Saturday 6th of March 2021 02:22:39 PM

বেনাপোল প্রতিনিধি: ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে যশোরের শার্শা উপজেলা শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা কমিটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন ও সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শার্শা উপজেলা শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিমিটেড (কাল্ব) এর সার্বিক সহযোগিতায় শুক্রবার সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত উপজেলার নাভারণ হক কমিউনিটি সেন্টারে ভোট কেন্দ্রে এই নির্বাচন ও সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ১শ’ ৫৩ জন ভোটারের মধ্যে ১শ’ ৪৬ জন শিক্ষক-কর্মচারী ভোট প্রদান করেন।
শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিমিটেডের এবারের নির্বাচনে জাহাঙ্গীর-আলিম পরিষদ এবং শরিফুল-মিজান পরিষদের দুটি প্যানেলে নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দি¦তা করেন। ভোট গননা শেষে জাহাঙ্গীর-আলীম পরিষদ থেকে ৪ জন এবং শরীফুল-মিজান পরিষদ থেকে ২ জন প্রার্থী জয়লাভ করে। পরে কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিমিটেডের ৫ম বার্ষিক সাধারণ সভা ও নির্বাচন ফলাফল ঘোষণা করেন।
প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দ্বায়িত্ব পালন করেন শার্শা উপজেলা সমবায় অফিসার এ.বি.এস.এম আক্কাস আলী।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:  মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি, তিনবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর মো: আনোয়ার হোসেন। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টায় ভানুগাছ বাজারস্থ প্রধান প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে এ মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মেয়র প্রার্থী মো: আনোয়ার হোসেনের ছোট ভাই কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাড. মো: সানোয়ার হোসেন।এসময় তিনি সাংবাদিকদের জানান, দলের দুঃসময়ের কা-ারী হিসেবে বিগত নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

কিন্তু দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ আশ্বাস দিয়েছিলেন এবারের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেবেন। দৃঢ় বিশ্বাস থাকা স্বত্ত্বেও দু:খের বিষয় এইবারও ষড়যন্ত্র ও রহস্যজনক কারণে আমাকে দলীয় মনোনয়ন থেকে বি ত করা হয়েছে। কিন্তু দলের মনোনয়ন না পাওয়ায় তৃণমুলের নেতাকর্মীর ও এলাকার সর্বস্তরের সাধারণ জনগণের চাপে পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন।

তিনি বলেন, আমি স্কুল জীবন থেকে মুজিব আদর্শের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সংযুক্ত হই। পরে উপজেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক, সাধারণ সম্পাদক, সভাপতি, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সভাপতি নির্বাচিত হই। পরে জেলা যুবলীগের সহ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করি। বিগত জাতীয় সংসদ, উপজেলা, পৌরসভা ও বিভিন্ন ইউনিয়ন নির্বাচনে জীবনের ঝুকি নিয়ে নৌকার প্রতীকের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে কাজ করেছি।

তিনি আরো বলেন, আমি মেয়র নির্বাচিত হলে পৌরসভার উন্নয়নে পৌরবাসীকে সাথে নিয়ে একটি উন্নত, আধুনিক, মডেল ও পরিচ্ছন্ন পৌরসভা গড়ে তুলতে চাই।
মেয়র প্রার্থী মো: আনোয়ার হোসেন সুষ্ঠু, অবাধ, শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তিনি মেয়র হিসেবে শতভাগ জয়লাভের ব্যাপারে আশাবাদী।
উল্লেখ্য, আগামী ১৬ জানুয়ারী দ্বিতীয় ধাপে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ জন, কাউন্সিলর পদে ৩১ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। পৌরসভায় মোট ভোটার ১৩ হাজার ৯ শত ৫ জন।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী, বর্তমান মেয়র মো: জুয়েল আহমদের সমর্থনে বিশাল মিছিল ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত ৭ টায় পৌর এলাকার ভানুগাছ শহরে মেয়র প্রার্থী মো. জুয়েল আহমেদের পক্ষে তার সমর্থক ও ভোটাররা এক বিশাল মিছিল ও পথসভা করেন। পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ড থেকে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ নৌকা মার্কার প্রার্থীর সমর্থকরা খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে ভানুগাছ বাজারে নৌকার নির্বাচনী কার্যালয়ে সমবেত হয়। পরে ৭ টায় নৌকার নির্বাচনী কার্যালয়ের সম্মুখ থেকে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমানের নেতৃত্বে এক বিশাল মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি ভানুগাছ বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রথমে ভানুগাছ রেল স্টেশন পার্কিং মাঠে ও পরে রাত ৮ টায় ভানুগাছ চৌমুহনী চত্ত্বরে এক পথসভার আয়োজন করা হয়।

পথসভায় কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আসলম ইকবাল মিলনের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক অধ্যক্ষ হেলাল উদ্দিন এর স ালনায় গ্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান । অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড. এস এম আজাদুর রহমান আজাদ, নির্বাচনী সদস্য সচিব সাবেক বিআরডিবি চেয়ারম্যান ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, মেয়র প্রার্থী জুয়েল আহমেদ প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক হারুন অর রশীদ ভূইয়া, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহ্বায়ক আব্দুল মালিক বাবুল, সায়েখ আহমদ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাহাত ইমতিয়াজ রিফুল, সম্পাদক সাকের আলি সজীব, মাধবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মো.আসিদ আলি। এছাড়াও উপজেলা, পৌরসভার আওয়ামী, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।
পথসভায় বক্তারা বলেন, নৌকার গণ জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী ১৬ জানুয়ারি নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে নৌকার বিজয়কে নিশ্চিত করার আহ্বান জানান তারা।

নূরুজ্জামান ফারুকী নবীগঞ্জ থেকে:নবীগঞ্জে চুরি হওয়ার ১২ ঘন্টার মধ্যেই চুরি হওয়া একটি পাইভেট কার (গাড়ি) উদ্ধার করেছে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ।সুত্রে জানা যায়,  নব-নির্বাচিত নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও  দৈনিক হবিগঞ্জ সময় পত্রিকার সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) সেলিম তালুকদারের মালিকানাধীন ঢাকা- গ-১১-০১৫০নং কারটি তার বাসার পার্শ্বে মোঃ আলাউদ্দিন কাউন্সিলর এর বাসা বরাবর তার জায়গা থেকে হবিগঞ্জ-নবীগঞ্জ রোডের পূর্ব তিমিরপুর নামক স্থানে রাস্তার পার্শ্বে রাত সাড়ে ১২টায় গাড়িটি রেখে যান ড্রাইভার তাজ উদ্দিন। বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতের কোন এক সময়ে কারটি চুরি করে নিয়ে যায় চোরেেরা। পরে আজ ০৮ জানুয়ারী (শুক্রবার) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে ঘুম থেকে উঠে কারটি ওই স্থানে পাওয়া না গেলে দুপুর ১২টার দিকে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমানকে বিষয়টি অবগত করেন। এর প্রায় দুই ঘন্টার মধ্যে ওসি মোঃ আজিজুর রহমান নির্দেশে ও ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম ও এসআই (সাব ইন্সপেক্টর) মোঃ সামছুল ইসলামের নেতৃত্বে থানা পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম নবীগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে সাড়াশি অভিযান পরিচালনা করে দুপুর ২ ঘটিকার মধ্যে কারটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন। চুরি হওয়া কারটি দ্রুত সময়ের মধ্যে উদ্ধার করায় নব-নির্বাচিত নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও  দৈনিক হবিগঞ্জ সময় পত্রিকার সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) সেলিম তালুকদার পুলিশ প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আজিজুর রহমানের সাথে এ প্রতিবেদকের কথা হলে তিনি বলেন- আমাদের কাজই হল এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখা, দাঙ্গা-হাঙ্গামা থেকে এলাকাকে রক্ষা করা। কোন ভুক্তভোগী কোন বিষয়ে অভিযোগ নিয়ে আসলে তা খতিয়ে দেখে তাকে আইন অনুযায়ী সেবা দেওয়া। কার চুরি হওয়ার ব্যাপারটি জানতে পারার পর আমরা ব্যাপক চেষ্টা করে কারটি উদ্ধার করতে পেরেছি। আমরা শুধুমাত্র আমাদের দায়িত্ব পালন করেছি। যতটুকু পারি জনগণকে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ সহযোগীতা দেওয়ার চেষ্টা করি।

নূরুজ্জামান ফারুকী বিশেষ প্রতিনিধি:শায়েস্তাগঞ্জে যাত্রীবাহি বাসে তল্লাশি চালিয়ে তক্ষকসহ বাচ্চু মিয়া (৫৫) নামে এক পাচারকারীকে আটক করেছে পুলিশ। ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী যুগান্তর পরিবহনের একটি যাত্রীবাহি বাসে তল্লাশি চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। সে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার বীরপাশা গ্রামের মৃত আলাই মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশের উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মো. হামিদুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে চলাচলকারী বাসগুলোতে অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী যুগান্তর পরিবহন বাসের যাত্রী বাচ্চু মিয়ার (৫৫) ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে একটি তক্ষক পাওয়া যায়।

শায়েস্তাগঞ্জ থানার (ওসি) অজয় চন্দ্র দেব গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আসামির হাতে থাকা লাল রংয়ের শপিং ব্যাগের ভেতরে থাকা প্রায় ১০০ গ্রাম ওজনের একটি ১২ ইঞ্চি লম্বা তক্ষক উদ্ধার করা হয়। সে দীর্ঘদিন ধরে সহজ সরল মানুষকে ঠকানোর উদ্দেশ্যে তক্ষক সংগ্রহ করে কেনাবেচা করে থাকে বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। বিকেলে তাকে মামলা দিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নড়াইল প্রতিনিধি:  নড়াইলে সোনালী ব্যাংক চত্বর থেকে এক ব্যবসায়ীর চার লাখ টাকা খোয়া গেছে মোঃ কামরুল ইসলাম নামের ওই ব্যবসায়ী শহরের ভওয়াখালীর বাসিন্দা বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে সোনালী ব্যাংকের নড়াইল শাখার চত্বর থেকে ওই টাকা খোয়া যায়।

মোঃ কামরুল ইসলাম জানান, বাসা থেকে চার লাখ টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলে বের হই। আরও টাকা তুলতে সোনালী ব্যাংকে যাই। আমার সঙ্গে আমার এক ভাই ছিলেন। তিনি ব্যাংকের ভেতরে যান। আমি ব্যাংকের চত্বরে মোটরসাইকেলে বসেছিলাম। একটি বাজারের ব্যাগে ওই চার লাখ টাকা মোটরাইকেলের হ্যান্ডেলে ঝোলানো ছিল। এক ব্যক্তি এসে পেছন দিকে থেকে আমাকে টোকা দেয়। পেছন ফিরে তাঁর সঙ্গে কথা বলছিলাম। ওই ব্যাক্তি চলে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরে হ্যান্ডেলের দিকে তাকিয়ে দেখি ব্যাগ নেই।

ব্যাংকের ব্যবস্থাপক মো. আবু সেলিম বলেন, ‘ব্যাংকের সিসি ফুটেজেও দৃশ্যটি পাওয়া যাচ্ছে না।

নড়াইল সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) শিমুল কুমার দাস জানান, ঘটনায় ওই ব্যাক্তি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। আমরা কাজ শুরু করেছি।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি: আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে আওয়ামীলীগের মনোনিত মেয়র প্রার্থীর প্রচারণার গাড়িতে দুবৃত্তদের আগুন দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যেই কমলগঞ্জে নির্বাচনী প্রচারনার সাথে কিছুটা উত্তেজনা শুরু হয়েছে। বুধবার রাত ১১টায় কমলগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের গোপালনগর গ্রাম এলাকায় আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মো. জুয়েল আহমেদের প্রচারণার সিএনজি অটোরিক্সয় হামলা চালিয়ে ভাঙ্গচুর ও অগ্নিসংযোগের মত ঘটনা ঘটেছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত বুধবার রাতে প্রচারণা শেষে আওয়ামীলীগের মনোনিত মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মো. জুয়েল আহমেদের প্রচারণার মাইক লাগানো সিএনজি অটো রিক্সাটি চালক শফিক মিয়া বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছিল। রাত ১১টার দিকে চালক যুদ্ধাপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে সিএনজি অটো নিয়ে যাবার পথে অতর্কিতে এসে একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালায়। হামলায় সিএনজি অটোরিক্সার সাইডের পর্দা ছিড়ে ফেলে ভাঙ্গচুর করে একদিকে অগ্নি সংযোগ করে। ঘটনার খবর পেয়েই রাতে কমলগঁঞ্জ থানার পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে।
আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মো. জুয়েল আহমেদ বলেন, এবারের নির্বাচনে তাকে আবারও দলীয়ভাবে মনোনয়ন দেওয়ার পরও দলীয় আরও দুইজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে নির্বাচন করছেন। ফলে শুরু থেকেই প্রচারণায় তাকে নানাভাবে হয়রানির চেষ্টা চলছিল। এমনিভাবে বুধবার রাতে প্রচারণা শেষে তার ভাড়া করা একটি সিএনজি অটোরিক্সা চালক ১নম্বর ওয়ার্ডের যুদ্ধাপুর গ্রামে যাচ্ছিল। তখন সিএনজি অটোরিক্সার ওপরে মাইক লাগানো থাকলেও আচরণবিধি মেনে কোন প্রকার প্রচারণা হয়নি। তিনি মনে করেন তার প্রতিদ্বন্ধীদের মাঝে হয়ত কোন একটি পক্ষের দুর্বৃত্তরা তার প্রচারণার সিএনজি অটোরিক্সায় হামলায় চালায়। তিনি রাতেই থানায় একটি অভিযোগ করেছেন। দুর্বৃত্তরা শুধু সিএনজি অটোরিক্সার সাইড পর্দা ছেড়েনি তারা ভাঙ্গচুরের সাথে অটোরিক্সার এক দিকে অগ্নি সংযোগ করে। তিনি মনে করেন পুলিশ জোর তদন্ত করলে হামলাকারীদের পরিচয় বের করতে পারবে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত এ ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় কোন অভিযোগ হয়নি।
কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় থানায় কোন লিখিত অভিযোগ তার হাতে আসেনি। তারপরও পুলিশ জোর তদন্ত করছে।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ (গভ ঃ রেজিঃ বি-২০৯১) এর উপজেলা সভাপতি মোঃ হেলাল মিয়াকে দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের দায়ে গত বুধবার বহিস্কার করা হয়েছে।
জানা যায়, আগামি ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে অংশগ্রহন করায় কেন্দ্রীয় নির্দেশ অমান্য করার অভিযোগে সংগঠনের সভাপতি পদ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ হানিফ খোকন ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইনসুর আলী এক যুক্ত বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মোঃ আশরাফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে কমলগঞ্জ উপজেলার সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের হেলাল মিয়ার সাথে সাংগঠনিক যোগাযোগ না রাখার জন্য অনুরোধ জানান।

ভাষানটেক থেকে: ভাষানটেক থানাধীন জামাল উদ্দিনের বাড়ীর যুবককে হত্যা রহস্য উদঘাটন করে প্রধান আসামী রহমত উল্ল্যাহকে (৩৩) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
বুধবার ৬ জানুয়ারি, রাত ১১ টায় সিলেটের সুমানগঞ্জ জেলার, ধর্মপাশা থানা এলাকায় ব্যাপক অভিযান চালিয়ে রহমত উল্ল্যাহকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।
পুলিশ সূত্রে জানান যায়, গত ০১ জানুয়ারি ২০২১ বিকালে ভাষানটেক থানায় সংবাদ আসে, বাসা নং-১৬৬/৫ এর ৫ম তলা ছাদের উপর চিলেকোঠার একটি ঘরে এক যুবককে হত্যা করে ফেলে রাখা হয়েছে। ভাষানটেক থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃত ব্যক্তির পরিচয় জানতে পারে পুলিশ। মৃত যুবকের নাম শাহ আলম।
সে ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল থানার মাগুরজোড়া গ্রামের বাসিন্দা। শাহ আলম বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এম.ই.এস শাখায় লেবার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ীতে সংবাদ দিলে শাহ আলমের ছোট ভাই ভাষানটেক থানায় আসে ভাইয়ের লাশ শনাক্ত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
সূত্রবিহিন এই হত্যাকান্ডের রহস্য উন্মোচনের ভাষানটেক থানার নবনিযুক্ত অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন গভীর ভাবে পর্যালচোনা শুরু করেন। মৃত ব্যক্তির পাশে পড়ে থাকা একটি মোবাইল থেকে রহস্য ভেদের শুরু হয়। কল লিস্ট থেকে প্রথম অবস্থায় সন্দেহভাজন কয়েক জনকে আটক করা হলেও মূল আসামী থেকে যায় ধরা ছোঁয়ার বাইরে।
ওসি দেলয়ার হোসেনর বিচক্ষণতায় ঘটনার দুদিনের মধ্যেই মূল আসামী রহমত উল্ল্যাহ সনাক্ত হয়। আধুনিক কল ট্রেকিং ব্যবহার করে পুলিশ আসামীর বর্তমান অবস্থান সনাক্ত করে সিলেটের সুমানগঞ্জ জেলার, ধর্মপাশা এলাকা থেকে রহমত উল্ল্যাহকে গ্রেফতার করে।
বেরিয়ে আসে হত্যার মূল রহস্য। স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দীতে আসামী জানান, মৃত শাহ আলম একজন সমকামি ছিলেন। ১ বছর যাবত তাদের পরিচয়। সেই সূত্রে তাদরে মধ্যে ভাল সর্ম্পক গড়ে উঠে। আনুমানিক ১০ মাস আগে সে (শাহ আলম) আমার সাথে সমকামিতা শুরু করে।
মাঝে মাঝে শাহ আলম আমাকে ৫০০/১০০০ টাকা দিত। একসময় বিষয়টি আমার মনে ভিষণ ভাবে প্রভাব ফেলে। গত ডিসেম্বরের ৫ তারিখে আমি সিদ্ধান্ত নেই আলমকে মেরে ফেলব।
৩০-১২-২০২০ রাত অনুমান ১১:৩০ মিনিটের দিকে শাহ আলমের বাসায় যায়। দুইজনে একত্রে টিভি দেখতে থাকি। এক সময় আলম ঘুমিয়ে পড়লে রাত ৪ টার দিকে রান্না ঘর থেবে চাকু নিয়ে আলমের পিঠে আঘাত করি। শাহ আলম বাচার জন্য ধস্তাধস্তি করে।
ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে মাথায় আঘাত করলে মৃত শাহ আলম খাটের উপর পড়ে যায়। আমি তখন আলমের গলায় চাপ দিয়ে ধরে চাকু দিয়ে পেটে আঘাত করে ভুড়ি বের করে ফেলি। তারপর জবাই করে বালিশ চাপা দিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করি। হত্যায় ব্যবহৃত ছুরিটি বিছানার নিচে লুকিয়ে রেখে বাথরুমে গিয়ে গায়ে লাগা রক্ত ধুয়ে পরিস্কার করে রুমে তালা দিয়ে পালিয়ে যাই।
ভাষানটেক থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন জানান, আসমীকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারে মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও বিশেষ অভিযানে শ্রীমঙ্গল থেকে ২৮ পিস ইয়াবা সহ মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জানা গেছে, নবাগত জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়ার নির্দেশনায় ও জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ সুধীন চন্দ্র দাশ’র পরামর্শে এসআই কাজী আরিফ আহমেদ ও এএসআই মুকুন্দ দেববর্মা, সঙ্গীয় ফোর্স আতাউর রহমান, মো. ইমরান হোসেন, শরীফুল ইসলামসহ একটি জেলা গোয়েন্দা টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) দিবাগত রাত পৌনে আটটায় সৌরভ বর্মন (৩০) পিতা খোকন বর্মন, মাতা আরতি বর্মন, সাং ডাক বাংলা পুকুর পাড়, থানা- শ্রীমঙ্গল, জেলা মৌলভীবাজারকে উপজেলার ৬ নং আশিদ্রোন ইউনিয়নের শিববাড়ি বাজারের জামিল ভেরাইটিজ স্টোরের সম্মুখ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জেলা গোয়েন্দা সুত্রে জানা যায় এ সময় তার কাছ থেকে ২৮ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

আটক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে,এই জেলাকে মাদক মুক্ত রাখতে গোয়েন্দা টিমের অভিযান অব্যাহত থাকবে এমনটি জানিয়েছেন জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ সুধীন চন্দ্র দাশ ।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc