইউপির চেয়ারম্যানপদটি থাকে হারাতে হয়েছে। বাজার ইজারাদার অবৈধ ভাবে ভারতীয় গরু রশিদ দিয়ে বৈধ করে বাংলাদেশের বিভিন্ন বাজারে প্রেরণ করতে চোরাকারবারীদের সহযোগিতা করে ফলে বিভ্রান্তে পড়তে হয় সিলেট শহরে প্রবেশ দ্বারে আইন শৃঙ্খলায় নিয়োজিত র‌্যাব-পুলিশ ও অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থায় নিয়োজিত সদস্যদের।
গত ১৪ মে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা বৈঠকের ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিৎ কুমার পাল জৈন্তাপুর সীমান্তের ৫টি বিজিবি ক্যাম্পকে ভারতীয় পন্য এবং ভারত হতে অবৈধ পথে নিয়ে আসা গরু প্রবেশ করতে না পরে এবং চোরাকারবারীদের আপডেট তালিকা প্রস্তুত করার নিদের্শজারী করলেও সীমান্ত পথে চোরাইপন্য ও গরু আসা বন্ধ হচ্ছে না।
রাস্তা অবরোধের বিষয়ে জানতে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানিয়া সুলতানা জানান- বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের সাথে আলোচনা চলছে আশারাখি দ্রুত একটি সমাধান চলে আসবে।
এবিষয়ে জানতে একাধিকবার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ ময়নুল জাকির এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের নাভারণ পুরাতন বাজারে ব্যাটারী চালিত ইঞ্জিনভ্যান চালকরা হাইওয়ে পুলিশ কতৃক হয়রানির প্রতিবাদ জানিয়ে ৩ ঘন্টা সড়ক অবরোধ করে। এতে করে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে ভোগান্তি মধ্যে পড়ে বেনাপোল বন্দরের আমদানী-রফতানি শতশত পন্য বোঝায় ট্রাকসহ সব ধরনের যানবাহন। সোমবার বিকাল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক অবরোধ করে নাভারন হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন ভ্যান শ্রমিকরা।
সরেজমিনে জানা যায়, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে যশোর-বেনাপোল মহাসড়কে লাগাতার ব্যাটারী চালিত ইঞ্জিনভ্যান আটকে নামে নাভারণ হাইওয়ে পুলিশ। গরীব ভ্যান শ্রমিকদের ভ্যান জব্দ করে ৫শত টাকা করে নিয়ে কেস স্লিপ ধরিয়ে দিচ্ছে হাইওয়ে পুলিশ। কেস মিটিয়ে গরীব শ্রমিকরা তাদের একমাত্র অবলম্বন ভ্যান গাড়িটি ছাড়িয়ে আনার কয়েকদিন না যেতেই আবারো তাদের ভ্যান গাড়িটিকে জব্দ করে কেস দেওয়া হচ্ছে। এভাবে একের পর এক গরীব ভ্যান শ্রমিকদের আর্থিক ও মানষিক ভাবে হয়রানি করার কারনে এলাকার সমস্ত ভ্যান শ্রমিকরা একজোট হয়ে ব্যাটারী চালিত ইঞ্জিনভ্যান নিয়ে সড়কে নেমে পড়েন এবং হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করেন।
অবশেষে স্থানীয় ইউপি সদস্য মুজিবুর রহমান ও তরিকুল ইসলাম মিলনের মধ্যস্থতায় সন্ধ্যা ৬টার সময় আটককৃত ৫টি ব্যাটারী চালিত ইঞ্জিনভ্যান ছেড়ে দেওয়া ও পর বর্তীতে ভ্যান চালকদের আর অজাথা হয়রানী না করার আশ্বাসে অবরোধ প্রত্যাহার করে।

এম ওসমান, বেনাপোল : যশোরের শার্শায় জিপের চাপায় নিপা নামে এক স্কুল ছাত্রীর শরীর থেকে পা বিচ্ছিনের ঘটনায় যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক অবরোধ করেছে স্কুল ছাত্র-ছাত্রীরা।
শনিবার (২৩ মার্চ) সকাল ৭ থেকে সকাল ১০ টা পর্যন্ত যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের সাতক্ষীরা মো‌ড়ে এ অবরোধ কর্মসূ‌চি পালন করা হয়।
এ সময় ছাত্র-ছাত্রীরা ব‌লেন, সড়ক দূর্ঘটনার ৪৮ ঘন্টা পে‌রি‌য়ে গেলেও পু‌লিশ ঘাতক জিপ চালককে আটক করতে পারেনি। তারা দাবি করেন, অতিলম্বে ঘাতক চালককে আটক করতে হবে। সেই সাথে আমাদের সহকর্মী নিপার সমস্ত চিকিৎসা খরচ বহনসহ তাকে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্তা করতে হবে।
এ সময় প্রশাসনের  পক্ষ থেকে ঘাতক চালককে আটকের  প্রতিশ্রুতিসহ ছাত্র-ছাত্রীদের সকল দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে তারা সকাল ১০ টার সময় অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়।
উল্লেখ্য, গত বুধবার (২০ মার্চ) জিপ গাড়ির চাপায় নাভারণ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের নিপা নামে এক স্কুলছাত্রীর শরীর থেকে পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এসময়  তার সাথে থাকা স্মৃতি ও রিপা নামে আরো দুই স্কুল ছাত্রী আহত হয়।

রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ সিলেটের জৈন্তাপুরে আসামপাড়া আদর্শগ্রাম কোয়ারীতে বালু পাথর উত্তোলন করাকে কেন্দ্র করে শ্রমিকদের সাথে বিজিবি‘র সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ৪ শ্রমিক আহত হয়, প্রতিবাদে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক প্রায় ৩ ঘন্টা অবরোধ করে রাখে উত্তেজিত শ্রমিকরা। আজ মঙ্গলবার বৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিকের ডাকে প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়- সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার একমাত্র পাথর কোয়ারী শ্রীপুর আদর্শগ্রাম। পাথর কোয়ারীতে বিভিন্ন গ্রুপে কয়েক হাজার শ্রমিক কর্মরত আছে। তার মধ্যে ৫ নভেম্বর সোমবার দুপুর ১টায় প্রতিদিনের ন্যায় ট্রাকে পাথর লোড করেত যায় বৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের আদর্শগ্রাম ইউনিটের শ্রমিকরা। পূর্ব কোন বাধাঁ ছাড়া ৪৮ বিজিবি‘র শ্রীপুর ক্যাম্পের জোয়ানরা সাধারন শ্রমিকের উপর হামলা চালায়। এতে বিজিবির জোয়ানদের লাঠির আঘাতে আহত হয় বেশ কয়েকজন শ্রমিক। এসময় গুরুত্বর আহত হয় উপজেলার ডুলটির পাড় গ্রামের মুমিনুল হক এর ছেলে আব্দুল হান্নান (৩০), আদর্শগ্রামের সৈয়দ মিয়ার ছেলে সাইফুল আলম (২৮), গুচ্ছগ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ বিলাল(২৯) ও আদর্শগ্রামের আব্দুর রব এর ছেলে মনজু মিয়া(২৯)।

বর্তমানে আহতরা জৈন্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধিন রয়েছে, অন্যদের নাম জানা যায়নি। হামলায় প্রায় ৫০টি বেলাচা ভাংচুর করে শ্রীপুর বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা। শ্রমিকের উপর বিজিবির হামলার খবর দ্রুত উপজেলায় ছড়িয়ে পড়লে আসামপাড়া আর্দশগ্রাম এলাকায় জড়ো হয় বৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন রেজী নং-চট্ট-১৯০৯ এর বিভিন্ন ইউনিটের সদস্যরা। বিজিবির হামলার প্রতিবাদে দুপুর ২টায় আদর্শগ্রাম এলাকায় সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করে হামলার ন্যায় বিচার দাবী শ্রীপুর ক্যাম্পের সদস্যদের অপসারন এবং আহতদের সুচিকিৎসার দাবী জানায়।
তারা আরও বলেন- আমরা শান্তি প্রিয় পাথর শ্রমিক দীর্ঘ দিন হতে পাথর লোড-আনলোড পেশায় কাজ করে যাচ্ছি। আইন শৃংঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সাথে কখনো এই সংগঠনের অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেনি। শ্রীপুর ক্যাম্পের সদস্যরা রাতে অর্থের বিনিময় বিজিবি সীমান্ত এলাকা হতে পাথর আহরনের সুযোগ করে দেয়। আমরা আমাদের ভূখন্ডে পাথর লোড করতে গেলে বিজিবি হামলা চালায়। আমরা সুষ্ট বিচারের দাবীতে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করি। অবরোধের ফলে রাস্তার উভয় পাশে যাত্রীবাহী, মালবাহী সহ পর্যটকবাহী কয়েক হাজার গাড়ী আটকা পড়ে।
এদিকে অবরোধের ঘটনার সংবাদ পেয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জের নির্দেশে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে পুলিশ প্রেরণ করা হয়। ঘটনার খরব পেলে বৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুর রব, ট্রাক চালক শ্রমিক ইউনিয়নের জৈন্তাপুর আ লিক কমিটির সভাপতি মোঃ নুরু মিয়া, সহ বিভিন্ন ইউনিটের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক এবং এলাকার গন্যমান্যরা ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন।
জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে জৈন্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান ঘটনাস্থলে যান এবং আন্দোলনকারী শ্রমিকনেতাদের নিয়ে আলোচনায় বসে ঘটনার সুষ্ট সমাধানের আশ্বাস দিলে আন্দোলনকারীরা সড়ক হতে অবরোধ তুলেনেয় এবং যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।
এবিষয়ে শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মঞ্জুর এলাহী সম্রাট ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুর রব জানান- আমাদের সংগঠনের সদস্যরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, এছাড়া আমার সংগঠনের সদস্যরা গর্ত হতে কিংবা সীমান্ত হতে বালু পাথর উত্তোলন করে না। তারা শুধুমাত্র ট্রাকে পাথর বোঝাইয়ের কাজ করে। বিজিবির এই হামলার তীব্র নিন্দা জানাই এবং শ্রীপুর ক্যাম্পের সকল সদস্যদের প্রত্যাহার দাবী করেন একই সাথে আহতদের সুচিকিৎসা এবং তাদের বেলাচার ক্ষতিপুরন দাবী করেন। অন্যতায় তারা কঠোর কর্মসূচী দেবেন। এজন্য আমরা সংগঠনের জরুরী বৈঠক আহবান করেছি।
জৈন্তাপুর ইউপি চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান বিজিবি কর্তৃক হামলার ও বেলচা ভাংচুরের ঘটনার বিষয় স্বীকার করে তিনি জানান- আমি নির্বাহী স্যারের আদেশ পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে আন্দোলনকারীদের সাথে আলোচনা করে সুষ্ট বিচার পাওয়ার আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা সড়ক হতে তাদের অবরোধ তুলে নেয়। তিনি আরও বলেন শান্তিপ্রিয় এলাকায় অতিতে এ ধারনের কোন ঘটনা ঘটেনি আশা করি তাদের উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আমরা সুষ্ট বিচার পাব।
এবিষয়ে ৪৮ বিজিবির শ্রীপুর ক্যাম্পে মোবাইল ফোলে একাধিকবার যোগাযোগ করলেও ফোন রিসিভ হয়নি।

নিউজ ডেস্কঃ যানবাহন ভাঙচুরের প্রতিবাদ ও নিরাপত্তার দাবিতে নারায়ণগঞ্জে পরিবহন শ্রমিকেরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করেছেন। এতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কসহ আশপাশের জেলা শহরগুলোয় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আজ বুধবার সকাল সাড়ে আটটা থেকে সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় পরিবহনশ্রমিকেরা মহাসড়ক অবরোধ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা বলেন, যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েন বিভিন্ন গন্তব্যের যাত্রীরা। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পরিবহনশ্রমিকেরা সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় বিভিন্ন স্কুল–কলেজগামী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালান। শিক্ষার্থীদের মারধর করতে দেখা গেছে তাঁদের।পরিবহন শ্রমিকেরা সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় স্কুল–কলেজগামী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালান। ছবি: প্রথম আলো।পরিবহন শ্রমিকেরা সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় স্কুল–কলেজগামী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালান। ছবি: প্রথম আলো।প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, সকাল আটটার দিকে পরিবহনশ্রমিকেরা যানবাহন ভাঙচুর ও নিরাপত্তাদের দাবিতে সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে অবস্থান নেন। এ সময় তাঁরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করেন। মহাসড়কের দুপাশে (ঢাকাগামী ও চট্টগ্রামগামী) যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেন। গণপরিবহন ঢাকায় ঢুকতে ও ঢাকা থেকে বের হতে বাধা দেন। এতে দেশের গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন বিভিন্ন গন্তব্যের যাত্রীরা।

পরিবহনশ্রমিকদের দাবি, দুর্ঘটনা ঘটতেই পারে। এ কারণে তাঁদের গাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করা হচ্ছে। পরিবহনশ্রমিকদের মারধর করা হচ্ছে। এটা মেনে নেওয়া যায় না। পরিবহনশ্রমিকদের নিরাপত্তা দেওয়া না হলে কোনো গাড়ি চলবে না।নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ সাইনবোর্ড এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট। ছবি: প্রথম আলো।নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ সাইনবোর্ড এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট। ছবি: প্রথম আলো।শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন, সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় পরিবহনশ্রমিকেরা বিভিন্ন স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালান এবং তাঁদের মারধর করেন।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম জানান, সকাল থেকে বাস পরিবহনশ্রমিকেরা তাঁদের নিরাপত্তার দাবিতে সড়ক অবরোধ করেছেন। এ ব্যাপারে তাঁরা নিশ্চয়তা চান। নিশ্চয়তা পেলে তবে গাড়ি চালাবেন। অবরোধ তুলে নেবেন। তাঁদের দাবির বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।সুত্র প্রথম আলো।

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে পুলিশ-সিএনজি শ্রমিক সংঘর্ষ,পুলিশসহ আহত শতাধিক

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৬এপ্রিল,হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মহাসড়কে সিএনজি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা অমান্যকরে হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নসরতপুরে সিএনজি শ্রমিক ও পুলিশের মাঝে সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত শতাধিক আহত হয়।
শুক্রবার (২৭ এপ্রিল) বেলা ১০টার দিকে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ঢাকা-সিলেটে মহাসড়কে সিএনজি চলাচল করলে বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় পুলিশ। এর প্রতিবাদে শুক্রবার সিএনজি সংগঠনের শ্রমিকরা ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে শায়েস্তাগঞ্জের  নছরতপুর এলাকায় মহাসড়ক অবরোধ করে। খবর পেয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে শ্রমিকদের সড়িয়ে দিতে চাইলে পুলিশ ও সিএনজি (অটো রিক্সা) শ্রমিকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ বাধেঁ।

সংঘর্ষে পুলিশ কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। শ্রমিকরা ইট-পাটকেল ও লাঠি দিয়ে পুলিশের উপর আক্রমন চালায়। এতে শায়েস্তাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আনিছুর রহমানসহ অন্তত শতাধিক আহত হয়। এর মধে ১৫ জন পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছে। গুরুতর আহতদের হবিগঞ্জে সদর হাসপাতলে ভর্তি করা হয়। সংঘর্ষের সময় সিএনজি শ্রমিকরা মহাসড়কে কয়েকটি যাত্রীবাহী গাড়ী ভাংচুর করে।

এ সময় মহাসড়কের উভয় পার্শ্বে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে। মহাসড়কে ২ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানা খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে পৌছলে শ্রমিকরা তাদের উপড়ও হামলা চালায়। পরে হবিগঞ্জ থেকে একদল ধাঙ্গা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ জসিম উদ্দিন  খন্দকার এ প্রতিনিধিকে জানান, হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল করলে গত বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) ৫টি গাড়ি আটক করে পুলিশ। পরে সিএনজি শ্রমিক ও মালিকদের পক্ষ থেকে (অটোরিক্সা) সিএনজিগুলো ছেড়ে দেয়ার জন্য দাবি করা হয়।

পুলিশ সিএনজি ছেড়ে না দেয়ায় গতকাল শুক্রবার সকালে এর জের ধরে সিএনজি শ্রমিকরা মহাসড়কের শায়েস্তাগঞ্জ দেউন্দি মোড় ও নসরতপুর নামক স্থানে মহাসড়ক অবরোধ করে। এতে পুলিশ বাধা দেয়ায় সিএনজি শ্রমিকরা পুলিশের উপর হামলা করে। এতে ১৫জন পুলিশ আহত হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুলাই,মুহাম্মদ ফয়সাল শরীফ,চট্টগ্রামঃ ইসরাইল কর্তৃক আল আকসা মসজিদকে অবরুদ্ধ করার প্রতিবাদে এবং ইসরায়েলের বিরুদ্ধে বৈশ্বিক পদক্ষেপ গ্রহণের দাবিতে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম উত্তর জেলার উদ্যোগে ২৯ জুলাই বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি ছাত্রনেতা হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য সচিব ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক পীরজাদা মাওলানা মুহাম্মদ গোলামুর রহমান আশরফ শাহ। উদ্বোধক ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ এনামুল হক ছিদ্দিকী। প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা এইচ এম শহীদুল্লাহ। মুহাম্মদ ইলিয়াছ রেজার সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তারা ফিলিস্তিনের জেরুজালেমে মুসলমানদের প্রাণকেন্দ্র আল আকসা মসজিদ অবরুদ্ধ করে রাখার দায়ে বর্বর রাষ্ট্র ইসরায়েলের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপের আহ্বান জানান।

বক্তারা আরো বলেন, মুসলমানদের পীঠস্থান ও মর্যাদাময় কেন্দ্র হচ্ছে মসজিদুল আকসা। হাজার হাজার বছর ধরে এই মসজিদ মুসলমানদের পবিত্র স্থান হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে। অথচ সন্ত্রাসবাদী অবৈধ রাষ্ট্র ইসরায়েল জন্মলগ্ন থেকেই ফিলিস্তিনিদেরেেক নিজেদের ভূমিতে অবরুদ্ধ করে রেখেছে।হাজার হাজার নিরপরাধ নিরস্ত্র নিরীহ ফিলিস্তিনি মুসলমানদের হত্যা করে আসছে ইসরায়েল।অথচ জাতিসংঘসহ বিশ্ব সংস্থাগুলো লোক দেখানো প্রতিবাদ ছাড়া ফিলিস্তিনিদের জন্য কিছুই করছে না। ফিলিস্তিনিদের ও ওআইসিকে ইসরাইলের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নিতে বক্তারা আহ্বান জানান।

মানববন্ধন ও সমাবেশে অতিথি ও আলোচক ছিলেন উত্তর জেলা যুবসেনার সভাপতি যুবনেতা মাস্টার মুহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ আমান উল্লাহ আমান, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ মামুনুর রশিদ জাবের, উত্তর জেলা ছাত্রসেনার সহ সভাপতি মুহাম্মদ সরওয়ার উদ্দিন চৌধুরী, ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম মহানগর সহ সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মাছুমুর রশিদ কাদেরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, কে এম আজাদ রানা, মুহাম্মদ আলী আকবর, হাফেজ মুহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, মুহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন সিদ্দিকী, মুহাম্মদ শাহেদুল ইসলাম, মুহাম্মদ মঈনুদ্দিন কাদেরী, সৈয়দ মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম, মুহাম্মদ আবদুল কাদের, মুহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন, মুহাম্মদ শফিউল আলম, মুহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, মুহাম্মদ জাহেদ, মুহাম্মদ বখতিয়ার উদ্দিন, নূর মুহাম্মদ প্রমুখ। মানববন্ধন শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল প্রেস ক্লাব চত্বর হতে শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৯জুলাই,মিজানুর রহমান সৌদি আরব থেকেঃ কাতারের বিরুদ্ধে নতুন করে ‘রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও আইনি পদক্ষেপ’ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরবের নেতৃত্বে চার আরব দেশ। বাকি তিন দেশ হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিসর। সন্ত্রাসবাদে মদদদান ও আঞ্চলিক অস্থিতিশীলতা তৈরির অভিযোগে কাতারের ওপর সম্প্রতি অবরোধ আরোপ করে এসব আরব দেশ।

অবরোধ তুলে নেওয়ার বিনিময়ে সৌদিসহ চার আরব দেশ ১৩টি শর্ত দিয়ে দুই দফায় সময়সীমা বেঁধে দেয়। কিন্তু তা মানতে দোহা অস্বীকৃতি জানায় এবং জানায় তারা এ বিষয়ে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত আছে। এরপর গত বৃহস্পতিবার যৌথ বিবৃতি দিয়ে দোহার বিরুদ্ধে ‘উপযুক্ত’ পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দেয় ওই দেশগুলো। যৌথ বিবৃতিতে উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা অব্যাহতভাবে নষ্ট করার চেষ্টার অভিযোগে কাতারকে আবারও দায়ী করা হয়। আরও বলা হয়, শর্ত মানতে তাদের অনীহা বুঝিয়ে দেয়, দোহা আগের অবস্থানে অটল। বিবৃতিতে কাতারকে নতুন করে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকি দেওয়া হলেও সেগুলো কী ধরনের হবে, তার কোনো ইঙ্গিত দেওয়া হয়নি।

উল্লেখ্য, সৌদি আরব, মিসর, ইউএই এবং বাহরাইনের অভিযোগ, কাতার মুসলিম ব্রাদারহুডসহ কট্টর ইসলামপন্থী একাধিক সংগঠনকে মদদ দেয়। আল-জাজিরা টেলিভিশন চ্যানেলও এই কট্টরপন্থীদের সহযোগিতা করে। এ ছাড়া আঞ্চলিক শত্রু হিসেবে পরিচিত ইরানের সঙ্গেও দোহার সুসম্পর্ক আছে। কিন্তু কাতার এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে।
এএফপি জানায়, মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস কাতারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কৌশলগত নিরাপত্তা অংশীদারত্ব বজায় রাখার কথা পুনর্নিশ্চিত করেছেন। উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্কের টানাপোড়েনের প্রেক্ষাপটে গত বৃহস্পতিবার তিনি এটা নিশ্চিত করেন। পেন্টাগন এ কথা জানায়।
পেন্টাগনের এক বিবৃতিতে আরও বলা হয়, চলমান সংকট নিয়ে আলোচনা করতে কুয়েতের আমন্ত্রণে ১০ জুলাই মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন কুয়েত সফর করবেন। ম্যাটিস কাতারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খালেদ বিন মোহাম্মাদ আল-আতিয়াহর সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন। এ সময় তিনি ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে অভিযানের ধরন নিয়ে আলোচনা করেন।

ফুঁসে উঠেছে স্থানীয় শিক্ষার্থীরা, টায়ার জালিয়ে  সড়ক অবরোধ

আমার সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম,২৬এপ্রিল,মতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ থেকেঃ   নবীগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে উক্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় ১০ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রকে পিঠিয়ে আহত করার ঘটনায় ফুঁেস উঠেছে শিক্ষার্থীরা।

আজ বুধবার সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ১ ঘটিকা পর্যন্ত হবিগঞ্জ-নবীগঞ্জ আ লিক সড়কের নবীগঞ্জের রসুলগঞ্জ বাজারে টায়ারে আগুন লাগিয়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল, সড়ক অবরোধ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিক্ষোব্দ শিক্ষার্থীরা। প্রায় ২ ঘন্টা সময় শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে সড়কের উভয় দিকের কয়েক শতাধীক যানবাহন আটকা পড়ে। এনে নানা ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে যাত্রী সাধারনদের।

পরে নবীগঞ্জ থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। ২৪ ঘন্টার ভিতর স্কুল ছাত্রর উপর সকল হামলাকারীদের গ্রেফতার করা না হলে পরবর্তিতে আরো কঠোর আন্দোলন কর্মসূচির ডাক দেয়া হবে বলে ঘোষনা দেন বিক্ষোব্দ শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, নবীগঞ্জের সীমান্তবর্তী বক্তারপুর আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর এক ছাত্রীকে মোবাইল ফোনে একই প্রতিষ্টানের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র নবীগঞ্জের মুরাদপুর গ্রামের আব্দুর নুরের পুত্র শাহিনুর রহমান ফলক প্রতিদিনই উক্ত্যক্ত করে আসছিল। এ অবস্থায় গত রবিবার দুপুরে ফলক ওই ছাত্রী মোবাইলে ফোন দিয়ে আপত্তিজনক কথা বার্তা বলে।

এ খবর ছাত্রী তার বড় ভাই একই প্রতিষ্টানের ১০ম শ্রেণীর ছাত্র তারেকুর রহমানের কাছে জানালে সে এর প্রতিবাদ করে। এ ঘটনার জের ধরে ফলক তার চাচাত্তো ভাই আব্দুল আওয়াল ও সহপাঠিদের নিয়ে এর প্রতিশোধ নেয়ার জন্য স্কুল ছুটির পর রসুলগঞ্জ নতুন বাজারের হামিদ মার্কেটের নিকট অপেক্ষা করতে তাকে।

বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তারেকুর ও স্থানে আসা মাত্রই কোন কিছু বুজে উটার আগেই বখাটে ফলক ও তার সঙ্গে তাকা ২ সহযোগী তার উপর অতর্কিত ভাবে হামলা করে। এতে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্বার করে নবীগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা বেগতীক দেখে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপালে প্রেরন করেন।

এ ঘটনায় এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করে। পরে ওইদিন সন্ধায়ই হামলার ঘটনার সাথে জড়িত ফলকের চাচাত্তো ভাই আব্দুল আউয়ালকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করে পুলিশ। এদিকে গতকাল বুধবার সকালে হবিগঞ্জ-নবীগঞ্জ আ লিক সড়কের রসুলগঞ্জ বাজারে টায়ারে আগুন লাগিয়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন কর্মসূচি পালন ও ২ ঘন্টা সময় সড়ক অবরোধ করে রাখে বিক্ষোব্দ শিক্ষার্থীরা। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভঅবিক করেন।

বিক্ষোব্দ শিক্ষার্থীরা ২৪ ঘন্টার মধ্যে সকল হামলাকারীকে গ্রেফতার না করলে ফের আন্দোলনে নামবেন বলে জানান। এ সময় এক প্রতিবাদ সভায় উক্ত বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জামাল মিয়ার সভাপতিত্বে ও শিক্ষক কামাল হোসেনের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, বরইউরি ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ফরিদ আহমদ, অভিবাবক কমিটির সদস্য কফিল উদ্দিন, হায়দর মিয়া, আতাউর রহমান মামুন, মুহিবুর রহমান, হারুন মিয়া, মেম্বার তোফায়েল, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি মোঃ সরওয়ার শিকদার, সাবেক সাধারন সম্পাদক উত্তম কুমার হিমেল, থানার সেকেন্ডে অফিসার মোবারক হোসেন, এস আই সুজিত চক্রবর্ত্তী।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc