Sunday 12th of July 2020 08:13:00 PM

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দেশের নয় জেলায় নতুন জেলা প্রশাসক (ডিসি) নিয়োগ দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার।বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এই নিয়োগ দিয়ে এক আদেশ জারি করা হয়েছে।এর মধ্যে মৌলভীবাজারের ডিসি নাজিয়া শিরিন বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের পরিচালক হয়েছেন এবং তার স্থলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা মীর নাহিদ আহসানকে মৌলভীবাজারের ডিসি নিয়োগ করা হয়েছে।

অপরদিকে ঢাকার ডিসি নিয়োগ পেয়েছেন টাঙ্গাইলের ডিসি মো. শহীদুল ইসলাম।

এছাড়াও টাঙ্গাইল, মেহেরপুর, মৌলভীবাজার, যশোর, নোয়াখালী, রাজশাহী, বগুড়া ও মাদারীপুরে নতুন ডিসি নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

মেহেরপুরের ডিসি মো. আতাউল গনিকে টাঙ্গাইলে বদলি করা হয়েছে।

এছাড়া মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরীকে মেহেরপুর,জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত উপসচিব মো. তমিজুল ইসলাম খানকে যশোর, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রীর একান্ত সচিব (পিএস) মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খানকে নোয়াখালী, জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব আব্দুল জলিলকে রাজশাহী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক (উপসচিব) মো. জিয়াউল হককে বগুড়া এবং বিসিএস প্রশাসন একাডেমির উপপরিচালক (উপসচিব) রহিমা খাতুনকে মাদারীপুরে ডিসি নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সরকারের উপ-সচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তাদের জেলা প্রশাসক নিয়োগ দেওয়া হয়। জেলা পর্যায়ে ডিসি কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিনিধিত্ব করেন।

অপর আদেশে,মাদারীপুরের ডিসি মো. ওয়াহিদুল ইসলামকে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) মহাপরিচালক, রাজশাহীর ডিসি মো. হামিদুল হককে বিসিএস প্রশাসন একাডেমির পরিচালক, যশোরের ডিসি মোহাম্মদ শফিউল আরিফকে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও বগুড়ার ডিসি ফয়েজ আহমেদকে বাংলাদেশ রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষের (বেপজা) সদস্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

ঢাকার জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খানকে জননিরাপত্তা বিভাগের যুগ্মসচিব এবং নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক তন্ময় দাসকে কৃষি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব করা হয়েছে।সম্প্রতি তারা উপসচিব থেকে যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি পান।

করোনা থেকে প্রাণ বাঁচতে আমাজনের আরো গভীর জঙ্গলে পালিয়ে যাচ্ছেন সেখানকার আদিবাসীরা।ব্রাজিলের ইনডিজেনাস পিপলস অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত আমাজনের ৭ হাজার ৭০০ জন আদিবাসী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ৩৫০ জন। তবে আদিবাসীদের মাঝে রোগ ছড়ানোর প্রবণতা এই প্রথম নয়। এর আগেও হাম ও ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো রোগের ভাইরাস হানা দিয়েছে মূল জনপদ থেকে বিচ্ছিন্ন থাকা আদিবাসীদের মাঝে। সেসব ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষমতা তৈরি হয়েছিলো তাদের মধ্যে। তবে করোনা সেসব রোগ থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। অনেক বেশি মারাত্মক। এ ভাইরাসের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা নিতে পারেনি বিজ্ঞানও। আদিবাসীরা তাই ভাইরাসের আক্রমণ ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছেন। প্রাণঘাতী ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে তাই তারা নতুন পথ ধরেছেন।

জানা যাচ্ছে, ব্রাজিলের জনপদের কাছাকাছি থাকা আদিবাসী গ্রামগুলো এখন ফাঁকা। করোনা থেকে বাঁচলেও গভীর বনে অন্য অনেক বিপদ তাদের মৃত্যুর কারণ হয়ে উঠতে পারে। এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

আমাজনে আদিবাসীদের একটি গ্রাম ক্রুজইরিনহো। করোনা মহামারীর হাত থেকে রক্ষা পেতে ঐ গ্রামের সবাই আমাজনের গভীরে পালিয়ে চলে গেছেন। আরেকটি গ্রাম উমারিয়াকাও। ক্রুজইরিনহো থেকে সেখানে নৌকায় যেতে সময় লাগে প্রায় এক সপ্তাহ। মিজুরানা উপজাতিদের বাস সেখানে। মোট ৩২টি পরিবারের মাঝে ২৭টি আরো গভীর বনে পালিয়ে গেছে।

করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকে ঐসব অঞ্চলে কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আদিবাসীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার দিকে খেয়াল রেখেছিলো। কিন্তু এখন ব্রাজিলে ভাইরাসের প্রকোপ বেড়েছে কয়েকগুণ। ফলে, সেসব স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যদের দেখা পাওয়া যাচ্ছে না। এমন সময় আদিবাসীরা ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছেন। তাই, গভীর অরণ্যে পালিয়ে যাওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই তাদের কাছে। সূত্রঃ এএফপি ও জি নিউজ।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দেশব্যাপী করোনা আতংকে যখন সকল ধর্মের মানুষ দিশে হারা তখন ধর্মিয় কিছু সংগঠন নিজ নিজ ধর্মের অনুশাসন মেনে সকল ধর্মের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে তারা এই প্রশংসনীয় কাজে বিভিন্ন ব্যানারে ।তাদের এই কাজে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসছে অন্যান্য সংগঠন, ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠান।

আর সেই ধারাবাহিকতায় আজ ২৫ জুন রোজ  বৃহস্পতিবার বিকালে শ্রীমঙ্গল হবিগঞ্জ রোডস্থ শ্রী শ্রী জগন্নাথ আখড়া প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল পৌর শাখার পক্ষ থেকে ইকরামুল মুসলিমীন নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে করোনায় এবং করোনা উপসর্গে মৃত মানুষের দাফন ও সৎকারের কাজে ব্যবহারের জন্য সংস্থার শ্রীমঙ্গল ইউনিটকে ২০ টি পিপিই প্রদান করা হয়।

এসময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এসিল্যান্ড মাহমুদুর রহমান মামুন,শ্রীমঙ্গল সদর ইউপি চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়,উপজেলা টিম প্রধান মাওলানা এম এ রহীম নোমানী,জেলা টিম প্রধান মাওলানা এহসানুল হক জাকারিয়া ও জহর লাল প্রমুখ।

ইকরামুল মুসলিমীন শ্রীমঙ্গল উপজেলার পক্ষ থেকে পিপিই গ্রহন করেন, শ্রীমঙ্গল উপজেলা টিম প্রধান এম এ রহিম নোমানী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, আজকের অনুষ্ঠান ধর্মীয় সম্প্রীতির অনন্য উদাহরন হয়ে থাকবে। ইকরামুল মুসলিমীন এবং শ্রীমঙ্গল পুজা উদযাপন পৌর শাখা কমিটি প্রমান করেছে শ্রীমঙ্গল উপজেলা ধর্মীয় সম্প্রতির জন্য উদাহারনের স্থান এবং তিনি দাফন-কাফনে নিয়োজিত ইকরামুল মুসলিমীন মৌলভীবাজার টিমের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc