Wednesday 29th of January 2020 01:36:55 PM

“উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় চাদাবাজ ও পাথর খেকোদের বিরুদ্ধে কঠোর হস্তে দমনের সিদ্ধান্ত ” 

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি: কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জ পাথর কোয়ারিতে পরিবেশ ধ্বংস করে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনকালে ব্যবহৃত ১৭টি শ্যালো মেশিন ও ২৫০০ ফুট পাইপ ধবংস করেছে টাস্কফোর্স।
সোমবার দুপুরে কোয়ারির লিলাই বাজার ও ১০ নম্বও এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। ধ্বংসকৃত এসব মেশিনের মূল্য ১৪ লক্ষ টাকা। অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমন আচার্য। অভিযানে পুলিশ ও বিজিবি সদস্যরা অংশ নেয়।
অভিযানের পাশাপাশি যান্ত্রিক পদ্ধতিতে পাথর উত্তোলনের বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিংও করা হয়েছে । মাইকিংয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই মর্মে সতর্ক করা হয়েছে যে, প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে কেউ অবৈধ পাথর উত্তোলনের সাথে জড়িত থাকলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হবে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন আচার্য্য জানান, আমরা ধারাবাহিক অভিযানের মধ্যেই আছি। যান্ত্রিক উপায়ে পাথর উত্তোলন বন্ধে এবং ঝুঁকিপূর্ণভাবে পাথর উত্তোলনের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।
এর আগে গত ৯ জানুয়ারি কোয়ারিতে অভিযান চালিয়ে ২৭টি শ্যালো মেশিন ধ্বংস করেছে টাস্কফোর্স। এসময় পাথর উত্তোলনকাজে ব্যবহৃত ২ হাজার ফুট পাইপ আগুনে পুড়ানো হয়। ওইদিন সরকারি কাজে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগে আনোয়ার আলী নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে ৭দিনের কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এছাড়াও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে প্রতিনিয়ত শাহ আরেফিন,ভোলাগঞ্জ ও উতমা পাথর কোয়ারী এলাকায় অবৈধ পাথর উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে আসছে। তারপরও থামছেনা পাথর খেকোদের তান্ডব।

এদিকে আজ সোমবার (১৩ জানুয়ারী) সকাল ১১ টায় উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন আচার্যের সভাপতিত্তে অনৃষ্টিত হয়। সভায় ভোলগঞ্জের ১০ নম্বর, লীলাই বাজার, বাংকার এলাকা,শাহ আরেফিন ও উতমা পাথর কোয়ারীতে পরিবেশ ধ্বংস করে অবৈধ পাথর উত্তোলন কারীদের কঠোর হস্তে দমন ও পাথর খেকো চক্রের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কঠিন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় অভিযোগ করা হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নাম ভাঙ্গিয়ে ভোলাগঞ্জের ১০ নম্বর এলাকায় জৈনক আতাবুরের নেতৃত্বে একদল দুর্বত্ব্য চাদাবাজি করছে।

এ চক্রের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলে পুলিশ দিয়ে সেসকল ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়। সভায় আতাবুর চক্রের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন টিএইচও ডাক্তার মাসুম,ইউপি চেয়ারম্যান শাহ জামাল উদ্দিন, বাবুল মিয়া,ফরিদ উদ্দিন,সিদ্দিকুর রহমান,কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল হোসেন,ওসি সজল কানু,পল্লি বিদুতের ডিজিএম সিরাজুল ইসলাম, সংবাদিক আবিদুর রহমানসহ বিজিবি ও বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকতারা।

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জে তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তে ৭ বছরের শিশু তোফাজ্জল হোসেন হত্যায় সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে পরিদর্শনের সময় রক্তমাখা লুঙ্গি ও দু’টি ভেজা বালিশের কভার উদ্ধার করা হয়েছে।
সোমবার দুপুরে পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি অভিযানিক দল শ্রীপুর (উত্তর) ইউনিয়নের বাঁশতলা গ্রামে অভিযান চালিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া হবি মিয়ার ছেলে রাসেল মিয়ার বসতঘরের কাঠের বাক্স থেকে উদ্ধার করে।  রাসেল মিয়া নিহত তোফাজ্জল হোসেনের সম্পর্কে চাচা।
এসময় তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আতিকুর রহমানসহ পুলিশ কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন। এদিকে দুপুরে রিমান্ড শুনানি শেষ ৭জনকে সন্ধ্যায় তাহিরপুর থানায় আনা হয়েছে।
এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আতিকুর রহমান।
সুনামগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান,শিশুটির নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িতদের সনাক্ত ও এর রহস্য উদঘাটনের জন্য পুলিশ ৭আসামিকে আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে নিয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হবি মিয়ার ছেলে রাসেল মিয়ার বসতঘরের কাঠের বাক্স থেকে থেকে ভেজা একটি রক্তমাখা লুঙ্গি ও দু’টি বালিশের কভার জব্দ করা হয়। শিশু তোফাজ্জল হোসেন হত্যাকাণ্ডও দ্রুততম সময়ে অধিক তদন্তের মাধ্যমে চার্জশিট গঠন করা হবে। খুনিদের কেউ রেহাই পাবে না।

হাবিবুর রহমান খান,জুড়ী প্রতিনিধিঃ জুড়ী উপজেলার পুর্বজুড়ী ইউপির নয়াবাজার স্পোর্টিং ক্লাবের আয়োজনে আজ থেকে শুরু হয়েছে নাসির উদ্দিন আহমেদ নকআউট প্রাইজমানি ফুটবল টুর্নামেন্ট।
নক আউট প্রাইজমানি টুর্নামেন্টের এ আসরে সিলেট বিভাগের মোট ৩২ টি দল অংশ গ্রহন করছে।
নয়াবাজার ঈদগাহ সংলগ্ন মাটে আজ জাঁকজমকপূর্ণ বর্নাঢ্য আয়োজনে শুভ উদ্বোধন করা হয় জনপ্রিয় জমজমাট ফুটবল টুর্নামেন্টের।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মুঈদ ফারুক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বদরুল হোসেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন, জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাশ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রঞ্জিতা শর্মা, পূর্বজুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান ছালেহ উদ্দিন আহমেদ, বড়লেখা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দর,জুড়ী অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি ফ্রিল্যান্স ক্রাইম জার্নালিস্ট এস এম জালাল উদ্দিন, টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল কাদির, সাধারন সম্পাদক মইনুল ইসলাম মইন, ইউপি সদস্য মাসুক আহমদ, ইউপি সদস্য রেনু মিয়া প্রমূখ। এছাড়াও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ প্রতিনিধি,শাল্লা থেকেঃ  শাল্লা উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নে অবস্থিত ভান্ডার বিল। প্রায় ৬৪ হেক্টর জায়গা নিয়ে এর অবস্থান। এর মধ্যে কিছু অংশ চড় পড়ে দ্বিখন্ডিত হয়ে গেছে। মৎস্য আহরণের জন্য এই মৌসুমে পূর্বের অংশের জলমহাল সেচযন্ত্রের মাধ্যমে পানি শুকিয়ে ফেলা হচ্ছে। বেশি মাছ ধরার লোভে ছোট জলমহালগুলো শুকিয়ে ফেলছেন সংশ্লিষ্ট ইজারাদাররা। নীতিমালার কোনো তোয়াক্কা না করেই এমন কর্মকান্ড চলছে সারা উপজেলায়। জলমহাল শুকিয়ে মাছ আহরণে মরিয়া হয়ে উঠেছে আগুয়াই মৌরাপুর মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি। নীতিমালা উপেক্ষা করে মাছ আহরণ করা হলেও উপজেলা মৎস্য অফিসারের কোনো টনক নড়েনি।

মৎস্য অফিসারের দাবী এইগুলো ভূমি অফিস তদারকি করে। তবে জলমহাল শুকানোর বিষয়ে কোনো অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে তিনি জানান।

স্থানীয়রা জানান ভান্ডারবিল জলমহালটি সাবেক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সুবল চন্দ্র দাসের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে সুবল চন্দ্র দাস জানান, এই জলমহালটি গ্রামের মানুষকে দেয়া হয়েছে। তবে জলমহাল শুকানোর বিষয়ে তিনি কিছু জানেননি। বিল শুকিয়ে মাছ ধরার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালানোর দাবি জানান স্থানীয় এক কৃষক। জানা গেছে, প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের সহায়তায় সম্প্রতি ইজারাদারের লোকজন অভিনব এক কৌশল বের করেছে। তারা কিছু লোক ভাড়া করে তাদের কৃষক সাজিয়ে জমিতে সেচ দেওয়ার নাটকের আয়োজন করে প্রশাসনকে বিভ্রান্ত করছে।

তবে ইজারার নীতিমালায় জলমহালের পানি শুকিয়ে মাছ ধরার নিয়ম নেই বরং জলমহাল খনন এবং পারে বৃক্ষ রোপণ করার শর্ত আছে। কিন্তু ওই সব শর্ত কেউ মানে না।

সরেজমিনে ভান্ডারবিল হাওরে গেলে দেখা যায় ছোট শ্যালো মেশিনের মাধ্যমে ভান্ডার বিলের একটি অংশের পানি শুকিয়ে ফেলা হচ্ছে। আর এই অংশটুকু শুকিয়ে ফেলা হলে আশপাশের জমিগুলোর ফসল থাকবে হুমকির মুখে।

এম ওসমানঃ যশোরের বেনাপোল বাজারে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে লাইসেন্স আপডেট না থাকা, মেয়াদউত্তীর্ন মালামাল ও স্বাস্থ্য সম্মত পরিবেশ না পাওয়ায় একটি আবাসিক হোটেলসহ মোট ৪টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।
সোমবার বিকাল সাড়ে ৪ টার সময় শার্শার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট (সহকারী ভুমি কমিশনার) খোরশেদ আলম চৌধুরী’র নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।
এসময় বেনাপোল চেকপোষ্টের যাপন নামে একটি আবাসিক হোটেল এর লাইসেন্স এবং মান সম্মত কক্ষের ব্যবস্থা না থাকায় তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এরপর বাজারের সর্দার ফার্মেসীতে মেয়াদ উত্তীর্ন ঔষধ রাখার দায়ে নগদ ৩০ হাজার টাকা, বিপ্লব ষ্টোরে ভারতীয় মেয়াদ উত্তীর্ন কসমেটিক্স পাওয়ায় তাকে ৫ হাজার টাকা ও নবাব ষ্টোরের মুল্য তালিকা ও ট্রেড লাইসেন্স না থাকায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট খোরশেদ আলম চৌধুরী জানান, ভোক্তা অধিকার আইনে এসব ব্যবসায়িদের জরিমানা করা হয়েছে। এরা টাকা দিতে ব্যর্থ হলে বিভিন্ন মেয়াদে এদের দন্ড হতে পারে।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বেনাপোল পৌর স্যানিটারি ইন্সপেক্টর রাশিদা খাতুন ও বেনাপোল পোর্ট থানার এ এস আই জাকির হোসেন।

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার সঙ্গে ইহুদিবাদী ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা জড়িত ছিল। মার্কিন এনবিসি টেলিভিশনের নতুন এক রিপোর্টে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, কাতারে মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের সদর দপ্তর থেকে সন্ত্রাসী হামলা পরিচালনা করা হয় এবং এতে ইহুদিবাদী ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থাকে ব্যবহার করা হয়।

এনবিসি’র রিপোর্ট অনুসারে, জেনারেল সোলাইমানি যে বিমানে করে বাগদাদে যাবেন তার সময়সূচি সিরিয়ার দামেস্ক বিমানবন্দর থেকে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ-কে জানিয়ে দেয়া হয়। জেনারেল সোলাইমানি ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদিল আব্দুল মাহদির সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য বাগদাদ যান।

এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সরাসরি জড়িত দুই ব্যক্তি এবং একজন মার্কিন সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা ৩ জানুয়ারি জেনারেল সোলাইমানির ফ্লাইটের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য নিশ্চিত করে।

ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর জেনারেল সোলাইমানিকে বহনকারী গাড়িতে আগুন ধরে যায়

চ্যাম উইংস এয়ারলাইন্সের এয়ারবাস এ-৩২০ বাগদাদ বিমানবন্দরে অবতরণ করলে সেখানে অবস্থান করা মার্কিন গোয়েন্দারা সেন্ট্রাল কমান্ডকে জেনারেল সোলাইমানির গন্তব্য নিশ্চিত করে। এরপরই আমেরিকার তিনটি ড্রোন আকাশে অবস্থান নেয়। ইরাকে মার্কিন বাহিনীর একচ্ছত্র আধিপত্য থাকায় সেখানে এসব ড্রোনকে চ্যালেঞ্জ করার মতো কেউ ছিল না। প্রতিটি ড্রোনে চারটি করে হেলফায়ার ক্ষেপণাস্ত্র ছিল।

জেনারেল সোলাইমানিকে বহন করা বিমান অবতরণ করলে তাকে অভ্যর্থনা জানানোর জন্য বিমানের সিঁড়ির কয়েক ধাপ উপরে ওঠেন ইরাকের পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিট বা হাশদ আশ-শাবির সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আবু মাহদি আল-মুহান্দিস।

বিষয়টি আমেরিকার কয়েকজন কর্মকর্তা দেখেন। ভার্জিনিয়ার সদর দপ্তর থেকে সিআইএ’র পরিচালক জিনা হাস্পেল বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করেন। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার অন্য একটি স্থান থেকে বিষয়টি দেখছিলেন। হোয়াইট হাউস থেকেও বিষয়টি প্রত্যক্ষ করার ব্যবস্থা করা হয় তবে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সে সময় সেখানে ছিলেন না, তিনি ছেলেন ফ্লোরিডাতে।

জেনারেল সোলাইমানি (বামে) ও আবু মাহদি আল-মুহান্দিস

এনবিসি’র রিপোর্টে বলা হয়েছে, দুই কমান্ডার চার দরজার একটি গাড়িতে ওঠেন এবং বাকি লোকজন ওঠেন মিনিভ্যানে। গাড়িগুলো বিমানবন্দর থেকে যাত্রা শুরু করলে মার্কিন ড্রোন সেগুলোকে অনুসরণ করতে থাকে। এসময় গোয়েন্দা সিগন্যাল বিশেষজ্ঞরা সেলফোনের মাধ্যমে তাদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করেন। এনবিসি’র রিপোর্টে বলা হয়েছে, কাতারে অবস্থিত মার্কিন সেন্টাল কমান্ডের তরফ থেকে গাড়ির ভেতরে অবস্থানকারী লোকজনের পরিচয় সম্পর্কে তাদের আর কোনো সন্দেহ ছিল না।

এসময় যারা অভিযান পর্যবেক্ষণ করছিলেন তারা আকস্মিকভাবেই দেখতে পান যে, গাড়িগুলো আগুনের কুণ্ডলিতে পরিণত হয়েছে। জেনারেল কাসেম সোলাইমানি এবং তার সঙ্গীদের হত্যার জন্য মোট চারটি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়।

জিনা হাস্পেল

মার্কিন কর্মকর্তারা এনবিসি টেলিভিশনকে জানিয়েছেন, যে ড্রোন থেকে জেনারেল কাসেম সোলাইমানি এবং তার সঙ্গীদের ওপর হামলা চালানো হয় সেই ড্রোনের শব্দ বন্ধ ছিল না; তবে বাগদাদের মতো শহুরে পরিবেশে সহজেই তা বোঝা যায় নি। মার্কিন কর্মকর্তারা জানান, কয়েকদিন ধরে তারা ইরানি কমান্ডারের গতিবিধি অনুসরণ করছিলেন।

গত বৃহস্পতিবার ইরাকের নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, বাগদাদ বিমানবন্দরের কারা আমেরিকার হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি করেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এছাড়া, সিরিয়ার গোয়েন্দা সংস্থাও চ্যাম এয়ারলাইন্সের দুইজন কর্মীর ব্যাপারে তদন্ত করছে। চ্যাম উইংস এয়ারলাইন্স হচ্ছে একটি বেসরকারি বাণিজ্যিক এয়ারলাইন্স যার সদরদপ্তর দামেস্কে অবস্থিত।

জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ছিলেন বিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের কাছে অত্যন্ত সম্মানিত একজন কমান্ডার। তিনি সিরিয়া ও ইরাকে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশকে নির্মূল করার ব্যাপারে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।পার্সটুডে

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আবদুল মনাফ (৬৭) আর বেঁচে নেই।(ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ৫ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে গেছেন।
তাঁর মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন যুক্তরাজ্যে বসবাসরত জগন্নাথপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি সুজেল শাহ। তিনি জানান,শনিবার (১১ জানুয়ারি) যুক্তরাজ্যের ব্রাইটনে নিজ বাসায় স্থানীয় সময় সাড়ে ৯ঘটিকায় তিনি ইন্তেকাল করেন।
পরবর্তীতে মেয়র মনাফের জানাজা ও লাশ বাংলাদেশে নিয়ে আসার সময়সূচি জানানো হবে বলেও জানান সাবেক এ ছাত্রনেতা।
আওয়ামী লীগের প্রবীণ এ নেতার আত্মার শান্তি কামনা করেছেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন জেলা আ,লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও তাহিরপুর উপজেলার পরিষদ চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু চৌধুরী  বাবুলসহ জেলা লীগের সকল অংঘসঘটনের নেতৃবৃন্দ।
উল্লেখ্য,দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ হয়ে দেশ-বিদেশে চিকিৎসাধীন ছিলেন মেয়র মনাফ। সম্প্রতি তাঁর অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে যুক্তরাজ্যে নেওয়া হয়।

রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার লাল শাপলার রাজ্যের ব্যাপকতা ছড়িয়ে পড়েছে বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। ২০১৫ সনে বাংলাদেশের কয়েকটি জাতীয় দৈনিক, সিলেট থেকে প্রকাশিত সব কয়েটি দৈনিক পত্রিকা এবং বিভিন্ন বেসরকারী টেলিভিশনে ধারাবাহিক কয়েকটি প্রমাণ্য অনুষ্ঠান সম্প্রচার করার পর হতে ডিবিরহাওর এলাকার ৪টি বিল বাংলাদেশের পর্যটদের কাছে পর্যটন স্থান হিসাবে পরিচিতি লাভ করে। তারই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন ফটোগ্রাফি সোসাইটির এক্সিভিশনের মাধ্যমে সিলেটের জৈন্তাপুরের লাল শাপলার বিলটির চিত্র তুলে ধরা হয়।

ইমরান আহমদ সরকারি মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক চিত্রশিল্পী মোঃ খায়রুল ইসলামের মাধ্যমে ভারত বাংলাদেশ বিভিন্ন এক্সিভিশনে শাপলা বিলের ছবি প্রর্দশন করা হয়। অপরদিকে প্রথম আলোর কয়েক বারের প্রথম স্থান অর্জনকারী জাতীয় দৈনিক প্রথম আলোর সিলেটের চিত্রশিল্পী আনিস মাহমুদর অসাধারণ লাল শাপলার ছবি পত্রিকাটির মলাট হিসাবে প্রকাশিত হয়। যার ফলে জৈন্তিয়ার লাল শাপলার রাজ্যেকে পর্যটন স্থান হিসাবে বাংলাদেশের মানচিত্রে দখল করে নেয়। সম্প্রতি সময়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পর্যটকরা লাল শাপলার রাজ্যে এসে লাল শাপলার সাথে নিজের মন বিলিয়ে দেন। বাংলাদেশে ভ্রমন করতে আসা পর্যটকরা একনজর দেখার জন্য লাল শাপলার বিল গুলো পরিদর্শন করেন।
গত ১০জানুয়ারী শুক্রবার সকাল হতে বিকাল পর্যন্ত লাল শাপলার বিল গুলোকে জলরং এর মাধ্যমে বিশ্ববাসীর নিকট রং-তুলির আঁচড়ে লাল শাপলার রাজ্যের চিত্রকর্ম তৈরী করেন জার্মান চিত্রশিল্পী ক্লাউডিয়া, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্টিকালচার বিভাগের লেকচারার জুনায়েদ মোস্তফা, রাশেদ কামাল রাশেদ নিজ নিজ রং-তুলির আচঁড়ে জৈন্তাপুরের লাল শাপলার রাজ্যের বিভিন্ন চিত্রকর্ম ধারন করেন। জুনায়েদ মোস্তফা প্রতিবেদক জানান, জৈন্তাপুর উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে লাল শাপলার বিলের সংক্ষিপ্ত যে ইতিহাস তুলো ধরা হয়েছে তা সম্পুরক ভাবে ভূল তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে যার ফলে ঐহিত্যবাহী এবং পুরাকর্তী স্থানেটি স্থানীয় সহ বিভিন্ন দেশ হতে আগত পর্যটকরা এই অ লের ভূল ইতিহাস জানতেছে, অভিলম্বে লাল শাপলার রাজ্যের ভূল ইতিহাস অপসারন করে প্রকৃত ইতিহাস লিপবদ্ধের দাবী জানান।

রাশেদ কামাল রাশেদ বলেন, আপনাদের মাধ্যমে সরকারের উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানাই এই বিল গুলোর বিভিন্ন অংশে অবৈধ ভাবে দোকান, লাল শাপলা ধ্বংস করে বিলের জমি দখল করে ফসলী জমি তৈরী করা হচ্ছে দ্রুত অবৈধ দখল দারের হাত হতে বিল গুলোকে রক্ষা করতে প্রশাসনের এখনই প্রদক্ষেপ গ্রহন করা প্রয়োজন, অন্যথায় লাল শাপলার বিল গুলো অচিরেই তার সৌন্দর্য্য বিলিন হবে।

তিনি আরও বলেন অচিরেই আমার ছাত্র-ছাত্রীদেরর নিয়ে লাল শাপলার বিলে চিত্রকর্মের উপর প্রশিক্ষনের নিয়ে আসব। জার্মানের চিত্রশিল্পী ক্লাউডিয়া প্রতিবেদককে জানান, বাংলাদেশের দর্শনীয় স্থানের মধ্যে অন্যমত আর্কর্ষনীয় এটি। লাল শাপলা, অতিথি পাখি, সূর্য উদয়-সূর্যস্ত বিষয়টি অকল্পনীয় লাগেছে। অন্যান্য দেশের তুলানায় বাংলাদেশের সিলেটের লাল শাপলার পর্যটন স্থানটি অন্যতম। স্থানটি দেখে বিভিন্ন ভাবে ১০টি চিত্রকর্ম তৈরী করেছি, যাহা বিশ্বের বিভিন্ন আর্ন্তজাতিক এক্সিভিশনের তুলো ধরবেন বলে জানান।

তিনি আরও বলেন বিলে যাতায়াতের রাস্তাটির সংস্কার ও বিল এরিয়ার স্থাপনা সরায়ে নিলে এটি আরও আর্কর্ষনীয় হত।
জৈন্তাপুর পুরার্কীতি ও পর্যটন উন্নয়ন সংরক্ষণ কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইমরান আহমদ সরকারি মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোঃ খায়রুল ইসলাম প্রতিবেদককে জানান, আমরা ইতোপূর্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করি বিলের লীজ বাতিল, পুরাকির্তী সংরক্ষণ এবং লাল শাপলা বিলের প্রকৃত এরিয়া নির্ধারণ করে বিলটি সংরক্ষণ করার।

কিন্তু বিলের লীজ বাতিল করা হলেও অজ্ঞাত কারনে বিলের এরিয়া নির্ধারণ করা হয়নি। ফলে প্রভাবশালী ভূমি খেকু চক্রের সদস্যরা বিলের প্রায় ২ হাজার বিঘা জমি দখল করে বাড়ী নির্মাণ ও লাল শাপলা নষ্ট করে ফসলী জমিতে রুপান্তর করছে। বিলটি প্রকৃত এরিয়া নির্ধারন ও সংরক্ষনের জন্য আমি উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।

হাবিবুর রহমান খান,জুড়ী প্রতিনিধিঃ পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন বলেছেন, ডাক্তারদের সমস্যা তারা সময় নিয়ে রোগী দেখে না। ভারত, সিঙ্গাপুর বা ইউরোপের ডাক্তারা সময় নিয়ে রোগী দেখে। দেশের ডাক্তাররা ২ থেকে ৫ মিনিট করে রোগী দেখেন। কিন্তু ইউরোপের বা লন্ডনের ডাক্তারা ঘণ্টা নিয়ে রোগীদের দেখে। আমাদের ডাক্তারদের সময়ের অভাব। আমি বলব আপনারা সময় নিয়ে রোগীদের দেখবেন। রোববার (১২ জানুয়ারী) দুপুরে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের অন্ত:বিভাগ ও জরুরী বিভাগের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
তিনি বলেন, আপনারা রোগীদের সাথে কথা বললে তারা শান্তি পাবে। আপনাদের মুখের কথায় সে অনেকটা সেবা পেয়ে যায়। আপনারা চেষ্টা করবেন রোগীদের সাথে কথা বলতে। যদিও আপনারা সেভাবে সময় পাননা।
তিনি আরোও বলেন, ভারতের ডাক্তাররা রোগীদের সাথে যে ব্যবহার করেন বা কথা বলেন রোগীরা তাদের কথায় ভালো হয়ে যায়। আপনারা ও সেভাবে রোগীদের সেবা দেওয়ার চেষ্টা করবেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সমরজিৎ সিংহের সভাপতিত্বে ও ডা. ইমরান হোসাইনের পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য বিভাগের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক ডা. দেবপদ রায়, সিভিল সার্জন ডা. শাহাজাহান কবির চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান এম এ মোঈদ ফারুক, নির্বাহি কর্মকর্তা অসীম চন্দ্র বণিক ও পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শ্রীকান্ত দাস।
প্রধান অতিথি আরোও বলেন, ডাক্তারদের আরেকটি সমস্যা তারা রোগীদের টেস্ট দেয়। এই সমস্যা নিয়ে আমরা উচ্চ পর্যায়ে আলোচনা করব। দেখা যায় যে ডাক্তার রোগীর চিকিৎসা পত্রে কি লিখল সেটার ছবি রিপেজেন্টিভরা তুলে। এটা বন্ধ করতে হবে। ডায়াগস্টিক সেন্টারের সাথে ডাক্তারদের সম্পর্ক থাকবে না।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু দাশ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা সর্মা, বিআরডিবি চেয়ারম্যান এম এ সালামসহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার, নার্স, প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিক বৃন্দ।

মিজানুর রহমান চুনারুঘাট থেকেঃ  চুনারুঘাট উপজেলার মুড়াবন্দে ১২০ আউলিয়ার মাজার শরীফের ঐতিহাসিক পবিত্র ওরস মোবারককে উপলক্ষ করে দরগাহ প্রাঙ্গন ও আশপাশের এলাকা সাজানো হয়েছে দৃষ্টি নন্দন রূপে।

আজ সোমবার (১৩ জানুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে তিন দিন ব্যাপী ঐতিহাসিক মুড়ারবন্দ দরবার শরীফে ৬৯৯ তম বাৎসরিক পবিত্র ওরস মোবারক।

হযরত সৈয়দ নাছির উদ্দিন সিপাহশালা (রঃ) সহ ১২০ আউলিয়ার মাজার শরীফ মুড়ারবন্দে প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও তিনদিন ব্যাপী ওরসকে সফল করতে ইতোমধ্যে সকল কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে পুলিশের সাথে আনসার, গ্রাম পুলিশ সহায়তা করবে বলে জানা গেছে। বাড়তি নিরাপত্তার স্বার্থে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজমুল হক জানান, “জোয়া খেলা থেকে শুরু করে অশ্লীল কোনো কিছুই চলবে না পবিত্র ওরস মোবারকে। দুষ্কৃতকারী ও নাশকতাকারীদের শক্ত হাতে দমন করবে থানা-পুলিশ। মাজারের পবিত্রতা রক্ষা ও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে কয়েকদিন আগে থেকেই মাঠে সাদা পোশাকে কাজ করছে পুলিশ। কেউ নাশকতা যাতে সৃষ্টি না করতে পারে, এদিকে আমাদের কড়া নজর থাকবে। মাজারের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। যারা নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চাইবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।”

ওরস উপলক্ষে ৩দিন ব্যাপী মেলার আয়োজন করা হয়েছে। আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে ওরস শেষ হবে বুধবার ১৫ জানুয়ারি।

মুড়ারবন্দ দরবার শরীফের মোতাওয়াল্লী আলহাজ্ব সৈয়দ সফিক আহম্মেদ (সফি) চিশতি জানান, প্রতি বছরের ন্যায় এবারো যাতে শান্তিপূর্ণভাবে ওরস মোবারক সম্পন্ন হয়, এজন্য আমরা সকল কর্মকান্ড ইতোমধ্যে সম্পন্ন করেছি। আশা করছি, ভক্ত আশেকানের উপস্থিতিতে এবারের ওরস সফল ও সার্থক হবে। ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থান হতে জাতি, ধর্ম, গোত্র নির্বিশেষে ৬৯৯তম ওরস মোবারকে আসা শুরু করেছেন।

প্রসঙ্গত, সিলেটে হযরত শাহজালাল (রঃ) এর সাথী ৩৬০ আউলিয়ার মধ্যে বহুল আলোচিত ব্যক্তিত্ব তরফ বিজয়ী সিপাহসালার (মদনী) হযরত সৈয়দ নাসির উদ্দিন (রঃ) ১৩০৩ খ্রিস্টাব্দে সিলেট বিজয়ের পর তরফ রাজ্য বিজয় করেন। ১৩০৪খ্রিস্টাব্দে মুড়ারবন্দ নামক স্থানে তরফ রাজ্যের শাসনকর্তা হিসেবে নিযুক্ত হয়ে বসতি স্থাপন করেন। তিনি মৃত্যুর পূর্বে বলেছিলেন তার দেহ মোবারক পূর্ব-পশ্চিমে দাফন করার জন্য কিন্তু তার সঙ্গী সাথীরা এ আদেশ কেহই মানল না। শরিয়তের বিধানমতে মাজার উত্তর-দক্ষিণে দাফন করেন ভক্তবৃন্দ। দাফন করে সবাই ৪০ কদম দূরে যাওয়ার পর অলৌকিকভাবে মাজার পূর্ব-পশ্চিমে ঘুরে যায়। এখন ও তার মাজার এখনো পূর্ব-পশ্চিমেই রয়েছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc