Saturday 29th of February 2020 04:26:49 PM

“বর্তমান ছাত্রদের কাছ হতে রেজিস্ট্রেশন ফি সহ দেশ-বিদেশের অনেকের ডোনেশন, বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অনুদান গ্রহণ করা হয়েছে। তাই সকল রিউমার এড়াতে দিন শেষে উপস্থিত সকলের সামনে অনুষ্ঠানের খরচ বিবরণী পেশ করা উচিৎ।”

 

এম এ রহিম,সাপ্তাহিক শ্রীভূমি পত্রিকা’র প্রকাশক ও সম্পাদক । তিনি ১৯৭১-এর বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক ছাত্র লীগ নেতা, শ্রীমঙ্গল পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক এর ফেসবুক থেকে সংগৃহীত নিচের স্ট্যাটাসটি পাঠকদের সুবিধার্থে হুবহু তুলে ধরা হল।

“আজ একটি আমন্ত্রণ পত্র পেলাম শ্রীমঙ্গল সরকারী কলেজের ৫০বর্ষ পূর্তির।আনন্দ লাগলো এমন একটি মিলন মেলার কথা শুনে। এটি অনেক বড়সড় ব্যাপার। বেশ দখল যাচ্ছে আয়োজকদের বুঝাই যায়। আমি অনুষ্ঠানের সার্থকতা কামনা করছি।কিন্তু দু’টি কথা বলতে চাইছি। আমন্ত্রণ পত্রে দেখলাম দাওয়াতক্রমে সদস্য সচিব কিন্তু আহবায়ক হলে সুন্দর হতো। উদ্বোধক এবং উদ্বোধন দু’টি কথায় খটকা লেগেছে, অর্থটাও বেশ দুরূহ। বর্তমান কলেজ কর্তৃপক্ষ কাউকেই রাখা হয়নি আমন্ত্রণপত্রে উল্লেখিত অনুষ্ঠানসূচিতে। মনে হয় আহবায়ক কমিটিতেও রাখা হয়নি কোন শিক্ষককে। হয়তো রাখা হয়েছে, আমার ধারনাটি ভূল হলেই আমি খুশি হব।
আমাকে সাপ্তাহিক শ্রীভুমি সম্পাদক হিসাবে দাওয়াত করা হয়েছে। যদিও বা পত্রিকাটির মালিক আমি। তাছাড়া আমি শ্রীমঙ্গল পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান, রহস্যজনকভাবে যা এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে।

শ্রীমঙ্গল কলেজ ‘৬৯-এর গণ অভ্যুত্থানের সময় প্রতিষ্ঠিত হয়। এ নিয়ে স্বর্গীয় অজিত চৌধুরীর বাসায় ঘনঘন সভা হতো এতে মরহুম ইলিয়াস, স্বর্গীয় এসকে রায়, ভুবেনশ্বর ঘোষসহ শহরের বহু গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ থাকতেন (যাদের নাম এখন মনে পড়ছে না)। এছাড়াও তরুণ সংগঠক হিসাবে অন্যান্য কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, অধ্যক্ষ সৈয়দ মূয়ীজুর রহমান,
অধ্যাপক সাইয়্যিদ মুজিবুর রহমান এবং আমিসহ আরো অনেকই থাকতাম। এই কলেজের প্রতিষ্ঠালগ্নে অন্যদের সঙ্গে আমি নিজেও অর্থ সংগ্রহসহ নানা কাজে অংশ নেই।
তৎকালীন টাউন কমিটির টাউন হলে (বর্তমান পৌরসভা অডিটোরিয়ামে) ক্লাস শুরু হয় এবং অফিস ও কলেজের দাপ্তরিক কাজ হতো পেছনের একটি কক্ষে। পরে বর্তমান স্থানে, কলেজটি স্থায়ীভাবে যাত্রা শুরু করে।
১৯৭২ সালে আমরা এই কলেজের নাম করণ করি “শহীদ মঈন উদ্দিন কলেজ” পরে এমপিওভুক্ত করার জন্য রহস্যজনকভাবে নামটি বাদ দিয়ে দেয়া হয়।
আমি নব নির্মিত কলেজে শহীদ মিনার নির্মাণ, ফ্যান, আলমিরাসহ নানা ছোট খাট অনুদানে অংশগ্রহণ করি। বর্তমানে শহীদ মিনারের পেছনের রাস্থা নির্মাণের জন্য ঝামেলা মিমাংসাতেও সক্রিয় অংশ নেই।
যাইহোক, আমি অত্যন্ত খুশি এই কলেজের ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান হচ্ছে দেখে।
শোনা যাচ্ছে কলেজের প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্রদের কাছ হতে রেজিস্ট্রেশন ফি সহ দেশ-বিদেশের অনেকের ডোনেশন, বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অনুদান গ্রহণ করা হয়েছে। তাই সকল রিউমার এড়াতে দিন শেষে উপস্থিত সকলের সামনে অনুষ্ঠানের খরচ বিবরণী পেশ করা উচিৎ। কিছু কিছু ত্রুটি এড়াতে পারলে অনুষ্ঠান আয়োজন আরো সুন্দর হতো।
এই অনুষ্ঠানের সর্বাঙ্গিন সফলতা কামনা করছি।”

এম ওসমান, বেনাপোল : যশোরের শার্শার নাভারণে প্রতিষ্ঠিত নাভারণ প্রতিবন্ধি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও থেরাপী সেন্টারের সুবিধা বঞ্চিত প্রতিবন্ধি শিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোটারী ক্লাব অব যশোর রুপান্তর ও সালেহা কবীর জীবন ফাউন্ডেশন ঝিকরগাছার আয়োজনে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশের এডিশনাল ডিআইজ মনিরুজ্জামন বেল্টু।
শার্শা উপজেলা প্রতিবন্ধি কল্যাণ সংস্থার সভাপতি আবু বাক্কার এর পরিচালনায় ও সভাপতিত্বে এসময় উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, রোটারী ক্লাব অব যশোরের সভাপতি শামছুল আলম, সাবেক সভাপতি স্মৃতি কনা দাস, আহসান সামাদ বাবুল, শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সালেহ আহমেদ, ইউপি সদস্য সোহরাব হোসেন, শার্শা থানা অফিসার ইনচার্জ আতাউর রহমান সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
এর আগে অতিথিদের আগমনে সংস্থার পক্ষ থেকে স্বাগত জানানো হয়। পরে অতিথিরা প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীদের ক্লাসরুম ঘুরে ঘুরে দেখেন এবং তাদের বিভিন্ন খোঁজ খবর নেন। অনুষ্ঠান শেষে প্রতিবন্ধি সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র ও শিক্ষা উপকরণ তুলে দেন অতিথিরা।

বর্তমান সরকার দেশকে দুর্যোগ পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে মন্তব্য করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, একদিকে রোহিঙ্গা অন্যদিকে ভারতের মুসলমানদের পুশইন। এ সমস্যাগুলোর কারণে বাংলাদেশকে গিনিপিগের মতো পরীক্ষাগার গড়ে তুলছে সরকার।

শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জেএসডির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

দেশকে পরাধীন করে রাখতে বর্তমান সরকার পুতুল সরকার হিসেবে কাজ করছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ভারতের এনআরসি বাংলাদেশের জন্য ক্ষতিকারক হচ্ছে, ধর্মের নামে ভারত তাদের জাতির মধ্যে বিভেদ তৈরি করেছে। ভারতীয় মুসলমানদের বাংলাদেশের সীমানা দিয়ে পুশইন করছে।  আর তখন সরকার বলছে এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এখন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলছে, ভারত থেকে আসা নাগরিকদের গ্রহণ করবে বাংলাদেশ।

বর্তমান সময়ে দেশে রাজনৈতিক সংকট চলছে উল্লেখ করে এ সংকট থেকে উত্তরণের জন্য জনগণের আন্দোলনের বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

তিনি বলেন, জাসদ সৃষ্টি হয়েছিল স্বাধীনতার মূল চেতনাকে গড়ে তোলার জন্য। সেই লড়াই জাসদ এখনও চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের, ঠিক একই কথা স্বাধীনতার ৪০ বছর পর এসেও বলতে হচ্ছে যে, আমরা গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে চাই। বর্তমানে দেশে যে রাজনৈতিক গভীর সংকট চলছে সেই সংকট সমাধানের জন্য জনগণের অভ্যুত্থান বা জনগণের আন্দোলন ছাড়া কখনোই সম্ভব নয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় আটকে রাখা হয়েছে। এখন খালেদা জিয়া যিনি আইনগত জামিন পাওয়ার যোগ্য কিন্তু তাকে জামিন দেয়া হচ্ছে না। আজকে যারা জোর করে ক্ষমতায় বসেছে তারা জানে, বেগম খালেদা জিয়া বাইরে থাকলে তাদের যে রাজনৈতিক নীলনকশা সেটা তারা পরিপূর্ণ করতে পারবে না।

নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, একজন নির্বাচন কমিশনরাই বলছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন করার ক্ষমতা তাদের নাই। তারপরও তারা নির্বাচন দিচ্ছেন। যাকে মানুষ নাম দিয়েছে ‘হাইব্রিড রেজিম’। নিরপেক্ষ নির্বাচন করার ক্ষমতা এই কমিশনের নেই।

তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়েছিল নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে, কিন্তু সরকারের ভোট ডাকাতির জন্য তা করতে ব্যর্থ হয়েছে ঐক্যফ্রন্ট। বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তুলে লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমে বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। গণতান্ত্রিক শক্তি এক হলে কোনো স্বৈরতান্ত্রিক সরকার টিকবে না। তাই বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার বিকল্প নেই।

জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক এবং গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, জাতীয় পার্টির (জাফর) চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাঈদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট মোহসীন রশিদ, বিকল্প ধারার মহাসচিব শাহ আহমেদ বাদল, জেএসডির সহ-সভাপতি তানিয়া রব, বিপ্লবী কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, জেএসডির যুগ্ম-সম্পাদক শহীদউদ্দীন মাহমুদ স্বপন, নাগরিক ঐক্যর আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিকল্প ধারার সভাপতি নুরুল আমীন বেপারী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।পার্সটুডে

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই(নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে ইমারত নির্মাণ শ্রমিকের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারী কলেজে ৭৭৮ জনের মধ্যে ৬৫৫ জন ভোটার শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অবাধে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে। ভোটগ্রহণ সকাল নয় টায় শুরু হয়ে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত চলে। সম্পাদকসহ নয়টি পদের প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দীতায় বিজয়ী হলেও এ দিন সভাপতি,সাংগঠনিক ও কোষাধ্যক্ষ পদে ভোট হয়। এতে সভাপতি টিপু সুলতান চেয়ার(৩৪৬) ,সাংগঠনিক মকছেদুর রহমান মই(৩৯৫) ,কোষাধ্যক্ষ মোফাজ্জল হোসেন মন্টু বাস(৩৩১) ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়। পরাজিত প্রার্থীরা তাদের পরাজয় মেনেনিয়ে ভোট সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে মর্মে বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়ে তাদের সাথে এক হয়ে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল বলেন, ভোট গ্রহণ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। শতকরা ৮৪.১৯ শতাংশ ভোটার তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে।

রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটের জৈন্তাপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় ১পথচারি নিহত হয়েছেন৷ এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায় গতকাল ২৮ ডিসেম্বর শনিবার সকাল ৮টায় দরবস্ত কেলেসিং বাজার রাস্তার বারাগাতি এলাকায় বেপরোয়া গতির লেগুনা টমটমের মধ্যে মূখোমুখি এ দূর্ঘটনাটি ঘটে৷ দূর্ঘটনায় পথচারি নিহত হন৷ নিহত ব্যক্তি ফটিকছড়ি চট্টগ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে হাজী ইলিয়াছ অালী (৬০)৷ তিনি নিজপাট ইউনিয়নের বারগাতি এলাকায় অারব চায়না রাইস মিলের মালিক বলে জানাযায়৷ স্থানীয়রা বিষয়টি পুলিশেকে জানায়৷
জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ তদন্ত ওমর ফারুক ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন, দূর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করি৷

হাবিবুর রহমান খান,জুড়ী প্রতিনিধি: জুড়ী অনলাইন প্রেসক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।শনিবার (২৮ডিসেম্বর) দুপুর ২ টায় সময় ক্লাবের কার্যালয়ে জুড়ী অনলাইন প্রেসক্লাব সভাপতি সাংবাদিক এস এম জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক- আব্দুর রহমান শাহীন এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ক্লাবের উপদেষ্টা হাজী মুজিবুর রহমান, সহ সভাপতি জাকির হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান খান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক- কামরুল হাসান পলাশ, দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সবুর, কোষাধ্যক্ষ কামরুল ইসলাম, সদস্য সাংবাদিক জালালুর রহমান, সাংবাদিক ফয়ছল মাহমুদ প্রমুখ
সভায় জুড়ী অনলাইন প্রেসক্লাবের ২০২০-২০২২ শেষনের নতুন কার্যকরী কমিটি গঠনের লক্ষ্য ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়। নির্বাচন কমিশনের সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী এড. আনোয়ারুল ইসলাম, এড. শওকতুল ইসলাম চৌধুরী, হাজী মুজিবুর রহমান, মাহবুবুল ইসলাম কাজল ও জুড়ী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ অরুণ চন্দ্র প্রমূখ।
কমিশন আগামী ১ জানুয়ারি জুড়ী অনলাইন প্রেসক্লাবের নির্বাচন সম্পন্ন করে নতুন পূর্নাঙ্গ কার্যকরী কমিটি ঘোষনা করবেন।

শার্শার বসতপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে: শেখ আফিল উদ্দীন এমপি

এম ওসমান : যশোর ৮৫/১ শার্শার সংসদ সদস্য আলহাজ্জ্ব শেখ আফিল উদ্দিন বলেন, শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড। বর্তমান সরকার মেয়েদের শিক্ষার উপর সর্বাধিক গুরুত্ব প্রদান করেছে। সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে ব্যবসায়ী সমাজ সহায়ক ভুমিকা পালন করতে পারে এই উদ্যোগ তারই একটি উজ্জল দৃষ্টান্ত হযে থাকবে। সিটি ব্যংক ও এমআরডিআই- এর মিলিত উদ্যোগের ফলশ্রুতিতে শার্শার বসতপুর ১ নং কলোনীতে যে পরিবর্তন শুচিতো হয়েছে এটা বিরল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। এই গ্রামের নারী, কন্যা শিশু ও সর্বসাধারনের হাস্যাজ্বল মুখ সিএসআর কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে প্রেরনা যোগাবে।
শনিবার বিকালে শার্শার বসতপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সিটি ব্যাংক এর সিএসআর কার্যক্রমের আওতায় ম্যানেজম্যান্ট এ্যান্ড রিসোর্সেস ডেভলপমেন্ট ইউনিশিয়েটিভ (এমআরডিআই) ও স্থানীয় সহযোগি দৈনিক গ্রামের কাগজের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
সিটি ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক হাসিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মন্জু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার পুলক কুমার মন্ডল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্জ্ব নুরুজ্জামান, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ইব্রাহীম খলিল, যশোর জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সকিনা খাতুন, শার্শা উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জাহান ই গুলশান, সিটি ব্যাংক চিপ ইকোনমিস্ট এ্যান্ড কান্ট্রি বিজনেস ম্যানেজার আশানুর রহমান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া ফেরদৌস।
এসময় অন্যোন্যার মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক গ্রামের কাগজের সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন, দৈনিক স্পন্দনের নির্বাহী সম্পাদক মাহাবুবুর আলম লাভলু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান সোহারাব হোসেন, বাগআঁচড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইলিয়াস কবির বকুল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, বাগআঁচড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান তুতুল প্রমুখ।
অনুষ্ঠান শেষে বসতপুর মহিলা ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার সদস্যবৃন্দদের কন্যাদের মাঝে ৪১টি বাইসাইকেল বিতরন করা হয়।

দেশের সাধারণ মানুষের ঘামে ভেজা অর্থ দিয়ে দেশের উন্নয়নের বদলে কেউ নিজের ভাগ্য গড়ার চেষ্টা করলে তা বরদাশত করা হবে না বলে সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুর্নীতিবাজ কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না বলেও তিনি দৃঢ়তা প্রকাশ করেন তিনি ।

আজ শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) সকাল সোয়া ১০টার দিকে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের টার্মিনাল ৩ এর নির্মাণকাজসহ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, দুর্নীতি যেই দুর্নীতি করবেন, তাদের কিন্তু ছাড়া হবে না, সে যেই হোক না কেন। কারণ আমি দিনরাত পরিশ্রম করি দেশের উন্নয়নের জন্য। দেশের সাধারণ মানুষ মাথার ঘাম পায়ে ফেলে অর্থ উপার্জন করবে আর দেশের উন্নয়নের কাজ সঠিকভাবে হবে না, সেখান থেকে কেউ কারো নিজের ভাগ্য গড়তে যাবেন, সেটা কখনো বরদাশত করা হবে না।’

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণের মাধ্যমে বাংলাদেশ যে অর্থনীতিতে স্বাবলম্বী হয়েছে এটা তারই একটা লক্ষণ বলে দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে ১০টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে নতুন যুক্ত হওয়া বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ড্রিমলাইনার ৭৮৭-৯ সিরিজের নতুন দুটি উড়োজাহাজ ‘সোনার তরী’ ও ‘অচিন পাখি’ উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা।

ইতোমধ্যে বিমান বাংলাদেশে এয়ারলাইনসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, উড়োজাহাজ দুটি দিয়ে আসন্ন ৫ জানুয়ারি থেকে ম্যানচেস্টার ও লন্ডন রুটে বিমানের ফ্লাইট চলাচল শুরু হবে। এরই মধ্যে ম্যানচেস্টার রুটের উদ্বোধনী ফ্লাইটের প্রায় সব টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। যদিও উদ্বোধনের আগে সোনার তরীর কিছুটা ত্রুটি রয়েছে বলে বিমানের একটি সূত্র দাবি করেছে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক বলেছেন, স্থগিতকৃত রাজাকারের তালিকায় ভুল হয়েছিল।প্রত্যাহারও করে নিয়েছি। তাই বলে রাজাকারের তালিকা হবে না, তা নয়। রাজাকারের তালিকা অবশ্যই হবে। আরও নিবিড় অনুসন্ধান চালিয়ে উপজেলা ভিত্তিক রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করা হবে। জানুয়ারি মাসে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। ইতোমধ্যে তালিকার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এখন সেই তালিকা আবার যাচাই বাচাই চলছে। মুক্তিযোদ্ধাদের সরকারিভাবে পরিচয়পত্র দেওয়া হবে।

শুক্রবার দুপুরে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন শেষে উপজেলা চত্ত্বরে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, জিয়াউর রহমান রাজাকার, আলবদর ও আল-শামস ও পিচ কমিটির নেতাদের মন্ত্রী বানিয়েছিলেন। আর বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিদেশি দূতাবাসে বিভিন্ন বড় বড় পদে পদায়ন করেছিলেন।

টাঙ্গাইলের অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোশারফ হোসেন খানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য হাছান ইমাম খান সোহেল হাজারী। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম আরও নীপা, কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদার, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনছার প্রমুখ।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘কাউকে বাংলা ছাড়তে হবে না, কাউকে দেশ ছাড়তে দেবো না। আমাদের আন্দোলন চলছে, চলবে। মানুষের আন্দোলনের জয় হবে।’ আজ (শুক্রবার) নৈহাটি উৎসবের উদ্বোধনে এসে মুখ্যমন্ত্রী ওই মন্তব্য করেন।

মমতা আজ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ), জাতীয়  নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনায় সোচ্চার হন। মমতা বলেন, ‘আমরা হিন্দু-মুসলিম-শিখ-ঈশায়ী সবাই এক সাথে থাকব, ভালোভাবে থাকব। শান্তিতে থাকব। এই পৃথিবীতে থাকব। কাউকে বাংলা ছাড়তে হবে না, কাউকে দেশ ছাড়তে দেবো না।’

তিনি সবাইকে বলেন, ‘আপনারা ভয় পাবেন না, চিন্তা করবেন না, একদম ঠিকঠাক থাকবেন, সুস্থ থাকবেন সুন্দর থাকবেন। আপনাদের চিন্তাটা আমার মাথায় দিয়ে দিন। আপনাদের চিন্তাটা আমি দেখে নেবো। অত ভাবার কনো কারণ নেই। শান্তিতে পড়াশোনা করুন, কাজকর্ম করুন, সংসার চালান। বাদবাকিটা আমার ওপরে ছেড়ে দিন।’

মমতা কেন্দ্রীয় সরকারকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘আমরা ‘দিল্লি কা লাড্ডু’র কথায় বাংলায় পথ চলি না। আমরা সবাইকে নিয়ে চলি। একসাথে চলি, এক সাথে চলব। আজকে হুঁশিয়ারি দিচ্ছে আমার ছাত্র-ছাত্রী বন্ধুদের ! ১৮ বছরে সে ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত করবে আর আন্দোলনে অংশগ্রহণ করতে পারবে না, কী অবস্থা ! প্রতিদিন ছাত্রদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে ! অনেক জায়গা থেকে শিক্ষার্থীদের তাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে ! তাঁরা গণতান্ত্রিক অধিকার আন্দোলনের সঙ্গে আছে বলে তাদের নিষ্পেষণ করা হচ্ছে ! এসব চলবে না।’

মমতা বিজেপিকে টার্গেট করে বলেন, ‘১৯৪৭ সালে যখন দেশ স্বাধীন হল তখন ওরা কোথায় ছিল? ভূমিষ্ঠই হয়নি। ১৯৮০ সালে জন্মে তাদের কাছ থেকে আমায় দেশের কথা শুনতে হবে ? ১৯৮০ সালে জন্মগ্রহণ করার পরে দলটা (বিজেপি) এখন বলছে দেশ থেকে সব ভাগো ! সবাইকে দেশ থেকে তাড়িয়ে দেবে ? আর শুধু নিজেরা থাকবে ? সবাই দেশ থেকে ভাগো, শুধু বিজেপির মাদুলি পরে ঘুরে বেড়াও। নাগরিকত্ব প্রমাণে আধার কার্ড চলবে না, প্যান কার্ড চলবে না, ভোটার তালিকা চলবে না। তাহলে কী কেবল ‘বিজেপির মাদুলি’ চলবে ?’

মমতা বলেন, ‘ওরা বলে বেড়াচ্ছে ‘ডিটেনশন ক্যাম্প’ করবে ! কিন্তু এখানে ক্ষমতায় কারা আছে ? আমরা আছি। আমি আমার জীবন দিতে তৈরী আছি। কিন্তু ডিটেনশন ক্যাম্প বিজেপিকে করতে দেবো না। এটা মাথায় রাখবেন। সরকারে আমরা আছি। রাজ্য সরকার এগুলো করে। অসমে ডিটেনশন ক্যাম্প করতে পেরেছে কেন ? সেখানে বিজেপির সরকার আছে বলে। ওরা দিল্লিতে আছে। ওরা নির্বাচিত সরকার। আমরাও নির্বাচিত সরকার। তোমার অধিকার দিল্লিতে। আমার অধিকার এখানে। এটা মাথায় রাখতে হবে। আমাকে আইন বেশি দেখিয়ে লাভ নেই। আমি মানুষের আশীর্বাদে সাত বার সংসদের সদস্য হয়েছি। দিল্লিতে পাঁচ/ছ’টা মন্ত্রণালয় সামলে এসেছি। আইন ও সংবিধান ভালো বুঝি।’ জনগণ বিপদে পড়ে এমন কোনও কাজ আমরা করব না বলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ  সাফ জানিয়ে দেন।পার্সটুডে

সোলেমান আহমেদ মানিক, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ আর মাত্র কয়েক ঘন্টা বাকী, রাত পোহালেই শুরু হবে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে সুবর্ণজয়ন্তী ও মিলনমেলা। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর এই উৎসবের সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষ। এখন পরিকল্পনা মতো অনুষ্ঠান তুলে আনার ছক আকঁছেন অত্র বিদ্যাপীঠের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও আয়োজকরা। আনন্দ উল্লাস আর চাপা উত্তেজনার মধ্য দিয়ে সময় কাটাছে তাদের।
ইতিমধ্যে কলেজ ক্যাম্পাসকে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। আলপনায় আলপনায় রাঙানো হয়েছে পুরো ক্যাম্পাস। শুধু আলপনা নয় উৎসবকে কেন্দ্র করে কলেজের সব কিছুতেই লেগেছে নতুনত্বের ছোঁয়া। কলেজের ফটক থেকে শুরু করে সকল স্থাপনাকে রঙিন করা হয়েছে। কলেজ মাঠে তৈরী হয়েছে বিশাল প্যান্ডেল। হৃদয় নিংড়ে সাজসজ্জায় সকল ভালোবাসা ঢেলেছেন কলেজের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। শহরের বিভিন্ন সড়কে তৈরি করা হয়েছে তোরণদ্বার।
“এসো মিলি প্রাণের মেলায়”- এই শ্লোগান নিয়ে কাল (২৮ ডিসেম্বর) কলেজের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। রাত ফুরিয়ে ভোরের আলো ফুটলেই বিদ্যাপীঠটির বর্তমান-সাবেক শিক্ষার্থীর জীবন খাতায় এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ঘিরে রচিত হবে একটি বিশেষ দিন। এ উপলক্ষে ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের বাড়ছে আনাগোনা।
উৎসব উদযান পরিষদসূত্র জানায়, বেশ ঘটা করেই উপজেলার সর্বোচ্চ এই বিদ্যাপীঠের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপনের প্রস্তুতি নিয়েছেন তারা। কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সাথে বর্তমান শিক্ষার্থীরা মিলিত হবে নবীন প্রবীণদের প্রাণের উৎসবে। চলতি মাসের প্রথম দিনে উৎসবের প্রাক প্রস্তুতি হিসেবে কলেজ থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শ্রীমঙ্গল শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সুবর্ণ জয়ন্তীর বর্ণিল উৎসবে কলেজের ৫০টি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা অংশ নেবেন। এজন্য নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ করা হয়েছে আগেই।
উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মোস্তফা জামান আব্বাসী। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মৌলভীবাজার ৪ আসনের সংসদ সদস্য উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহিদ এমপি, বিশেষ অতিথি গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব ডাঃ আব্দুন নূর তুষার। সংগীত পরিবেশন করবেন ডলি সায়ন্তনী ও পিন্টু ঘোষ।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন ‘ডাকসু’র ভিপির ওপর হামলা জাতীয় ঘটনাবলীর পুনরাবৃত্তি বন্ধের আহ্বান জানিয়ে বলেছেন এ ধরনের ঘটনাকে কেউ যেন পাকিস্তান আমলের এসএসএফ-এর সন্ত্রাসী ঘটনার সাথে তুলনা করার সুযোগ না পায়। তিনি বলেন, ‘ডাকসু’ কেবল ছাত্রদের প্রতিষ্ঠান নয়, এটা জাতীয় প্রতিষ্ঠান। ভাষা আন্দোলন, ’৬২-এর শিক্ষা আন্দোলন, উনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের সূচনায় ‘ডাকসু’ নেতৃত্ব দিয়েছে।

‘ডাকসু’ সকল দল ও মতকে প্রতিনিধিত্ব করে। এই সংগঠনের দু’দশকের ওপর নির্বাচন না হওয়ায় জাতীয় রাজনীতিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। জাতীয় নেতৃত্ব গঠন পিছিয়ে পড়েছে। মেনন আজ ২৭ ডিসেম্বর দুপুরে ওয়ার্কার্স পার্টি কার্যালয়ে বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর নেতৃবৃন্দের সাথে ‘ডাকসু’ ভিপি হিসেবে সে সময়ের অভিজ্ঞতা বর্ণনাকালে একথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্র মৈত্রীর কেন্দ্রীয় সভাপতি কাজী আব্দুল মোতালেব জুয়েল, সহ-সভাপতি অতুলন দাস আলো, স্কুল বিষয়ক সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম খান, সহ-সাধারণ সম্পাদক হিসাম খান ফয়সাল প্রমুখ।
রাশেদ খান মেনন বলেন, বিভিন্ন দলের মধ্যে মতপার্থক্য থাকলেও ‘ডাকসু’র ভিপির নেতৃত্বেই সকল ছাত্র সংগঠনের প্রতিনিধিরা বিশ^বিদ্যালয় ও বিভিন্ন জাতীয় ইস্যুতে সভা করতেন সিদ্ধান্ত নিতেন। সাবেক ডাকসু ভিপি তোফায়েল আহমদ এভাবে ’৬৯-এর গণঅভ্যুত্থানকালীন সময় সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের মুখপত্রে পরিণত হয়েছিলেন। তার নেতৃত্বেই সভাসমূহ হতো সেখানে ছাত্রলীগ, ছাত্র ইউনিয়ন উভয় গ্রুপ ও এনএসএফ-এর একাংশও যুক্ত ছিলেন। এর ব্যতিক্রম প্রথমে ঘটে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় সমাবর্তন অনুষ্ঠানে কুখ্যাত গভর্ণর মোনেম খানের আসাকে কেন্দ্র করে ছাত্র সমাজের বিরোধীতাকে বাধা দিতে এনএসএফ-এর গুন্ডাবাহিনীর ডাকসু অফিসে অনুষ্ঠিত সর্বদলীয় ছাত্র সংগঠনের সভায় আক্রমণ করেছিল। কিন্তু ছাত্রদের প্রতিরোধে তা ব্যর্থ হয়। এ ছাড়া পরবর্তীতে এ ধরনের ঘটনা দু’একবার ঘটেছে। কিন্তু ‘ডাকসু’ প্রতিষ্ঠান হিসেবে সবসময়ই সকল ছাত্রকে প্রতিনিধিত্ব করেছে। ‘ডাকসু’র মর্যাদা ক্ষুন্ন হোক এ ধরনের ঘটনা হোত না।

জনাব রাশেদ খান মেনন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের ওপর উপুর্য্যপুরী হামলায় সে সব বিষয়ে বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের একেবারেই একপেশে আচরণ, মামলা-পাল্টা মামলায় দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন দীর্ঘ দুই দশকের ওপর সময়ের পর ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় ছাত্র সংসদসমূহের যে নির্বাচন হয়েছে সেই অধিকার অক্ষুণœ রাখতে ছাত্র সমাজ সচেষ্ট থাকবেন। এবং এ ধরনের ঘটনা পরিহার-প্রতিরোধ করবেন।

রাশেদ খান মেনন বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর নেতৃবৃন্দকে ষাটের দশকের ছাত্র আন্দোলনের অভিজ্ঞতা বর্ণনায় ‘ডাকসু’র সাম্প্রতিক ঘটনাবলী নিয়ে এসব কথা বলেন। তিনি শীতার্ত মানুষের পাশেও ছাত্রদের দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের পুরানঘাট গ্রামের তালুকদার বৃত্তি ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মেধাবী ছাত্রদের ভাল ফলাফলের স্বীকৃতি স্বরুপ ক্রেস্ট প্রদান করা হয়েছে।
আজ শুক্রবার দুপুরে পুরানঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্রেস্ট প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,হাজী জমির উদ্দিন তালুকদার,বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,বীর মুক্তিযোদ্ধা উমর আলী মাস্টার, তালুকদার ফাইন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নৌবাহিনীতে কমরত অফিসার নজরুল ইসলাম তালুকদারসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
তালুকদার ফাইন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নৌ-অফিসার নজরুল ইসলাম তালুকদার বলেন,শিশু শিক্ষাথীদের উৎসাহ দিতে আরও অন্যান্য শিক্ষাথীদের শিক্ষার প্রতি উৎসাহীত করার লক্ষ্যে  এই আয়োজন করেছি। আশা রাখি সবার সহযোগিতা নিয়ে তালুকদার ফাইন্ডেশন আরো এগিয়ে যাবে এবং আরো ভাল ভাল উদ্দ্যোগ গ্রহণ করব।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জে চার চাকার ব্যাংকিং সেবা নিয়ে বুধবার (২৬ ডিসেম্বর) রাত ৯.৩০টায় চার চাকার ব্যাংকিং (জনগণের দোরগোড়ায় সেবা, ভাতা যাবে বাড়ি বাড়ি) জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ এর সাথে সৌজন্য স্বাক্ষাত করেন,জয়নাল আবেদীন।
এ সময়ে উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার মোহাম্মদ এমরান হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক)মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম,জেলা ত্রান ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ফরিদুল হক উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত জয়নাল আবেদীন, জেলা পরিষদ ডিজিটাল সেন্টার, সিলেট এর একজন উদ্যোক্তা তিনি দীর্ঘ দিন যাবত বিভিন্ন উদ্ভাবনী সেবার মাধ্যমে সিলেট জেলাবাসীকে বিভিন্ন সেবা প্রদান করে আসছেন।
জয়নাল আবেদীন জানান,গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করছেন। বর্তমানে সুনামগঞ্জ জেলার জেলা প্রশাসক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে সিলেট জেলা পরিষদ, সিলেট কর্মরত থাকাকালীন সময় তাঁকে জেলা পরিষদ ডিজিটাল সেন্টার, সিলেট এর উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ করার সুযোগ পান।
অদ্যাবধি তিনি সেখানে কাজ করে যাচ্ছেন পাশাপাশি ১০-১২ জন লোকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থাও তিনি করে দিয়েছেন। তিনি বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারী ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং সহ,বিধবাভাতা, বয়স্কভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা জনগনের দোড় গোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্য এই চার চাকার ব্যাংকিং শুরু করতে যাচ্ছেন।
জেলা প্রশাসক তার উদ্ভাবনী কাজের জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানান এবং সুনামগঞ্জ জেলার উদ্যোক্তাদের তার মত উদ্যমী উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ করার প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

মধ্য যুগীয় কায়দায় কুমিল্লার মুরাদনগরে মায়ের সামনে এক যুবকের হাত-পা বেঁধে নির্মম নির্যাতন চালানো সেই গ্রাম্য মাতব্বরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নারায়ণগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার নাম আবু তাহের কন্টাক্টর।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মুরাদনগর থনার ওসি মনজুরুল আলম সংবাদ মাধ্যমকে জানান, তাকে নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তবে এখনও মুরাদনগর আনা হয়নি।

এর আগে উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল গ্রামের পূর্বপাড়ায় মায়ের সামনে যুবকের হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। নির্যাতনের শিকার যুবকের নাম রাজু চন্দ্র। তিনি কাজিয়াতল গ্রামের রাখাল চন্দ্রের ছেলে।

পরে বৃহস্পতিবার রাজুর বড় ভাই সজল চন্দ্র বিশ্বাস মাতব্বর আবু তাহেরকে আসামি করে কুমিল্লা মুরাদনগর থানায় মামলা করেন।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার বিকেলে কোন কারণ ছাড়াই হাত-পা বেঁধে ওই যুবককে মারধর করেন মাতব্বর আবু তাহের। বাধা দিয়ে রুখতে না পেরে সেই নির্যাতনের দৃশ্য দাঁড়িয়ে দেখেছেন ওই যুবকের মা। ঘটনাটি উপস্থিত কেউ মোবাইলে ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। একদিনের মধ্যে নির্যাতনের ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, জামা-কাপড় খুলে যুবকের হাত-পা বেঁধে প্রচণ্ড শীতের মধ্যে মাটিতে ফেলে রাখা হয়েছে। এই অবস্থায়ই ওই যুবকের মুখে ও বুকে লাথি মেরে চলেছেন ওই মাতব্বর।এমনকি যুবকের পেটের উপর দাঁড়িয়েও লাথি মোড়া মারতে দেখা গেছে।

নির্যাতনের শিকার ওই যুবকের ভাই সজল চন্দ্র বিশ্বাস সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ভাইয়ের ওপর এমন অমানবিক আচরণের বিচার চেয়ে আমরা এলাকার অন্যান্য মাতব্বরদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে এখন ক্লান্ত। শেষে মাতব্বর আবু তাহেরের বিচার চেয়ে আমি মুরাদনগর থানায় মামলা করেছি।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc