Monday 21st of September 2020 06:17:16 PM

মিনহাজ তানভীর:  আজ রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৭ নং রাজঘাট ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড খেজুরি ছড়া চা বাগানে শ্রীমঙ্গল থানা কর্তৃক “বিট পুলিশিং ও মাদকবিরোধী চুরি-ডাকাতি প্রতিরোধে” এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।
এতে এসআই সাইফুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আব্দুছ ছালেক অফিসার ইনচার্জ শ্রীমঙ্গল থানা, বিজয় বোনার্জী চেয়ারম্যান রাজঘাট ইউপি।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য সুমন তাঁতি, প্রমোদ গোয়ালা, অজয় ব্যানার্জি, অসুখ বুনার্জীসহ পঞ্চায়েত কমিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।
এস আই মোঃ সাইফুল ইসলাম, এস আই মোঃ শহিদুল ইসলাম এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ প্রায় অর্ধশতাধিক লোক এই সভায় উপস্থিত ছিলেন ।

মিনহাজ তানভীর: মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলের ইসবপুর নামক স্থানে সড়কে দুটি সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে একটি সিএনজিতে থাকা দুই যাত্রী আহত হয়েছে এর মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর। আহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায় আজ রোববার বিকাল সাড়ে চারটায় মৌলভীবাজারগামী সিএনজির উপরে শ্রীমঙ্গলের দিকে ছেড়ে আসা সিএনজির (১২-১৪৭৬) সংঘর্ষ হলে মৌলভীবাজারগামী সিএনজিতে থাকা দুই আরোহী আহত হয়, স্থানীয়দের উদ্যোগে এবং ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় শ্রীমঙ্গল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আহতদের প্রেরণ করা হয়।

মৌলভীবাজারগামী নতুন সিএনজি (নাম্বার বিহীন) চালক হিমেল (২৬) জানান হঠাৎ করে গাড়িটি আমার গাড়ির উপরে এসে পরে তাৎক্ষণিক গাড়ি উল্টে যায়, দুইজন যাত্রী গাড়ির নিচে পড়ে আহত হয়েছেন এর মধ্যে আমিও কিছুটা আহত হয়েছি। এসময় চালক হিমেলের হাতে কাটা কাটাছেঁড়া সহ রক্ত দেখা যায়।

অপর সিএনজি চালক পালিয়ে গেছে। শ্রীমঙ্গল থানার এসআই আসাদুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দুইটি সিএনজি থানায় নিয়ে এসেছি একটির চালক সাথে রয়েছে এবং অপরটির চালক পালিয়েছে। গাড়ি দুটির মালিক পক্ষের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মিনহাজ তানভীরঃ  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল বিএনপির শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ শাখার আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। শনিবার ১২ সেপ্টেম্বর মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. রুবেল মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক আকিদুর রহমান সোহান এর স্বাক্ষরিত জেলা ছাত্রদলের প্যাডে মিজানুর রহমান আহ্বায়ক ও নয়জন যুগ্ম আহ্বায়ক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন করা হয়েছে ।
শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ শাখার আহবায়ক কমিটির সদস্যদের নামের তালিকা নিম্নরূপ- মিজানুর রহমান আহবায়ক, সুমন মিয়া যুগ্ম আহ্বায়ক, ইসরাফিল আলম মেরাজ যুগ্ন আহবায়ক, আলাউদ্দিন আহমেদ শামিম যুগ্ন আহবায়ক, শাহানশাহ আখলাক যুগ্ন আহবায়ক, সাইফুল ইসলাম যুগ্ম আহ্বায়ক, হুমায়ূন আহমেদ হাসনাত যুগ্ন আহবায়ক, মোস্তাফিজুর রহমান যুগ্ন আহবায়ক, মুদাসির আহমদ যুগ্ম আহ্বায়ক, সাইদুর রহমান ফাহিম যুগ্ন আহবায়ক।

এ ছাড়া জুনেদ মিয়া সদস্য সচিব। সাধারণ সদস্যরা হলেন, আসাদুজ্জামান পায়েল, সোহাগ মিয়া, রেদওয়ান উদ্দিন খান, জায়েন উদ্দিন সাগর, নাজমুল হোসেন, নিজামুল হক, পারভেজ আহমেদ জুয়েল,যুনায়েদ আহমেদ ,ইমন আহমেদ জিল্লুর রহমান রাফি।

উল্লেখ্য ১২/০৯/২০২০ তারিখ থেকে আগামী ৬০ দিনের মধ্যে সকল বিভাগ অনুষদ ও ক্লাস কমিটি গঠন করে কাউন্সিলের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে হবে বলে লিখিত ভাবে বলা হয়েছে ।

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোঃ আব্দুল হালিম ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

শনিবার (১২সেপ্টেম্বর) দুপুর সোয়া ২টায় নিজ বাড়িতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা যান। আব্দুল হালিম পৌর শহরের কাজীরগাঁও এলাকার  বাসিন্দা ।

মোঃ আব্দুল হালিম মৃত্যুর আগ পর্যন্ত মৌলভীবাজার সরকারী কলেজের ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্ট এর অফিস সহকারী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।আব্দুল হালিমের মৃত্যুতে ছাত্রছাত্রীদের অনেকেই দুঃখ প্রকাশ করে তার মাগফেরাত কামনা করে বলেন হালিম ভাই খুব ভালো মানুষ ছিলেন।

ভারতে দিন দিন মুসলমানদের বিরুদ্ধে নির্যাতনের মাত্রা বেড়েই চলেছে। এবার হরিয়ানা রাজ্যে এক মুসলিম যুবককে নৃশংসভাবে নির্যাতন করা হয়েছে এবং তার ডান হাত করাত দিয়ে কেটে দেয়া হয়েছে!
জানা গেছে, নির্যাতনের শিকার ঐ যুবকের নাম আখলাক (২৮)। তিনি পেশায় একজন নাপিত। তার বাড়ী উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুর শহর থেকে ২ কিঃমিঃ দূরে নানৌতাতে। ২৩শে আগস্ট সে হরিয়ানার পানীপথে যান কাজের সন্ধানে। যাওয়া পরে কয়েক মিনিট বিশ্রাম নিতে সে কিশানপুরা এলাকায় বসে। এ সময় দুজন লোক এসে তার সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে শুরু করে।
আখলাকের ভাই ইকরাম জানান, দুজন লোক এসে তার নাম জিজ্ঞাসা করে। তার নাম শুনেই তারা তাকে মারধর শুরু করে। এরপর আখলাককে আহত অবস্থায় রাস্তায় ফেলে রাখা হয়। হামলাকারীরা চলে যাওয়ার পর, তার হুঁশ ফেরে। তখন তার তীব্র পিপাসা লাগে এবং সে তার নিকটবর্তী দরজায় কড়া নেড়ে পানি চায়। কিন্তু সে বুঝতে পারেনি যে, ঐ বাড়ীর লোকেরাই তাকে কয়েক মিনিট আগে মারধর করছিলো। তারা তাকে টেনে ভিতরে নিয়ে যায় এবং লাঠি দিয়ে তাকে মারধর শুরু করে।আখলাক তাকে বলেছে যে, বাড়ীর ভিতরে ৪ জন পুরুষ এবং ২ জন নারী ছিলো – যখন তাকে নির্মম নির্যাতন করা হয়। তারা আখলাকের ডান হাতে ৭৮৬ লেখা দেখে বলে যে, এ লেখা থাকতে দেবো না। এরপর তারা আখলাকের ডান হাত একটি চেইনসো (ভারী কাঠ কাটতে ব্যবহৃত ডিজেল চালিত করাত) দিয়ে কেটে ফেলে! আমার ভাইকে এমনভাবে মারধর করা হয়েছে যে, তার দেহের প্রতিটি অংশে আঘাত রয়েছে। কয়েক ঘন্টা পরে জ্ঞান ফিরলে, আখলাক নিজেকে রেলস্টেশনে পড়ে থাকতে দেখে। তখন আখলাকের কাছ থেকে নাম্বার নিয়ে পানীপথ থেকে অজানা এক ব্যক্তি ইকরামকে ফোন দিয়ে ঘটনার কথা জানান।
উনি বলেন: আখলাককে রেলপথের উপরে ফেলে দেয়া হয় এটা বোঝাতে যে, সে কোনো ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে।
পরে, আখলাককে পানিপথে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে উপস্থিত জিআরপি থানার এসআই বলওয়ান বলেন যে, এটি একটি দুর্ঘটনার মামলা।
ইকরামের অভিযোগ – এসআই বালওয়ান অভিযুক্ত লোকদের থানায় ডেকেছিলেন। কিন্তু তার সামনে প্রমাণ থাকা সত্ত্বেও তাদের গ্রেপ্তার না করেই যেতে দেন। এ বিষয়ে পানিপথের চাঁদনী বাগান থানায় একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, ভারতের অনেক মুসলমানই ৭৮৬ সংখ্যাটি মহান আল্লাহুর নাম বোঝাতে ব্যবহার করেন। ১৫ বছর বয়সে এ সংখ্যা আখলাক তার হাতে ট্যাটু করান। সূত্র: ফ্রি প্রেস কাশ্মীর।

সারাদেশে টে‌লিট‌কের সাড়ে ৪শ’ টাওয়ার নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। এই প্রকল্পে টাওয়ারের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। দেশের এমনও অঞ্চল রয়েছে যেখানে কোন মোবাইল অপারেটরের নেটওয়ার্ক পৌঁছেনি। টেলিটক সরকারের একটি প্রতিষ্ঠান। তার দায় রয়েছে মানুষের হাতে নেটওয়ার্ক পৌঁছে দেয়ার। ৩৮০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মোবাইল অপারেটর টেলিটক।

ইতোমধ্যে বেশকিছু জায়গায় কাজ শুরু হয়েছে। অনেক জায়গায় ‘সাইট সিলেকশনের’ কাজ চলছে। ২০২১ সালের জুনের মধ্যে টেলিটক সারাদেশে নেটওয়ার্ক বিস্তার করবে। দেশের সব মানুষ নেটওয়ার্কের আওতায় চলে আসবে।তথ্যটি মাননীয় মন্ত্রী মোস্তফা জাব্বার নিশ্চিত করেছেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মিনহাজ তানভীরঃ  মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালাপুর ইউনিয়নের অরাজনৈতিক ও সেচ্ছাসেবী “গ্রীন কালাপুর” সংস্থা কর্তৃক কালাপুর ইউনিয়নকে মাদক মুক্তকরনসহ অন্যান্য উন্নয়ন মূলক কর্মকাণ্ড নিয়ে  আলোচনা ও অনুদান প্রদান সভা আজ শনিবার সন্ধ্যায় কাকিয়া বাজার এলাকার একটি কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সংগঠনের আহ্বায়ক জাকারিয়া আহমদ এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব দেলোয়ার মামুন এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের সদস্য মশিউর রহমান রিপন, শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ আনিসুল ইসলাম আশরাফী।

উপস্থিত “গ্রীন কালাপুর” সদস্যদের  একাংশ

এ ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন,রোমান আহমদ চৌধুরি শিপুল, মকবুল হাসান ইমরান, আব্দুল মজিদ,নাজমুল ইসলাম, মোহাম্মদ মিজানুর রহমান,হাফিজুর রহমান চৌধুরী তুহিন, মকবুল হোসেন রিপন,বদরুল আলম, আহমদ জ্বালাল ভুঁইয়া, সাজেদুর রহমান, সালেহ আহমদ, মাসুম খান,আরিফ খান ,আলমগীর হোসেন, আমিনুল হক ,আবুল হাসান, শাহান মিয়া, নিয়ামত হোসেন চৌধুরী, ইসলাম, নাদিম আহমদ চৌধুরি, শাকিব মিয়া, আব্দুল মুকিত, নুরুল ইসলাম, সদরুল ইসলাম, রিপন শেখ, মোঃ সেলিম, মোঃ মিজানুর রহমান, অবির চক্রবর্তী,পূর্ণিমা চক্রবর্তী নুরুল আমিন,মোহাম্মদ কামরুল হাসান ইমরান প্রমুখ।

এ সময় লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার জন্য অত্র ইউনিয়নের একজন ছাত্র ও ছাত্রীর হাতে প্রায় নয় হাজার টাকা অনুদান প্রদান করা হয়।

“প্রাতিষ্ঠানিক ত্রুটিজনিত কারণে কাউকে বঞ্চিত না করে সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের দ্রুত আত্তীকরণ করতে হবে”

প্রাতিষ্ঠানিক ত্রুটিজনিত কারণে কাউকে বঞ্চিত না করে প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণের তারিখে কর্মরত সকল শিক্ষক-কর্মচারীকে অন্তর্ভূক্ত করে দ্রুত এডহক নিয়োগের দাবীতে সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতি (সকশিস)-এর সিলেট আঞ্চলিক ইউনিটের ভার্চ্যুয়াল সভা গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতি (সকশিস)-এর সিলেট আঞ্চলিক ইউনিটের সভাপতি, ইমরান আহমেদ মহিলা কলেজের সহাকারি অধ্যাপক শাহেদ আহমেদ-এর সভাপতিত্বে এবং কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক, ফেঞ্চুগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক অসীম কুমার তালুকদার-এর সঞ্চালনায় সরকারি কলেজ বিহীন উপজেলাসমূহে ১টি করে কলেজ সরকারিকরণের জন্য স্বাধীনতার মহান স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা, বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থার অগ্রপথিক,ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার, মানবতার মহাননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা-কে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞা জ্ঞাপন করে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সকশিস সিলেট আঞ্চলিক ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক, মদন মোহন কলেজের প্রভাষক আবুল কাশেম।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সকশিসের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জনাব জহুরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জনাব জাকারিয়া মাহমুদ, সহ-সভাপতি জনাব কামরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জনাব মো. আবু সাইদ আতিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক জনাব দীপু কুমার গোপ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব মো. ইসহাক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব আ.ন.ম. রিয়াজ উদ্দিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব মো. আব্দুস সবুর সরকার ও সাংগঠনিক সম্পাদক (সার্বিক) জনাব মো. কামরুল হাসান পাঠান।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সকশিস সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ ও সাধারণ সম্পাদক জুলহাস আহমেদ, সকশিস হবিগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি অনুপ রায় ও সাধারণ সম্পাদক তাপস রায়, সকশিস মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সভাপতি রজত কান্তি গোস্বামী ও সাধারণ সম্পাদক মো. জসিম উদ্দীন এবং সকশিস সুনামগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি মো. মশিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক লিটন চন্দ্র সরকার। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগের সদ্য সরকারিকৃত কলেজসমূহের শিক্ষকবৃন্দ।

বক্তারা সকশিস কেন্দ্রীয় কমিটির ১৪ দাবীর প্রতি একাত্ততা জানিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর দাবী পূরণের আবেদনপত্র জমা দান, স্থানীয় সংসদ সদস্য বরাবরে আবেদন পত্র জমা দান ও মত বিনিময়, দেশব্যাপী গণসংযোগ, ৬৪ টি জেলা সদরে/ ডিসি অফিসের সামনে মানব বন্ধন ও ঢাকায় মানব বন্ধন কর্মসূচী বাস্তবায়নের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন। প্রেস রিলিজ

“ইন্টারনেট একটি মৌলিক মানবাধিকার এবং তা সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত হওয়া উচিতহাসানুল হক ইনু, এমপি”

ইন্টারনেট দুনিয়ার অংশীজনের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে শনিবার শেষ হলো ৪র্থ বিডিসিগ। বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরামের আয়োজনে দুই দিন ধরে জুম প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হয় এই ওয়েবিনার। চতুর্থ বাংলাদেশ স্কুল অফ ইন্টারনেট গভর্নেন্স (বিডিএসআইজি) শুরু হয় ১১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার। সকল অংশগ্রহণকারীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাসানুল হক ইনু, এমপি, সভাপতি বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরাম।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য ও সেশন পরিচালনা করেন বিআইজিএফ মহাসচিব মোহাম্মাদ আব্দুল হক অনু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনএনআরসি-র সিইও এএইচএম বজলুর রহমান, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির মহাপরিচালক রেজাউল করিম, এনডিসি. আইএসপিএবি সভাপতি আমিনুল হাকিম এবং বিটিআরসি মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ মোস্তাফা কামাল।

প্রধান অতিথি বিআইজিএফ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, এমপি, বলেন, ইন্টারনেট একটি মৌলিক মানবাধিকার এবং তা সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত হওয়া উচিত, গ্রামীণ শহরের বৈষম্য দূরীকরণ এবং স্থানীয়করণের উপর তিনি গুরুত্ব আরোপ করেন।

বিএনএনআরসি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম বজলুর রহমান বলেন, বিআইজিএফ এবং বিডিসিগ সরকার আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নীতি পরিবর্তনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সংলাপ ও আলোচনা সভা করে ডিজিটাল বাংলাদেশের কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার জন্য সরকারের সাথে কাজ করছে।

ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির মহাপরিচালক রেজাউল করিম, এনডিসি বলেন, আমরা কভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলা করছি। আমাদের তথ্য সাইবার হুমকির হাত থেকে সবকিছু রক্ষা করতে হবে। আমাদের কাজের সুরক্ষা সম্পর্কে খুব সতর্ক থাকতে হবে। দুর্বার প্ল্যাটফর্ম গুজব ভুল তথ্য হ্রাস করতে সহায়তা করবে।

আইএসপিবিএ-র সভাপতি আমিনুল হাকিম উল্লেখ করেন যে প্রযুক্তির এই যুগে উদ্যোগটি সময়োচিত এবং প্রশংসনীয়। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সাথে অভিযোজনের জন্য আমাদের দক্ষতার উন্নয়ন করতে হবে।

বিটিআরসির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোস্তফা কামাল বলেন, ইন্টারনেট সার্ভিস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান, মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সহায়তা প্রদান করার কথা উল্লেখ করেন এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সকল ইউনিয়নকে ইন্টারনেট নেটওয়ার্কের আওতায় নিয়ে আসা হবে, যাতে সমস্ত ইউনিয়নের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করা যায়।

প্রথম দিনে ইন্টারনেট গভর্নেন্স অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন আইকান ভারতের প্রধান সমিরন গুপ্ত। তথ্যপ্রযুক্তি স্থানীয়করণ অধিবেশনে আলোচনা করেন কম্পিউটার কাউন্সিলের পরামর্শক মোহাম্মাদ মামুন অর রশীদ এবং সাইবার নিরপত্তা অধিবেশনে আলোকপাত করেন বিজিডি সার্ট এর নীতি ঝুঁকি বিশ্লেষক সাব্বির হোসাইন।

এছাড়াও শেষ দিনে আইওটি, ব্লকচেইন, মহামারিতে ডিজিটাল প্লাটফর্মের সর্বোচ্চ ব্যবহার এবং ইন্টারনেট ফেলোশিপ অনুদান বিষয়ক আলোচনা করা হয়। আলোচক হিসেবে ছিলেন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক কাজী হাসান রবিন, দ্য কম্পিউটার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আতিক রাব্বানী, ডিজি জাদু ব্রডব্যান্ডের হেড অব সিস্টেম অ্যান্ড স্ট্রাটেজি সাইফ রহমান, অমৃতা চৌধুরী এবং শ্রীদ্বিপ রায়ামাঝি।

বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরাম (বিআইজিএফ) জাতিসংঘের ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরামের সাথে একযোগে বিডিসিগ আয়োজন করে। বিডিসিগ এশিয়া প্যাসিফিক স্কুল অফ ইন্টারনেট গভর্নেন্স (এপিএসআইজি) এর একটি উদ্যোগ। বিডিসিগ ইন্টারনেট কর্পোরেশন ফর অ্যাসাইনড নাম নাম্বার (আইসিএনএএন), এশিয়া প্যাসিফিক অ্যালায়েন্স ফর স্কুল অ্যান্ড একাডেমি অফ ইন্টারনেট গভর্নেন্স (এপিএএসএ), ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) এর সহযোগিতায় বাংলাদেশে বিডিসিগ বাস্তবায়নের জন্য কাজ করছে বাংলাদেশ এনজিও নেটওয়ার্ক ফর রেডিও অ্যান্ড কমিউনিকেশন (বিএনএনআরসি) এবং মাসিক কম্পিউটার জগত। 

নড়াইল প্রতিনিধিঃ  নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদাক শেখ জহিরুল ইসলাম রেজওয়ানকে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। শুক্রবার রাতে দিঘলিয়া নবগঙ্গা ডিগ্রী কলেজ সড়ক এলাকা এ হামলার ঘটনা ঘটে।
এ ব্যাপারে নিহত রেজোয়ানের ভাই রানা শেখ জানান, এলাকায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী হত্যা, মাদকসহ অন্তত ১৩টি মামলার আসামী সোহেলের নেতৃত্বে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি ভাবে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে জরুরী চিকিৎসা দিয়ে অবস্থায় আশংকাজনক হওয়ায় নড়াইল সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করে। সদর হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আশিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে দিঘলিয়া গ্রামের ঝড়– ফকিরের ছেলে শিমুল ফকিরকে (২২) আটক করা হয়েছে। ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc