Friday 26th of February 2021 09:05:41 PM

জেলা প্রতিনিধি নড়াইলঃ  নড়াইলে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামী মোঃ ফোরকান উদ্দিনকে ফাঁসি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ  প্রদান করেছেন জেলা দায়রা জজ মুন্সী মোঃ মশিউর রহমান। দন্ডপ্রাপ্ত রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

 আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় নড়াইল জেলা দায়রা জজ আদালতে, পেনাল কোডের ৩০২ ধারায় মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত করেএ মামলার রায় ঘোষনা করেন জেলা দায়রা জজ মুন্সি মোঃ মশিউর রহমান।

মামলার বিবরনে জানা গেছেমোঃ মজিবুর রহমান সরকারের কন্য ভিকটিম মর্জিনা বেগম ওরফে বিথির সাথে পিরোজপুরের তেজদাকাটি গ্রামের মৃত তোফায়েল উদ্দিন খানের পুত্র  আসামী ফোরকান উদ্দিন ওরফে সাকিল খানের মুসলিম শরিয়ত মতে বিবাহ অনুষ্ঠিত হয়।মর্জিনার আগের ঘরের বছর বয়সী মোঃ মোস্তফিজুর নামে একটি ছেলে ছিল। সে তাদেও সাথে থাকতো।  ফোরকান   মর্জিনা লোহাগড়া উপজেলার গোপীনাথ পুর গ্রামের  খলির শেখের বাড়ী ভাড়া থাকতো। আসামী ফোরকান  লক্ষীপাশার মিথুন হোটেলে বাবুর্চির কাজ করতেন। গত ১১/০১০/২০১৫ সালে আসামী ভিকাটিম মর্জিনা রাতে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে।

পরদিন সকালে বাড়ীর মালিক খলির শেখ  তার ভাড়া ঘরে মর্জিনার জখমপ্রাপ্ত রক্তাক্ত দেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয় , পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে লাশের সুরতহাল প্রস্তুত করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠায়। পরে খবর পেয়ে ভিকটিমের মামলঅর বাদী মোঃ মজিবর রহমান  এসে পুলিশের কাছ থেকে লাশ বুঝে নিয়ে , লক্ষীপাশা কেন্দ্রীয় গোরস্থানে দাফন করে। পরে ভিকটিমের ছেলে বছর বয়সী মোঃ মোস্তফিজুর  জানায়  আসামী  ফোরকান তার মাকে বটি,ছুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে। পরবর্তীতে পুলিশ ১৩/১০/২০১৫ তারিখে থানায় চুড়ান্ত রির্পোট পেশ করে।

একপর্যায়ে মামলার অধিকতর তদন্তের জন্য মামলাটি সিআইডিতে প্রেরন করা হয়। সিআইড আসামী ফোরকানকে গ্রেফতার করে এবং আসামী ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দেয়। সিআইডি পুলিশ পেনাল কোডে ৩০২ ধারায় অভিযোগ দাখিল করে। বিজ্ঞ বিচারক সাক্ষীগনের সাক্ষ্য গ্রহন শেষে আজ বৃহস্পতিবার পেনাল কোডের ৩০২ ধারায়  মৃত্যুদন্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড  সাজা প্রদান  করেন।

নুরুজ্জামান ফারুকী,বিশেষ প্রতিনিধিঃ  হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ ও মাধবপুর থানায় নতুন ওসি দায়িত্ব পেয়েছেন। এর মধ্যে নবীগঞ্জে নতুন অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে ইন্সপেক্টর মোঃ ডালিম আহমেদকে ৷  ১৭ ফেব্রুয়ারী বুধবার দুপুরে লিখিত আদেশে তাকে এ দায়িত্ব প্রদান করেন হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহ৷ আজ বৃহস্পতিবার তিনি দায়িত্ব গ্রহন করবেন৷
ইতিপূর্বে ওসি ডালিম আহমেদ হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি তদন্ত ও ওসি অপারেশন এর দায়িত্ব পালন করেন৷ সর্বশেষ তিনি ডিআইজি সিলেট রেঞ্জ কার্যালয়ের ইন্সপেক্টর হিসেবে কর্মরত ছিলেন ৷এদিকে নবীগঞ্জ থানার বিদায়ী ওসি মোঃ আজিজুর রহমানকে সুনামগঞ্জ জেলায় বদলি করা হয়েছে৷ ওসি ডালিম আহমেদ  এর গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ৷

অপরদিকে মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাককে। উপরোক্ত তারিখে লিখিত আদেশে তাকেও এ দায়িত্ব প্রদান করেন হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহ।মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক ২০০৫ সালে পুলিশে যোগদান করে ময়মনসিংহ জেলায় চাকুরী করেন। পরবর্তীতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে দীর্ঘদিন  দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে তিনি পুলিশ পরিদর্শক পদে পদোন্নতি লাভ করেন। পরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উত্তরা পশ্চিম থানা ও বাড্ডা থানায় সফলতার সাথে পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) দায়িত্ব পালন করেন বলে জানা যায়।

গত ১০ ফেব্রুয়ারী বদলী সূত্রে তিনি হবিগঞ্জ জেলায় যোগদান করেন। তিনি জামালপুর জেলার সদর উপজেলার মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত। তিনি এক পুত্র সন্তানের জনক।

মিনহাজ তানভীরঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার সিরাজনগর দরবার শরীফের ৪৬তম উরসে আউলিয়া ও আন্তর্জাতিক সুন্নী সম্মেলন আজ  (১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১) রোজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দিনব্যাপী অনুষ্টিত হবে।

এতে সভাপতিত্ব করবেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত সুলতানুল মুনাজিরীন, পীরে ত্বরীকত, রাহনুমায়ে শরীয়ত উস্তায়ুল উলামা, আল্লামা ছাহেব ক্বিবলা সিরাজনগরী  (মাঃ)।

এতে সবাইকে উপস্থিত থেকে আহলে হক তথা আহলে সুন্নাতের আকাবেরদের মূল্যবান তাকরীর শুনে ও আমল করে ইহকাল ও পরকালের কল্যাণ কামনায় ঈমান ও আমল মজবুত করার আহবান জানিয়েছেন ঐতিহ্যবাহি সিরাজনগর দরবার শরীফের পীরজাদা অধ্যক্ষ মুফতি শেখ শিব্বির আহমদ  (অধ্যক্ষ, সিরাজনগর ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসা।

সম্মেলন সুত্রে জানা যায়, আজকের আন্তর্জাতিক সুন্নী সম্মেলন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলবে এতে দেশ-বিদেশের প্রখ্যাত আলেম ওলামা ও সুন্নি -মাশায়েখ,  বিভিন্ন দপ্তরের ইসলামিক মিডিয়া ব্যাক্তিবর্গ  তাশরীফ রাখবেন।

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইল সদর থানার পাশে একটি ভাড়া বাসা বাসার বাথরুম থেকে পুলিশ কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) শফিউদ্দিনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি সদর থানার অধীনে দুই নম্বর (পৌরসভার নং ওয়ার্ডে) বিটে কর্মরত ছিলেন।

পুলিশ জানায়,মঙ্গলবার রাতে ডিউটি করে বাসায় ফিরলেও বুধবার তার কোন খোজ না পেয়ে দুপুরে বাসার দরজা ভেঙ্গে বাথরুমে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

নড়াইল সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক হাফিজুর রহমান মুক্ত জানান, বুধবার দুপুর পৌনে ৩টার দিকে পুলিশ এস আই শফিউদ্দিন নামের একজনকে নিয়ে আসেন। আমি পরীক্ষা করে দেখেছি তিনি হাসপাতালে আসার আগেই মারা গেছেন। পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য আবাসিক মেডিকেল অফিসারকে অবগত করেছি।

নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ইলিয়াস হোসেন বলেন, গত রাত ৮টা পর্যন্ত তিনি ডিউটি করেছেন। বাসা থেকে স্বাভাবিক মৃত্যু ঘটেছে এটাই এখন পর্যন্ত জানা গেছে,পরবর্তীতে বিস্তারিত জানানো যাবে।

জানাগেছে, এস আই মো.শফিউদ্দিনের বাড়ি ঝিনাইদহ জেলার চান্দুখালি গ্রামে। তার পরিবার গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করায় তিনি একাই বসবাস করতেন। ২০১৮ সালের ১৮ আগষ্ট এস আই শফিউর নড়াইল সদর থানায় যোগদান করেন।

জেলা প্রতিনিধি,নড়াইলঃ নড়াইলের লোহাগড়ায় পল্লী বিদ্যুতের বিপুল পরিমান কাটা তার উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ ৪ জন চোরকে আটক করে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত মঙ্গলবার দুপুরে লোহাগড়া থানার এসআই বাচ্চু শেখের নেতৃত্বে একদল পুলিশ পৌরসভার গন্ধবাড়িয়া এলাকার সোহাগের গোডাউনে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান পল্লী বিদ্যুতের কাটা তারসহ ৩টি চাপাতি, ১টি শাবল ও ১টি বোল্ড কাটার উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত তারের আনুমানিক মূল্য সাড়ে ৫ লক্ষ টাকা। এ সময় তার কাটার কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে এলামুল শেখ, মো: ইব্রাহিম মোল্যা, মো: জিল্লুর রহমান, মো: ইমন মোল্যাকে আটক করে। এ ঘটনায় লোহাগড়া পল্লী বিদ্যুতের জোনাল অফিসের এজিএমকম মো: রুবেল হোসেন বাদী হয়ে ৪ জনসহ আরো অজ্ঞাত ৩/৪ জনকে আসামী করে লোহাগড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

 লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আটক ৪ জনকে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকী আসামীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

নড়াইল প্রতিনিধি: মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করার অভিযোগে নড়াইলে দায়ের করা প্রথক দুটি মানহানি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশর চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন নড়াইলের সদর আমলী আদালতের বিচারক আমাতুল মোর্শেদা। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে এ আদেশ দেন তিনি।

মামলার বিবরণে অভিযোগকারি শেখ আশিক বিল্লাহ অেিযাগ করে বলেন, গত ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকার একটি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেগম খালেদা জিয়া স্বাধীনতা যুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদদের সংখ্যা নিয়ে এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বিরপ মন্তব্য করেন। এ বিষয়টি তিনি ও মামলার স্বাক্ষীরা ২২ ডিসেম্বর বিভিন্ন পত্রিকায় পড়ে মারাত্মকভাবে ক্ষুব্ধ হন এবং তাদের এক কোটি টাকা মানহানি হয়েছে মর্মে ২০১৫ সালের ২৯ ডিসেম্বর নড়াইল আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেন।

এছাড়া একই ব্যক্তি বাদী হয়ে গত ২০১৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর ঢাকার একটি অনুষ্ঠানে গয়েশ^র চন্দ্র রায় শহীদ বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করার অভিযোগে ২০১৫ সালের ২৯ ডিসেম্বর নড়াইল সদর আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা দুটির সমন জারি হয়ে ফেরত আসায় এবং আসামীরা আদালতে উপস্থিত না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন নড়াইল সদর আমলী আদালতের বিচারক আমাতুল মোর্শেদা।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc