Thursday 2nd of April 2020 08:59:40 PM

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় ৪৪জন প্রবাসীরা বাংলাদেশি নাগরিক দীর্ঘদিন  ভারত,সিঙ্গাপুর,দুবাই,কাতার,ওমানসহ বিভিন্ন দেশ থেকে অবস্থান করে নিজ নিজ বাড়িতে ফিরেছেন। কিন্তু তারা করোনাভাইরাসের ঝুঁকিমুক্ত কি না সে বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোন রকম শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা বা অবহিত করেননি। ফলে সবার মাঝে
উৎবেগ আর উৎকণ্ঠা বিরাজ করছিল।
বৃহস্পতিবার প্রবাস ফেরত ৪৪ জনের মধ্যে ২৭ জনের খোঁজ পেয়ে তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। সেই সাথে তাদেরকে নজরদারীতে রেখেছেন উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে থাকা সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সমন্বয়ে গঠিত মেডিকেল টিম ও উপজেলা প্রশাসন।
২৭ জন প্রবাসী খোঁজ পেয়ে তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে নিশ্চত করেন,তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আতিকুর রহমান।
জানা যায়,গত বুধবার (১৮,মার্চ) রাজধানীর হযরত শাহজালাল (রহঃ) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও সিলেট এম এ জি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে এ তালিকাটি জরুরি ই-মেইল বার্তায় ৪৪জন বিদেশ ফেরত বাংলাদেশির তালিকা প্রেরণ করা হয়।
এই তালিকা একই দিনে ই-মেইলে তাহিরপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ওসি বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে।
পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানান,গেলো ১ মার্চ থেকে ১৭মার্চ পর্যন্ত সুনামগঞ্জে এসেছেন ২ হাজার ২৮৮ জন প্রবাসী। যার মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ৪৩৯, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ৫৩, ছাতক উপজেলায় ৫৮৭, দোয়ারাবাজার উপজেলায় ২১৬, জগন্নাথপুর উপজেলায় ৫১২, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ২৫, দিরাই উপজেলায় ১৭৯, শাল্লা উপজেলায় ২১, তাহিরপুর উপজেলায় ৪৪, জামালগঞ্জ উপজেলায় ৭৯, ধর্মপাশায় উপজেলায় ৫৫ এবং মধ্যনগর থানা এলাকায় ১৩জন প্রবাসী তাদের নিজ নিজ উপজেলায় এসেছেন।
তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আতিকুর রহমান জানিয়েছেন,এ পর্যন্ত ২৭ জনের সন্ধান  পেয়ে স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন যৌথ ভাবে তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে এবং নজরদারীতে রাখা হয়েছে। অন্যান্যদের সন্ধানেও প্রশাসনিক তৎপরতা অব্যাহত আছে।
বৃহস্পতিবার তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পকিল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ ইকবাল হোসেন বলেন,উপজেলায় বিদেশ ফেরত বাংলাদেশিদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ আর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থাকা আইসোলেশন ওয়ার্ডে নিয়ে এসে ভর্তি করার পর জরুরি ভিত্তিতে রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা বিভাগে (আইইডিসিআর)যোগাযোগ করে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।
অন্যদিকে, প্রবাসীদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সুনামগঞ্জে আসা সকল প্রবাসীদের তালিকা প্রস্তুত করা জন্য এবং যে প্রবাসীরা সুনামগঞ্জে এসেছেন তারা নিজ উদ্যোগ স্থানীয় প্রশাসন ও ইউনিয়ন এবং থানায় যোগাযোগ করার নির্দেশ প্রদান করে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে জেলা প্রশাসন।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ বলেন, এখন পর্যন্ত সুনামগঞ্জে ২ হাজার ২৮৮ জন প্রবাসী এসেছেন। যারা এসেছেন তাদের অনেক হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন না। তাই আমরা তাদের খোঁজে সকল প্রবাসীদের নিবন্ধনের আওতায় নিয়ে আসছি। যারা হোম কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম মানবেন না তাদেরকে সংক্রামক রোগ আইনের মাধ্যমে শাস্তি প্রদান করা হবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে সকল বাজারের ওষুধ, কাঁচামাল ও মুদি দোকান বাদে সব ধরনের দোকানপাট ও গণপরিবহন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। বিষয়টি প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম।

এর আগে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে দুই ঘণ্টাব্যাপী আলোচনা সভার আয়োজন করে শিবচর উপজেলা প্রশাসন। সভায় উপজেলাবাসীকে করোনাভাইরাস মুক্ত রাখতে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সভায় জানানো হয়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে থেকে শিবচর উপজেলার বাজারগুলোর মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান ব্যতীত সকল দোকান বন্ধ থাকবে। সব ধরনের গণজমায়েতের স্থান, বিয়ে, মাহফিল, রাজনৈতিক সমাবেশ, ধর্মীয় অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে এবং সব ধরনের গণপরিবহন, নসিমন, করিমনসহ যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

শিবচরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সামাসুদ্দিন খান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা আক্তার, শিবচর পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান, শিবচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সেলিম, সহকারী পুলিশ সুপার (শিবচর সার্কেল) মো. আবির হোসেন প্রমুখ।

ইউএনও আসাদুজ্জামান বলেন, ‘শিবচর উপজেলায় সদ্য বিদেশ থেকে অন্তত ছয় শ চৌষট্টি জন মানুষ এসেছে। এদের প্রত্যেকেই ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বাধ্য করতে হবে। আপনাদের আশপাশে সদ্য বিদেশ ফেরত কোনো ব্যক্তি থাকলে উপজেলা প্রশাসন অথবা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হটলাইন নম্বরে ফোন করবেন। এ ছাড়া আমরা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকার ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।’ তিনি আরও বলেন, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া গণপরিবহন এড়িয়ে চলুন। বাসার বাইরে গেলে মাস্ক ব্যবহার করুন। নিজে সতর্ক থাকুন অপরকে সতর্ক করুন।

জানতে চাইলে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে সকল বাজারের ওষুধ, কাঁচামাল, মুদি দোকান বাদে সকল দোকানপাট ও গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। তবে লকডাউনের বিষয় এখনো আমরা কোনো নির্দেশনা পাইনি।’ সূত্র প্রথম আলো

নিজস্ব প্রতিনিধি:  পৃথিবীব্যাপী যখন করোনাভাইরাস আতঙ্কে বিভিন্ন জনগোষ্ঠী নাকাল তখন বাংলাদেশ হয়ে উঠেছে অভয়ারণ্য। আন্তর্জাতিক আইন ও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করছে অনেকেই। অন্যদিকে সমসাময়িক আতঙ্ককে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে আবেগের বশে সদ্য আসা প্রবাসীরা ঘোরাফেরা করছে স্বজনদের বাড়িতে, হাটে-মাঠে-ঘাটে জনবহুল এলাকাতে ফলে একদিকে যেমন তাদের নিজেদের জীবনের ঝুঁকি বাড়ছে অন্যদিকে পরিবারসহ অন্যান্যদের ঝুঁকি বেড়ে যাচ্ছে। এরই প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের প্রশাসন দেরিতে হলেও কচ্ছপ গতিতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে করোনা ভাইরাস এর ছোবল থেকে সচেতন করে জনগণকে রক্ষা করতে।এরই প্রেক্ষিতে নিচে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের এস পি ফারুক আহমেদ পিপিএম বার এর সচেতনমূলক ঘোষণাটি সাধারণ মানুষের কল্যাণে প্রকাশ করা হলো। ঘোষণাটি নিম্নরূপ-

“সম্প্রতি বিদেশ ফেরত যে সকল সম্মানিত প্রবাসী ভাই-বোনেরা মৌলভীবাজার জেলায় অবস্থান করছেন আপনাদের প্রতি যথাযথ সম্মান এবং ভালাবাসা রেখে অনুরোধ জানাচ্ছি যে, বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করেছে। বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়েছে। এমতাবস্থায়, আপনাকে আপনার সন্তান, পরিবারসহ সর্বোপরি বাংলাদেশকে নিরাপদ রাখার বৃহত্তর স্বার্থে নূন্যতম ১৪ (চৌদ্দ) দিন যথানিয়মে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। আমরা বিশ্বাস করি, আমাদের সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে করোনা ভাইরাসকে প্রতিরোধ করতে পারবো ইনশাল্লাহ।

সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক মৌলভীবাজার জেলায় যাদের “হোম কোয়ারেন্টাইনে” থাকার কথা তারা এর লংঘন করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ব্যাপারে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে বিদেশ ফেরত সচেতন দেশপ্রেমিক প্রবাসী ভাই-বোনদের কাছে বিনীতভাবে সহযোগিতা কামনা করা হচ্ছে।

আমাদের সকলের নিরাপত্তার জন্য সদ্য বিদেশ ফেরত কোন প্রবাসী ভাই/বোনকে “কোয়ারেন্টাইন” লংঘন করা দেখা মাত্র স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সংশ্লিষ্ট থানা ও মৌলভীবাজার পুলিশ কন্ট্রোলরুমকে অবহিত করুন।

আসুন আমরা সচেতন হই, নিজে সুস্থ থাকি, অন্যকেও সুস্থ রাখি।

জরুরী প্রয়োজনে :-
জেলা পুলিশ, মৌলভীবাজার কন্ট্রোল রুমঃ ০১৭১৩৩১০৯৪৯, ০৮৬১-৫৪৩৪২
সিভিল সার্জন, মৌলভীবাজার এর নম্বর-০১৭১১৭০৫৩১৫

প্রচারে : জেলা পুলিশ, মৌলভীবাজার।”

উল্লেখ্য, এছাড়াও মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলসহ বিভিন্ন উপজেলায় খাদ্যদ্রব্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধি ও মজুদ করলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি প্রদান করেছেন।

উপরোল্লিখিত বিষয়ে স্থানীয় পুলিশ কন্ট্রোল রুম,স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রসহ,স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে যে কোন অভিযোগ করার জন্য মাইকিং পরিচালনা করে বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন জেলা পুলিশের এই কর্মকর্তা।

ভারত সরকার আবারও বলেছে, বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা হোমিওপ্যাথি বা আয়ুর্বেদ ওষুধ দিয়ে কোভিড-১৯ মোকাবেলা করা যাবে।

করোনাভাইরাস

চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে দেয়া প্রথম এক উপদেশ বার্তায় ভারতের বিকল্প চিকিৎসা বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ কথা জানিয়েছিল। এ ছাড়া উপসর্গ ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে ইউনানি ওষুধ ব্যবহারের পরামর্শও এতে দেয়া হয়। এ বিকল্প চিকিৎসাধারা ওষুধ ব্যবহার করে কোভিড-১৯’এর চিকিৎসা করার জন্য দ্বিতীয় দফা উপদেশ দেয়া হয় চলতি মাসের ৬ তারিখে। ভারতের সব প্রদেশ এবং ইউনিয়ন টেরিটরির প্রধান সচিবালয় পাঠান হয় এটি।

চার পাতার এ উপদেশ বার্তায় কোভিড-১৯’এর চিকিৎসার জন্য হোমিওপ্যাথিক ওষুধ আর্সিকাম অ্যালবাম ৩০ প্রয়োগের পরামর্শ দেয়া হয়। শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণে এ ওষুধ হোমিও চিকিৎসকরা সাধারণত ব্যবহার করেন।

আমচি বা সোয়া-রিগা’য় ব্যবহৃত কিছু ওষুধ

এতে, কোভিড-১৯ ঠেকাতে যোগাসন এবং প্রাণায়ামের পাশাপাশি তুলসী পাতা, আদা সেঁচা এবং হলুদ দিয়ে ফুটানো পানি মাঝে মাঝে খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। যোগ্য যোগগুরুর নজরদারিতে যোগাসন এবং প্রাণায়াম করতে বলা হয়েছে। এতে, অন্যান্য বিকল্প চিকিৎসাধারায় প্রচলিত ওষুধ ব্যবহারের পরামর্শও সুনির্দিষ্ট ভাবে দেয়া হয়।

প্রথম দফায় আয়ুস থেকে এ পরামর্শ দেয়ার পর তা ভারতজুড়ে তীব্র সমালোচনার ঝড় তুলেছিল।irna

এস এম সুলতান খান চুনারুঘাট: চুনারুঘাট উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের কাটুয়ামারা গ্রাম সংলগ্ন খোয়াই নদীর পাড়ে অবস্থিত বড় জাম গাছের নিচ থেকে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে অজ্ঞান অবস্তায়  “টিম চুনারুঘাট থানা”  উদ্ধার করেছে। উদ্ধারকৃত ব্যাক্তিকে  প্রথমে চুনারুঘাট থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করেন। পরে   উন্নত চিকিৎসার জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ জানায়,গতকাল বিকালে উপজেলার ওই স্থানে  এক যুবক অজ্ঞান অবস্তায় পড়ে আছে বলে স্থানীরা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজমুল হককে খবর দেয়। খবর পেয়ে ওসি শেখ নাজমুল হক ও ওসি তদন্ত চম্পক দামসহ দ্রুত একদল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞান অবস্তায় যুবককে উদ্ধার করে চুনারুঘাট হাসপাতালে ভর্তি করেন।
কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে হবিগঞ্জ  সদর আধুনিক হাসপাতালে রেপার করলে, ওসি শেখ নাজমুল হক ও ওসি তদন্ত চম্পক দাম রোগিকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। পরিচয় ও ঠিকানা পেলে চুনারুঘাট থানাকে জানানোর জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন ওসি শেখ নাজমুল হক। এই হল জনবান্দব পুলিশ অফিসারদ্বয়।

এম ওসমান, বেনাপোল প্রতিনিধি : ‘নিজে সচেতন হই, অন্যকে সচেতন করি, তাহলে রক্ষা পাবে পরিবার, সমাজ ও দেশ’-এ শ্লোাগানকে সামনে রেখে দেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর বেনাপোলের বিভিন্ন স্থানে করোনাভাইরাস সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করার লক্ষে জনসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার দিনব্যাপী বেনাপোলের ফ্রেন্ডস অরগানাইজেশন-৯৮ নামের একটি সংগঠন এই লিফলেট বিতরণ করেন।
বেনাপোল পৌর শহরের বেনাপোল বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে আনুষ্ঠানিক এ কার্যক্রম শুরু করা হয়। পরে বেনাপোল মরিয়ম মেমোরিয়াল বালিকা বিদ্যালয়, বেনাপোল মদিনাতুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা ও বেনাপোল বাজারে হ্যান্ড লিফলেট বিতরণ করা হয়।
এ সময় সংগঠনের সভাপতি হাফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম উজ্জল বলেন, সকলকে সচেতন করতে আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।
তারা আরো বলেন, আমরা সচেতন হই এবং অন্যকে সচেতন করি। মানুষকে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে আমাদের এ ক্ষুদ্র প্রয়াস। এর মাধ্যমে মহান আল্লাহ তায়ালা দেশ ও জাতিকে এই মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে হেফাজত করুক। মানুষ যেন করোনা ভাইরাস নিয়ে গুজব না ছড়ায় সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। করোনা ভাইরাস এর বিষয়ে সকলকে সচেতন করার অনুরোধও জানান তারা।

এম ওসমান : যশোরের শার্শায় জমি আছে ঘর নাই ও দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় এবং দূর্যোগ ব্যস্থাপনা মন্ত্রণালয় অতি দরিদ্র পরিবারে মাঝে ১টি করে বাসগৃহ নির্মাণ করে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে ৩৬৬ পরিবারের মাঝে মঙ্গলবার দুপুরে এসব ঘর প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন।
পাকা ঘর পেয়ে খুশি হত দরিদ্র এসব পরিবার। তাই সরকারের এমন উদ্যেগকে স্বাগত জানিয়েছেন তারা।
যশোরের শার্শা উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে হত দরিদ্রদের দুর্দশা লাঘবে জমি আছে ঘর নাই ও দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় এসব পাকা বাড়ি তৈরি করে দিয়েছেন সরকার। জমি আছে ঘর নাই প্রকল্পে ৩ শত ৩৩টি ও দূর্যোগ সহনীয় প্রকল্পে আওতায় ৩৩টি পরিবারকে ঘর দেওয়া হয়েছে।
রোদ বৃষ্টি ঝড়ে ভাঙ্গা চুড়া ঘরে অনেক কষ্টে দিন যাপন করা মানুষ গুলো কখনো কল্পনা করতে পারেনি এমন বাড়িতে তারা বসবাস করতে পারবেন। এমন পরিস্থিতিতে নতুন বাড়ি পেয়ে খুশি তারা।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নুরুজ্জামান, জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদি হাসান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া ফেরদৌস, নাভারণ সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল ইমরান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) খোরশেদ আলম চৌধুরী, শার্শা থানার ভাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মাহমুদ আল্ ফরিদ ভুইয়া,  উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার ও সাংবাদিকবৃন্দ প্রমূখ।

দেশে ক্রমশ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আরও তিন জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ জন। নতুন তিন জনের মধ্যে একজন নারী, দুই জন পুরুষ। তারা তিন জন একই পরিবারের সদস্য। ইতালিফেরত আক্রান্ত এক ব্যক্তির সংস্পর্শের মাধ্যমে তারা তিন জন আক্রান্ত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ।

হোম কোয়ারেন্টাইনে যারা থাকবেন তাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে আবুল কালাম আজাদ বলেন,‘জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাবেন না।’

তিনি বলেন, ‘ইতালি, ইরান ও স্পেনে আক্রান্তের সংখ্যা এখনও বেড়ে যাচ্ছে। ইউরোপ এখনও দুর্যোগপূর্ণ এলাকা।’

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক বলেন, ‘বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা আজকের তিনজনসহ ১৭ জন। আইসোলেশনে আছেন ১৯ জন এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৪৩ জন।

দেশে বিদেশ ফেরতদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে শুক্রবার থেকে ব্রিটেনের সব স্কুল পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকার ঘোষণা দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। স্কুল বন্ধের পাশাপাশি আগামী মে ও জুন মাসে অনুষ্ঠিতব্য নির্ধারিত পরীক্ষাগুলোও স্থগিত বলে ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। গতকাল সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন। এই ঘোষণার সময়ই এই দুর্যোগ মোকাবেলায় লন্ডনের রাস্তায় নামানো হয়েছে কয়েক হাজার সেনাসদস্য। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ২০ হাজার সেনাসদস্যকে। লন্ডনের ৪০টি পাতালরেল স্টেশন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি রাতে আন্ডারগ্রাউন্ড বন্ধ থাকবে। সুপারস্টোরগুলোও ২৪ ঘণ্টার পরিবর্তে রাত ১০টা পর্যন্ত চালু রাখা হয়েছে।

পাবলিক বাস-ট্রেন চালু থাকলেও তা সীমিত হয়ে আসবে। শুধুমাত্র ডাক্তার নার্স বা সেবা প্রদানকারীদের জন্য এই গণপরিবহন চালু থাকবে।
লন্ডনের মেয়র খুব জরুরি না হলে নগরবাসীকে গণপরিবহন ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়েছেন। এছাড়া অপ্রয়োজনীয় চলাফেরা বন্ধ করতে উপদেশ দেয়া হয়েছে। বড় বড় মসজিদ, গীর্জা বন্ধ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে বিশিষ্ট ওলামেয়া কেরামগণ সম্মিলিত সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত মসজিদে নামাজ আদায় বন্ধ থাকবে। বাড়ি ভাড়া ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরতদের জন্য ঘোষণা করেছেন প্রণোদনা। এসব পদক্ষেপের মাধ্যমে লন্ডনও লক ডাউনের দিকে যাচ্ছে বলেই ধারণা করছেন সবাই।
উল্লেখ্য মঙ্গলবার পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছিল ৭১। গত ২৪ ঘন্টায় তা বেড়ে ১০৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে ৯৯ জনই ইংল্যান্ডের। আর পরীক্ষার পর ২,৬২৬ জনের মধ্যে করোনার লক্ষণ তথা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এদিকে, বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ছাড়িয়ে গেছে এবং মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৮ হাজার। তবে করোনার সূতিকাগার চীনে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ক্রমশ কমছে।
এভাবে অন্যান্য ইইউ দেশের মতো লন্ডনও লক ডাউন করা হবে, যদি বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, এটাই সংক্রমণ ও মৃত্যু কমিয়ে রাখার একমাত্র পথ হয়, বলেছে ডাউনিং স্ট্রিট সূত্র।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc