Saturday 30th of May 2020 02:35:08 PM

মিনহাজ তানভীরঃ যে পুলিশ অন্ধকারে আসামী ধরতো তারা আজ অন্ধকারে ত্রাণ দিচ্ছে ! কথাটি আমার নয়  মহাসড়কের পাশে একটি বন্ধ চা দোকানের সামনে বসে থাকা ৩/৪ জন গ্রামবাসী একে অপরের সাথে করা আলোচনার সারাংশ। পুলিশের দুই কর্মকর্তা যখন গাড়ী রেখে প্যাকেট নিয়ে বাড়ি বাড়ি কিছু খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছিলেন ওই সময় বসে থাকা পথচারীরা  তারা যেভাবে বলছিলেন, ” প্রথম জন “পুলিশ আগে আন্ধার রাইত আইতো আসামি ধরার লাগি আর এখনকো ঐ পুলিশই মানসের বাড়িত খানি লইয়া যার এটা বঙ্গ বন্ধুর পুরি শেখ হাসিনার জন্যই সম্ভব অইছে, ২য় জন তোরা অউক আর বেশি অউক মানুষের বাড়িত তো লইয়া যার এটাই তো অনেক,৩য় জন এখন তো মেম্বার চেয়ারম্যানরে ঘরে কিচ্ছু লইয়া আইতে দেখিনা এমন কি রাস্তা ঘাটে ও না কিতা অইছে……।

এভাবেই খাদ্য সামগ্রী প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন তদন্ত ওসি সোহেল রানা ও ওসি অপারেশন নয়ন কারকুল।

একজন মিডিয়াকর্মী হিসেবে আমাদের চোখে ভালো মন্দ অনেক কিছুই ধরা পড়ে যা কখনো তিল থেকে তাল বনে আবার কখনো তাল থেকে চিনি, যাই হোক  ঘটনার দিন রোজ শুক্রবার দিবাগত রাত এগারোটা দিকে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৫ নং কালাপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ লামুয়া গ্রামের পূর্বাংশে ২১ টি নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারে লকডাউনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারে রমজানের সামান্য উপহার হিসাবে এসপি ফারুক আহমদের নির্দেশনায়, এএসপি আশরাফুজ্জামান আশিকের সহযোগিতায়,ওসি আব্দুস  ছালিকের নেতৃত্বে,সোহেল রানা ওসি (তদন্ত) ও নয়ন কারকুল (ওসি অপারেশন) সরেজমিনে এসে রাত দশটা থেকে প্রায় সোয়া ১১টা পর্যন্ত ঘণ্টাধিক সময় ধরে প্রতিটি পরিবারের ঘরের সামনে গিয়ে ৫ কেজি চাউল ও ১ কেজি ডালসহ একটি করে প্যাকেট রেখে যান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি ও amarsylhet24.com এর প্রধান সম্পাদক আনিসুল ইসলাম আশরাফী,আরো উপস্থিত ছিলেন আব্দুল মজিদ সহকারী সম্পাদক আমার সিলেট ও জেলা প্রতিনিধি একবিডিডটকম ও জয়েন্ট সেক্রেটারি শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেসক্লাব ও আব্দুল লতিব প্রমুখ।

আর এই বিতরণকে নিয়ে পথচারিদের এই রকম সমালোচনা প্রমাণ করে আমাদের দেশের মানুষ আগের তুলনায় যেমন অনেক বেশী সচেতন ঠিক তেমনি আগের যে কোন সময়ের থেকে আইন প্রয়োগ কারী সংস্থার লোকজন অনেক মানবিক।এই রকম মানবিক চরিত্রের লোকজনের সংখ্যা প্রশাসনে দিন দিন বৃদ্ধি পাক দেশ বাসির দীর্ঘদিনের কামনা বাসনা।

এসময় স্থানীয় কয়েকজন যুবক পুলিশের এ বিতরণ কাজে সহযোগিতা করেন ।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দেশের এই করোনা মহামারীতে ফ্রন্ট লাইনে চিকিৎসক,পুলিশ,র‍্যাব,সেনাবাহিনী ও গণমাধ্যম কর্মিরা রয়েছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১৪৪ পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে সুত্রে জানা গেছে। আজ (৮মে) শুক্রবার পর্যন্ত পুলিশে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪২৯ জনে। গত বৃহস্পতিবার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১২৮৫। আর করোনাযুদ্ধে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ছয় পুলিশ সদস্য।

ঢাকাসহ সারাদেশের পুলিশ ইউনিটের তথ্য অনুযায়ী, আক্রান্তদের মধ্যে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সদস্যই ৭০৮ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মাঠপর্যায়ের পুলিশ সদস্যই বেশি।

ডিএমপির একজন কর্মকর্তা জানান, করোনায় মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা ছাড়াও তাদের দুইজন অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (এডিসি) ও একজন সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) পদমর্যাদার কর্মকর্তা আক্রান্ত হয়েছেন।

সারাদেশের পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের তথ্য উপাত্ত থেকে জানা গেছে, পুলিশে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে আরও ৪৭২ জনকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসায় ২৮১৪ জন কর্মকর্তাকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ পর্যন্ত ৯৬ পুলিশ সদস্য সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা সংবাদ মাধ্যমকে জানান, মাঠে নিয়োজিত সদস্যরা যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে ও সুরক্ষিত থাকতে পারেন, সেজন্য সচেতনতার পাশাপাশি সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি জানানো হচ্ছে। সিনিয়র অফিসাররাও বিভিন্ন ইউনিটে গিয়ে তাদের সঙ্গে এসব নিয়ে কথা বলছেন। সুরক্ষা সামগ্রী ও পর্যাপ্ত জীবাণুনাশক সরবরাহ ও ব্যবহার নিশ্চিত করা হচ্ছে। তিনি বলেন, হাসপাতালগুলোতে পুলিশ সদস্যদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা নিশ্চিত করা হচ্ছে। চিকিৎসার পাশাপাশি তাদের মনোবল যেন অটুট থাকে এজন্য ঊর্ধ্বতন অফিসাররা এবং তাদের লাইন প্রধানরা তাদের হাসপাতালে ভিজিট করছেন।

এছাড়া অসুস্থদের পরিবারের সদস্যদের খোঁজ-খবর রাখার জন্য সদরদফতর থেকে স্ব স্ব ইউনিটকে জানানো হয়েছে।

জহিরুল ইসলাম,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ দেশব্যাপী নতুন করে ৭০৯ জনের দেহে নভেল করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ রোগের সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া এই রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আজ শুক্রবার করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) দেশের ৩৫টি ল্যাবে মোট ৫ হাজার ৯৪১টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭০৯ জনের দেহে করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এতে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হলো ১৩ হাজার ১৩৪ জন।

ডা. নাসিমা জানান, শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ৭ জনের। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ২০৬ জনের মৃত্যু হলো।

এদিকে আগে থেকেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন থাকা আরও ১৯১ জন শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন জানিয়ে ডা. নাসিমা বলেন, এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া ২ হাজার ১০১ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

সোলায়মান আহমদ,শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ  শ্রীমঙ্গলে এক ভুয়া ডিবি পুলিশকে ডাকাত সন্দেহে আটক করে পুলিশে দিলো গ্রামবাসী। বৃহস্পতিবার (৭মে) রাতে উপজেলার ভূনবীর ইউনিয়নের মাধবপাশা গ্রামের প্রবাসী খালেক মিয়ার বাড়িতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে করোনাভাইরাস সতর্কতার কথা বলে বাড়ির লোকজনের নিকট তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন চাওয়া হলে তখন তাদের সন্দেহ হয়।

এরপর ওই ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশকে খবর দিলে শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক মহিন উদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

আটককৃত ব্যক্তি মৌলভীবাজার জেলার চাঁদনীঘাট ইউনিয়নের বাঁশতালা গ্রামের আব্দুল ওয়াহিদ এর পুত্র আবুল ফালাহ ফুহাদ (৩০)।

এবিষয়ে শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুছ ছালেক জানান, ফুহাদ নামের এই ব্যক্তি ডিবি পুলিশ পরিচয়ে গ্রামে ঢুকে করোনা সতর্কতার নাম করে লোকদের কাছে মোবাইল ফোন চাইলে তাতে সন্দেহ হলে গ্রামবাসী তাকে আটক করে পুলিশকে জানালে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের কৃষকের কাছ থেকে ন্যায্য মূল্যে ধান ক্রয়ের লক্ষ্যে আবেদন কারিদের মধ্যে লাটরি করেছেন  উপজেলা প্রশাসন।
বৃহস্পতিবার (৭ মে) সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপলের উপস্থিতিতে বড়,মাঝারি ও ক্ষুদ্র কৃষকদের মধ্যে এ লটারি অনুষ্ঠিত হয়েছে।
উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানাযায়,এবার সদর উপজেলা থেকে ২৬টাকা কেজি দরে ১হাজার ৯৯০ মেট্রিক টন ধান ক্রয় করবে সরকার। ন্যায্য মূল্যে ধান বিক্রি করতে উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন থেকে ৫ হাজার ৮৫ জন কৃষক আবেদন করেছে। ক্ষুদ্র কৃষকদের কাছ থেকে সরকার ন্যায্য মূল্যে ৯৯৫ মেট্রিক টন ধান ক্রয় করবে। একইভাবে মাঝারি কৃষকদের কাছ থেকে ৫৯৭ মেট্রিক টন এবং বড় কৃষকদের কাছ থেকে ৩৯৮ মেট্রিক টন ধান ক্রয় করা হবে।
ক্ষুদ্র কৃষকরা জনপ্রতি ১মেট্রিক টন, মাঝারি কৃষকরা জনপ্রতি ২ মেট্রিক টন এবং বড় কৃষকরা জনপ্রতি ৩ মেট্রিকটন ধান বিক্রি করতে পারবেন। তবে, ন্যায্য মূল্যে ধান বিক্রির জন্য আবেদনকারীর সংখ্যা বেশী হওয়ায় লটারির মাধ্যমে কৃষক বাচাই করা হয়েছে।
এসময়  উপস্থিত ছিলেন,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াছমিন নাহার রুমা, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আরিফ আদনান, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সাইফু  আলম সিদ্দিকী, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অশোক রঞ্জন পুরকায়স্থ, কৃষি কর্মকর্তা সালাউদ্দিন টিপু, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ নয়ন মিয়া প্রমুখ।
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল জানান, এবার সদর উপজেলায় ন্যায্য মূল্যে কৃষকদের কাছ থেকে ১ হাজার ৯৯০ মেট্রিক টন ধান করা হবে। সেই লক্ষ্যে ৫ হাজার ৮৫ জন কৃষক ন্যায্য মূল্যে ধান ক্রয় করতে আবেদন করেছেন। বাচাইকৃত কৃষকরা ন্যায্য মূল্যে সরকারের কাছে ধান বিক্রি করতে পারবেন বলেও জানান তিনি।

বেনাপোল প্রতিনিধি: খুুলনা-২১ বিজিবি শার্শা উপজেলার ৭টি বিওপি ক্যাম্প এলাকায় করোনা ভাইরাসে সীমান্ত এলাকায় কর্মহীন ১১শ’ পরিবারের মধ্যে খাদ‍্য সামগ্রী বিতারন করেন। খাদ্য সামগ্রীর দাতা ছিল বিদ্যানন্দ নামে একটি বেসরকারী সংস্থা। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় এ খাদ্য সামগ্রী বিতরন শুরু হয়।
খুলনা-২১ বিজিবি দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের ডেপুটি রিজিয়ন কমান্ডার কর্নেল আমিরুল ইসলাম পিএসসির নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন ২১ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল মনজুর-ই ইলাহী, উপ- অধিনায়ক মেজর সোহেল এবং এডি লিয়াকত হোসেন প্রমুখ।
খুলনা-২১ বিজিবির উপ অধিনায়ক  মেজর সোহেল জানান, বিদ্যানন্দন ফাউন্ডেশন নামে একটি বেসরকারী সংস্থা আমাদের মাধ্যমে এ খাদ্য সামগ্রী বিতারন করেছেন। সুষ্টু ভাবে বিতারনের জন্য ওই ফাউন্ডেশন বিজিবির সহযোগিতায় এসব খাদ্য সামগ্রী বিতারন করেন। খাদ্য সামগ্রী বিতারন এলাকা ছিল, দৌলতপুর, পুটখালী, পাঁচভুলাট, অগ্রভুলাট, কায়বা, রুদ্রপুর।

নূরুজ্জামান  ফারুকী:  নবীগঞ্জ উপজেলার নবীগঞ্জ-শাখোয়া সড়কের মদনপুর এলাকায় পিকআপ ভ্যানের চাপায় তানজিদা আক্তার (৪) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার (৫মে) বিকেল ৪টার দিকে নবীগঞ্জ পৌর এলাকার মদনপুর নামক স্থানে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত তানজিদা উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের ছোট শাখোয়া গ্রামের সফি মিয়ার কন্যা।
জানা যায়, উল্লেখিত সময় নবীগঞ্জ পৌর এলাকার মদনপুর নামক স্থানে রাস্তার উপর থাকা তিরপালের নিচে লুকোচুরি খেলছিল তানজিদাসহ কয়েকজন শিশু। ওই সময় নবীগঞ্জ থেকে শাখোয়াগামী একটি পিকআপ ভ্যান উল্লেখিত স্থানে পৌঁছামাত্রই তিরপালের নিচে লুকোচুরি খেলায় লুকিয়ে থাকা তানজিদাকে চাপা দেয়। এতে তানজিদা গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ  শ্রীমঙ্গল শহরের শ্যামলী আবাসিক এলাকা নিবাসী সেন্ট্রাল রোডের বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী মরহুম সৈয়দ তালেব আলীর বড় ছেলে ও লন্ডন প্রবাসী সৈয়দ মোশারফ আলী মনি’র বড় ভাই শহরের সেন্ট্রাল রোডের ব্যবসায়ী সৈয়দ মোকাদ্দেস আলী মিন্টু (৪৫) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার বিকাল ৪.৩০. মিনিটের সময় সিলেটে উসমানী মেডিকেল হাসপাতালে ইন্তেকাল করিয়াছেন।ইন্না-লিল্লাহ ওয়া ইন্না-লিল্লাহ রাজিউন।তিনি স্ত্রী, এক ছেলে,এক মেয়েসহ অগণিত আত্মীয় স্বজন ও বন্ধুবান্ধব রেখে গেছেন।

মরহুমের প্রথম জানাজা নামাজ আজ রাত ১১ ঘটিকায় শ্যামলী আবাসিক এলাকা জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়।  শুক্রবার বা’দ জুমা কালিয়ার গাও,মৌলভীবাজারে দ্বিতীয় জানাজা শেষে গ্রামের বাড়ির স্থানীয় কবর স্থানে মৃত দেহের দাপন সম্পন্ন হবে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc