Wednesday 2nd of December 2020 06:22:16 PM

নূরুজ্জামান ফারুকী বিশেষ প্রতিনিধি: শায়েস্তাগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার উবাহাটা গ্রামে বাড়ির অন্যান্য শিশুদের সাথে খেলা করছিল ইভা আক্তার (২)। হঠাৎ সবার অগোচরে বাড়ির পার্শ্ববর্তী পুকুরে পড়ে যায়।

অনেকক্ষণ ইভাকে দেখতে না পেয়ে তার মা খোজ করেন। কিন্তু কোথায় ইভাকে পাওয়া না গেলে বাড়ির পার্শ্ববর্তী পুকুরে খোজ করলে ইভাকে থাকতে দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইভাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ইভা উপজেলার উবাহাটা গ্রামের গাড়ি চালক ইকবাল মিয়ার মেয়ে।

শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার উবাহাটা গ্রামের কাউন্সিলর মো. তাহির মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নূর মোহাম্মদ সাগর, বিশেষ প্রতিনিধি: ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে সারা বিশ্বে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈ’দে মিলাদুন্নবী ﷺ । এ উপলক্ষে নানা আয়োজন করেছে বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন থেকে ব্যক্তি পর্যায়ে। প্রতি বছরের মতো এবারও শ্রীমঙ্গল সিরাজনগর দরবার শরীফ ও আহলে সুন্নত ওয়াল জামায়াতের উদ্যোগে জশনে জুলুস (আনন্দ মিছিল) অনুষ্ঠিত হয়।

রবিবার (২৯ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে শ্রীমঙ্গল শহরে উপস্থিত জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামের সন্নিকটে পৌরসভার সম্মুখে ফ্রান্সে নবী করিম (দ:)এর প্রতি ব্যঙ্গচিত্র করে অবমাননার প্রতিবাদে মানববন্ধন শেষে জশনে জুলুস (আনন্দ মিছিল) শুরু হয়। শ্রীমঙ্গল শহরের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে এসে শেষ হয়।

এ সময় সর্বস্তরের মুসলমান জনতা জশনে জুলুসে অংশ নেন। বিগত বছরগুলোতে এ সংগঠন গুলোর যৌথ উদ্যোগে শ্রীমঙ্গল এলাকায় জশনে জলুসের আয়োজন করা হয়।প্রত্যেক বছরের ন্যায় এবারও বাংলাদেশ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট,যুবসেনা, ছাত্রসেনা সম্মিলিতভাবে অংশগ্রহণ করেন ।
মোঃ মামুনুর রশীদ ও আশরাফুল খান রুবেল এর যৌথ সঞ্চলনালায় সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ মােল্লা শহিদ আহমদ নাঈমী ,প্রেসিডিয়াম সদস্য, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ । প্রধান অতিথি পীরে তরিকত, আল্লামা ছাহেব কিবলা সিরাজনগরী (মা.জি.আ.) চেয়ারম্যান আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ।প্রধান আলােচক বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব মুফতি শেখ শিব্বির আহমদ,সভাপতি:আঞ্জুমানে ছালেকীন বাংলাদেশ ও প্রেসিডিয়াম সদস্য, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ।বিশেষ অতিথি

আল্লামা সিরাজুল ইসলাম আলকাদেরী খলিফা, সিরাজনগর দরবার শরীফ, শ্রীমঙ্গল। আল্লামা শেখ জুবাইর আহমদ রহমতাবাদী মহাসচিব, আঞ্জুমানে ছালেকীন বাংলাদেশ, আল্লামা আলী মােহাম্মদ চৌধুরী প্রেসিডিয়াম সদস্য, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশ।

জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে বক্তাগণ বিস্তারিত আলোচনা করে বলেন পবিত্র ‘ঈদে মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মুসলিম বিশ্বের ঈমানি প্রেরনার জয় ধ্বনী নিয়ে প্রতি বছর আমাদের মাঝে আসে রবিউল আওয়াল মাসে। পবিত্র ঈ’দে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পালন করা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের অন্যতম উৎসব। যুগে যুগে বাতিলদের শনাক্ত করার কিছু নিদর্শন ছিল। তেমনিভাবে তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমান সমাজে ও বাতিলদের চিনার নিদর্শন হল পবিত্র ‘ঈদে মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর বিরোধিতা করা। বাতিলদের বেড়াজাল থেকে মুসলিম মিল্লাতকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস।
প্রসঙ্গত,পবিত্র “ঈ’দে মিলাদুন্নবী” সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি?
ঈদ শব্দের আভিধানিক অর্থ হল খুশী হওয়া, ফিরে আসা, আনন্দ উৎযাপন করা ইত্যাদি। আর মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলতে আমরা নবীজীর শুভাগমনকে বুঝায়। আর ‘ঈদে মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলতে নবীজীর আগমনে খুশী উৎযাপন করাকে বুঝায়। সুতরাং অশান্তি আর বর্বরতায় ভরপুর সংঘাতময় আরবের বুকে আধারের বুক চিড়ে মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম শান্তির বার্তা নিয়ে এসে বিশ্বের জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মানবজাতিকে সত্যের, সভ্যতা ও ন্যায়ের দিক নির্দেশনা হাতে কলমে শিক্ষা দিয়ে গোটা বিশ্বকে শান্তিতে পরিপূর্ণ করে তুলেন। নবীজীর পবিত্র শুভাগমনে খুশী উৎযাপন করাটাই হচ্ছে ‘ঈদে মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সার্থকতা।

কুরআনুল কারীমের দৃষ্টিতে পবিত্র ‘ঈদে মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামঃ মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামীন বলেন- অর্থাৎ- আল্লাহ বলেন, হে প্রিয় রাসূল! আপনি স্মরণ করুন ঐ দিনের ঘটনা”- (রোজে আজলের সময়ের) যখন আমি (আল্লাহ) আম্বিয়ায়ে কেরামগণের নিকট থেকে এইভাবে অঙ্গীকার নিয়েছিলাম যে, যখন ‘আমি তোমাদেরকে কিতাব এবং হিকমত’ অর্থাৎ নবুয়ত দান করবো, অতঃপর তোমাদের কাছে এক মহান রাসূলের শুভাগমন হবে- যিনি তোমাদের প্রত্যেকের নবুয়তের সত্যায়ন করবেন, তখন তোমরা সকলে অবশ্যই তাঁর উপর ঈমান আনযন করবে এবং সর্বোত্তমভাবে তাঁকে সাহায্য সহযোগিতা করবে। তোমরা কি এ কথার অঙ্গীকার করছো এবং অঙ্গীকারে কি অটল থাকবে? সমস্ত নবীগণ বললেন- হাঁ, আমরা অঙ্গীকার করলাম। আল্লাহ তায়ালা বললেন- তোমরা পরস্পর স্বাক্ষী থেকো এবং আমি ও তোমাদের সাথে স্বাক্ষী রইলাম। এর পরেও যে কেউ পিছপা হয়ে যাবে- তারা হবে ফাসেক।
সূত্রঃ তৃতীয় পারা, সূরা আল-ইমরান ৮১-৮২ নং আয়াত।

এখানে লক্ষ্য করার বিষয় হলো (১) আয়াতের ইবারাতুন নস-এর দ্বারা প্রমাণিত হলো যে, অন্যান্য নবীগণ থেকে আল্লাহ তায়ালা অঙ্গীকার আদায় করেছিলেন। (২) দালালাতুন নস- এর দ্বারা প্রমাণিত হলো যে, সমস্ত নবীগণ সেদিন মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন। (৩) ইশারাতুন নস- এর দ্বারা প্রমাণিত হলো যে, মূলত ঐ মাহফিলটি নবীজীর আগমনী বা মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম- এর মাহফিল ছিল। (৪) ইক্বতেজাউন নস- এর দ্বারা প্রমাণিত হলো যে, ঐ সময় সমস্ত নবীগণ কি্বয়াম অবস্থায় ছিলেন। কারণ ঐ দরবারে বসার কোন অবকাশ নেই এবং পরিবেশটিও ছিল আদবের।

আরো লক্ষ্য করার বিষয় হচ্ছে- এই আয়াতে আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামীন ‘মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম অর্থাৎ নবীজীর আগমন সম্পর্কে রোজ আজলের মধ্যে সমস্ত নবীগণকে উপস্থিত রেখে আলোচনা করেছেন। নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এমন প্রিয় আল্লাহর রাসূল, তাঁর সাথে মানুষের তুলনা হবেতো দূরের কথা, অন্য কোনো নবীর ও তুলনা হয়না। এজন্যই আল্লাহ তায়ালা সমস্ত নবীদের নিকট দুটি হুশিয়ারী বাণী প্রদান করেছেন। যথা- (১) আমার বন্ধুর উপর ঈমান আনতে হবে। (২) আমার বন্ধুকে সর্বোত্তমভাবে সাহায্য সহযোগিতা করতে হবে।
মানুষ যখন কোনো নেয়ামত ও রহমত প্রাপ্ত হয় তখন তার জন্য আনন্দ উৎসব করা তার স্বভাবগত কাজ, আর আল্লাহর নির্দেশও তাই। যেমন- পবিত্র কোরআনে এরশাদ করেন-
অর্থাৎ- হে মানবকুল তোমাদের নিকট তোমাদের প্রতিপালকের পক্ষ থেকে উপদেশ এসেছে এবং অন্তর সমূহের বিশুদ্ধতা, হেদায়াত এবং রহমত ঈমানদারদের জন্য। হে হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আপনি বলুন! আল্লাহর অনুগ্রহ ও তাঁর দয়া প্রাপ্তিতে তারা যেন আনন্দ প্রকাশ করে। এটা তাদের সমস্তধন দৌলত সঞ্চয় করা অপেক্ষা শ্রেয়। (সূরা ইউনুছ, আয়াত নং- ৫৭-৫৮)আপডেট

নূরুজ্জামান ফারুকী বিশেষ প্রতিনিধি:   সিলেটের বিয়ানীবাজারে ২০০ পিস ইয়াবাসহ একজনকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে বিয়ানীবাজার থানাধীন পাঞ্জেপুরী গ্রামের শেওলা জিরো পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে দেহ তল্লাশি করে তাকে আটক করা হয়।

আটককৃত জাহেদ আহম্মদ মইয়াখালী গ্রামের মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে।

এ ঘটনায় মাদক সেলের এসআই কামরুল আলমের দাখিলকৃত এজাহারের ভিত্তিতে বিয়ানীবাজার থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে নিয়মিত মামলা রুজুর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

সিলেট জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মো. লুৎফর রহমান জানান, আইজিপি মহোদয়ের নির্দেশে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম সিলেট জেলাকে মাদকমুক্ত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সিলেট জেলা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযান আরও বৃদ্ধি করা হবে।

ক্রীড়া ডেস্কঃ ২৯ অক্টোবর ২০১৯—বাংলাদেশের ক্রিকেটের এক কালো অধ্যায়। জুয়াড়ির সঙ্গে কথোপকথন গোপন করে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকা সাকিব আল হাসান। এই ক্রিকেট তারকাকে দুই বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। এর মধ্যে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা স্থগিত হয়। বাকি এক বছর ক্রিকেটের বাইরে থাকতে হয় দেশসেরা ক্রিকেটারকে।

দেখতে দেখতে শেষ হয়ে এল নিষেধাজ্ঞার এক বছর। আজ বৃহস্পতিবার আইসিসির সব নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পেলেন সাকিব। এখন থেকে সব ধরনের ক্রিকেটে খেলতে আর বাধা থাকবে না বিশ্বের অন্যতম অলরাউন্ডারের। বাংলাদেশ ক্রিকেটকে বড় ধাক্কাই দিয়েছিল গত বছরের ২৯ অক্টোবর। ২৮ অক্টোবর দিবাগত রাতে হঠাৎ গুঞ্জন ওঠে, নিষিদ্ধ হতে পারেন দেশসেরা ক্রিকেটার সাকিব। এই খবরে উত্তাল হয়ে ওঠে পুরো দেশের ক্রিকেট। টানা ১২-১৩ ঘণ্টা মিরপুর শেরেবাংলায় ভিড় জমান গণমাধ্যমকর্মীরা। পুরো স্টেডিয়ামের চারপাশ ঘিরে ছিলেন ভক্তরা। দীর্ঘ অপেক্ষার পর সন্ধ্যা নামতেই সেই গুঞ্জন সত্যিতে রূপ নেয়। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন সাকিব।

সাকিবকে ফাঁসানোর পেছনে ছিলেন দীপক আগারওয়াল নামের একজন ভারতীয় জুয়াড়ি। মোট তিনটি অভিযোগ এনে সাকিবকে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে আইসিসি। তবে ভুল স্বীকার করায় এক বছরের শাস্তি কমানো হয়। আইসিসির অ্যান্টিকরাপশন ইউনিটের (এসিইউ বা আকসু) ২.৪.৪ অনুচ্ছেদের মধ্যেই তিনটি অপরাধ করেছিলেন সাকিব।

যেগুলো হচ্ছে :

১. ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়েকে নিয়ে বাংলাদেশের যে ত্রিদেশীয় সিরিজ হয়েছিল, অর্থাৎ ২০১৮ আইপিএলে প্রথম ম্যাচ গড়াপেটার (ফিক্সিং) প্রস্তাব পান সাকিব। কিন্তু এ বিষয়ে তিনি আইসিসির অ্যান্টিকরাপশন ইউনিটকে (এসিইউ) বিস্তারিত কোনো কিছুই জানাননি।

২. একই ধারার অধীনে অপরাধ : ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ত্রিদেশীয় সিরিজের সময়ই আরো একটি ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু তখনো সে বিষয়ে সাকিব আইসিসিকে অবহিত করেননি।

৩. একই ধারার অধীনে অপরাধ : ২০১৮ সালের ২৬ এপ্রিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মধ্যকার ম্যাচেও ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু সে বিষয়েও তিনি আইসিসি কিংবা সংশ্লিষ্ট দুর্নীতি দমন সংস্থাকে কিছুই জানাননি।

নিষেধাজ্ঞায় থাকাকালীন বেশিরভাগ সময় যুক্তরাষ্ট্রেই কাটিয়েছেন সাকিব। সেখানেই স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশির দ্বিতীয় কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন। দুই মেয়ে আর পরিবারকে নিয়ে সময় কাটিয়েছেন সাকিব। তবে দূর দেশে থেকেও করোনা পরিস্থিতিতে দেশের অসহায় মানুষকে সাহায্য করে যান তিনি। নিজের নামে একটি ফাউন্ডেশন চালু করে নিরলসভাবে কাজ করে যান। মানুষের সাহায্যের জন্য বিক্রি করে দেন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ রাঙানো প্রিয় ব্যাট। খাদ্য সহায়তা, করোনা কিট কেনা, অ্যাম্বুলেন্স দেওয়া, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তসহ অনেককেই সাহায্য করেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা সফর দিয়ে ফিরবেন বলে মাঝে দেশে ফিরেছিলেন। যুক্তরাষ্ট্র থেকে উড়ে এসে বিকেএসপির মাঠে নিবিড় অনুশীলনও করেন বাংলাদেশের বিশ্ব তারকা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হয়ে যাওয়ায় আবারও যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে চলে যান সাকিব। তবে সাকিবের অপেক্ষার প্রহর শেষ হলো আজ। আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি লিগ। ঘরোয়া এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট দিয়েই ফের ২২ গজে ফিরবেন বাংলাদেশের প্রাণ সাকিব আল হাসান।

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউরোপজুড়ে করোনার দ্বিতীয় দফা সংক্রমণের প্রেক্ষিতে নতুন করে আংশিক লকডাউন শুরু হচ্ছে জার্মানিতে। দেশটিতে আগামী ২ থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত লকডাউন বহাল থাকবে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে। এর আওতায় সিনেমা, থিয়েটার এবং কনসার্ট হল বন্ধ থাকবে। শক্ত সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতপূর্বক দোকান-পাট, স্কুল ও নার্সারিগুলো খোলা থাকবে। তবে বার, অবকাশযাপন কেন্দ্র ও হোটেল বন্ধ করা হবে কিনা এ নিয়ে রাজ্য পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল।

ফ্রান্সেও বাড়ছে করোনার প্রকোপ। দেশটিতে সবশেষ একদিনে ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ফরাসি টেলিভিশন চ্যানেল বিএফএম টিভি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে সরকার এক মাসের জন্য লকডাউন ঘোষণা করতে যাচ্ছে। তবে সরকারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে এখনো কিছু নিশ্চিত করা হয়নি। রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ফ্রান্স ও জার্মানির মতো লকডাউন আরোপের পথে হাঁটতে যাচ্ছে ইতালি ও স্পেন।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বিভাগীয় কমিশনার, সিলেট  মোঃ মশিউর রহমান, এনডিসি বুধবার (২৮.১০.২০২০ খ্রি:) মৌলভীবাজার সদর উপজেলার প্রেমনগর চা বাগানের তরুণ ভূমিজকে ঘরের চাবি হস্তান্তর করেছেন।
সমতলে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীভুক্ত মানুষের জীবনমান উন্নয়নে গৃহীত কার্যক্রমের আওতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অর্থায়নে এবং উপজেলা প্রশাসন, মৌলভীবাজার সদর এর বাস্তবায়নে নির্মিত হয়েছে ঘরটি।
বিভাগীয় কমিশনার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সমতলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় অত্যন্ত সচেতন। ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদেরকে তাদের প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধা প্রদানে এবং তাদের সমস্যা নিরসনে সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। প্রধান অতিথি আরও বলেন, মুজিববর্ষে চলমান বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে সরকার সকল গৃহহীনদের জন্য গৃহ নির্মাণ করবে।
গৃহের চাবি হস্তান্তর করার সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার মীর নাহিদ আহসান, পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার ফারুক আহমেদ (পিপিএম বার), উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মৌলভীবাজার সদর শরিফুল ইসলাম, জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশের কর্মকর্তাবৃন্দসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পাকিস্তান সরকার যদি পদক্ষেপ গ্রহণ করে তাহলে আমি আন্তর্জাতিক আদালতে পুরো মুসলিম উম্মাহর পক্ষ থেকে প্রিয় রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলিহী ওয়া সাল্লামার শানে কটুক্তিকারীদের বিরুদ্ধে মামলায় লড়বো। ইনশাআল্লাহ মামলায় জয়ী হবো বললেন পাকিস্তানের এক জনপ্রিয় ইসলামী স্কলার লেখক ও গবেষক আল্লামা তাহির উল ক্বাদরী।

তাহির উল ক্বাদরশ মিনহাজ উল কুরআন ইন্টারন্যাশনাল এর প্রতিষ্ঠাতা, তিনি সহস্রাধিক গ্রন্থের প্রণেতা,কোরানিক ইন্সাইক্লোপিডিয়ার লিখক, পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও বিভাগীয় সভাপতি, পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের সাবেক আইনজীবী, পাকিস্তান সরকারের সাবেক ধর্মবিষয়ক উপদেষ্টা,শাইখ উল ইসলাম,প্রফেসর আল্লামা ডক্টর মুহাম্মদ তাহির উল ক্বাদরী (মা,জি,আ)।আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম থেকে তথ্য সংগৃহীতও।

অপরদিকে নিজের আপত্তিকর ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশ করায় ফরাসী সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। গতকাল বুধবার তার বিরুদ্ধে ঘৃণ্য কার্টুন প্রকাশের অভিযোগ এনে ফৌজদারি মামলা দায়ের করেছেন এরদোগান।

তুর্কি সংবাদমাধ্যম ইয়েনি শাফাক জানিয়েছে, আঙ্কারার প্রসিকিউটরের কাছে এ অভিযোগটি জমা পড়েছে। আইনজীবী হুসেই আদিন জানিয়েছেন, ম্যাগাজিন কর্তৃপক্ষ ও কার্টুনিস্টের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

এর আগে এদিন দেশটির প্রেসিডেন্টকে অপমান করায় আঙ্কারার প্রসিকিউটরও শার্লি হেবদোর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তুরস্কের আইনে মামলা দায়ের করেছেন। তুর্কি কর্মকর্তারা বলছেন, পত্রিকাটি সাংস্কৃতিক বর্ণবাদ ও বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য এটি ঘৃণ্য প্রচেষ্টা।
এর আগে ইসলাম জাহানের নবী হযরত মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লামকে নিয়ে ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশ করায় ফ্রান্স ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। চলতি মাসেই ফ্রান্সের এক শিক্ষক ক্লাস রুমে ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশ করার পর বিষয়টি নতুন করে আলোচনায় আসে। পরে ওই শিক্ষককে এক মুসলিম তরুণের হাতে প্রাণ দিতে হয়।

যদিও ওই তরুণ হামলার পরেই পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন। ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশের ঘটনায় ওই শিক্ষকের প্রতি সম্মান জানাতে গিয়ে ইসলাম ও বিশ্বনবীর বিরুদ্ধে অবস্থান নেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে এক কিশোরীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পাহাড়ের টিলায় একটি ঘরের মধ্যে বেঁধে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বাঁধা অবস্থায় ওই কিশোরীকে (১৭) এলাকাবাসী উদ্ধার করে। সোমবার রাতে উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের উত্তর কানাইদাসী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ অভিযুক্ত জুবায়েদ আলীকে (২৫) আটকের অভিযান চালাচ্ছে। নির্যাতিতা কিশোরী মৌলভীবাজার ২৫০ শষ্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে ওই কিশোরী চাচার বাড়ি থেকে ফেরার পথে পার্শ্ববর্তী রাজকান্দি গ্রামের বশির উল্ল্যাহর পুত্র জুবায়েদ আলী (২৫) রাস্তা গতিরোধ করে। পরে তাকে তুলে নিয়ে পাহাড়ি টিলার ওপর পরিত্যক্ত একটি ঘরে বেঁধে রেখে ধর্ষণ করে। বাড়িতে না ফেরায় পরিবারের লোকজন মেয়েটিকে খুঁজতে থাকেন। মঙ্গলবার সকালে রাজকান্দি এলাকার আনু মিয়ার পরিত্যক্ত টিলার একটি ঘরে মেয়েটি বাঁধা রয়েছে বলে খবর আসে।

এরপর স্থানীয়দের নিয়ে সেখান থেকে বাঁধা অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যরা। স্থানীয় ইউপি সদস্য শুকুর আলী বলেন, ঘরে বাঁধা অবস্থায় নির্যাতিত মেয়েটিকে স্থানীয়দের সহায়তায় পরিবারের লোকজন উদ্ধার করেছে। কমলগঞ্জ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, বিষযটি স্পর্শকাতর। তাই ভালো চিকিৎসার জন্য জেলা সদরে পাঠানো হয়েছে। কমলগঞ্জ থানার ওসি সুধীন চন্দ্র দাস বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছি এবং হাসপাতালে ভর্তি মেয়েটির বক্তব্য শুনেছি। আসামিকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলেছে।

নড়াইল প্রতিনিধিঃ বৃহত্তর যশোর উন্নয়ন ও বিভাগ বাস্তবায়ন পরিষদ এর ১১ দফা বাস্তবায়নে নড়াইলে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শহরের উৎসব কমিউনিটি সেন্টারে বৃহত্তর যশোর উন্নয়ন ও বিভাগ বাস্তবায়ন পরিষদের আয়োজনে সংগঠনের সভাপতি প্রকৌশলী বাবু শৈলেন্দ্র নাথ সাহার সভাপতিত্বে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। যশোর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করণ,পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরীঘাটে একটি সেতু নির্মাণ ,বৃহত্তর যশোরের ৪টি জেলা নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ ও যশোরে ৪টি বিশেষ অর্থনৈতিক জোন ঘোষণা,৪টি জেলায় পূর্ণাঙ্গ পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়সহ ১১ দফা দাবীর পক্ষে মূল প্রবন্ধ উপস্থপন ও উপস্থি’ত সাংবাদিকবৃন্দের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর ও বৃহত্তর যশোরের উন্নয়নের বিষয়ে কথা বলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন।

বৃহত্তর যশোর সমিতি, ঢাকা-এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি কাজী রফিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি লে. কর্নেল হাসান ইকবাল (সাধারণ সম্পাদক, নড়াইল জেলা সমিতি, ঢাকা), বৃহত্তর যশোর সমিতি, ঢাকা এর সহ-সভাপতি ও উপদেষ্টা সদস্য মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন, জেলা ক্রিড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক আশিকুর রহমান মিকু,নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি এনামুল কবির টুকু, সাধারন সম্পাদক মোঃ শামীমুল ইসলাম টুলু, নড়াইল চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি মোঃ হাসানুজ্জামান, সংগঠনের সাধারন সম্পাদক,শরীফ হাসান ইমান আরজু,সংগঠনের দপ্তর সম্পাদক মোঃ ফারুক হোসেন, ও যশোর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান খান, নড়াইল জেলা যুবলীগের আহবায়ক মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান, নারীনেত্রী আঞ্জুমান আরা, বাংলাদেশ মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ, নাগরিক অধিকার আন্দোলনের সদস্য মোঃ হাবিবুর রহমান, সেবা স্বেছাসেবী সংগঠনের উপদেষ্টা মোঃ তরিকুল ইসলাম, মার্স্টার আশরাফুজ্জামান বাবু প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ”সেবা” সহ বিভিন্ন প্রিন্টও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
দাবিগুলি হল -যশোর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করণ,পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরীঘাটে একটি সেতু নির্মাণ ,বৃহত্তর যশোরের ৪টি জেলা নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ ও যশোরে ৪টি বিশেষ অর্থনৈতিক জোন ঘোষণা,৪টি জেলায় পূর্ণাঙ্গ পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়, বৃহত্তর যশোরে কৃষি বিশ^বিদ্যালয়, প্রকৌশল বিশ^বিদ্যালয়, মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়, মহাকবি মাইকেল মধুসুদন দত্ত, ফকির লালন শাহ, চিত্রশিল্পী এস.এম সুলতান সংস্কৃতি বিশ^বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা এবং নড়াইল ও ঝিনাইদহে মেডিকেল কলেজ স্থাপন। বেনাপোল স্থল বন্দর আধুনিকায়ন এবং যশোরে বাংলাদেশ ব্যাংকের শাখা স্থাপন। ঢাকা-যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক ৪ লেনে উন্নীতকরণ এর কাজ জরুরী ভিত্তিতে সম্পন্ন করা এবং প্রতিটি উপজেলায় হাইটেক পার্ক স্থাপন করা।

বৃহত্তর যশোরের ৪ জেলায় আন্তজেলা রেল যোগাযোগ স্থাপন এবং সাতক্ষীরা-যশোর রেল লাইন বশিরহাটের সঙ্গে সংযুক্তকরণসহ মাগুরা থেকে নড়াইল এবং মাগুরা থেকে ঝিনাইদহ হয়ে মুজিবনগর পর্যন্ত সম্প্রসারণ,বৃহত্তর যশোরের ৪ জেলায় অনতিবিলম্বে গ্যাস সরবরাহ,বৃহত্তর যশোরে আন্তর্জাতিক মানের স্টেডিয়াম নির্মাণ। বৃহত্তর যশোরে বাওড় সম্পৃক্ত পর্যটন নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা ও পর্যটন কর্পোরেশনের মাধ্যমে একটি পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণ।

অভিযোগের তদন্তে সত্যতা পেয়েছে নবীগঞ্জের স্থানীয় প্রশাসন 

নূরুজ্জামান ফারুকী  নবীগঞ্জঃ  নবীগঞ্জ উপজেলার পাহাড়ি অঞ্চলখ্যাত দিনারপুরে চেয়ারম্যান-মেম্বারের নেতৃত্বে সরকারি গাছ কাটার মহোৎসব চলছে। বুধবার (২৮ অক্টোবর) সকাল থেকে উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের জনতার-শতক সড়কের গ্রামীণ ব্যাংকের আশপাশ থেকে প্রায় ১০-১৫টি বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কর্তন করা হয়। সরকারি গাছ কাটার অভিযোগের তীর উঠেছে স্থানীয় বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যান ও এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

স্থানীয় সূত্র বলছে, দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় একটি মহল গাছ বিক্রি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছেন। এসব কর্তনকৃত গাছ স্থানীয় স’মিলে মজুদ করে রাখেন এবং বিভিন্নস্থানে বিক্রি করে এই অসাধু চক্র। ফলে তারা রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলা গাছে পরিণত হয়েছে। তারা জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রভাবশালী হওয়ায় প্রকাশ্যে প্রতিবাদ করতে ভয় পান এলাকাবাসী।

এদিকে গাছ কর্তনকালে নিয়োজিত ৮/১০ শ্রমিকরা জানান, গজনাইপুর ইউনিয়নের দুর্নীতির দায়ে বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল ও ইউপি সদস্য আব্দুল আলীর নির্দেশে গাছ কাটছেন তারা। ঘটনাটি জানাজানি হলে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন তাৎক্ষণিক স্থানীয় ইউনিয়ন ভ‚মি অফিসের সহকারী ভ‚মি কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থলে পাঠান। পরবর্তীতে বন বিভাগের কর্মকর্তারা ও নবীগঞ্জ থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এ ঘটনার সত্যতা পান।

এ ব্যাপারে পানিউমদা ইউনিয়ন ভুমি অফিসের সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মহসিন ভূইয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই প্রতিনিধিকে বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে গাছ কাটার সত্যতা পেয়েছি এবং গাছ কাটায় নিয়োজিত শ্রমিকরা জানিয়েছে স্থানীয় চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল ও মেম্বার আব্দুল আলীর নির্দেশেই তারা গাছ কর্তন করেছে।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন বলেন, ঘটনাটি জানার পরপর ঘটনাস্থলে লোক পাঠানো হয়েছে, এ ঘটনার সাথে যে বা যারাই জড়িত থাকুক তাদের প্রত্যেককেই আইনের আওতায় আনা হবে।

এ প্রসঙ্গে হবিগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ মিলাদ এমপি বলেন- আমি দুর্নীতি করি না দুর্নীতিবাজদের আশ্রয় প্রশ্রয়ও দেই না, যে বা যারা দুর্নীতি করবে এবং গাছ কর্তন করে পরিবেশ নষ্ট করবে তার বিরুদ্ধেই কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অপরদিকে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের মোবাইলে যোগাযোগ করে ও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধি:  সিলেটের জৈন্তাপুরে মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লামকে নিয়ে ফ্রান্সে ব্যাঙ্গচিত্র স্থাপন ও অবমাননার প্রতিবাদে তৌহিদী জনতার ব্যানারের আয়োজনে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত। সভায় বক্তরা বলেন, সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লামকে নিয়ে ফ্রান্সে ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশ করে বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়কে নিয়ে কুটুক্তি করায় আমরা এই প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিনীত অনুরোধ অভিলম্বে রাষ্ট্রিয় ভাবে প্রতিবাদ জানাতে হবে। সেই সাথে ফ্রান্সের অর্থনীতিকে ধ্বংস করতে বাংলাদেশের বাজার হতে ফ্রান্সে সকল পণ্য বর্জন করতে হবে। ফ্রান্সের অর্থনীতি ধ্বংস হলেই আমাদের প্রতিবাদ সফল হবে।
তৌহিদী জনতার আয়োজনে জৈন্তাপুর ঐতিহ্যবাহী বট তলায় বিক্ষোভ মিছিল শেষে প্রতিবাদ সভায় মাওলানা আব্দুল জব্বার সাহেবের সভাপতিত্বে মাওলানা মোস্তাক আহমদ ও নজরুল ইসলামের যৌথ পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাওলানা আব্দুল হামিদ, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুছ, মাষ্টার আশিকুর রহমান, মাষ্টার ইকবাল আহমদ, ক্বারী মাওলানা তায়্যিবুর রহমান, মাষ্টার আব্দুল হাসিম, মাওলানা কবির আহমদ, আব্দুল হাসিম, আব্দুল হান্নান, মাওলানা কবীর খান, মাওলানা কবীর হোসাইন, হাজী বদরুদ্দিন পারভেজ, হাজী নোমান আহমদ, মাওলানা আলিম উদ্দিন, মাওলানা দেলোয়ার, মাওলানা আশিকুজ্জামান, মাওলানা নজরুল ইসলাম, হাফিজ শরীফ আহমদ, আজিজুর রহমান, মাওলানা ফারুক আহমদ, মাওলানা রফি উদ্দিন শাহীন, মাওলানা জাকারিয়া, মাওলানা নূরুল ইসলাম প্রমুখ।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc