Thursday 2nd of April 2020 09:03:57 PM

আলী হোসেন রাজন,জেলা প্রতিনিধি,মৌলভীবাজারঃ মৌলভীবাজার শহরের এম সাইফুর রহমান সড়কের ব্যাবসায়ী প্রতিষ্টান পিংকি সু-ষ্টোরে মর্মান্তিক অগ্নিকান্ডে নিহত পরিবারকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহায়তা তহবিল থেকে ২ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে।

আজ বুধবার ( ৪ মার্চ ) দুপুরে মৌলভীবাজার পৌরসভার হল রুমে মৌলভীবাজার ৩ আসনের সংসদ সদস্য নেছার আহমদ অগ্নিকান্ডে নিহত পরিবারের হাতে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক তুলে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান,জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মিজবাউর রহমান,পৌর মেয়র ফজলুর রহমান জেলা আওয়ামীলীগেরসহ সভাপতি আকিল আহমদ ও আজমল হোসেন।

অনুদানের জন্য নিহত পরিবারের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়েছে।
উলেখ্য গত ২৮ জানুয়ারী মৌলভীবাজারে পৌর শহরে পিংকি সু-ষ্টোরের জুতার দোকানে অগ্নিকান্ডে পাঁচজন নিহত হয়েছেন ।

আলী হোসেন রাজন ,মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার উলামা পরিষদের আয়োজনে ভারতে মুসলিমদের উপর হামলার প্রতিবাদে বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্টিত হয়েছে। সোমবার (২মার্চ) দুপুরে মৌলভীবাজার টাউন ঈদগাহ প্রাঙ্গনে মৌলভীবাজার উলামা পরিষদের সভাপতি শায়খুল হাদিস আল্লামা আব্দুল বারী ধর্মপুরী এর সভাপতিত্বে ও মাওলানা মুজাহিদ আহমদ এর স ালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রায়পুর টাইটেল মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা গিয়াস উদ্দিন, জামেয়া আরাবিয়ার মুহতামিম মুফতি হাবিবুর রহমান, নূরুল কুরআন মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আহমদ বিলাল । প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে মৌলভীবাজার ঈদগাহ প্রাঙ্গন থেকে একটি বিশাল বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে কুসুমবাগ চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তরা বাংলাদেশে শেখ মুজিবুর রহমানের শতবর্ষ জন্মবার্ষিকী অনুষ্টানে খুনি নরেন্দ্র মুদিকে না আসার আহবান জানান। আর যদি বাংলাদেশ সরকার খুনি মুদিকে অতিথি করে আনতে চায় তাহলে এই ওলি আউলিয়ার দেশে রক্তের বন্যা বয়ে যাবে, খুনি মুদি ও উগ্র হিন্দুত্ববাদী আমাদের মসজিদ তথা আমাদের কলিজায় আঘাত করেছে, তা কখনও বরদাস্ত করা যাবে না। যে কোন মূল্যে মুদিকে এই বাংলার মুসলমান প্রতিহত করবে বলে হুশিয়ারী দেন বক্তারা।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে দুর্নীতি বিরোধী জাতীয় বির্তক প্রতিযোগিতার উপজেলা পর্যায়ে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ হল রুমে উপজেলার ৪০টি শিক্ষার্থী প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৩শতাধিক শিক্ষার্থীরা এই প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ করে। উপজেলা পর্যায়ে প্রতিযোগিতা মূলক বাছাই কমিটি এই প্রতিযোগিতার আয়োজনে করে। উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় ও অক্সফার্ম ইন বাংলাদেশ ও চ্যানেল আইয়ের সহযোগিতায় এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় দুর্নীতি বিরোধী মনোভাব সৃষ্টিতে পরিবারের ভ’মিকাই মুখ্য এই বিষয়ের উপর শিক্ষার্থীরা পক্ষে-বিপক্ষে যুক্তি খন্ডন করে। প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছানাউল ইসলাম।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুস সালাম, ইউডিএফ শোভন কুমার সাহা, উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য) সুমন কুমার সমর, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার ফজলুল হক, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার মোয়াজ্জেম হোসেন, উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার প্রদীপ কুমার সরকার,আ খ ম ফররুখ আহন্মেদ প্রমূখ। প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ী দলের মাঝে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

আগামী ২৩ শে ফাল্গুন রোজ শনিবার চুনারুঘাট নিজ বাসভবনে

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট মধ্য বাজারস্থ পুরাতন সংবাদ পত্র এজেন্ট ও চুনারুঘাট প্রেসক্লাবের অর্থ সম্পাদক রাইরঞ্জন পালের পিতা ক্ষিরোদ রঞ্জন পাল (১০২) বিগত ২২শে মাঘ ১৪২৬বঙ্গাব্দ সকাল ১১.৩৫মিঃ সময়ে নিজ বাসভবনে ইহলোক ত্যাগ করেছেন।

তিনি ২ পুত্র, ২ মেয়ে ও নাতি নাতনীসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন। আগামী ২৩ শে ফাল্গুন রোজ শনিবার শ্রাদ্ধকার্য, দুপুর ১.৩০মিঃ প্রীতিভোজ। এ শ্রাদ্ধকার্য উপলক্ষে আগামী ২৫শে ফাল্গুন রোজ সোমবার অষ্টপ্রহর ব্যাপী হরিনাম সংকীর্ত্তন, দুপুর ১টায় মহাপ্রভুর ভোগরাগ ও ১.৩০মিঃ সময়ে মহাপ্রসাদ বিতরণ। উক্ত শ্রাদ্ধানুষ্ঠান দর্শন ও প্রীতিভোজ এবং মহোৎসবে অংশ গ্রহণ করার জন্য জানানো হয়েছে।প্রেস বার্তা

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া,তাহিরপুর,সুনামগঞ্জঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার এক সময়ের যৌবনবতী ভাঙ্গার খাল নদীতে চড় জেগেছে। নৌ যান চলাচল বন্ধ হয়ে এখন মরা নদীতে পরিনত হয়েছে। এক সময় এ নদীতে ইঞ্জিন চালিত নৌকা চলাচল করলেও গত দুই যুগেরও বেশী সময় ধরে একবারেই বন্ধ রয়েছে। নদীর বুক দিয়ে পায়ে হেঠেই চলাচল করছে স্থানীয় এলাকাবাসী। আর নদীর নাব্যতা হারিয়ে যাওয়ায় নদীর বুকে চর জেগেছে। সেই অংশে এখন ধানের চাষ করেছে স্থানীয় লোকজন। ফলে নাব্যতা হারিয়ে এই নদী এখন শুধুই ইতিহাস।

জানা যায়,উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়ন ও উত্তর বড়দল ইউনিয়নের মধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া নদীটি ভাঙ্গারখাল। এই নদীটি উত্তর বড়দল ইউনিয়নকে আলাদা করেছে। এই নদী দিয়ে দক্ষিন দিকে তাহিরপুর উপজেলাসহ বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার সাথে যোগাযোগ রক্ষা করা হত। তবে বর্তমানে শুধু বর্ষায় সময় নৌকা চলাচল করলেও শুষ্ক মৌসুমে একবারেই বন্ধ। আর উত্তর দিকে এই নদীটি প্রবাহিত হয়ে যাদুকাটা নদীতে মিলিত হত। যাদুকাটা নদী দিয়ে পাশ্ববতি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলারসহ জেলা সদরের সাথে যোগাযোগ সহজ ছিল। কিন্তু কালের আর্বতে এই নদী মুখ (বর্তমানে শিমুল বাগান সংলগ্ন) এখন পলি পরে নদীর বুক বরাট হয়ে যাওয়ায় নদী খনন না করায় শুষ্ক আর বর্ষা মৌসুমে হউক নৌযান চলাচল একবারেই বন্ধ। ফলে নদী পথে কম খরচে উপজেলার ব্যবসা বানিজ্যের প্রান কেন্দ্র বাদাঘাট বাজারে ভৈরব,কিশোরগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানের মালামাল এখানকার ব্যবসায়ীরা আনতে চাইলে নদী পথে আনা সম্ভব হয় না। তাই বাধ্য হয়ে সড়ক পথে মালামাল আনার কারনে খরচের পরিমান বেড়ে যায়। এলাকাবাসীর দাবী দ্রুত এই নদীর বুকের ফসলের মাঠ দখল মুক্ত করে খনন করা জরুরী।

এক সময় এই নদী পথে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা থেকে যাদুকাটা নদী হয়ে বাদাঘাট বাজারে আসা সুহেল আমহদ সাজু জানায়,ছোট বেলায় আমি আমার বাবার সাথে ছোট নৌকা দিয়ে বাদাঘাট বাজারে আসতে হলে সড়ক পথের কোন ব্যবস্থা না থাকায় নৌকাই ছিল একমাত্র ভরসা। ফলে নৌকা দিয়ে যাদুকাটা নদী দিয়ে বর্তমান শিমুল বাগানের সামনে দিয়ে বাদাঘাট বাজারে আসতাম। এখন এই নদী পথ একবারেই বন্ধ হয়ে গেছে।
স্থানীয় বাসীন্দা শফিক মিয়া জানান,নদী খনন না করায় নদীটি মরা নদীতে পরিনত হয়েছে। অনেকেই নদীর ভুকে চড় জাগায় ধানের জমি ও বিভিন্ন ফসল চাষ করছে। নদীটি খনন করলে সবাই উপকৃত হবে।
সমাজ সেবক,বাদাঘাট বাজার বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মাসুক মিয়া জানান,এই নদী পূর্বে নদী পথের নৌযান চলাচল জমজমাট ছিল। খরছের পরিমান ছিল কম। কিন্তু সড়ক পথে খরচের পরিমান অনেক বেশী। কিন্তু দিন দিন নদী ভরাট হওয়ায় কারনে নদীর বুকে চড় জেগেছে। ফলে বাদাঘাট বাজারসহ অন্যান্য বাজারের ব্যবসায়ীরা নৌ-পথে কোন ধরনের মালামাল পরিবহন করতে পারছে না। নদী খনন করা খুবেই প্রয়োজন।
তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল জানান,নদীর নাব্যতা কমে যাওয়ায় খনন করা খুবই প্রয়োজন। খনন করা না হলে নৌ পথের সুফল ভোগ করতে পারবে না ব্যবসায়ীসহ সর্বস্থরের জনসাধারন। আমি ও উপজেলা পরিষদের পক্ষে থেকে এই বিষয়ে সর্বাতœক চেষ্টা করব।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc