Tuesday 7th of April 2020 04:09:42 AM

এম এস জিলানী আখনজী, চুনারুঘাট থেকেঃ মাছে-ভাতে বাঙালির জীবনে মাছ যখন হারিয়ে যেতে বসেছে তখন দেশের বিল আর খালে মাছ ধরা উৎসবের খবর অনেকটাই রূপকথার গল্পের মতন। দিনে দিনে ভরাট হয়ে যাচ্ছে পুকুর-ডোবা থেকে শুরু করে বিল-ঝিল পর্যন্ত।

এমন কি জলজ্যান্ত নদ-নদীও এই দখল প্রক্রিয়ার বাইরে নয়। মাছের চলাচলের ব্যবস্থা না রেখেই তৈরি করা হয় অপরিকল্পিত বাঁধ আর রাস্তা নির্মাণ, একদিকে যেমন মাছের প্রাকৃতিক আবাসের বৈশিষ্ট্যকে ধ্বংস করেছে অন্যদিকে বিলের মত জলাশয়ে মাছ চাষ প্রযুক্তির প্রসার বর্তমানে প্রাকৃতিক জলাশয়ের মাছের বৈচিত্রকে করছে কোণঠাসা।

তবুও এক সময়ের বহুল প্রচলিত উৎসবটি এখনও যে একেবারে হারিয়ে যায় নি তাই বা কম কি! অবশ্য সার্বিক পরিস্থিতিতে বিলে মাছ ধরা উৎসব অনেকের কাছেই মাছের জীব-বৈচিত্রের জন্য একটি হুমকি স্বরূপও মনে হতে পারে, কিন্তু বাপ-দাদার সময় থেকে চলে আসা এই উৎসব নিশ্চিতভাবেই ততদিন চলবে যতদিন মাছ প্রাপ্তির খাতা শূন্য না হয়। প্রধানত ছিটকি আর টেলা জাল নিয়ে মাছ ধরায় নেমে পরে গায়ের শত-শত ছেলে, বুড়ো, যুবক। সাথে থাকে খলুই হাতে ছোট্র শিশুরাও। অনেকে আবার ছিটকির সারির পেছনে পেছনে টেলা জাল হাতে নিয়ে নেমে পড়ে। যার ছিটকি বা টেলা জাল কিছুই নেই সেও নেমে পড়ে খালি হতে।

সে সময়ে দেখা হয় বিভিন্ন গ্রামের মানুষের সঙ্গে। চলে একে-অপরের সঙ্গে কুশল বিনিময় আর হাসি-ঠাট্টা। দিন শেষে কই, মাগুর, পুটি, শিং, চিংড়ি, পুঁটি মাছ সহ হরেক রকম মাছে ভরে উঠে খলুই। সারাদিনের কাদা-পানি মাখা মানুষটিকে চেনাই দায় হয়ে পড়ে। এ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে পরিচিতজনদের মাঝে আর বাড়ি ফিরে নারী-মহলে চলে হাসি-ঠাট্টা আর রসিকতা। এভাবেই শেষ হয় দিনব্যাপী মাছ ধরা উৎসব। এরই ধারাবাহিকতায় হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের নালুয়া চা বাগানের ডুলনা বাংলা বিলে মাছ ধরার উৎসব জমে উঠে।

আজ রবিবার (৮ই মার্চ) ভোর থেকে মাছ ধরতে গায়ের শত-শত লোকজন জাল হাতে নিয়ে আসতে থাকে। সারাদিন মাছ ধরা চলবে বলে জানান স্থানীয় বাগানের ঠিলা বাবু ফারুক আহমেদ। প্রতি বছরের মত এবারও চা শ্রমিক এবং আশ-পার্শের লোকজন জড়ো হয়ে মাছ ধরতে আসেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য নটবর রোদ্রপাল জানান, ডুলনা বাংলা বিলে এবার কই, মাগুর, পুটি, শিং, চিংড়িমাছ সহ অনেক প্রজাতির মাছ পাওয়া গেছে। শত-শত মানুষের ভিড়ে এক মিলন মেলায় পরিনত হয় প্রতি বছর।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবেদ হাসনাত চৌধুরী সনজু বলেন, সৌন্দর্যের এক লিলাভুমি আহম্মদাবাদ ইউনিয়ন। যেখানে মনিপুরী, চা শ্রমিক, ত্রিপুরা, সাওতাল সহ অনেক লোকজনের বসবাস। মাছ ধরা উৎসব সহ অনেক ধরনের উৎসব এখানে হয়ে থাকে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা থাকলে বাংলাদেশে শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন হবে চুনারুঘাট উপজেলার আহম্মদাবাদ।

তাহিরপুর(সুনামগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ মুজিব বর্ষ উদ্যাপনে তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি সভা অনুষ্টিত।রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স সংলগ্ন তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগ সিনিয়র সহ সভাপতি আলী মর্তূজার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন,সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য মোতাহার হোসেন আখঞ্জি শামীম।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন,তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম,সাংগঠনিক সম্পাদক এখলাছুর রহমান তারা মিয়া,কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান,তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক স্বপন কুমার রায়,দপ্তর সম্পাদক রমেন্দ্র নারায়ন বৈশাখ,সহ দপ্তর সম্পাদক শাহীন রেজা,সদস্য সেলিম আখঞ্জি,বাদল দেবনাথ,রাসেল মিয়া,তাহিরপুর সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি শাহিনুর রহমান,জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সহ সভাপতি আবুল খায়ের,উপজেলা শ্রমিকলীগ আহবায়ক বিলাল আমিন, যুগ্ম আহবায়ক মতিউর রহমান,উপজেলা কৃষকলীগ আহবায়ক জিল্লুর রহমান,যুগ্ম আহবায়ক ওয়াহিদ খসরু,শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি সেলিম ইকবাল,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারন সম্পাদক এমরান হোসেন ভীপক,মুক্তিযোদ্ধা সন্তান এমদাদনূর,উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আবুল বাশার,উপজেলা তাতীলীগ সভাপতি আবুল কালাম,কৃষকলীগ নেতা জুলহাস মল্লিক,দুলাল মিয়া,যুবলীগ নেতা ওবায়দুর রহমান,ছাত্রলীগ নেতা রোমান আহমদ তুষা,শাহরুখ হাসান পলক প্রমূখ।

প্রত্যেককে এখনই মাস্ক পরে ঘুরে বেড়াতে হবে,এমন পরিস্থিতি হয়নি সুতরাং আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই,তবে সাবধান থাকা উচিত।

দেশে এই প্রথম তিনজন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।

আজ রোববার বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর মহাখালীতে আইইডিসিআর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, ইতালি প্রবাসী দুই ব্যক্তি দেশে আসার পর তাদের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ পাওয়া যায়। দ্রুত তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তিনি আরও বলেন, গতকালই (শনিবার) আমরা আক্রান্ত ব্যক্তিদের কন্টাক্ট ট্রেসিং (আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা) করেছি। তাদের রক্তের নমুনাও পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্য থেকে আরও একজনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে করোনা শনাক্তকরণ পরীক্ষা

ডা. ফ্লোরা জানান, আক্রান্তদের মধ্যে একজন নারী, দু’জন পুরুষ। এদের বয়স ২০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে।

তিনি আরও জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া তিন জনের বাইরে আরও তিন জনকে কোয়ারেনটাইন করে রাখা হয়েছে। তাদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। আক্রান্ত ও কোয়ারেনটাইনে রাখা ব্যক্তিদের সম্পূর্ণ আলাদা করে রাখা হয়েছে।

তবে সারাদেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বলে সুতরাং আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই,সাবধান থাকা উচিত।

উল্লেখ করেন আইইডিসিআরের পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। তিনি সবাইকে সচেতন হওয়ার জন্য এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, প্রত্যেককে এখনই মাস্ক পরে ঘুরে বেড়াতে হবে, এমন পরিস্থিতি হয়নি। তবে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

সরকারের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে আইইডিসিআর পরিচালক বলেন, আমরা হাসপাতালগুলোতে আইসোলেটেড ইউনিটের ব্যবস্থা করেছি। এখন আমরা আইসোলেটেড হাসপাতাল করা যায় কিভাবে, তা দেখছি। শুধু হাসপাতাল নয়, স্কুল-কলেজ বা অন্য কোথাও-ও হাসপাতাল স্থাপন করা যায় কি না, এ বিষয়ে আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন আইইডিসিআরের প্রিন্সিপাল সায়েন্টিফিক অফিসার ডা. এএসএম আলমগীর।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের বড়দই বিলে জলমহাল নিয়ে বিরোধের জের ধরে আলীম তালুকদার নামে এক যুবক খুন হয়েছে। নিহত যুবক সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের দরিয়াবাজ গ্রামের হানিফ খানের ছেলে।
এঘটনায় সদর থানা পুলিশ আব্দুল্লাহপুর গ্রামের বর্তমান ইউপি সদস্য জহুর আলী, দরিয়াবাজার গ্রামের যশু মিয়া এবং মমিনুল ইসলামকে আটক করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,দীর্ঘদিন ধরে জলমহাল নিয়ে বড়দই বিলের মালিক পক্ষের সাথে বিরোধ চলছিল আলীম তালুকদারের। গত শুক্রবার(০৬,০৩,২০২০)জোরপূর্বক আলীম তালুকদারের মালিকানাধীন বড়দই বিলের হিঙ্গিদাইড় খাল শুকিয়ে মাছ ধরে নিয়ে যায় বিল তদারকিতে থাকা দরিয়াবাজ গ্রামের কয়েকজন লোক। এনিয়ে আলীম তালুকদারের সাথে বড়দই বিলের মালিক পক্ষ ও গ্রামের কিছু লোকের সাথে বিরোধ বাঁেধ।
বিরোধ নিষ্পত্তি করতে শুক্রবার বিকালে আলীমকে বড়দই বিলের খলায় ডেকে নেয় স্থানীয়া। পরে রাত ৮টায় রক্তাক্ত অবস্থায় বিল এলাকা থেকে আলীমকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় আলীমের পরিবার। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আহত আলীমকে সিলেট ওসমানি মেডিকেলে রেফার্ড করেন কর্তব্যরত ডাক্তার।
পরে শনিবার সকালে সিলেট ওসমানি মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় আলীম তালুকদারে। ঘটনার সত্যাতার স্বীকার করে সদর মডেল থানার ওসি মোঃ সহিদুর রহমান বলেন,বিল সংক্রান্ত বিরোধের জেরে আলীম তালুকদার নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। নিহতের পক্ষ থেকে এখনও লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায় নি ।
এদিকে বড়দই বিলের ইজারাদার মনোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের বলেছেন তারা চারদিন আগে বিল ফিশিং করে চলে এসেছেন। তারা এসব ঘটনায় জড়িত নন। তারা এ বিষয়ে কিছু জানেন না।
সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বলেন, দুইদিন আগে যুবক আলীমকে ধরে এনে নির্যাতন করা হয়েছিল।

ভেতরে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তিনি হয়তো ওসমানীতে শনিবার সকালে মারা গেছেন। আমরা এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছি। স্বজনরা বলেছেন,বড়দই বিলের ইজারাদার ও তার লোকজন এর সঙ্গে জড়িত। তাছাড়া তাদের সঙ্গে আলিম তালুকদারের পরিবারের বিরোধ ও মামলা মোকদ্দমাও চলছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এস এম সুলতান খান চুনারুঘাট থেকেঃ  চুনারুঘাটে রেমা- কালেঙ্গা বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য আধুনিক ব্যবস্থাপনা ও বনজ সম্পদ ধ্বংস ঠেকানোর ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত কল্পে স্মার্ট পেট্রোলিং প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (৭ মার্চ ) সকাল ১১টায় বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী ও আবাসস্থল উন্নয়ন-এর আয়োজনে কালেঙ্গা রেঞ্জ কার্যালয়ে পাঁচদিন ব্যাপী এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কালেঙ্গা রেঞ্জ কর্মকর্তা মো: আলাউদ্দিন এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ )মো: মারুফ হোসেন, উপস্থিত ছিলেন বন্যপ্রাণী অপরাধ বিশেষেজ্ঞ প্রশিক্ষক ড. নাছির উদ্দিন প্রমুখ।
প্রশিক্ষণে কালেঙ্গা বনবিটের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও সিটিজি ও সিএনসি সদস্যসহ ১৫জন সদস্যএ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। রেমা-কালেঙ্গা রেঞ্জের স্মার্ট পেট্রোলিং টিমের লিডার মো: আলাউদ্দিন বলেন, কালেঙ্গা স্মার্ট পেট্রোলিং টিম বনজ সম্পদ ও বন্যপ্রাণী রক্ষায় এ প্রশিক্ষণ। স্মার্ট পেট্রোলিংয়ের মাধ্যমে কালেঙ্গা বনদস্যু তৎপরতা এবং অপরাধ কমে আসবে। একইসঙ্গে রেমা- কালেঙ্গা থেকে বিভিন্ন প্রজাতের মুল্যবান কাঠ ও প্রাণী পাচার রোধ করা সম্ভব হবে। সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মারুফ হোসেন বলেন, আমাদের নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য আধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র দেওয়া হয়েছে।
প্রতিটি গ্রুপ বনের মধ্যে নিরবচ্ছিন্নভাবে প্রশিক্ষণ শেষে টহল দিবে। প্রতি টহল দলে আট থেকে ১০ জন সদস্য থাকে। এছাড়া প্রতিটি টহল গ্রুপের সঙ্গে থাকে গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেম (জিপিএস) এবং সাইবার ট্র্যাকার। জিপিএস ও সাইবার ট্র্যাকারের মাধ্যমে টহলকালীন সব কর্মকাণ্ড রেকর্ড করা হয়।পরবর্তীকালে সাইবার ট্র্যাকারের ডাটা ল্যাপটপে আপলোড করা ডাটা ম্যানেজারের মাধ্যমে ডাটা কো-অর্ডিনেটরের কাছে পাঠানো হয়।
বন্যপ্রাণী অপরাধ বিশেষেজ্ঞ ড. নাছির উদ্দিন বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন পূরণের পথে বন অধিদপ্তরের অর্জনকে সমৃদ্ধ করেছে নতুন এই টহল পদ্ধতি। টহলের সময় সার্বক্ষণিকভাবে বন্যপ্রাণী পর্যবেক্ষণ এবং বন/বন্যপ্রাণী অপরাধ অনুসন্ধান করা হয়। অপরাধ সংগঠিত হলে সংশ্লিষ্ট আইন/বিধির নির্দেশনা অনুসরণ করা হয়। সব কার্যক্রম স্মার্ট টহলের লগ বই বা সাইবার ট্র্যাকারে রেকর্ড করা হয়। ডাটা ব্যবস্থাপকের কাছে পাঠানো হয়। ডাটা ব্যবস্থাপক সর্বশেষ ভার্সনের স্মার্ট সফটওয়্যারে ডাটা এন্ট্রি ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে প্রতিবেদন তৈরি করেন। টহল চলাচলের পথের মানচিত্র বা পায়ে হেঁটে অতিক্রান্ত দূরত্ব, টহল কাভারেজ, গ্রেফতারদের তথ্য, আটকদের মালামালের তথ্য, অপরাধ উদঘাটন বা মালামাল আটকের স্থানের মানচিত্র, অবৈধ কার্যক্রমের তথ্য, অপরাধের হটস্পটের মানচিত্র, বন্যপ্রাণীর পর্যাপ্ততা সংবলিত মানচিত্র ও বন্যপ্রাণী হটস্পটের মানচিত্র প্রতিবেদন প্রস্তুতের ভিত্তিতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ পরবর্তী টহল দলকে দিকনির্দেশনা দেয়। অত্যাধুনিক ডিভাইস ও আধুনিক সমৃদ্ধ স্মার্ট পেট্রোল টিমের কার্যক্রমের ফলে রেঞ্জে বন্যপ্রাণী ও মৎস্যসম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে। সুরক্ষিত হয়েছে বনাঞ্চল। উল্লেখ্য ২০১৫ সাল থেকে প্রথম সুন্দরবনের চারটি রেঞ্জে স্মার্ট টিমের কার্যক্রম শুরু হয়। এর পর থেকে দেশের বিভিন্ন বন বিভাগে প্রশিক্ষণটি চালু হয়। পর্যায়ক্রমে সবকটি বিভাগে এ কার্যক্রম শুরু হবে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc