Thursday 22nd of October 2020 01:31:31 AM

কালাপুর প্রতিনিধিঃ  মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৫ নং কালাপুর ইউনিয়নের অরাজনৈতিক সংগঠন গ্রীন কালাপুর কর্তৃক মাদক বিরোধী সচেতনতা তৈরির প্রত্যয়ে আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্টের ৬ষ্ট ম্যাচ আজ বৃহস্পতিবার বিকালে কাকিয়া বাজার উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়।
আজকের ম্যাচে দুটি পক্ষ একে অপরের মুখোমুখি হয়,টীম দুটি হলো ৯ নং ওয়ার্ড নয়ান শ্রী ৬ নং ওয়ার্ড মাজডিহি । দুটি দলের মধ্যেই টান টান তুমুল উত্তেজনা পূর্ণ খেলা চলে । খেলার ২০ মিনিটের মাথায় ৬ নং ১গোলে এগিয়ে যায়। দলের পক্ষে গোল করে তাজু মিয়া কিন্তু খেলার ৫৫ মিনিটের মাথায় ৯ নং ওয়ার্ড নয়ানশ্রী দূর্দান্ত ১ গোলে ম্যাচের সমতায় ফিরিয়ে দলের পক্ষে গোল করে খেলোয়াড় রুমন ।
আজকের খেলা দেখতে উপস্থিত হয়েছিলেন কালাপুর ইউনিয়নের ,৫নং ওর্য়াডের সদস্য মনির মিয়া ও ৬ নং ওর্য়াডের সদস্য ফিরোজ মিয়া। খেলার ফলাফল ১-১ গোলে ড্র । আজকের খেলা পরিচালনা করেন সুর্দশন দাস, মিজানুর রহমান ও আবুল কাসেম ।খেলার ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয় ৯ নং ওর্য়াড নয়ান শ্রী’র আব্দুল্লাহ। ম্যান অব দ্যা ম্যাচ পুরস্কার তুলে দেন গ্রীন কালাপুরের ক্রীড়া সম্পাদক মোহাম্মদ সাকেদুর রহমান ও সমাজ কল্যান সম্পাদক হাবিবুর রহমান লোবন ।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কালাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই, বিমল দেব, আবদুল মজিদ,দেলোয়ার মামুন, সালেহ আহমেদ, শিপুল চৌধুরী, কামরুল হাসান প্রমুখ। আগামীকাল (শুক্রবার) বিকালে অত্র ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড বনাম ৭ নং ওয়ার্ডের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

নিজস্ব প্রতিনিধি:  আল্লামা ওবায়দুল মোস্তফার দাফন ও জানাজা সম্পন্ন হয়েছে।ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের প্রবীণ আলেমেদ্বীন, সারা বাংলায় এক সময়কার গুরুত্বপূর্ণ ইসলামী বক্তা, বাড়িউড়া দরবার শরীফের পীর সাহেব আল্লামা মুফতি উবাইদুল মোস্তফা নকশেবন্দী বুধবার (১৪ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ইন্তিকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। আজ দুপুর বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) বা’দ যোহর জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়, বি-বাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার বাড়িউরা কেন্দ্রীয় ঈদগাঁহ ময়দানে জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন করা হয়। বিস্তারিত আসছে

সিলেট প্রতিনিধিঃ  বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে সিলেটে বন্দর বাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত যুবক রায়হানের মরদেহ পুনরায় ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে উত্তোলন করছে পিবিআই।
বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় আখালিয়ার নবাবি মসজিদ কবরস্থানে আসে পিবিআই। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কবর খোড়া চলছিলো। আখালি এলাকায় প্রচুর মানুষ ভিড় করেছেন, পুনঃময়নাতদন্ত শেষে তাকে আবার কবরে সমাহিত করা হবে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নগরীর নেহারীপাড়ার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে রায়হান উদ্দিন। ৬টা ৪০ মিনিটের সময় গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেছিলেন বন্দরবাজার ফাঁড়ির এএসআই আশেকে এলাহী।

মারা যাওয়ার পর রায়হানের শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। তার হাতের নখও উপড়ানো ছিল। এ ঘটনার পর পুলিশের বিরুদ্ধে হেফাজতে নির্যাতন করে রায়হানকে মেরে ফেলার অভিযোগ ওঠে। রায়হানের মৃত্যুর জন্য দায়িত্বহীনতার দায়ে বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূইয়াসহ চার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করা হয়।এ নিয়ে সারা দেশে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। তবে বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূইয়া পালিয়ে আছে।
রায়হানের স্ত্রী হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলার সুষ্ট তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় পিআইবিকে।

পীর হাবিবের দাবী গুজব রটিয়ে আমার বাসায় তারা হামলা চালিয়েছে

গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে বাংলাদেশ প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমানের উত্তরার বাসায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার (১৪ অক্টোবর) রাতে এই ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি সামাল দিতে গেলে হামলাকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নেয়। এই ঘটনায় রাতেই কয়েকজন হামলাকারীকে আটক করার তথ্য পাওয়া গেছে। উত্তরার-৪ নম্বর সেক্টরের ৯ নম্বর সড়কের ৬তলা একটি ভবনের পঞ্চম তলায় নিজের ফ্ল্যাটে থাকেন সাংবাদিক পীর হাবিব।তিনি দাবী করছেন গুজব রটিয়ে আমার বাসায় তারা হামলা চালিয়েছে,

জানা গেছে, গতকাল বুধবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরের পর এক গৃহকর্মীর চিৎকার শুনে স্থানীয়রা জড়ো হয় পীর হাবিবের বাড়ির সামনে। পরে ওই গৃহকর্মীর মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত জনতা ওই ভবনের মূল ফটকে ভেঙে ঢুকে পড়ে গাড়ি ভাংচুর করে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ডিএমপির বিমানবন্দর জোনের সহকারী কমিশনার খন্দকার রেজাউল হাসান জানান, অসুস্থ ওই গৃহপরিচারিকাকে তার স্বজনরা এসে নিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু স্থানীয় লোকজনের ধারণা হয়েছিল, তাকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছে। যে কারণে লোকজন জড়ো হয়ে হামলা চালায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে গুলিও ছুড়তে হয়। পাশাপাশি টিয়ারসেল এবং লাঠিপেটা করতে হয়। সর্বশেষ স্থানীয় জনগণকে বোঝাতে ওই গৃহপরিচারিকাকে এনে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়। এরপর রাতেই মেয়েটিকে বনানীতে তার এক আত্মীয়ের বাসায় পৌঁছে দেয়া হয়। হামলার অভিযোগে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পীর হাবিব জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কারণে ওই গৃহকর্মী হোম আইসোলেশনে ছিলেন। ফলে বাসায় কেউ ছিল না। পুলিশের উপস্থিতিতে গৃহপরিচারিকাকে চিৎকারের কারণ এবং তাকে নির্যাতন করা হয়েছে কি না, জানতে চাওয়া হয়। সে চলে যাবে বলে এ ধরনের আচরণ করেছে বলে জানায়। তাকে কোনো নির্যাতন করা হয়নি বলেও সে পুলিশকে জানায়।

পীর হাবিব গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, ওই গৃহকর্মী যার মাধ্যমে এসেছিল, তাকে ডেকে এনে তার কাছে তাকে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। এসময় পুলিশও উপস্থিত ছিল। স্থানীয়রা জানায়, ২০ বছর বয়সের ওই গৃহকর্মী দুপুরের পর জানালা দিয়ে ‘বাঁচাও-বাঁচাও’ চিৎকার করলে আশপাশের মানুষ ছুটে আসে। ওই গৃহকর্মী একটি ফুলের টবও মাটিতে ফেলেছিলেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং পীর হাবিবের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ।

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় একই পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যা করেছে দৃর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) ভোররাতে উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- খলসি গ্রামের শাহাজান আলীর ছেলে হ্যাচারি মালিক শাহিনুর রহমান (৪০), তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন (৩০), ছেলে সিয়াম হোসেন মাহি (৯) ও মেয়ে তাসনিম (৬)। নিহত শাহিনুর রহমানের ছোট ভাই রায়হানুল ইসলাম বলেন, বাড়িতে মা ও বড় ভাইয়ের পরিবারের ৪ জনসহ তারা ছয়জন থাকতেন। মা কাল আত্মীয়ের বাড়িতে ছিলেন। আমি ছিলাম পাশের ঘরে।

ভোরে পাশের ঘর থেকে বাচ্চাদের গোঙানির শব্দ শুনতে পাই। তাৎক্ষণিক এগিয়ে গিয়ে দেখি ঘরের দরজা বাইরে থেকে আটকানো। দরজা খুলে বিভৎস দৃশ্য দেখতে পাই। এর কিছুক্ষণ পর বাচ্চারা মারা যায়। তিনি জানান, তাদের সঙ্গে জায়গা-জমি নিয়ে কিছু লোকের বিরোধ ছিল। কিন্তু কারা এ ঘটনা ঘটালো তা বুঝতে পারছি না। কলারোয়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল জানান, নিজেদের ঘরের মধ্যে শাহিনুর রহমানসহ চারজনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এদের মধ্যে শাহিনুরের পা বাধা ছিল। তাদের চিলে কোঠার দরজা খোলা ছিল।
ধারণা করা হচ্ছে- ছাদের চিলে কোঠার দরজা দিয়ে হত্যাকারীরা ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে। ঘটনার রহস্য উন্মোচনে পুলিশ কাজ শুরু করেছে বলেও তিনি জানান।

নূরুজ্জামান ফারুকীঃ হবিগঞ্জ পৌরসভার উমেদনগর শিল্প এলাকা থেকে ফেন্সিডিলসহ রাহীবুর (৩৯) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। গতকাল মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে গোপন সংবাদে ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। সে বানিয়াচঙ্গ উপজেলার বড়-বাজার এলাকার মন্তাজ মিয়ার পুত্র। সূত্র জানায়, মাদক শৃংখলা বাহিনীর লোকজনের চোখে ফাঁকি দিয়ে রাহীবুর দীর্ঘ দিন যাবত মাদক ব্যবসা করে আসছে।

গতকাল গোপন সংবাদের ভিত্তিকে তাঁকে গ্রেফতার করতে বিভাগীয় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিদর্শক রেজাউল করিমের নেতৃত্বে ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযানে জৈনক জিয়াউর রহমানের বিল্ডিংয়ের তৃতীয় তলা থেকে রাহীবুর রহমান (৩৯) কে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ১৬০ বোতল ফেন্সিডিল জব্দ করা হয়। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় উপ-পরিদর্শক রেজাউল করিম আটকের ঘটনা সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরো জানান, আটককৃত রাহীবুরের এর বিরুদ্ধে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য বিক্রির জন্য মজুদ করণ ও বহনের জন্য ২০১৮ সালের সংশোধনী আইনে মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নুরুজ্জামান ফারুকী নবীগঞ্জঃ নবীগঞ্জে চাকুরির প্রলোভন দেখিয়ে ১ সন্তানের জননীকে ৪ দিন আটকে রেখে ধর্ষন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের পর ঢাকা গার্মেন্টেসে পাঠানোর কথা বলে ঢাকা- সিলেট মহা সড়কের আউশকান্দিস্থ আরিফ হোটেলে রেখে কৌশলে চলে যায় ধর্ষকরা। পরে ঐ গৃহবধূ অন্য একজনের ফোন থেকে স্বামীকে কল দেয় । এ সময় স্বামী ঘটনাস্থলে এসে তার স্ত্রী ও ৪ বছরের শিশু সন্তানকে উদ্ধার করেন।

ধর্ষণের শিকার ওই নারী বর্তমানে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

জানা যায়, গত ৮ অক্টোবর কুর্শি ইউনিয়নের গোলডুবা গ্রামের জনৈক কাচা মিয়ার পুত্র সেবুল মিয়া (২৫) ও ফিরোজ মিয়ার পুত্র জিবু মিয়া (২৫)  মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে চাকুরী দিবার কথা বলে উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের নির্যাতিতা গৃহবধুকে ৪ বছরের কন্যা সন্তানসহ  একটি সিএনজি যোগে কুর্শি ইউনিয়নে গোলডুবা গ্রামে সেবুল মিয়ার  ভাড়াটিয়া বাসায় নিয়া যায়। সেখানে নিয়ে দিন রাত ধর্ষন করে সেবুল ও জিবু মিয়া।

এদিকে গৃহবধুকে  বাড়িতে এসে না পেয়ে তার স্বামী বিভিন্ন স্থানে খুজাখুজি করতে তাকেন।  কোথায়ও না পেয়ে গত ১১/১০/২০২০ তারিখে নবীগঞ্জ থানায় একটি জিডি ( সাধারন  ডায়রী) করেন।

পরদিন সোমবার দুপুরে সেবুল ঐ গৃহবধূকে ঢাকায় চাকুরী দেওয়ার কথা বলে ঢাকা- সিলেট মহা সড়কের আউশকান্দি হীরাগঞ্জ মধ্য বাজার আরিফ হোটেলে নিয়ে আসে। পরে তাকে সেখানে রেখে কৌশলে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।

প্রায় ঘন্টাখানেক অপেক্ষা করে তাদের না পেয়ে ঐ গৃহবধু অন্য একজনের মোবাইল ফোন দিয়ে কল দিয়ে সব খুলে বলে তার স্বামীকে। এ সময় তার স্বামী ঘটনাস্থলে এসে তার স্ত্রী ও সন্তানকে উদ্ধার করে গোলডুবা গ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে গিয়ে বাড়ি-ঘর ও যে বিচানায় তাকে ধর্ষন করা হয়েছে তা তার স্বামীকে দেখায়।

এ সময় ধর্ষক কাউকে পাওয়া যায়নি। নির্যাতিতা নারী জানান,ধর্ষকদের  সহযোগীতা করেছেন জনৈক এক মহিলা।

পরে স্বামী তার স্ত্রীকে নবীগঞ্জ থানায় নিয়ে গেলে পুলিশ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শ দেন। পরে নির্যাতিতা নারীকে নবীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে  চিকিৎসক তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে রেফার্ড   করেন।

নবীগঞ্জ থানার  ওসি আজিজুর রহমান জানান, এ ঘটনার কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:  নওগাঁর আত্রাইয়ে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী অফিসে অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বিএনপি’র ২ কর্মীকে আটক করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মনিয়ারী ইউপি কার্যালয় সংলগ্ন স্থানে।
জানা যায়, নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের আসন্ন উপ-নির্বাচনের প্রচারণার জন্য মনিয়ারী ইউপি কার্যালয় সংলগ্ন স্থানে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলালের একটি নির্বাচনী অফিস তৈরি করা হয়। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১ টার দিকে কে বা কারা ওই কার্যালয়ে অগ্নি সংযোগ করে। পরে স্থানীয় লোকজন আগুন নিভিয়ে দেয়। এ ঘটনায় আত্রাই থানা পুলিশ রাতেই ২ জন বিএনপি কর্মী মনিয়ারী গ্রামের মৃত আকবর আলীর ছেলে বাবলু হোসেন বাবু (৪০) ও শফির উদ্দিন মন্ডলের ছেলে সুমন আলী মন্ডলকে (৩৫) তাদের নিজ বাড়ি থেকে আটক করে।
আত্রাই থানার ওসি মোসলেম উদ্দিন বলেন, এ ব্যাপারে আত্রাই থানায় একটি মামলা হয়েছে। ওই মামলায় ২ জনকে গ্রেফতার করে গতকাল বুধবার নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আত্রাই থানা বিএনপির আহবায়ক আব্দুল জলিল চকলেট বলেন, জনমনে ভীতি সৃষ্টির জন্য পরিকল্পিতভাবে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটানো হয়েছে। আর এর দায়ভার বিএনপির উপর চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc