Thursday 24th of September 2020 10:38:28 AM

সাদিক আহমেদ,নিজস্ব প্রতিনিধি: মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ইসবপুর গ্রামের রাহুল কর (২০) বিগত ৩১/০৮/২০২০ তারিখ হতে নিখোঁজ রয়েছে।তার পিতার নাম নকুল কর।
অভিযোগসুত্রে জানা যায়,ঘটনার দিন সোমবার রাত ১২ টা থেকে তাহার নিজ বাড়ি হতে নিখোঁজ রয়েছে।
অভিযোগকারী মদন কর নিখোঁজ রাহুল করের বড় ভাই শ্রীমঙ্গল থানায় আজ ০৩/০৯/২০২০ তারিখে থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করেন।

নিখোঁজ অভিযোগে তিনি বলেন,রাহুল কর শ্রীমঙ্গলের উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ কলেজের ইন্টারমিডিয়েটের শিক্ষার্থী ছিলো।আত্মীয় স্বজনসহ বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায় নি।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় অভিযোগকারীর মোবাইল নাম্বার হতে তার ছোট ভাই রাহুল করের নাম্বারে যোগাযোগ করলে অপর প্রান্ত থেকে অজ্ঞাত লোক জানান যে,রাহুল কর ধর্মান্তরিত হয়ে মুসলমান হয়ে গিয়েছে।এরপর থেকে তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটি বন্ধ রয়েছে।
নিখোঁজ রাহুল করের বয়স আনুমানিক ২০ বছর।গায়ের রং শ্যামলা,উচ্চতা ৪ ফুট ১০ ইঞ্চি,মুখমণ্ডল গোলাকার।তার পরনে লাল শার্ট ও বাদামী রঙের প্যান্ট পড়া ছিলো।সে শ্রীমঙ্গলের আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলে।
শ্রীলঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা আমার সিলেট প্রতিনিধিকে বলেন,এ ব্যপারে একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে।আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে খুঁজে বের করার চেষ্টা করবো।

নড়াইল প্রতিনিধি: বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু ভারতের ১৩ তম সাবেক রাষ্ট্রপতি ভারত রত্ন  পদ্মবিভষণ সম্মানে সন্মানিত নড়াইলের দাদাবাবু (জামাই ) প্রণব মুখার্জীর মৃত্যেুতে নড়াইলে রাষ্টীয় শোক কর্মসুচির সাথে সাথে বিভিন্ন কর্মসুচি পালিত হয়েছে। আজ বুধবার বাংলাদেশ সরকারের রাষ্টীয় কর্মসুচির বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্বশাষিত প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখাসহ সদর উপজেলা তুলারাম ইউনিয়নের শুভ্রা মূর্খাজী ফাউন্ডেশনের আয়োজনে প্রনব পত্নী শুভ্রামূর্খাজীর মামা বাড়ীর রাধা গোবিন্দ মন্দির চত্বরে প্রণব মুখার্জীর প্রতিকৃতিতে পুস্ফমাল্য অর্পন, শোক বইতে স্বাক্ষরসংক্ষিপ্ত স্মরন  সভা আত্মার শান্তি কামনা করে প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও  ভদ্রবিলা ইউনিয়নের ভদ্রবিলা গ্রামে প্রয়াত রাষ্ট্রপতির শ্বশুর বাড়ি শুভ্রা মুখার্জীর নিজ বাড়ির রাধা গোবিন্দ মন্দিরে প্রার্থনা অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়।

তুলারামপুরে জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, পুলিশ সুপার মোহম্মদ জসিম উদ্দিন, সদর উপজেলা নির্বাহী  কর্মকর্তা সালমা সেলিম,তুলারামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ বুলবুল ইসমাম, শুভ্রা মুখার্জী ফাউন্ডেশনের পরিচালক অয়ন কুমার ঘোষ, প্রনব পত্নী শুভ্রামূর্খাজীর মামাতো ভাই কার্তিক ঘোষ, বিশ্বনাথ ঘোষসহ অনেকে সময় উপস্থিত ছিলেন।

 ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি ২০১৩ সালের মার্চ বাংলাদেশে দিনের সফরে আসেন। মার্চ মঙ্গলবার শেষ দিনের কর্মসূচির মধ্যে ছিল শ্বশুরবাড়ি নড়াইলের ভদ্রবিলা গ্রামে বেড়ানো। ২০১৩ সালের মার্চ  সকাল সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে বাংলাদেশ বিমানের একটি হেলিক্যাপ্টারে  করে তিনি তার অসুস্থ স্ত্রী শুভ্রা মুর্খার্জী এবংএক কন্যাকে সাথে নিয়ে  নড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অবতরণ করেন।  তারপর তিনি নড়াইলের মেয়ে স্ত্রী অসুস্থ শুভ্রা মুখার্জিকে নিয়ে গাড়ি যোগে ছুটে যান সদরের  বাঁশগ্রাম ইউনিয়নের ভদ্রবিলা গ্রামে শুভ্রা মুখার্জির পৈত্রিক ভিটায় তার শ্বশুরালয়ে। নড়াইলবাসী তাকে  জামাইবরণ করেজামাইকে ধান, দূর্বাঘাস, মঙ্গলপ্রদীপ, শঙ্খ এবং উলুধ্বনি দিয়ে বরণ করে নেন শ্বশুরালয়ের সদস্যরা। পরে নড়াইলের বিখ্যাত ক্ষিরের সন্দেশ, নারকেলের নাড়ু, ডাব, দেশি বরই, কুল বরই কলা দিয়ে অ্যাপায়ন করা হয়।  

নড়াইল প্রতিনিধিঃ  শিশু সন্তানের হত্যার বিচারের দাবিতে মেয়েকে সাথে নিয়ে নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনে ধর্নায় ফল বিক্রেতা হতদরিদ্র মা আন্না বেগম। সন্তান হত্যার প্রায় দেড় বছর অতিবাহিত হলেও এখনও হত্যাকারীদের কোনো সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ। শিশু সন্তানের হত্যার বিচারের দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরে অবশেষে কোনো উপায় না পেয়ে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনে স্বামী হারা আন্না বেগম ছোট মেয়ে ২য় শ্রেনীর ছাত্রী রোকছানাকে সাথে দিয়ে অবস্থানে বসেন। কারা এবং কেন শিশু সাব্বিরকে হত্যা করলো সে খবরও দিতে পারেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তার বিশ্বাস এবার যদি তিনি সন্তান হত্যার বিচার পান।
স্বামী হারা আন্না বেগম বলেন, আমি গরিব মানুষ, আমার কেউ নেই বলে আমার সন্তানের মামলায় কোনো অগ্রগতি হচ্ছে না। আমি আমার শিশু সন্তানে প্রকৃত হত্যাকরিদের বিচার চাই।
জানা গেছে, ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র সাব্বির হোসেন জেলার কালিয়া উপজেলার খড়রিয়া গ্রামের শাহাদত হোসেনের পূত্র। বাবা তার মার কোনো খোঁজ-খবর না নেওয়ায় মা আন্না বেগমের সাথে নড়াইল পৌর এলাকার বিজয়পুরে নানা বাড়িতে থাকত। সাব্বির সংসারের চাকাকে সচল রাখতে লেখাপড়ার পাশাপাশি ব্যাটারিচালিত ভ্যান চালিয়ে দরিদ্র মায়ের সংসারে বাড়তি আয় রোজগার করত। ২০১৯ সালের ১৫মার্চ বিকেলে বাড়ি থেকে ভ্যান নিয়ে বের হয় সাব্বির। পরে আর বাড়ি ফেরেনি। এর দু’দিন পর ১৭ মার্চ বাড়ির থেকে ৩ মাইল দুরে নড়াইল-গোবরা সড়কে কাড়ারবিল এলাকায় একটি ডোবার মধ্যে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সে সময় ধারণা করা হয় সাব্বিরকে হত্যা করে ব্যাটারিচালিত ভ্যানটি দুবৃত্তরা নিয়ে যায়।
এ ঘটনায় সাব্বিরের মা আন্না বেগম বাদি হয়ে ১৯মার্চ সদর থানায় কারও নাম উল্লেখ না করে নড়াইল সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলাটির কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় বাদির আবেদনের প্রেক্ষিতে মামলা তদন্তে সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস.আই আরমিন বলেন, মামলাটি আমরা ৪ মাস পর পাই। তখন সন্দেহভাজন ৩জনকে গ্রেফতার করা হয়। কিন্ত কোনো ক্লু পাওয়া যায়নি। আমরা দোষিদের খুজে বের করতে অত্যন্ত আন্তরিকভাবে চেষ্টা করছি। কিন্তু বাদি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জনের নাম বলায় আমরা বিভ্রান্ত হচ্ছি। কিন্তু আমরা ঠান্ডা মাথায় মামলাটির তদন্ত করছি। চার্জসিট এখন দেওয়া সম্ভব হয়নি। প্রকৃত দোষীদের খুজে বের করার চেষ্টা করছি।

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সাম্প্রতিক সীমান্ত সংঘর্ষের পরে উভয়পক্ষের মধ্যে শান্তি লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে ভারত ও চীনের মধ্যে আরও উত্তেজনা বাড়ার সাথে সাথে ভারতের রাজনৈতিক ও সামরিক বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে পরিস্থিতি এখন আরও জটিল ও উত্তাল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
আমি মনে করি এটি আরও জটিল হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যে এলএসি (প্রকৃত নিয়ন্ত্রণের রেখা) নিয়ে উত্তেজনা ছিল, এবং প্রাথমিক সহিংসতার পরে কমপক্ষে পরিস্থিতি কিছুটা শীতল হয়ে গিয়েছিল এবং বিভিন্ন স্তরে আলোচনা চলছিল, “লেফটেন্যান্ট জেনারেল দেপেন্দ্র সিং হুদা, (অবসরপ্রাপ্ত) ভারতীয় সেনাবাহিনী বলেন “এখন হঠাৎ করেই, আপনার আবার একটি নতুন প্রচেষ্টা হয়েছে, সম্পূর্ণ নতুন অঞ্চলে একরকম আক্রমণ (চীন এর লোক মুক্তির সেনা দ্বারা)। সুতরাং, পরিস্থিতি উত্তেজনার দিকে চলেছে। “

নয়াদিল্লি গত সোমবার বলেছে যে তার সেনারা হিমালয় অঞ্চলের সীমান্ত অঞ্চলে “উস্কানিমূলক সামরিক তৎপরতা ব্যর্থ করেছে যেখানে গত মে মাস থেকে দু’দেশের মুখোমুখি ঘটনা প্রত্যক্ষ হয়েছে। পরবর্তীকালে, চীনের লিবারেশন আর্মি ভারতীয় পক্ষকে সীমান্ত লঙ্ঘন করার জন্যও অভিযুক্ত করে।”

হুডার মতে, তিনি বলেছিলেন “ক্রমবর্ধমান ও প্রচণ্ড উস্কানিমূলক” জিনিসগুলি সীমান্তে আরও উত্তেজনা বাড়াবে। “যদি কূটনৈতিক আলোচনা এবং সামরিক-থেকে-সামরিক আলোচনা কাজ না করে এবং চীন এখন তাদের সামরিক বাহিনীকে যেমন ব্যবহার করেছে এমতাবস্থায় আমি মনে করি সবকিছু এখন টেবিলের মধ্যে রয়েছে।

বিতর্কিত জম্মু ও কাশ্মীরের লাদাখ অঞ্চলে দু’দেশের মধ্যে একটি সীমান্তরেখার এলএসি-তে ভারত ও চীন একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিল, যেখানে এই জুনে ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছিল। এর পর থেকে দু’দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে, তবে সাফল্য হয়নি।

সাংহাই বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্কের পাঠদানকারী রাজীব রঞ্জন বলছিলেন যে লাদাখের জুনে সংঘর্ষ ভারত-চীন সম্পর্ককে অস্বীকার করেছে। “নতুন করে উত্তেজনার খবর পাওয়া গেলে উত্তেজনা বজায় থাকবে এবং ভারত সীমাবদ্ধতা রেখে প্রতিশোধ নিতে পারে”।

ভারতের চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত গত সপ্তাহে বলেছিলেন যে দু’দেশের মধ্যে আলোচনা ব্যর্থ হলে চীনকে মোকাবেলায় সামরিক বিকল্প” রয়েছে।

প্রাক্তন সেনা কমান্ডার হুদা বলেছিলেন,আমি কোন যুদ্ধের ঘটনা দেখতে পাচ্ছি না তবে উত্তেজনা বাড়বে কারণ যখন আলোচনা চলছে এবং হঠাৎ করে আপনি একটি নতুন অঞ্চলে কিছু করার চেষ্টা করছেন, এটি একটি বিরাট উস্কানি। আমি বলছি উভয় দেশ যুদ্ধে নামবে না। তবে, এই সমস্ত বিষয় নিয়ে, আগামী সময়ে কী ঘটবে কে জানে।

এদিকে রঞ্জন হুডার আবারো একই মতামত প্রতিধ্বনিত করে বলেন, উভয় দেশের নেতারা যুদ্ধের ব্যয় এবং উপকার গণনা করতে যথেষ্ট পরিপক্ক। আমি বিশ্বাস করি যে উভয় পক্ষই পুরোপুরি দ্বন্দ্ব এড়াতে চেষ্টা করবে তবে ভারত এবং চীন যেহেতু দীর্ঘ অচল সীমানা নিয়ে প্রতিবেশী, তাই আরও ঝগড়া এগিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে,

ভারতের রাজনৈতিক ভাষ্যকাররা বিশ্বাস করেন যে কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে উত্তেজনা সমাধান পেতে পারে।

“নয়াদিল্লি-ভিত্তিক অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশনের বিশিষ্ট সহযোগী এবং ভারত-চীন সম্পর্কের বিশেষজ্ঞ মনোজ জোশী বলেছেন-আমি মনে করি এটি কূটনৈতিক বন্দোবস্ত খুঁজে পাবে। চীনারা ইতিমধ্যে গ্যালওয়ানে ফিরে এসেছেন। উভয়ই বাস্তব নিয়ন্ত্রণের স্বীকৃত লাইন তৈরির পক্ষে উভয়েরই সমাধানয়।

জুনে ভারত-চীন সংঘর্ষের পরে, চীনা পণ্য বর্জন করার জন্য ভারতে বহু দাবী উঠেছিল। ভারতীয় দৈনিক দ্য হিন্দু জুনে জানিয়েছিল যে সম্প্রতি ভারতীয় রেলওয়ে একটি চীনা সংস্থাকে দেওয়া একটি সিগন্যালিং প্রকল্প বাতিল করেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন যে সংঘর্ষের ফলে ভারতের মানুষের মধ্যে চীনবিরোধী অনুভূতির সৃষ্টি হয়েছিল।

২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পটভূমিতে চীনের বিরুদ্ধে ভারতে একটি জনপ্রিয় উদ্বেগ অনুভূতি রয়েছে। জনমত জরিপগুলি এটি ইঙ্গিত করেছে। কিছু সংস্থা চাইনিজ পণ্য বর্জন করার আহ্বান জানিয়েছে, ”নয়াদিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের চীন বিষয়ক বিশেষজ্ঞ শ্রীকান্ত কোন্ডাপল্লি বলছিলেন: “এই আন্দোলনটি বাষ্প অর্জন করছে”

জোশী অবশ্য বলেছিলেন যে একটি বয়কট করা ভাল ধারণা নয়। আমার দৃষ্টিতে, এটি সম্ভবত … টেকসই নয়। তবে এটি সমর্থনকারী লোকদের মধ্যে এটি ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ, তিনি বলেছিলেন। চীন আঞ্চলিক সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন করেছে।

নতুন উত্তেজনার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে চীন মঙ্গলবার ভারতকে “লাদাখ সীমান্ত অঞ্চলে” পরিস্থিতি বৃদ্ধি ও জটিলতার দিকে পরিচালিত যে কোনও পদক্ষেপ অবিলম্বে বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে।

“ভারতের এই পদক্ষেপ চীনের আঞ্চলিক সার্বভৌমত্বকে চূড়ান্তভাবে লঙ্ঘন করেছে, দু’দেশের মধ্যে প্রাসঙ্গিক চুক্তি, এবং প্রোটোকল গুরুতরভাবে লঙ্ঘন করেছে এবং চীন-ভারত সীমান্ত অঞ্চলে শান্তি ও প্রশান্তিকে মারাত্মক ক্ষতি করেছে,”

চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি ভারতীয় পক্ষকে শান্তি পরিস্থিতি বিনষ্ট করার অভিযোগও করেছে। “সেনাবাহিনীর পশ্চিমা থিয়েটার কমান্ড বলেছে,” সেনাবাহিনী ভারতীয় সেনাদের উস্কানির জবাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছে এবং পরিস্থিতি নিকটতরভাবে অনুসরণ করবে এবং সীমান্তবর্তী অঞ্চলে জাতীয় সার্বভৌমত্ব, শান্তি ও স্থিতিশীলতার রক্ষা করবে।

দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে দুই দেশের সীমান্ত উত্তেজনা বিরাজ করছে। চীন ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ভূখণ্ডের দাবি করেছে, যখন নয়াদিল্লি লাদাখ অঞ্চলের কিছু অংশসহ হিমালয়ের আক্সাই চিন মালভূমিতে বেইজিংয়ের অঞ্চল দখল করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম অবলম্বনে ফখরুল ইসলাম চৌধুরী।

 নূরুজ্জামান ফারুকী নবীগঞ্জ: নবীগঞ্জ উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নে লুব খা (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে ১ বছর ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মহিউদ্দিন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এ সাজা প্রদান করেন। দন্ডাদেশপ্রাপ্ত লুব খা পানিউমদা ইউনিয়নের বড়গাঁও গ্রামের খুদ খাঁর পুত্র।

জানা যায়, সোমবার(৩১ আগষ্ট)  রাতে লুব খা(৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ৯ পিস ইয়াবা ও গাজা সেবনের বিভিন্ন সরঞ্জামসহ আটক করে স্থানীয় যুবসমাজ। পরে গোপলার বাজার তদন্ত কেন্দ্রের একদল পুলিশ গেলে তাকে সোপর্দ করা হয়।

পিন্টু অধিকারী,মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ   হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য কর্মীদের সুরক্ষায় মাধবপুরস্থ সিলেট এসোসিয়েশনের  উদ্যোগে কোভিড ১৯ সুরক্ষা বুথ স্থাপন ও কেএন-৯৫ হস্তান্তর করা হয়েছে।
এ উপলক্ষ্যে বুধবার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও হলরুমে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ ইশতিয়াক আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিতরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মাধবপুরস্থ সিলেট এসোসিয়েশনের সভাপতি সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড.শাহাব উদ্দিন আহম্মেদ, সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ সহকারী অধ্যাপক ডাঃ আখলাক আহম্মেদ, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের গবেষণা কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম, আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডাঃ   নাদিরুজ্জামান, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আলাউদ্দিন আল রনি, সংগঠনের সদস্য আব্দুল করিম প্রমুখ।
শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ সহকারী অধ্যাপক ডাঃ আখলাক  আহম্মেদ বলেন, কোভিড মহামারীতে সম্মুখ সারির যোদ্ধা অনেক ডাক্তার মারা গেছেন। কিন্তু কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ এখনো শেষ হয়নি। তাই মাধবপুর হাসপাতালের ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা এবং জনসাধারণের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এসোসিয়েশনের পক্ষে ১১টি স্বাস্থ্য সুরক্ষা বুথ ও ২টি কোভিড নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।
প্রধান অতিথি অধ্যাপক শাহাব উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, মাধবপুরবাসীর কল্যাণে স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, শিক্ষা ক্ষেত্রে  এসোসিয়েশন সব সময় জনগণের পাশে থাকবে।

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ  মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন উপলক্ষে গত সোমবার (১ সেপ্টেম্বর ২০২০)  রাত ৯ টায় ভানুগাছ রোডস্থ এক রেস্তোরায় শ্রীমঙ্গল পৌর যুবদল কর্তৃক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন।

আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন শ্রীমঙ্গল পৌর যুবদলের সাবেক সিনিয়র যুগ্ন-আহবায়ক লুৎফুর রহমান লিটন।পরিচালনা করেন শ্রীমঙ্গল পৌর যুবদলের সাবেক যুগ্ন-আহবায়ক মীর কালাম আহমেদ।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি নিয়ামুল হক তরফদার, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি কাজী গফুর ও জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি লোকমান হোসেন (কুটি)। জেলা যুবদলের সদস্য মোঃ নিজাম, শ্রীমঙ্গল পৌর যুবদল নেতা মোবারক হোসেনসহ পৌর যুবদলের নেতৃবৃন্দ।

শ্রীমঙ্গলে প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড কর্তৃক গ্রাহকের দশলক্ষ টাকা বীমা দাবি পরিশোধ করা হয়েছে। শ্রীমঙ্গল শাখা কর্তৃক এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২সেপ্টেম্বর) বিকাল ৪ টায় প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড শ্রীমঙ্গল শাখায় এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে গ্রাহকের মরণোত্তর দশলাখ টাকা বীমা দাবির চেক হস্তান্তর করেছে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ।
শ্রীমঙ্গল পৌরসভার কালীঘাট এলাকার সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর মরহুম আব্দুল আহাদের স্ত্রী জামিলা খাতুনের হাতে চেক তুলে দেন প্রাইম ব্যাংক শ্রীমঙ্গল শাখা ব্যবস্থাপক এখলাছুর রহমান,এফ এ ভি পি ও মোহাম্মদ মিছবাহ আহমদ,প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সালাউদ্দিন আকবর উপ-মহাব্যবস্থাপক ও লুৎফুর রহমান সহকারী মহাব্যবস্থাপক ও ইনচার্জ সিলেট সার্ভিস সেন্টার।
উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আলী হোসেন,নুরুন নবী,আরিফুল ইসলাম,সাজ্জাদ হোসাইন,প্রদিপ পাল প্রমূখ।
উল্লেখ্য শ্রীমঙ্গল পৌরসভার ৩ বারের নির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল আহাদ গত ২৬ মে (২০২০) করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন।মরহুম কাউন্সিলর আব্দুল আহাদ প্রাইম ব্যাংক লিমিটেডের প্রাইম মিলনিয়ার স্কিম এর একজন গ্রাহক ছিলেন এবং এ স্কিমের সাথে মাসিক দুইশত ত্রিশ টাকা দিয়ে দশ লাখ টাকার একটি জীবন বীমাও নিয়েছিলেন তিনি।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc