Thursday 3rd of December 2020 04:17:38 PM

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই(নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে জেলহত্যা দিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে সাহেবগঞ্জ আ’লীগ দলীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয়, দলীয় এবং কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে উপজেলা আ’লীগ সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্তের সভাপতিত্বে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বক্তব্য রাখেন সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিদ ইসলাম বিপ্লব, প্রচার সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আফছার আলী, যুবলীগ সভাপতি ভাইস চেয়ারম্যান শেখ হাফিজুল, মহিলা লীগ সভাপতি মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম প্রমুখ।

নূরুজ্জামান ফারুকী বিশেষ প্রতিনিধি: সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এয়ারপোর্ট থানা এলাকা থেকে পেট্রোল বোমাসহ বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি উদ্ধার করেছে র‌্যাব ৯।

সোমবার রাত পৌনে ১২টার দিকে সিলেটের তারাপুর গ্রামের চা বাগান থেকে ২৫ বোতল পেট্রাল বোমাসহ পেট্রোল বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব-৯এর মিডিয়া অফিসার এএসপি এ, কে, এম, কামরুজ্জামান স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, এব্যাপারে র‌্যাব বিস্ফোরক দ্রব্য আইন ১৯০৮ ইং সনের ৪ ধারায় অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু করে উদ্ধারকৃত আলামতসমূহ এসএমপির এয়ারপোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: পরিবার থেকে পুরোদেশ, মাদকমুক্ত বাংলাদেশ” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে চুনারুঘাট থানা পুলিশের উদ্যোগে মঙ্গলবার ( ৩ নভেম্বর) বিকাল ৪টায় উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের আমু চা- বাগান শ্রীশ্রী দুর্গা মন্দির প্রাঙ্গনে মাদক বিরোধী সচেতনতামূলক বিট সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন – হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা (বিপিএম, পিপিএম)। তিনি বলেছেন – প্রতিটি বাগানে – বাগানে মদের পাট্টা বন্ধ করে দেন। মাদককে পরিহার করে দুধ, ডিম, মাংসসহ পুষ্টিকর খাবার খান। ছেলে- মেয়েকে মানবিক বিকাশ ঘটাতে মাদক পরিহার করুন। আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হউন এবং পুলিশ প্রশাসনকে সহযোগীতা করুন।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন-আহম্মদাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান আবেদ আসনাত সনজু, আমু চা বাগান ম্যানেজার জহিরুল ইসলাম, নালুয়া চা বাগান ম্যানেজার ইমতিয়াজ আহমেদ প্রমুখ। এতে চুনারুঘাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আলী আশরাফের সভাপতিত্বে ও ওসি (তদন্ত) চম্পক দামের পরিচালনায় এ বিট সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উল্লেখ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা ২৪টি মাদকমুক্ত পরিবার কে ও শতাধিক শিক্ষাথীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী ও ক্রেস্ট প্রদান করেছেন।

আন্তরিকতার সঙ্গে একটি ছক তৈরি করে মূল্যায়ন পদ্ধতি চালু করায় মৌলভীবাজার জেলায় এক বছরে মারামারি মামলা কমে গেছে ২৫৫টি। একটি মামলায় গড়ে ১০ জন লোক জড়িত থাকলে ২৫৫টি মামলায় অন্তত ২ হাজার ৫৫০ জন লোক মামলাজট থেকে বেঁচে গেছেন। যদিও মারামারির মামলায় ১০০ থেকে দেড়শ আসামির অন্তর্ভুক্তিও স্বাভাবিক ব্যাপার।

জেলায় মোট মামলার প্রায় ৩২ শতাংশ ছিল মারামারি মামলা। যার বেশিরভাগই প্রতিপক্ষকে হয়রানি করার উদ্দেশ্যে করা হতো। কিন্তু বর্তমানে সে পথ বন্ধ করে দিয়েছেন পুলিশ সুপার ফারুক আহমদ। এতে মামলার জট যেমন কমেছে তেমনি মিথ্যা মামলায় হয়রানিও কমেছে।

জানা যায়, স্বাভাবিক নিয়মে প্রতি মাসে প্রত্যেক পুলিশ অফিসে মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা হয়। সেখানে জেলার সব অপরাধের পর্যালোচনা করা হয়।

পর্যালোচনা করার ক্ষেত্রে ডাকাতি, দস্যুতা, খুন, দ্রুত বিচার আইনের মামলা, দাঙ্গা, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলা, অপহরণ, পুলিশ আক্রান্ত, সিঁধেল চুরি, চুরি, উদ্ধার সংক্রান্ত মামলা এবং অন্যান্য খাতের মামলা আলাদা আলাদা করে হিসাব করা হয়।

২০১৯ সালে মৌলভীবাজারের বর্তমান পুলিশ সুপার ফারুক আহমদ যোগদানের পর এসব পর্যালোচনা করে দেখেন যে, অধিকাংশ মামলাই অন্যান্য খাতের মামলা। তিনি অন্যান্য খাতের মামলাগুলোকে বিভাজন করে উপস্থাপনের নির্দেশ দেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে।

যেমন- জখম সংক্রান্ত, অগ্নিসংযোগ, পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, সন্ত্রাস দমন আইন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন, মানি লন্ডারিং আইন, মানবপাচার আইন, কট্রোল অ্যাক্ট, বাল্যবিয়ে নিরোধ আইন, পাসপোর্ট আইন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন, প্রতারণা, আত্মহত্যার প্ররোচনা, চাঁদাবাজি, জাল নোট ইত্যাদি।

তখন চমকপ্রদ কিছু তথ্য সামনে চলে আসে। দেখা যায় জেলার মোট মামলার ৩২.৭৮ শতাংশ মারামারি (জখম) সংক্রান্ত মামলা। আবার মিথ্যা অভিযোগের ভিত্তিতে মারামারি (জখম) মামলা হওয়ার অভিযোগও কম নয়।

ছকের মাধ্যমে উপস্থাপন করে মারামারি কমানো এবং মারামারি মামলা রুজু করার সময় এর সত্যতা যাচাই করার নির্দেশনা দেন এসপি। ফলে এক মাসের মধ্যেই জাদুকরী ফল আসা শুরু করে। এক বছরে কমে যায় ২৫৫টি মামলা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার ফারুক আহমদ জানান, আমাদের সঠিক উদ্যোগে এক বছরে ২৫৫টি মামলা কমে গেছে। এই ছক বর্তমানে সিলেট রেঞ্জের সব জেলার অপরাধ বিশ্লেষণে ব্যবহার করা হচ্ছে। ফলে সিলেট রেঞ্জের সব জেলায় মারামারির মামলা উল্লেখযোগ্য হারে কমে গেছে।

ছক পরিবর্তন করে মামলা কমানোর এই উদ্যোগে স্থানীয়ভাবে সফল হওয়ায় বর্তমানে তা প্রস্তাব আকারে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে পাঠানো হয়েছে। আশা করা যায় শিগগিরই সারাদেশে এটি কার্যকর করা হবে। এতে হাজার হাজার মামলা কমে যাবে এবং লাখ লাখ মানুষ হয়রানি থেকে বেঁচে যাবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। সূত্র জাগো নিউজ

নূরুজ্জামান ফারুকী  নবীগঞ্জ: নবীগঞ্জের পল্লীতে আমীর হামজা নামে (৩) শিশুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এঘটনায় নিহতের চাচাতো ভাইকে আটক করেছে পুলিশ। তাৎক্ষণিক পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

গতকাল ২ অক্টোবর সোমবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের দাউদপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু আমীর হামজা ওই গ্রামের আব্দুর রশীদের ছেলে।
জানা যায়- সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের দাউদপুর গ্রামের আব্দুর রশীদের একমাত্র পুত্র ৩ বছরের শিশু আমীর হামজাকে ডেকে নেয় হামজার চাচাতো ভাই আকলিছ মিয়ার পুত্র জুনাইদ মিয়া (১৮)। এরপর থেকে হামজার কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। পরিবারের সদস্যরা হামজাকে সম্ভাব্য সকল স্থানে খোজাখুজির পর রাত ৯টার দিকে পরিবারের সদস্যরা জুনাইদের গাড়ির গেরেজ থেকে মুখে স্কচটেপ পেছানো অবস্থায় আমীর হামজাকে পড়ে থাকতে দেখেন। দ্রুত তাকে আউশকান্দিতে একটি হসপিটালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
এ ঘটনার খবর পেয়ে নবীগঞ্জ-বাহুবল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী, নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমান, সেকেন্ড অফিসার এসআই সমীরণ চন্দ্র দাশ সহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যান।
হামজাকে ডেকে নেয়া তার চাচাতো ভাই জুনাইদের কথাবার্তায় সন্দেহ হলে স্থানীয় লোকজন জুনাইদকে আটক করে পুলিশের সোপর্দ করেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমান বলেন, ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে। আশা করছি দ্রুত এই হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন হবে।
নবীগঞ্জ-বাহুবল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শিশুটিকে শ্বাসরুদ্ধ করে মারাা হয়েছে এ ঘটনায় তার চাচাাতো ভাইকে সন্দেহমূলক গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সারা বিশ্বের প্রিয় মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লাম ও তার স্ত্রী পবিত্রতার উজ্জ্বল নক্ষত্র হজরত আয়েশা সিদ্দীকাকে (রা.) নিয়ে কটাক্ষ করে গ্রেফতার হওয়া ফেনীর সনাতনী ধর্মের অনুসারী মিঠুন দে ওরফে পিকলু নীল (৩২) কে ৩ দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত। আদালত সূত্র জানায়, শুক্রবার বিকালে পিকলুকে আদালতে সোপর্দ করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।সোমবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট জাকির হোসেনের আদালতে রিমান্ড শুনানী হয়। বিচারক শুনানী শেষে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, পিকলু তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি পিকলু নীল থেকে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বিভিন্ন প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। সাম্প্রতিক সময়ে ফেনী শহরের ডাক্তার পাড়ার বাসিন্দা কালি প্রসাদ ওরফে বাচ্চু দে’র ছেলে পিকলু নীল তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে ইসলাম, মহানবী ও আলেম ওলামা এবং পর্দার বিষয়ে বিভিন্ন বিদ্রুপমূলক স্ট্যাটাস নিয়মিত দিয়ে আসছেন। এসব স্ট্যাটাসে আয়েশার বিয়ের সময় তিনি শারারিক ভাবে যৌনক্ষম ছিলেন না, ফতুয়া বাজীর গুষ্টি কিলাই-ভন্ডামির গুষ্টি কিলাই, এত পর্দা পর্দা মারেন- পর্দার সব ঠিক হইলে জানালায় গ্রিল লাগান কেন ? ইত্যাদি প্রচারণা রয়েছে।

এই ছুরতেই লোকজনদের কাছে বামপন্থি সর্বজ্ঞানি প্রগতিশীল হিসেবে প্রমাণ করতে চায় নিজেকে হিন্দু ধর্মাবলম্বি পিক্লু দে উরুপে মিঠন। 

এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের ফজল উদ্দিন কারী বাড়ীর আশেক এলাহীর ছেলে ছানা উল্লাহ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

আমার সিলেট ডেস্কঃ  আগামী জানুয়ারির মধ্যে এবং ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে যেসব পৌরসভা, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে, সেগুলোর ভোট আগামী ডিসেম্বরের শেষ দিকে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আপাতত পাঁচ ধাপে এসব নির্বাচন শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির।
ইসির আশা, পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন মে মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা যাবে। পৌরসভার নির্বাচন ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি।
সোমবার (২ নভেম্বর) নির্বাচন ভবনে কমিশন সভা শেষে এ তথ্য জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।
সিইসি বলেন, ‘আজ আমরা লম্বা মিটিং করেছি। এর মধ্যে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন যেগুলো ডিউ হয়েছে, সেগুলো পরিচালনা করা, শিডিউল তৈরি এবং রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ থেকে শুরু করে যেগুলো করণীয়, সেগুলো ঠিক করেছি। জানুয়ারি এবং ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে যেসব নির্বাচন ডিউ হবে, সেগুলো হয়তো আমরা করে ফেলবো, হয়তো ডিসেম্বরের শেষ দিকে। সেরকম প্রস্তুতি আমাদের আছে।’ তিনি বলেন, ‘পৌরসভার নির্বাচন ইভিএমে হবে। উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন বা সাধারণ নির্বাচন সবগুলো ইভিএমে করা যাবে না।
হয়তো কিছুসংখ্যক করা যেতে পারে, এনআইডির ডিজি পৌরসভার নির্বাচনগুলো ঠিক করার পরে যদি মনে করেন, তার ক্যাপাসিটি আছে তবে হয়তো কিছু নির্বাচন ইভিএমে করবে।’
সিইসি জানান, ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত পৌরসভা, জেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের যেসব নির্বাচন ডিউ হবে, সেগুলো করা হবে। এ সময়ের পৌরসভা খালি হবে ২০টির ওপর। এছাড়া অনেকগুলো হবে উপনির্বাচন।
নূরুল হুদা বলেন, ‘আমরা আশা করি, পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন মে মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা যাবে। এগুলো ধাপে ধাপে করা হবে। আমাদের অনুমান, পাঁচটি ধাপে নির্বাচন শেষ করতে পারবো। এখনও আমরা ঠিক করিনি কয় ধাপে নির্বাচন করা হবে।’

নূরুজ্জামান ফারুকী,নবীগঞ্জ:  নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি বাজারে অবস্থিত ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং শাখা থেকে গ্রাহকের টাকা নিয়ে ব্যাংকের এজেন্ট ও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে কেলেঙ্কারীর অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যে এক বিজ্ঞপ্তিতে আউশকান্দি এজেন্ট ব্যাংকিং শাখা পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। যে কোনো প্রয়োজনে ইসলামী ব্যাংক নবীগঞ্জ শাখায় যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। জানা যায়, প্রায় ২বছর পূর্বে নবীগঞ্জ উপজেলার বোরহানপুর গ্রামের আবুল হোসেন চঞ্চলকে আউশকান্দি বাজারে ইসলামী ব্যাংকের একটি এজেন্ট শাখা খোলেন। এজেন্ট শাখায় ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয় চঞ্চল পুত্র শাহ জীপুকে।
ওই এজেন্ট শাখায় হিসাব খোলা, গ্রাহকের এফডিআর, পিনকোড নাম্বার দিয়ে টাকা উত্তোলন, নগদ জমা লেনদেন চলতো। প্রতিদিন শতাধিক গ্রাহক ওই এজেন্টে যোগাযোগ করতেন। পূর্ণাঙ্গ ব্যাংকিক সুবিধা প্রদান করা হতো এজেন্ট শাখায়। আউশকান্দি বাজারের আশপাশ এলাকায় ইসলামী ব্যাংকের কোন শাখা না থাকায় ওই এজেন্ট শাখাটি জমজমাট ছিলো। এ সুযোগটি কাজে লাগিয়েছেন এজেন্ট আবুল হোসেন চঞ্চল ও তার পুত্র শাহ জীপু।
এজেন্ট শাখায় গ্রাহকগণ যে নগদ টাকা জমা করতেন এজেন্ট ব্যাংকিং শাখার ম্যানেজার নিজেরা সীল দিয়ে একটি জমা বাউচার বা রিসিট দিয়ে দিতেন। যারা এফডিআর, ডিপিএস সহ নানা ধরনের সঞ্চয়ী হিসাব খুলতেন। তাদের বেশির ভাগ লোকের এফডিআর ও ডিপিএস রিসিট তারা নিজেদের তৈরী ছিলো। ওই টাকা মুল ব্যাংকে জমা না দিয়ে এজেন্ট ব্যাংকের মালিক নিজের কাছে রেখে দিতেন। সম্প্রতি এক লন্ডন প্রবাসী তার এফডিআর ভাঙ্গানোর জন্য নবীগঞ্জ ইসলামী ব্যাংকে তাদের দেয়া টোকেন নিয়ে গেলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বলেন, এ নামে কোন এফডিআর নেই তাদের ব্যাংকে।
অনেক গ্রাহক এজেন্ট শাখায় তাদের একাউন্টে টাকা জমা দিলেও মুল ব্যাংকের একাউন্টে জমা হয়নি। অনেকে রিসিটও হারিয়ে ফেলেছেন। তারা এখন হন্যে হয়ে ব্যাংক এজেন্টকে খুঁজছেন।
লন্ডন প্রবাসী একজন গ্রাহক আউশকান্দি ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট শাখায় ৫ লাখ টাকার এফডিআর করেন। ৬ মাস পর এফডিআর ভাঙ্গাতে চাইলে এজেন্ট মালিক তাকে এক লাখ টাকা নগদ কর্জ দিয়ে বলেন, আপনি লন্ডন গিয়ে আমাদের টাকা দিয়ে দিবেন। এফডিআর ভাঙ্গানোর দরকার নাই। পরে তিনি লন্ডন চলে যান। সেখান থেকে ইসলামী ব্যাংক নবীগঞ্জ শাখায় যোগাযোগ করে জানতে পারেন ওই নামে কোন এফডিআর তাদের কাছে জমা হয়নি।
এ ব্যাপারে লন্ডন প্রবাসী আসাদুল হক জানান, তিনি বড় অংকের একটি এফডিআর করেছেন। এখন কোন হদিস পাচ্ছেন না। আবুল হোসেন চঞ্চলের নাম্বার বন্ধ রয়েছে।
লন্ডন প্রবাসী মীর মসুদ আলী, প্রবাসী রুবেল বখতের প্রায় ৪০ লাখ টাকা নয়ছয় হয়েছে। দিলারা বেগম নামে একজন গ্রাহক বলেন- তার স্বামী প্রায় ১০ লক্ষ টাকা ঐ এজেন্টে লেনদেন করেছেন। তিনি সরল বিশ্বাসে কোন রিসিট নেননি। এখন রিসিট ছাড়া ব্যাংক তাদের দাবি গ্রহণ করছে না। এ ব্যাপারে আউশকান্দি বাজার ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট আবুল হোসেন চঞ্চল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
এ ব্যাপারে ইসলামী ব্যাংক নবীগঞ্জ শাখার ম্যানাজার কায়সার আহমদ বলেন, ইসলামী ব্যাংক আউশকান্দি বাজার এজেন্ট শাখায় কোন লেনদেন না করার জন্য আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। তিনি বলেন, যাদের ডকুমেন্টস আছে তাদের টাকা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ উদ্ধার করে দিবে। তিনি বলেন- আমরা ইতিমধ্যে আউশকান্দি বাজার ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট আবুল হোসেন চঞ্চল এর কাছে থেকে প্রায় ২০ লাখ টাকা উদ্ধার করেছি। বাকি টাকা উদ্ধারে চেষ্টা চলছে। আমাদের সাথে চঞ্চল এর কথা বার্তা চলছে। তিনি বলছেন- যাদের ডকুমেন্টস আছে তাদের টাকা ফেরত দিবেন। আমরা কয়েক দিনের মধ্যে এজেন্টটি নতুন ডিলারে কাছে হস্তান্তর করবো। এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, যারা রিসিট হারিয়ে ফেলেছে তাদের ব্যাপারে আমাদের কিছু করার নেই।

নূরুজ্জামান ফারুকী,নবীগঞ্জ:  নবীগঞ্জের গজনাইপুর ইউনিয়নে হাফিজুর মিয়া (৭) নামের এক শিশুকে নির্যাতনের ঘটনায় অভিযোগ দেয়ায় বেপরোয়া হয়ে উঠেছে প্রতিবেশী গিয়াস মিয়া ও তার লোকজন।

ফলে নিরাপত্তাহীনতার আশংকায় শিশুর পিতা হবিগঞ্জ আদালতে মামলা করেছেন। মামলায় আসামি করা হয় মৃত আলাল উদ্দিনের পুত্র গিয়াশন (৩৫), শফিক মিয়া (১৯), শানুর মিয়া (১৬), শামীম মিয়া (২৮) ও শাহজাহান মিয়া (২৪) কে।

জানা যায়, গত মঙ্গলবার নবীগঞ্জের গজনাইপুর ইউনিয়নের কান্দিগাঁও গ্রামের জমসেদ মিয়ার শিশু পুত্র হাফিজুর একটি গরু বাড়িতে নিয়ে আসার সময় বাড়ির পাশ্ববর্তী জমিতে গরুটি ধান খেলে একই গ্রামের মৃত জলাল উদ্দিনের পুত্র গিয়াস মিয়া ও শফিক মিয়া গংরা শিশু হাফিজুরকে একটি গাছে বেধে বেধরক নির্যাতন করে।

এ ঘটনায় তার পিতা থানায় অভিযোগ দেন। এরপরপরই তারা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং বাড়িঘরে হামলা করে।

এদিকে গতকাল মামলা করে বাড়ি ফেরার সাথে সাথেই দুর্বৃত্তরা বাড়ি ঘরে হামলা চালায়। শুধু তাই নয়, ইতোপূর্বে ওই দুর্বৃত্তরা জমসেদ মিয়ার একটি গরুকে ফিকল দিয়ে ঘাই দিয়ে হত্যা করে। এ নিয়ে এলাকায় সালিশ বিচার হয় এবং একজনকে জরিমানাও করা হয়।

এসব ঘটনার পর থেকেই দুর্বৃত্তদের ভয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করতে পারছেন না জমসেদ মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন। তারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

নূরুজ্জামান ফারুকী  নবীগঞ্জঃ নবীগঞ্জে অটোরিক্সা চালক সেজুর হত্যা মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমানের নির্দেশনায় এস আই সামছুল বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে পশ্চিম তিমিরপুর গ্রাম থেকে গত শুক্রবার রাতে প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত আসামী হল উমেদনগর গ্রামের আজগর আলীর পুত্র সোয়েব মিয়া (৩৩)।

গ্রেফতারকৃত সোয়েব মিয়ার বর্তমান ঠিকামা পশ্চিম তিমিরপুর।

উল্লেখ্য, সেজু মিয়া গুজাখাইড় গ্রামে শাহিদ উল্লাহ পুত্র। সেজু মিয়া তাঁর অটোরিক্সাসহ নবীগঞ্জ বাজার থেকে নিখোঁজের চার দিন পর গত ২৭ অক্টোবর তাঁর লাশ পূর্ব তিমিরপুর গ্রাম থেকে উদ্ধার হয়। গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান জানান,গ্রেফতারকৃত আসামীকে হবিগঞ্জ কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: ফ্রান্সে মহানবীর (দঃ) অবমাননা ও ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে নওগাঁর আত্রাইয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার সকালে উপজেলা ইমাম উলামা পরিষদ এ কর্মসূচীর আয়োজন করে। এতে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে ইমাম উলামা ছাড়াও নানা শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেয়।
বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আত্রাই উপজেলা ইমাম উলামা পরিষদের সভাপতি আলহাজ¦ মওলানা আমিনুল ইসলাম।

প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আত্রাই মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসার মহাতামিম মুজাহিদ খাঁন, হাফেজ মওলানা মতিউর রহমান, হাফেজ মওলানা আরিফুল ইসলাম, হাফেজ মওলানা আব্দুর রহমান, হাফেজ মাওলানা শফিকুল ইসলাম, আব্দুস ছালাম প্রমূখ।

এ সময় বক্তারা ফরাসি সব পণ্য বয়কট ও ইসলাম বিদ্বেষী সব চক্রান্তের বিরুদ্ধে সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানান।

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ   জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৯বর্ষে জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ট স্কুল ম্যানেজিং কমিটির (এসএমসি) সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন দেওয়ান শামসুল ইসলাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এস এম সির সভাপতি ডাঃ হরিপদ।

জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ স্কুল ম্যানেজিং কমিটির (এসএমসি)সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় আজ সোমবার (২নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায়  ডাঃ হরিপদ রায়’এর নিজ বাসবভনে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান দেওয়ান শামসুল ইসলাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষিকারা।

এসময় শুভেচ্ছা জানাতে উপস্থিত ছিলেন দেওয়ান শামসুল ইসলাম প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুবিনয় পাল,সহকারী শিক্ষক অলকা চৌধুরী,(অবঃ)সহকারী শিক্ষক অনুরমা ভট্টাচার্য,প্রভাতী দত্ত,রহিমা বেগম,শারমিন সুলতানা,সুপ্তী ভট্টাচার্য,সুলতানা রাজিয়া, মকবুল হাসান ইমরান,ম্যানেজিং কমিটির সদস্য বুলবুল আনাম,সুদর্শন শীল,জয়নাল আবেদীন ঝুনু,সিংহবীজ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মলয় কান্তি তালুকদার প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৮ ইং বর্ষে বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ট স্কুল ম্যানেজিং কমিটির (এসএমসি) সভাপতি নির্বাচিত হন ডাঃ হরিপদ রায়। তিনি সাবেক সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক,শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ও সমাজ সেবক হিসেবে সুপরিচিত।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc