Sunday 28th of February 2021 12:33:47 PM

নুরুজ্জামান ফারুকী,নবীগঞ্জ থেকে: নবীগঞ্জ পৌর এলাকার কানাইপুর গ্রাম থেকে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করায় আক্তার হোসেন (৩৮) নামে এক ব্যাক্তিকে জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ টায় নবীগঞ্জ পৌর এলাকার কানাইপুর গ্রামে সরকারী জায়গা থেকে এক্সকেভেটর মেশিন দ্বারা অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করা হচ্ছিল এমন সংবাদের ভিত্তিতে নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া মোমিনের নেতৃত্বে নবীগঞ্জ থানার এসআই আবু সাঈদসহ নবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন অভিযান চালায়।

এসময় ভ্রাম্যমান আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে এক্সকেভেটর (মেশিন) চালক পালিয়ে যায় এবং আক্তার হোসেন (৩৮)-কে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০ অনুযায়ী ১ লক্ষ টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া মোমিন।

নুরুজ্জামান ফারুকী, বিশেষ প্রতিনিধি:নবীগঞ্জের এক কিশোর সিলেটে গিয়ে বন্ধুদের হাতে খুন হয়েছে। মুঠোফোন বিক্রির টাকা নিয়ে বিরোধের জেরেই এ হত্যাকা- সংঘটিত হয়েছে বলে দাবি পুলিশের। খুন হওয়া রাজু দাস (২২) নবীগঞ্জ উপজেলার সাওকা গ্রামের দুলাল দাসের ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সিলেট নগরীর জালালাবাদ থানার হাওলাদার পাড়া এলাকায় এ নির্মম খুনের  ঘটনা ঘটে।
পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মুঠোফোন বিক্রির টাকা নিয়ে বিরোধ দেখা দেয় জালালাবাদ এলাকার গোপি রায়ের ছেলে সজিব দাস (১৭), তার মামা রুবেল দাস (২৫) ও রাজু দাসের। এক পর্যায়ে সজিব ও রুবেল দাস মিলে রাজু দাসের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।স্থানীয় লোকজন রাজুকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (গণমাধ্যম) বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের বলেন, ‘বর্তমানে লাশ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালাচ্ছে।’

নিজস্ব প্রতিনিধি: আবারো সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে একটি জ্বালানি তেলবাহী ট্রেনের সাতটি বগি লাইনচ্যুত হওয়ার পরে সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। দুর্ঘটনার পর লাইনচ্যুত বগিগুলো থেকে আশপাশ এলাকার ঘরবাড়ি এমন কি পুকুরের পানিতেও জ্বালানি তেল ছড়িয়ে পড়ে। এতে ওই এলাকায় আগুন আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে হতাহতের কোনো

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার দিকে ফেঞ্চুগঞ্জের মাইজগাঁও ও বিয়ানিবাজারের গুতিগাঁও এলাকায় আট বগির ট্রেনটির সাতটি বগিই লাইনচ্যুত হয়ে দুমড়ে-মুচড়ে যায়।

ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাফায়াত হোসেন।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে সিলেটগামী একটি তেলবাহী ট্রেনের সাতটি বগি গুতিগাঁও নামক স্থানে লাইনচ্যুত হয়। এতে আশপাশের এলাকায় জ্বালানি তেলে ভেসে যাচ্ছে। স্থানীয়রা বালতিসহ নানা পাত্রে ট্রেনের তেল লুট করে নিয়ে যাচ্ছে। কিছুদিন পূর্বে শ্রীমঙ্গলের সাতগাঁও এলাকাতেও অনুরূপ দুর্ঘটনা ঘটেছিল, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের অবহেলায় এরকম দুর্ঘটনার কারণ বলে স্থানীয়দের ধারণা করছে স্থানীয়রা, বিস্তারিত পরের সংবাদে দেখুন।

“আল জাজিরার কুনজর পড়েছে বাংলাদেশের উপর” এর আলোকে এক প্রবাসী তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসে বাংলাদেশে দলমত নির্বিশেষে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন আসুন সকলে মিলে আল জাজিরাকে প্রতিহত করি” নিম্নে তার স্ট্যাটাসের হুবহু তুলে ধরা হল।  

আল জাজিরা আজ ফেসবুকে দেখলাম বাংলাদেশে আল জাজিরাকে নিয়ে বেশ তোলপাড় চলছে। গত বছর জুলাই মাসে অর্থাৎ ২০২০ সালের জুলাইতে আল জাজিরা মালয়শিয়ার চলমান লকডাউন নিয়ে ২৬ মিনিটের একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনটি একদিনের ভিতর মিডিয়াতে ভাইরাল হয়ে যায়, মালয়শিয়ার সর্বস্থানের জনগণ ক্ষোভে ফেটে পড়ে আল জাজিরার এত বড় সাহস কেমনে হলো মালয়শিয়াকে নিয়ে এমন প্রতিবেদন তৈরি করার। সাথে সাথে আল জাজিরার সকল কর্মকর্তা, সাংবাদিক, ক্যামেরাম্যান এবং প্রতিবেদনে সংশ্লিষ্ট সকলের উপর গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়।
বলাবাহুল্য উক্ত প্রতিবেদনে রায়হান কবির নামে এক বাঙ্গালী ১মিনিটের সাক্ষাৎকার দেয়। সুতরাং গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে আল জাজিরার সকল কর্মকর্তা এবং রায়হান কবির সহ সকলে পলাতক হয়। কোনো উপায় না পেয়ে তিন দিন পরে আল জাজিরার সাংবাদিক, ক্যামেরাম্যান, কর্মকর্তাসহ সর্বমোট ৯ জনে মালয়শিয়ার ২৩ জন বড় ধরনের উকিল নিয়ে আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করে।
মালয়শিয়ার আদালত তাদের একটি মাত্র প্রশ্ন করে মালয়শিয়ার ভাল-মন্দ বা অভ্যন্তরীণ বা বাইরের ব্যাপারে মালয়শিয়াকে নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করার আল জাজিরা কে? তারপর বড় ধরনের জরিমানা করে ও মালয়শিয়া সম্পর্কিত সকল প্রকার প্রতিবেদন এবং ভিডিও আল জাজিরার মিডিয়া স্যোসিয়াল এবং ওয়েবসাইট থেকে ডিলিট করতে বলে এবং মালয়শিয়াতে আল জাজিরার লাইসেন্স বাতিল করে তাদের মালয়শিয়া ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়। দুর্ভাগ্য বাঙ্গালী রায়হান কবির এক সপ্তাহ পলাতক থাকার পরে পুলিশ তাকে ধরে ফেলে তারপর মালয়শিয়াস্ত্ব বাংলাদেশ দূতাবাস অনেক দৌড় ঝাপ করে মালয়শিয়ার সরকারের কাছে রায়হান কবিরের হয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করে, তাকে কোনো সাজা না দেওয়ার অনুরোধ করে। মালয়শিয়ার সরকার ইমিগ্রেশানের মাধ্যমে রায়হান কবিরের ভিসা বাতিল করে বাংলাদেশে ফেরত পাঠায়।
এটাই হলো আল জাজিরার আসল চেহারা, এখন বাংলাদেশ নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছে এতে স্পস্টভাবে বোঝা যায় আল জাজিরার কুনজর পড়েছে বাংলাদেশের উপর। বাংলাদেশ সরকারের কাছে অনুরোধ করবো আল জাজিরাকে বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত করার জন্য যথাযোগ্য পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। আর সাধারণ মানুষকে অনুরোধ করবো দলমত নির্বিশেষে আসুন সকলে মিলে আল জাজিরাকে প্রতিহত করি এবং বাংলাদেশ রক্ষা করি। মনে রাখবেন ইরাক এবং সিরিয়া ধ্বংসের পিছনে মূল ভূমিকা পালন করেছে এই আল জাজিরা।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলাধিন শ্রীমঙ্গল উপজেলার মতিগঞ্জ এলাকাধীন হাইল হাওরে অবস্থিত “রাজা ফিশারিজ এন্ড হ্যাচারী কমপ্লেক্সে”র সাবেক স্বত্বাধিকারী মৃত মাস্টার গোলাম মোস্তফা রাজা মিয়ার মৃতদেহ মৃত্যুর আড়াই বছর পর ময়না তদন্তের জন্য উত্তোলন করা হবে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীমঙ্গল থানার এসআই আলমগীর আমার সিলেটকে জানান, রাজা ফিশারিজ এন্ড হ্যাচারী কমপ্লেক্সের সাবেক স্বত্বাধিকারী মৃত মাস্টার গোলাম মোস্তফা রাজা মিয়ার মৃতদেহ উত্তোলন করা হবে, তার মৃত্যু নিয়ে তারই ছেলে গোলাম মুরসালিন রাজার আবেদনের প্রেক্ষিতে মৌলভীবাজার জেলার বিজ্ঞ আদালত মৃতদেহ উত্তোলন করে পোস্টমর্টেম করার নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন,তার ছেলের আবেদনে মৌলভীবাজার আদালতের বিজ্ঞ বিচারকের কাছে তার মৃত্যুকে পরিকল্পিত হত্যা দাবী করে মামলা দায়ের করলে এ আদেশ দেওয়া হয়।

জানা যায়,আগামী মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি ) সকাল এগারোটায় আদালত কর্তৃক নির্ধারিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা খানম এর উপস্থিতিতে স্থানীয় পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে পুলিশ স্কটের মাধ্যমে মৃত মাস্টার গোলাম মোস্তফা রাজা মিয়ার মৃতদেহ উত্তোলন করা হবে। মামলার তদন্তকারী এই কর্মকর্তা এ প্রতিনিধিকে আরও বলেন,মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে তাকে তার সৎ মা নুরজাহান রানী রাজা বালিশ চাপা দিয়ে,বিষ প্রয়োগ করে কিংবা অন্য কোন উপায়ে হত্যা করে থাকতে পারে। এই অভিযোগের ভিত্তিতে ন্যায় বিচারের লক্ষ্যে আদালত তার মৃতদেহ উত্তোলন করে ময়না তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে স্থানীয় একটি সুত্রে (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) জানা যায়, রাজা মিয়ার রেখে যাওয়া বিশাল সম্পত্তি নিয়ে দ্বিতীয় স্ত্রীর সাথে প্রথম পক্ষের সন্তানদের দীর্ঘদিন ধরে দেন দরবার চলছে। এরই প্রেক্ষিতে তার লাশ উত্তোলনের আবেদন করা হয়েছে,তবে তিনি একজন ভালো মানুষ ছিলেন মাস্টার গোলাম মোস্তফা রাজা লন্ডন থেকে ফিরে শ্রীমঙ্গলের মতিগঞ্জে গড়ে তুলেছিলেন বিশাল মাছের খামার। প্রায় আড়াই বছর পুর্বে তিনি মৃত্যু বরণ করেছে,এভাবে তাকে তার সন্তানেরা মৃত্যুর পরে লাশ তুলে অপমান করবে এটা ভাবাও যায় না।

উল্লেখ্য, গত বছর ২৬/০৮/২০২০ তারিখে মৃত রাজা মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী নুরজাহান বেগমকে প্রধান আসামি ও তার ভাই দেওয়ান আলামিন রাজা, দেওয়ান সেলিম, দেওয়ান জান্নাতুল ফেরদৌস লিখন ও নাছির মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা আরো বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হলে আদালত দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় বাদির জবানবন্দি গ্রহণ করে আরজি বা নালিশকে গত ০৭/০৯/২০২০ তারিখের মধ্যে এফআইআর হিসেবে গণ্য করতে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দেওয়া হয় এবং এরই প্রেক্ষিতে আদালত লাশ উত্তোলনের নির্দেশ দেন।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc