Friday 26th of February 2021 08:56:40 PM

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের অভিযানে গাড়ী চুরির  অভিযোগে গাড়ীসহ  ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশের সুত্রে জানা যায়,পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান এর নির্দেশে অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুছ ছালেক এবং পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত মোঃ হুমায়ুন কবির’র নেতৃত্বে উপজেলার শেখবাড়ী মাদ্রাসা সংলগ্ন হতে ১৯ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯ টার দিকে লাল রঙের পুরাতন প্রো বক্স লাল রঙের চোরাই গাড়িসহ জাহিদ হাসান জিতু (২৭), পিতা-টেনু মিয়া, সাং হাজীপুর, জসিম মিয়া (৩৩), পিতা-মনির মিয়া, সাং-লামুয়া, উভয় থানা-শ্রীমঙ্গল, সাইদুল ইসলাম (২৫), পিতা-বশির মিয়া, সাং ভাড়াভিম, থানা-মৌলভীবাজার সদর, জেলা-মৌলভীবাজার এবং লিটন মিয়া (৩০), পিতা-মৃত করিম মিয়া, সাং-লামুয়া, থানা-শ্রীমঙ্গল, জেলা-মৌলভীবাজারকে আটক করে তাদের দেওয়া তথ্য মতে ১টি সাদা রংয়ের পুরাতন নোহা গাড়ী ও ১ টি সিলভার রংয়ের পুরাতন এক্স করল্লা গাড়ি উদ্ধার করা হয়। আটককৃত আসামিদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু পূর্বক যথাযথ পুলিশ স্কটের মাধ্যমে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়।

রেজিস্ট্রেশন ও কাগজপত্র বিহীন গাড়ি না কেনার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ করা হয়েছে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের পক্ষ হতে।

নূরুজ্জামান ফারুকী,নবীগঞ্জ থেকেঃ ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া এবং নবীগঞ্জ প্রেসকাবের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন নবীগঞ্জ থানার নবাগত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ডালিম আহমদ।
শনিবার দুপুরে নবীগঞ্জ থানার আয়োজনে থানা প্রাঙ্গণে উক্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন- নবীগঞ্জ থানার নবাগত ওসি মো. ডালিম আহমদ, বিদায়ী ওসি মো. আজিজুর রহমান, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি উত্তম কুমার পাল হিমেল,সহ সভাপতি শাহ সুলতান আহমদ, সাধারণ সম্পাদক সেলিম তালুকদার, নির্বাহী সদস্য মো. সরওয়ার শিকদার, আলমগীর মিয়া, ফখরুল আহসান চৌধুরী, তোফাজ্জল হোসেন, এম এ মুহিত, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন মিঠু, এটিএম সালাম, এমএ আহমদ আজাদ, ছাদিকুল ইসলাম, রাকিল হোসেন, তৌহিদ চৌধুরী, ছনি চৌধুরী, নাবিদ মিয়া প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন- নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান চৌধুরী শামীম, অর্থ সম্পাদক মো. শওকত আলী, আবু তালেব, মুহিবুর রহমান, জাকির হোসেন চৌধুরী, নুরুজ্জামান ফারুকী প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন- নবীগঞ্জ থানার এস আই সমীরণ চন্দ্র দাশ।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্যে বক্তারা- নবীগঞ্জ থানার সদ্য বিদায়ী ওসি মো. আজিজুর রহমানের দায়িত্ব পালনকালীন সময়ের বিভিন্ন কর্মকা-ের ভূয়সী প্রশাংসা করেন নবীগঞ্জের আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক, মাদক নির্মুল, নারী নির্যাতনসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকা- রোধে বর্তমান ওসি মো. ডালিম আহমদ বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবেন বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। নবীগঞ্জ থানার নবাগত ওসি মো. ডালিম আহমদ তাঁর বক্তব্যে বলেন- নবীগঞ্জের আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক, জুয়া, মাদক, নারী নির্যাতনসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকা- বন্ধে জিরো ট্রলারেন্স নীতি বজায় থাকবে। পাশাপাশি তাঁর দায়িত্ব পালনকালে তিনি সাংবাদিকদের সহযোগীতা কামনা করেন

শ্রীমঙ্গল(মৌলভীবাজার)প্রতিনিধি: দিন-রাত কঠোর পরিশ্রম করে সবজি চাষের মাধ্যমে সাফল্যতা পেয়েছে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার আশীদ্রোন ইউনিয়নের ডেঙ্গারবন গ্রামের কৃষক আহসান হাবিব (৩৮)। পতিত জমিতে নানা ধরনের সবজি চাষ করে অভাব অনটন ঘুছিয়ে সচ্ছলতার মুখ দেখেছেন।
আহসান হাবিব বলেন,চার ভাই বোনের মধ্যে সবার ছোট সে, বাবার কাছে প্রতিদিনই নিতে হত টাকা, কোনদিন বাবা টাকা দিতেন আবার কোনদিন টাকা দিতেন না, নিজে খরচ চালাতে প্রায় দশ বছর আগে কৃষি অফিসের পরামর্শে দশ শতক জমিতে পাঁচশত টাকার পুঁজি দিয়ে জিঙ্গা চাষ শুরু করেন। পাঁচ টাকা কেজি দরে ১৩শ টাকার বিক্রি করেন। এর পরে বছর পাঁচশত টাকা দিয়ে পিয়াজের ব্রীজ ক্রয় করে ঐ দশ শতক জমিতে আবাদ করে পঁ াশ হাজার টাকার বিক্রি করে এভাবে বদলে যায় তার জীবন। এখন তার পাঁচ কেদার জমি, ঐ জমিতে বারো মাসি নানা রকম সবজি আবাদ করে নিজের সংসার চালিয়ে লক্ষ টাকা আয় করেছেন তিনি।
তাঁর এই সাফল্য দেখে এলাকার অনেক কৃষক বর্তমানে সবজি চাষে ঝুঁকছেন।
গত রবিবার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার ডেঙ্গারবন গ্রামের কৃষক আহসান হাবিব তাঁর জমিতে সবজি পরিচর্চা কাজে ব্যস্ত।
আহসান হাবিব বলেন, আমি বেকার ছিলাম, কোনো কাজ না পেয়ে একদিন উপজেলা কৃষি অফিসে যাই, সেখান থেকে পরামর্শ নিয়ে প্রায় দশ বছর আগে ১০শতক জমিতে জিঙ্গা চাষ শুরু করে ১৩শ টাকা আয় করি। এখান আমার পাঁচ কিয়ার জমি। সেখানে কুমড়া, করলা, আলু, বরবটি, ঢেঁড়শ, কাকরোল, গাজর, শিম, টমেটো, পুঁইশাক, ক্ষিরাসহ নানা জাতের সবজি চাষ করচ্ছি । এই সবজি বিক্রি করে বর্তমানে আমার আয় দিয়ে পাঁকা বাড়ী নিমার্ণ করেছি।
তিনি আরো বলেন, এ মৌসুমে করলা, বরবটি, শিম, টমেটো, পুঁইশাক, আলু, পাতা কপি, সবুজ কপি, কাঁচা মরিচ ক্ষিরা চাষ করা হয়েছে। এ পর্যন্ত লক্ষ টাকার উপরে সবজি বিক্রি করেছেন বলে জানান তিনি। আশা করা হচ্ছে, এ বছর খরচ দিয়ে ২ লক্ষ টাকার বেশি আয় হবে। তিনি এখন এলাকায় একজন সফল ও আদর্শ কৃষক হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। বর্তমানে স্ত্রী, সন্তানাধী নিয়ে সুখ-শান্তিতেই দিনাতিপাত করছেন।
শ্রীমঙ্গল উপ-সহকারী কৃষি কর্মকতা মো. মাসুকুর রহমান বলেন, আমরা কৃষকদের পরামর্শ দিচ্ছি তারা যেন ধান চাষের পাশাপাশি সবজি আবাদ করে এবং কৃষকদের নানা জাতের সবজি বীজ দিচ্ছি। জমিতে কি পরিমান সুশমমাত্রা সার প্রয়োগ করতে হবে সরেজমিন কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে থাকি, কৃষক যাতে ধান চাষের পাশাপাশি সবজি আবাদ করে স্বাবলম্বী হয়।

নড়াইল প্রতিনিধি: সুখী সমৃদ্ধ ও অসম্প্রদায়িক চেতনায় দেশ গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে মুজিব শতবর্ষে ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে দিবসের প্রথম প্রহরে নড়াইলে জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পন করা হয়। রাত ১২ টা ১ মিনিটে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোত্তুর্জার পক্ষ থেকে,জেলা প্রশাসন, পুলিশ সুপার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড ইউনিট, জেলা আওয়ামীলীগ, বিচার বিভাগ,নড়াইল প্রেসক্লাব, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগ,জাতীয় শ্রমিক লীগ,বিএনপি, জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি, মহিলা আওয়ামীলীগ, যুব মহিলা লীগ, সদর উপজেলা পরিষদ,নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন,নড়াইল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়,নড়াইল টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার,মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর,জেলা সঞ্চয় অফিস, পিটিআই, নড়াইল টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ,জেলা খাদ্য অফিসসহ সকল সরকারি, বে-সরকারিসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন , রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়।

এসময় জেলা প্রশাসক মোঃ হাবিুবুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার মোহাম্দ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার), জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডঃ সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারন সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, নব-নির্বাচিত পৌর মেয়র আনজুমান আরাসহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সকালে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে প্রভাত ফেরি বের করা হয়।এছাড়া জেলার অন্যান্য জায়গাও অনুরুপ কর্মসুচি পালিত হয়।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সরকারি এক কর্মচারীর বিরুদ্ধে এক বিধবা নারীর জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। রবিবার (২১ ফেব্র“য়ারী) দুপুর ২টায় কমলগঞ্জের কাগজ পত্রিকার কার্য্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত ফরিদ মিয়ার স্ত্রী কুলছুম বিবি এ অভিযোগ করেছেন । এসময় তার মেয়ে শাবানা আক্তার ও ছেলে রাসেদ আহমদ উপস্থিত ছিলেন।কুলছুম বিবি বলেন, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্য্যালয়ের নৈশ প্রহরী একই গ্রামের মৃত মিয়াধন মিয়ার ছেলে আপ্তাব উদ্দিন ও তার সহযোগীরা মিলে গত ১৭ ফেব্রুয়ারী গভীর রাতে তার লোকজন নিয়া আমার জমির(দাগ নং ৫০৮৭, /৫০৮৮, খতিয়ান ১২৪২. জেএল নং ৮৩.মৌজা মাধবপুর) উপর গৃহ নির্মানের মাধ্যমে দখলে নেয়। খবর পেয়ে বাধা দিলে আপ্তাব উদ্দিন ধারালো দা দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে  গুরুতর আহত করে।খবর পেয়ে স্বজনরা প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। বর্তমানে মাথায় আঘাত নিয়ে অসুস্থ অবস্থায় আছি। এ সুযোগে আপ্তাব উদ্দিন বর্তমানে আমার জমিতে ঘর তৈরির কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও জানান, আপ্তাব মিয়া ২০১৫ সালে মৌলভীবাজার জজ আদালত কমলগঞ্জে আমার স্বামী ফরিদ মিয়ার নামে মামলা(৪৬/১৫ স্বত্ব মামলা) দায়ের করে। মামলা চলাকালীন আমার স্বামী ফরিদ মিয়া মারা যান। পরবর্তীতে দীর্ঘদিন মামলা চলার পর আমার পক্ষে রায় হওয়ার পর বাদী আফতাব উদ্দিন জেলা জজ আদালতে উক্ত মামলার আপিল করে। আপ্তাব উদ্দিন কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বহিী অফিসারের অফিসের নৈশ প্রহরী হিসেবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার প্রভাব খাটিয়ে মাধবপুর ইউনিয়নের অনেক গরীব অসহায় পরিবারের ভূমির উপর মামলা দিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ করছে এমনকি দখল করে বৃক্ষ রোপন করেছে।  ভূমি দখলের বিষয়ে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপারের কাছে আপ্তাব উদ্দিনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করলেও কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

অবৈধভাবে বিধবার জমি দখল ও মারপিটের অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত আপ্তাব মিয়া বলেন, আমি ক্রয়সূত্রে এ জমির মালিক।আমি আমার জমিতে গৃহ নির্মাণ করলে কারও কোন অভিযোগ থাকার কথা নয়। কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশেকুল হক জানান, তিনি বিষয়টি সর্ম্পকে অবগত নন। তবে সরকারী চাকুরীজীবি হয়ে প্রভাব খাটিয়ে কেউ এরকম অপকর্ম করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আলী হোসেন রাজন,মৌলভীবাজারঃ আজ মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। বাঙালি জাতির জীবনে এক গৌরবোজ্জ্বল দিন। এদিন মাতৃভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য জীবন উৎসর্গ করার অভূতপূর্ব দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন বাংলা মায়ের অকুতোভয় সন্তানেরা। তাই যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতি আজ স্মরণ করছে ভাষাশহীদদের। সারা দেশেরন্যায় মৌলভীবাজারে শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় স্বরণ করা হয় ভাষা শহীদদের। কোভিড-১৯ ভাইরাসের জন্য সতর্কতা অবলম্বন করে দিবসটি উদযাপনের জন্য এ বছর সীমিত পরিসরে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসন।

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথমে পুষ্পমাল্য দিয়ে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসক মীর নাহীদ আহসান, এরপড় একে একে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মৌলভীবাজার তিন আসনের সংসদ সদস্য নেছার আহমদ, মৌলভীবাজার-হবিগঞ্জ সংরক্ষিত আসনরে সংসদ সদস্য সৈয়দা জহুরা আলাউদ্দিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিসবাহুর রহমান, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, পৌর মেয়র ফজলুর রহমান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব, জেলা আওয়ামীলীগ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন, মৌলভীবাজার বিজনেস ফোরাম, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, বিএনপি,যুবদল সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবি সংগঠন।

এসময় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে মানুষের ঢল নামে। পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সর্বস্তরের মানুষ। ফুলে ফুলে ভরে উঠে বাঙালির শোক আর অহংকারের শহীদ মিনার। সব বয়স আর শ্রেণি-পেশার মানুষের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকা। এ সময় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি’ গানের সুর বাজতে থাকে।

মিনহাজ তানভীরঃ  শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারি বিকালে হবিগঞ্জ মৌলভীবাজার মহাসড়ক হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল থানার অন্তর্ভুক্ত রশিদপুর এলাকার ৫ নাম্বার গ্যাস ফিল্ড সম্মুখে সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও অপরজন গুরুতর আহত হয়। জানা যায় (যশোর-ট ১১-৫২২৬) নং পণ্যবাহী টাটা গাড়ির সাথে একটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল  আরোহীদের একজন ঘটনা স্থলে মৃত্যুবরণ করেন  অপরজন গুরুতর আহত হয়।

আহত ব্যাক্তিকে শ্রীমঙ্গল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে।

সাতগাও হাইওয়ে পুলিশের সুত্রে জানা গেছে হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল থানার অন্তর্ভুক্ত ৫ নাম্বার গ্যাস ফিল্ড সম্মুখে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় এতে মোটরসাইকেল এর একজন ঘটনা স্থলে মারা যায় অন্যজন গুরুতর আহত হন। সংবাদ লেখা পর্যন্ত তাতক্ষনিক তাদের নাম পরিচয় পাওয়া সম্ভব হয়নি। বিস্তারিত আসছে…

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদের স্মরণে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন রাষ্ট্রপতির সামরিক উপদেষ্টা ও প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব।

অমর একুশে ফেব্রুয়ারি প্রথম প্রহরে রাত ১২টা ১ মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদিতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহউদ্দিন ইসলাম ফুল দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানান। এরপর ভাষা শহীদের স্মরণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমদ চৌধুরী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

পুষ্পস্তবক অর্পণের পর রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব ও প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষাশহীদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এরপর তিন বাহিনীর প্রধানরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এরপর মন্ত্রীসভার সদস্যদের মধ্যে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী ও আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

১৯৫২ সালের আজকের দিনে (২১ ফেব্রুয়ারি) বাংলা ভাষা আন্দোলনকে দমন করতে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান সরকার ঢাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে। কিন্তু ছাত্ররা ১৪৪ ধারা উপেক্ষা করে বাংলা ভাষার দাবিতে রাজপথে মিছিল করেন। সেই মিছিলকে ছত্রভঙ্গ করতে পূর্ব পাকিস্তান পুলিশ গুলি চালায়। গুলিতে শহীদ হন সালাম, রফিক, বরকত, জব্বারসহ অনেকে। আহত হন আরও অনেক ভাষাপ্রেমী।

অবশেষে নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির (২৫) মারা গেছেন।  শনিবার রাত ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে তিনি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি ছিলেন।

গত শুক্রবার দিবাগত রাতে তাকে নোয়াখালী থেকে ঢাকায় আনা হয়। আইসিইউ’র ১৭ নম্বর বেডে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন। তার অবস্থা গুরুতর ছিল বলে জানিয়েছিল চিকিৎসকেরা। বোরহান দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি।

রোববার ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া সাংবাদিক বোরহান উদ্দিনের মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান, রাত ১১টার দিকে বোরহান উদ্দিন মারা যান। মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, বোরহান উদ্দিনের গলায় গুলি লেগেছিল। তার অবস্থা সংকটাপন্ন ছিল, আইসিইউ’র ১৭ নম্বর বেডে ছিলেন তিনি। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

বোরহান উদ্দিনের বড় ভাই মো. নুর উদ্দিন জানান, শুক্রবার রাত থেকেই বোরহান উদ্দিন আইসিইউতে ছিলেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তার জ্ঞান ফিরেনি।

উল্লেখ্য, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট কাঁচাবাজারে গত শুক্রবার বিকেলে আ’লীগের ২ পক্ষের সংঘর্ষে সংবাদকর্মীসহ চারজন গুলিবিদ্ধ হয়। স্থানীয় সূত্র মতে সংঘর্ষে অন্তত ৩৫ জনের আহত হওয়ার তথ্য পাওয়া যায়।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc